পূর্ববর্তী লেখা    পরবর্তী লেখা
পুরো লিস্ট দেখুন

ঢাকার ফ্লাইওভার

ঢাকার যানজট সমস্যা নিরসনে বিভিন্নধরনের বিশেষজ্ঞমতের একটি হল ফ্লাইওভার নির্মাণ। রেলক্রসিং এবং বিভিন্ন মোড়ে যানবাহনকে দীর্ঘ সময় যে দাঁড়িয়ে থাকতে হয় সেটি যানজটের অন্যতম বড় কারণ বলে মনে করা হয়। তবে বিপুল অর্থব্যয়ে নির্মিত ফ্লাইওভারের কার্যকারিতা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন অনেক নগর পরিকল্পনাবিদ। তাঁরা বরং ব্যক্তিগত বাহনের পরিবর্তে বাস, মোট্রোরেলের মত বড় গণপরিবহনের ওপর জোর দেবার কথা বলেন। সরকার এখন বেশ কিছু ফ্লাইওভার প্রকল্পে হাত দিয়েছে, এবং সবগুলোর নির্মাণ কাজ শেষ হলে ঢাকার যানজট পরিস্থিতির উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন হবে বলে আশা করা হচ্ছে। আর যানজট পরিস্থিতির উন্নতি হলে বিশ্বের অন্যতম বসবাস অযোগ্য শহর বলে ঢাকার যে বদনাম তৈরি হয়েছে তা কিছুটা ঘুচবে বলে আশা করা যায়।

 

ঢাকার প্রথম ফ্লাইওভার প্রকল্প ছিল খিলগাঁও ফ্লাইওভার। এরপর মহাখালী ফ্লাইওভার প্রকল্পের কাজ শুরু হয় এবং মহাখালী ফ্লাইওভারই প্রথম চালু হয়। সে হিসেবে মহাখালী ফ্লাইওভারই ঢাকার প্রথম ফ্লাইওভার। এরপর খিলগাঁও এবং তেজগাঁও ফ্লাইওভার চালু হয়।

 

তেজগাঁও ফ্লাইওভার:

তেজগাঁও ফ্লাইওভার ঢাকার সাম্প্রতিকতম ফ্লাইওভার। বহুল আলোচিত ২২ তলা র‌্যাংগস ভবনসহ ৪৪টি অবৈধ স্থাপনা ভেঙে বিজয় সরণী এবং তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল সংযোগ সড়কটি নির্মাণ করা হয়। এ সময় রেল লাইনের ওপর একটি ফ্লাইওভার বা ওভারপাস নির্মাণ করা হয়। ২০১০ এর ১৬ এপ্রিল এটি যান চলাচলের জন্য খুলে দেয়া হয়। প্রকৃতপক্ষে ঢাকার পশ্চিমাঞ্চল আর পূর্বাঞ্চলের মধ্যে যানচলাচলের চাপ সামলানোর জন্যই এ সংযোগ সড়কটি নির্মাণ করা হয়। কারণ মহাখালী ফ্লাইওভারের কারণে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় সংলগ্ন স্থানে যানজট ব্যাপক আকার ধারণ করে।

 

নির্মাণাধীন ফ্লাইওভার প্রকল্পগুলো:

গুলিস্তান-যাত্রাবাড়ী এলাকায় মেয়র মোহাম্মদ হানিফ ফ্লাইওভার,কুড়িল-বিশ্বরোড এলাকায় কুড়িল ফ্লাইওভার, সেনানিবাসের স্টাফ রোড এলাকায় মিরপুর-এয়ারপোর্ট রোড ফ্লাইওভার এবং বনানী রেলক্রসিং ওভারপাস নির্মাণ প্রকল্পের কাজ চলছে এখন।



মেয়র মোহাম্মদ হানিফ ফ্লাইওভার :

যাত্রাবাড়ী থেকে  গুলিস্তান গোলাপ শাহ মাজার হয়ে পলাশী পর্যন্ত প্রায় ১০ কি.মি. দৈর্ঘ্যের মেয়র হানিফ ফ্লাইওভারটি নির্মিত হচ্ছে। এরই মধ্যে প্রকল্পের ৬০ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে। প্রকল্পস্থল থেকে তিতাস গ্যাস, ডিপিডিসি, ঢাকা ওয়াসা এবং বিটিটিবির ভূগর্ভস্থ লাইনগুলো সরিয়ে নেয়াটা ছিল একটি চ্যালেঞ্জ। এসব লাইনের কারণেই প্রকল্পটি কিছুটা প্রলম্বিত হয়েছে। ফ্লাইওভার এলাকায় ২৫ থেকে ১২০০ মি.মি. ব্যাসের আট ধরনের পানির পাইপ, বিভিন্ন ব্যাসের স্যুয়ারেজ লাইনের পাশাপাশি ডিপিডিসির ১১,৩৩ ও ১৩২ কেভিএ ভূগর্ভস্থ লাইন ও ৪৪২টি ওভারহেড পোল আছে। তাছাড়া আছে তিতাস গ্যাসের বিভিন্ন ব্যাসের পাইপ লাইন। এসব লাইন সরিয়ে এরই মধ্যে ফ্লাইওভারটির ১ হাজার ২৫০টি পাইল এবং ১২০টি পাইল ক্যাপ নির্মাণ সম্পন্ন হয়েছে । এখন ফ্লাইওভারের বক্স গার্ডার বসানোর কাজ শুরু হয়েছে। ২০১২ সালের মধ্যেই ফ্লাই ওভারটির নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হবে বলে আশা করা হচ্ছে্। ধূপখোলা মাঠে নির্মাণ করে ফ্লাইওভারের উপরিভাগের বক্স গার্ডারগুলো ফ্লাইওভারের মূল কাঠামোয় সর্বাধুনিক ও স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতিতে সংযুক্ত করা হচ্ছে, ঝামেলা এড়ানোর জন্য কাজগুলো করা হচ্ছে রাতে। বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান ওরিয়ন গ্রুপ পিপিপি' ভিত্তিতে  ফ্লাইওভারটির নির্মাণ কাজে পুরো অর্থ দিচ্ছে আর নির্মাণ কাজের দায়িত্ব পালন করছে আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন প্রতিষ্ঠান 'সিমপ্রেক্স ইনফ্রাস্ট্রাকচার'।

 

কুড়িল ফ্লাইওভার :


৩.১ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের এ ফ্লাইওভারটিতে এয়ারপোর্ট রোড, প্রগতি সরণি এবং পূর্বাচল নতুন সড়কের সাথে যোগাযোগের সুবিধা থাকছে। আর ফ্লাইওভারটির নিচেও তিন দিকে সড়ক যোগাযোগ নেটওয়ার্ক থাকবে। ২০১০ সালে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক)-এর তত্ত্বাবধানে ফ্লাইওভারটির নির্মাণ কাজ শুরু হয়। এরই মধ্যে ৭০ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে প্রকল্পটির। সবক’টি সংযোগ সড়কে পিলার নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে।

 

মিরপুর-এয়ারপোর্ট রোড ফ্লাইওভার :

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর স্পেশাল ওয়ার্কস অর্গানাইজেশনের ১৬ ইঞ্জিনিয়ার্স কনস্ট্রাকশন ব্যাটালিয়ন সরাসরি ফ্লাইওভারটির নির্মাণ কাজ তত্ত্বাবধান করছে। এয়ারপোর্ট রোড থেকে সেনানিবাস হয়ে মিরপুরের মাটিকাটা পর্যন্ত এ ফ্লাইওভারটির দৈর্ঘ্য হবে ১.৯ কিলোমিটার। এখন পর্যন্ত ৩৫ শতাংশ নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হয়েছে।

 

এছাড়া বনানী রেলক্রসিংএ একটি ওভারপাস নির্মাণের কাজ চলছে এখন। তবে প্রকল্পের অগ্রগতি বিবেচনায় গুলিস্তান-যাত্রাবাড়ী ফ্লাইওভারের কাজটিই আগে শেষ হবে বলে মনে করা হচ্ছে।
 

ফ্লাইওভারগুলোর নির্মাণ কাজ শেষ হলে ঢাকার সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থায় গুণগত পরিবর্তন আসবে এবং যানজট অনেকটা হ্রাস পাবে বলে আশা করা হচ্ছে। এসব প্রকল্পের পরও ঢাকার আরও বিভিন্ন ব্যস্ত সড়ক এবং রেলক্রসিং এর ওপর ফ্লাইওভার এবং ওভারপাস নির্মাণের প্রকল্পের প্রস্তাব আছে।

 
আরো পড়ুন
 

নামসংক্ষিপ্ত বিবরণ
নতুন নিয়মে নম্বরপ্লেট এর ফি -এ কিছুটা পরিবর্তন আসতে পারেনতুন নিয়মে গাড়ির নম্বরপত্র সংগ্রহের ফি সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য বর্ননা করা হয়েছে
ঢাকার ফ্লাইওভারঢাকায় নির্মিত এবং নির্মাণাধীন ফ্লাইওভারগুলোর বিভিন্ন তথ্য বর্ণনা করা হয়েছে
প্রাইভেট হেলিকপ্টার ভাড়াহেলিকপ্টার ভাড়াদানকারী সকল প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে তথ্য রয়েছে
ঈদ ভ্রমণে সতর্কতাবিস্তারিত তথ্য রয়েছে
কুড়িল ফ্লাইওভারফ্লাই ওভারটির বিস্তারিত তথ্য আছে
বি.আই.ডব্লিউ.টি.সি ফেরি সার্ভিসফেরি সার্ভিসটি বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য
শুটিংয়ের জন্য ভ্যানিটি ভ্যানবিশেষ ধরনের এই ভ্যানটি শুটিং ইউনিটের জন্য ভাড়া দেওয়া হয়, এই বিষয়ে এখানে তথ্য রয়েছে
মারভেলাস এয়ার ট্রাভেলস লিমিটেডএই প্রতিষ্ঠানটি হজ্জ্ব প্যাকেজ পরিচালনা করে থাকে, এ বিষয়ে এখানে তথ্য রয়েছে
BRTC ডিজিটাল টিকেটিং সিস্টেমবিআরটিসির ডিজিটাল টিকেটিং পদ্ধতি সম্পর্কে বিস্তারিত বর্ণনা করা হয়েছে
লাশবাহী ফ্রিজার ভ্যানদেশের যেকোনো প্রান্তে লাশ বহন করে থাকে, এ বিষয়ে বিস্তারিত বর্ণনা করা হয়েছে
আরও ২ টি লেখা দেখতে ক্লিক করুন
২৫ বছরে ১৮ সন্তানের জননী!
সর্বপ্রথম পোর্টেবল দ্বীপ
বিদেশিনীর বাংলা প্রেম
জুতার গাছ!
exam
নির্বাচিত প্রতিবেদন
exam
সুমাইয়া শিমু
পিয়া বিপাশা
প্রিয়াংকা অগ্নিলা ইকবাল
রোবেনা রেজা জুঁই
বাংলা ফন্ট না দেখা গেলে মোবাইলে দেখতে চাইলে
how-to-lose-your-belly-fat
guide-to-lose-weight
hair-loss-and-treatment
how-to-flatten-stomach
fat-burning-foods-and-workouts
fat-burning-foods-and-workouts
 
সেলিব্রেটি