ফাস্টফুড শপ

ফাস্টফুড সব দিক দিয়েই 'ফাস্ট'। কারন (১) এটি তৈরি করতে তেমন একটা সময় লাগে না, (২) ছোটখাটো আকারের একটা বার্গার দিয়েই দুপুরের খাওয়ার পর্ব অনেক দ্রুত সেরে নেয়া যায়; (৩) ফাস্টফুড খেতে খুব বেশি সময় লাগে না, (৩) অফিসে কাজ করতে করতে, বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্লাসের ফাঁকে, হাঁটতে হাঁটতে, টেলিফোনে কথা বলতে বলতে কারো পক্ষে একটা আস্ত চিকেন ফ্রাই খেয়ে ফেলা কোনো ব্যাপারই নয়, (৪) ফাস্টফুড খাওয়ার সময় প্রায়ই থালা-বাটি, চামচ-চাকু প্রয়োজন হয় না; এবং (৫) ঝটপট মুখে দিয়ে, চট করে খেয়ে নানা রকম অসুখকে স্বাগত জানানোর অতি উত্তম একটি মাধ্যমই হলো এই ফাস্টফুড।

 

রকমারি ফাস্টফুড

ফাস্টফুড শপগুলোতে বিভিন্ন ধরনের খাবার পাওয়া যায়। ফাস্টফুড আইটেম ছাড়াও বেকারী, কফি, তেহারী, আইসক্রীম এবং চাইনীজ খাবার পাওয়া যায়। ফ্রাইড চেকন, চিকেন নাগেটস, চিকেন স্ট্রিপস, চিকেন উইংস, ফ্রাইড রাইস, মিক্সড ভেজিটেবল নুডুলস, চিকেন বার্গার, বিফ বার্গার, ক্রিসপী বার্গার, চিকেন স্যান্ডুইচ, ক্লাব স্যান্ডুইচ, হটডগ, ফিশ স্যান্ডুইচ, চিকেন কর্ণ স্যুপ, থাই স্যূপ, ক্লোজলো, ফ্রেঞ্চ ফ্রাই, হরেক রকমের মজাদার কেক এবং পেস্ট্রি, জুস খাবারের মধ্যে রয়েছে ম্যাঙ্গো জুস, অরেঞ্জ জুস, ফ্রেশ লাইম, ওয়াটার মেলন জুস, পাইনএপেল জুস, লাচ্ছি, কোল্ড কফি, এসপ্রেসো কফি, ব্লাক কফি ইত্যাদি। নিচে প্রতিষ্ঠিত কয়েকটি ফাস্টফুড শপে প্রাপ্ত খাবারের নাম উল্লেখ করা হলো:

 

  • বিএফসিতে সাধারনত ১৫ ধরনের মিল পাওয়া যায়। এই মিলগুলোতে রয়েছে চিকেন, ফ্রেঞ্চ ফ্রাইস, ড্রিংকস, হট উইংস, চিকেন নাগেটস, চিকেন বার্গার, বীফ বার্গার, ভেজিটেবল রাইস, মায়ো চিকেন বার্গার, ক্লোজলো ইত্যাদি খাবার। এই মিলগুলোর নামগুলো চমত্কার। যেমন- পার্টি গ্যালোর, দি ব্যাঙ্কুয়েট, ফ্যামিলি ফিয়েস্তা, পার্টি মিল, জায়ান্ট মিল, ব্লু বার্গার কম্বো, রাইস কম্বো, হট উইংস কম্বো, বিফ চিজ কম্বো, সুইট কর্ন, লাইট স্ন্যাক ইত্যাদি।
  • বেকম্যান পেস্ট্রি শপে কয়েক রকমের ফাস্টফুড পাওয়া যায়। যেমন ফ্রাইড চিকেন মিল, চিকেন উইংস মিল, বিফ বার্গার, চিকেন বার্গার, বেকারী আইটেমের মধ্যে রয়েছে চিকেন পাই, চিকেন কাটলেট, চিকেন পিকেল স্যান্ডউইচ, চিকেন সাসলিক, স্পাইসি চিকেন পাফ, চাইনীজ রোল, ব্রেডের মধ্যে রয়েছে মিল্ক ব্রেড, ক্রীম চেরী ব্রেড, স্পাইরাল বান, চকোলেট ব্রেড, কুকিজের মধ্যে রয়েছে ব্রাউনি কুকিজ, নাট কুকিজ, চিলি টোস্ট, পেস্ট্রির মধ্যে রয়েছে এপেলজ্যাম পেস্ট্রি, স্ট্রবেরী পেস্ট্রি, চীজ কেক স্লাইস, চকোলেট বল, জ্যাম রোল পেস্ট্রি, ডোনাট এবং ডেনিশের মধ্যে রয়েছে ক্রীম ডোনাট, চকোলেট ডোনাট এবং কেক এর মধ্যে রয়েছে ব্লাক ফরেস্ট কেক, মোচা কেক, ফ্রুট মাফিন, চকোলেট কেকসহ সফট ড্রিংকস।
  • বারিস্তা কফিতে পাওয়া যায় Rich Chocolate Shake, Swiss Mocha Frappe, Ginger Fizz, Strawberry, Iced Cafe Mocha, Barrista Cold Coffee ইত্যাদি।
  • ক্যালিফোর্নিয়া ফ্রাইড চিকেনে পাওয়া যায় চিকেন মিল, ফ্যামিলি মিল, বার্গার, বানস, পিজা, স্যান্ডউইচ, পাই, কেক এবং পেস্ট্রি হরেক রকম আ ইটেম।
  • বার্গার ওয়ার্ল্ডে পাওয়া যায় ক্লাব চিকেন বার্গার, হট স্পাইসি বিফ বার্গার, ক্রিসপী চিকেন ব্রোস্ট, চিকেন উইংস, চিকেন নাগেটস, ফিশ বার্গার ইত্যাদি।
  • পিজা ইনে প্রাপ্ত কয়েকটি খাবারের নাম Mixed Veggie Pizza, Veggie Max (garden fresh), Cheese Pizza (Margarita), Chicken Tandoori Pizza, Grilled Chicken Pizza, BBQ Pizza ইত্যাদি।
  • ক্যাপ্টেনস ওয়ার্ল্ডে পাওয়া যায় ফিশ নাগেটস, ক্লাব স্যান্ডুইচ, চিকেন বার্গার, চিকেন সাসলিক কাবাব, তন্দুরী চিকেন, ক্রিসপী স্ট্রিপস ইত্যাদি।
  • উত্তরায় অবস্থিত মাসকিউট গ্রীলে পাওয়া যায় (ফোন: ৮৯৫৯৮৬৬, ০১৯১৯১৭৪৯৯২) ম্যাক্সিকান পিজা, বাটার্ড মাশরুম, মাচো নাচোস, ম্যারিনা শ্রীম্প ককটেইল, বাফালো উইংস, রোস্ট বীফ টোস্ট ইত্যাদি।
  • হ্যালভেশিয়ায় পাওয়া যায় ডাবল চিকেন ব্রোস্ট, কিডস মিল, মিল্ক শেক, চিকেন বার্গার, কনসেনট্রেটেড অরেনঞ্জ জুস, প্রন ফ্রাইস, চিকেন সাসলিক ইত্যাদি।
  • শর্মা এন পিজায় পাওয়া যায় এরাবিয়ান শর্মা, বার্গার, ফ্রাইড চিকেন, লাঞ্চ এবং ডিনার বক্স, পিজা সালাদ স্যান্ডুইচ, ফ্রেশ পিজা রোল, ইটালিয়ান ওভেন ফ্রেশ পিজা ইত্যাদি।
  • ওয়েস্টার্ন গ্রীলে পাওয়া যায় বিভিন্ন মিল যেমন-Fajita Pocket Meal, Ultimate Club Sandwich Basket, Spaghetti Meal, Butterfly Shrimp Meal, Happy Kids Meal, Crunchy Chicken Burger, Ultimate Cheese Burger, Staff Chicken Cheese ইত্যাদি।
  • কেএফসির কম্বোবক্স গুলো হলো কলোনেল ফিলেট বার্গার, ভেজি বার্গার, স্পাইসি থাই চিকেন রাইস, চিকেন রাইস মিল, চিকেন স্ট্রিপস, ভেজি ফ্রেশ বার্গার, হট উইংস, ফ্যামিলি মিল। নতুন একটি উপাদেয় পানীয় নিয়ে এসেছে কেএফসি। নাম তার ক্রাশার্স।
  • পিজা হাটে পাওয়া যায় নানা ধরনে পিজা। যেমন- Chicken Supreme, Beef Pepperoni, country Feast,  Seafarer, Seafood Symphony ইত্যাদি।
  • কুপার্সে পাওয়া যায় হরেক রকম কেক এবং পেস্ট্রি। Black Forest, Carnival Dream, Mocha, Vanilla with Strawberry, Chocolate এবং Chocolate Vanilla ইত্যাদি।

 

গ্রাহক

ঢাকার শিক্ষিত, সুশীল এবং অবস্থাসম্পন্ন ব্যক্তিবর্গ ব্যতিক্রমধর্মী ফাস্টফুডশপগুলোতে যাতায়াত করে থাকেন। এখানে খাবারের মান বজায় রাখার ব্যাপারে কোন প্রকার ছাড় দেওয়া হয়না- জানান এরকম একটি ফাস্টফুড শপের মালিক। এখানে পরিবেশিত খাবারে মূল্য আকাশ ছোঁয়া বলা যায়।

 

অবস্থান

সাধারনত ঢাকার অভিজাত এলাকাগুলোতে যেমন- গুলশান, বনানী, ধানমন্ডি, বারিধারা, উত্তরা, মহাখালী ডিওএইচএস, বসুন্ধরায় মানসম্পন্ন ফাস্টফুড শপগুলো গড়ে উঠেছে। পাশাপাশি ঢাকার অন্যান্য এলাকাতেও পাশাপাশি ফাস্টফুডশপ রয়েছে।

 

উল্লেখযোগ্য কয়েকটি ফাস্টফুডশপের নাম এবং ঠিকানা

বিএফসি(বেস্ট ফ্রাইড চিকেন)

উত্তরা টাওয়ার

১ জসিমউদ্দিন এভিনিউ,

সেক্টর ৩, উত্তরা, ঢাকা-১২৩০।

ফোন: ৮৯২০০৩৬

বেকম্যান পেস্ট্রি শপ

বাড়ি ৪৭, সড়ক ৫/এ,

ধানমন্ডি, ঢাকা।

ফোন: ০১৭২৩-৬৭৯৪২৯

বারিস্তা কফি

প্লট এসই(এফ)-১, গুলশান সাউথ এভিনিউ, বীর উত্তম মীর শওকত আলী রোড, গুলশান ১, ঢাকা। ফোন: ০১৭১৩-২০১৮৭৪

ইয়াম্মী ইয়াম্মী

১৪৭/এ/২ এয়ারপোর্ট রোড, মণিপুরীপাড়া, তেজগাঁও, ঢাকা।

ফোন: ৯১১০৭২৫

সিপি ফ্রাইড চিকেন

হাওলাদার কমপ্লেক্স

বাড়ি ২১, সড়ক ৪৪,

গুলশান ২, ঢাকা।

ফোন: ৮৯১৯৪৭৯, ৮৯৫৬৮৪৯-৫০

পিজা ইন্ড

১৩/২, পশ্চিম পান্থপথ, ধানমন্ডি, ঢাকা।

ফোন: ৯১২৭৬৪৪,

০১৭১৬-১০২৪১১

ফরচুনা ফ্রাইড চিকেন (এফএফসি)

১৬৯, উত্তর গুলশান এভিনিউ, গুলশান ২, ঢাকা।

ফোন: ৯৮৯৬২৮১

পিজা হাট

১০, নাটক স্বরনি, নিউ বেইলী রোড, ঢাকা।

ফোন: ৮৩১৭২৬৫, ৮৩১৭০৯৯

কেন্টাকি ফ্রাইড চিকেন (কেএফসি)

৬৮ পুরানা পল্টন, ঢাকা।

ফোন: ৯৫১৫৩৩৬, ৯৫১৫৩৩৭

হ্যালভেসিয়া ফাস্ট ফুড এন্ড কফি হাউজ

বায়তুল আবেদীন শপিং সেন্টার,

১ নিউ বেইলী রোড, ঢাকা।

ফোন: ৯৩৩১৩০৩

নিউট্রিয়েন্ট কেক এন্ড পেস্ট্রি শপ

দোকান নং ১ এবং ২,

প্লট ৩৩, সড়ক ৪৬,

গুলশান ২, ঢাকা।

ফোন: ০১১৯৭-৩৫৩৩৯৮

ফ্রাইডেস ফাস্ট ফুড

সাসাব বাড়ি, বাড়ি:৫৬,

সড়ক: ৩/এ, সাতমসজিদ রোড, ধানমন্ডি, ঢাকা।

ফোন: ৯৬১২৮২৫

বনলতা কফি শপ

২/১১ পল্লবী, মিরপুর:১১.৫০

ঢাকা-১২১৬। ফোন: ০১৭৪১-৪৯৯৫০৫

স্পাইসি পিকেল

ক-১/বি (২য় তলা), বসুন্ধরা রোড, জগন্নাথপুর, ঢাকা।

ফোন: ০১১৯৫-২৫৯৯০০

ফায়ার অন আইস

বাড়ি# ০২, সড়ক# ০৯, সেক্টর# ০১, উত্তরা, ঢাকা।

ফোন: ৭৯১১২৪১,৭৯১১২১৩, ০১৭১৫১০৪৪৯৪, ০১৭১১১৮১১৫৪

লা বামবা লিমিটেড

বাড়ি: ৯৯, সড়ক: ১১/এ, ধানমন্ডি, ঢাকা। ফোন: ৮১৫৫৫৮৮

ক্যাপ্টেনস ওয়ার্ল্ড

নিউ এয়ারপোর্ট রোড,

ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট, ঢাকা।

ফোন: ৮৮২৪১২৩, ৮৮২৩৫৫৯,

০১৯১৬-৮৬০৩০০

বেলভেশিয়া পিজারিয়া

২৪/৪ সরকার মার্কেট

(লেভেল ১), বসুন্ধরা রোড, বসুন্ধরা, ঢাকা ১২২৯।

ফোন: ৮৪১৩৯৭৩, ০১৯১৯-২২৭৭৮৮, ০১৭২৬-২৭০০৩৪

কফি ওয়ার্ল্ড

আরএকে টাওয়ার

প্লট ১/এ, জসিমউদ্দিন এভিনিউ, সেক্টর ৩, উত্তরা, ঢাকা।

ফোন: ৮৯৬১৬৬৫, ৮৮৫২৩৪৪

ঢাকা বার-বি-কিউ

৪০ নিউ ইস্কাটন রোড (৩য় তলা), ঢাকা। ফোন: ৮৩৩১৩৮৪

ডিসেন্ট পেস্ট্রি শপ

রামপুরা বনশ্রী (আইডিয়াল স্কুলের পিছনে)

ব্লক সি, সড়ক ১, দোকান নং ডি ২, রামপুরা-বনশ্রী, ঢাকা।

ফোন: ০৩৭৭২০০৬৩৫৪

এ এন্ড ডব্লিউ রেস্টুরেন্ট

৫৪ গুলশান এভিনিউ, গুলশান ১, ঢাকা ১২১২। ফোন: ৯৮৮০৭৮৮, ০১১৯১-৮০৩৩৮১।

বার্গার ওয়ার্ল্ড

৫৬ গুলশান এভিনিউ, গুলশান ১, ঢাকা ১২১২।

ফোন: ৮৮৫১৪৬৭, ০১৯১৩-৯৮৯৯০৯

পিজা ইন্

আরএকে টাওয়ার (লেভেল ৪)

প্লট ১/এ, জসিমউদ্দিন এভিনিউ, সেক্টর ৩, উত্তরা, ঢাকা।

ফোন: ৮৯৬০৭০৯, ৮৯৬১২৮৫

ক্যালিফোর্নিয়া ফ্রাইড চিকেন এন্ড পেস্ট্রি শপ

বাড়ি ০৪, সড়ক ২৭ (পুরাতন), ১৬ (নতুন), ধানমন্ডি, ঢাকা ১২০৯।

ফোন: ৯১৪৫৬৫২, ৮১২৫৮৮৯

শর্মা এন পিজা

১১০১/বি, বায়তুল আমান হাউজিং, রিং রোড, আদাবর, শ্যামলী, ঢাকা। ফোন: ৯১২৩২৩২, ০১৭৪১-৬৯২৮৮০

ওয়েস্টার্ণ গ্রীল

কসবা সেন্টার (নিচতলা)

বাড়ি ৫/২, সড়ক ০৪, ধানমন্ডি, ঢাকা ১২০৫।

ফোন: ৮৬১৮৭৩৩, ০১৭১২-২০২৮০২

 

উল্লেখযোগ্য কয়েকটি ফাস্টফুডশপের ওয়েব এড্রেস

ক্রমিক নং

ফাস্টফুড শপের নাম

ওয়েব সাইট

০১

বারিস্তা কফি

www.barista.co.in

০২

সিপি ফ্রাইড চিকেন

www.cpbangladesh.com

০৩

ফরচুনা ফ্রাইড চিকেন (এফএফসি)

www.ffcbd.com

০৪

পিজা হাট

www.pizzahutbd.com

০৫

কেন্টাকি ফ্রাইড চিকেন (কেএফসি)

www.kfcbd.com

০৬

স্পাইসি পিকেল

www.spicypickle21bd.com

০৭

কফি ওয়ার্ল্ড

www.etceterabd.com

০৮

বার্গার ওয়ার্ল্ড

www.washingtonbd.com

০৯

পিজা ইন

www.pizzainn.com.bd

 

ফাস্টফুড শপের সুবিধাগুলো

  • বার্থডে, পার্টি, মিটিং, সোসিয়াল গ্রিটিংস, ফ্যামিলি ডে, স্পোর্টস ডে এবং এ্যানিভার্সারীসহ বিভিন্ন সামাজিক এবং অফিসিয়াল অনুষ্ঠানের জন্য রয়েছে ক্যাটারিং সার্ভিস সেবা।
  • বার্থ ডে কেকের অর্ডার নেওয়া হয়।
  • ইউরোপিয়ান স্টাইলে কম্পিউটারে চিনির প্রলেপযুক্ত ছবি কেক, পেষ্ট্রি এবং চকোলেটের উপর করে সরবারহ করা হয়।
  • টেলিফোন বা মোবাইলে খাবারের অর্ডার নেওয়া হয়। ফ্রি হোম ডেলিভারী। তবে এই সুবিধা নির্দিষ্ট এরিয়া এবং দূরত্বের উপর নির্ভর করে। ন্যূনতম ৬০০ টাকার উপরে অর্ডার দিতে হয়।
  • অনেক ফাস্টফুড শপে চাইনীজ, বেকারী এবং বিরানী আইটেমের স্বাদ গ্রহণের সুবিধা রয়েছে।
  • গাড়ি পার্কিং ব্যবস্থা।
  • কিডস জোন।
  • স্বল্প খরচে উন্নতমানের খাবার।
  • লাঞ্চ বক্স এবং ডিনার বক্সের ব্যবস্থা।
  • ফাস্টফুড শপগুলো ইদানিং পার্টি সেন্টার হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে। এখানে সাধারনত বার্থডে, বিবাহ বার্ষিকী, গেট টু গেদার জাতীয় অনুষ্ঠান বেশী হয়।

 

বিশ্বের অন্যান্য দেশে ফাষ্টফুডের জনপ্রিয়তার চমত্কার কিছু তথ্য

  • প্রতি ১০ জন মার্কিন শিশুর মধ্যে নয়জন প্রতি মাসে অন্তত একবার ম্যাকডোনালডস রেস্টুরেন্টে খেতে যায়।
  • ১৯৭০ সালে ফাস্ট ফুডের পেছনে মার্কিনদের ব্যয় ছিল ছয় বিলিয়ন ডলার। ২০০৯ সালে এই খাতে ব্যয়ের অঙ্ক দাঁড়ায় ১৪৮ দশমিক ৬ বিলিয়ন ডলার।
  • বিংশ শতাব্দীর প্রথম দিকে হ্যামবার্গারকে দূষিত, অনিরাপদ এবং গরিব লোকদের খাবার মনে করা হতো।
  • এখন উত্তর কোরিয়া ছাড়া বিশ্বের প্রতিটি দেশে পেপসি এবং কোকাকোলা বিক্রি হয়।
  • যুক্তরাষ্ট্রে একক খাবার হিসেবে ফ্রেঞ্চ ফ্রাই সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয়। ২০০৪ সালের এক হিসাবে দেখা গেছে, মার্কিনরা প্রায় সাড়ে সাত বিলিয়ন পাউন্ড ফ্রেঞ্চ ফ্রাই সাবাড় করেছে।
  • উপসাগরীয় যুদ্ধের সময় ফ্রান্স মার্কিন নেতৃত্বাধীন কোয়ালিশন বাহিনীতে যোগদানের অস্বীকৃতি জানালে কিছু রিপাবলিক রেগেমেগে ফ্রেঞ্চ ফ্রাইয়ের নাম বদলে লিবার্টি ফ্রাই রাখার প্রস্তাব দিয়েছিলেন।
  • শুধু যুক্তরাষ্ট্রেই ফাস্ট ফুড রেস্টুরেন্টের সংখ্যা প্রায় তিন লাখ।
  • ১৯৪৯ সালে রিচার্ড ও মরিস ম্যাকডোনালড প্রথম ম্যাকডোনালড রেস্টুরেন্ট প্রতিষ্ঠা করেন। অবশ্য রেক্রুক ম্যাকডোনালডস করপোরেশনের প্রতিষ্ঠাতা।

 

ফাস্টফুড খাওয়ার ঝুঁকি

বারবার ফাস্টফুড খেলে টিনএজার ও তরুণদের দেহের ওজন অনেক বাড়ে এবং ইনসুলিন রেজিস্ট্যান্সের ঝুঁকি বাড়ে। এছাড়া যাঁরা ফাস্টফুড রেস্তোরাঁয় প্রতি সপ্তাহে এক বেলার কম আহার করছেন, তাঁদের তুলনায় যাঁরা প্রতি সপ্তাহে দুই বেলা আহার করছেন, তাঁদের দেহে ওজন বাড়তি ১০ পাউন্ড বেড়েছে এবং ইনসুলিন রেজিস্ট্যান্স বেড়েছে দ্বিগুণ, আর এটি হলো টাইপ ২ ডায়াবেটিসের বড় ঝুঁকি। ডায়াবেটিস হলো হৃদরোগের একটি বড় ঝুঁকি। ফাস্টফুড খেলে শরীরে ওজন বাড়ার একটি কারণ হলো, এসব রেস্তোরাঁর যেকোনো এক বেলার খাবারে এত ক্যালোরি থাকে, যা সারা দিনের ক্যালোরি পূরণের সমান। এ ধরনের খাবার গ্রহনে শরীরে উচ্চমাত্রায় শর্করাজাতীয় (স্যাচুরেটেড ফ্যাট) উপাদানের উপস্থিতির কারণে ওজন বেড়ে যায়। এ ছাড়া অতিরিক্ত ফাস্টফুড খেলে হৃদরোগ, উচ্চ রক্তচাপ, রক্তে উচ্চমাত্রায় কোলেস্টেরল বৃদ্ধি পায়। ইদানীং ছোট-বড় সবার কিডনি-সংক্রান্ত জটিলতা দেখা দিচ্ছে। ধারণা করা হয়, ফাস্টফুড-জাতীয় খাবার গ্রহণ, অনিয়ন্ত্রিত জীবন ধারণ, অপর্যাপ্ত কায়িক শ্রম_এসবই তরুণদের মধ্যে কিডনি ও ডায়াবেটিস-জাতীয় রোগের অন্যতম কারণ। ফাস্টফুডে ক্যালরি থাকে বেশি, কিন্তু আঁশ থাকে খুব কম। অথচ পাকস্থলী এবং বৃহদান্ত্রকে ভালো রাখার জন্য খাদ্যে আঁশের পরিমাণ বেশি থাকা খুবই জরুরি। ফাস্টফুডের কারণে শিশুরা অনেক বেশি ফ্যাট, শর্করা এবং সোডিয়াম গ্রহণ করছে। ফলে সুষম খাবার যেমন ভাত, মাছ, সবজি এসবের প্রতি আগ্রহ হারিয়ে ফেলছে, আর পরিণতিতে দ্রুত মোটা হয়ে যাচ্ছে। ফাস্টফুড বেশি গ্রহণের ফলে শিশুদের দেখা দিতে পারে ডায়াবেটিস, উচ্চরক্তচাপ, লিভার এবং কিডনির কার্যকারিতা কমে যাওয়াসহ হার্ট এটাকের মতো মারাত্মক জটিলতা। ফাস্টফুডের কারণে শিশুরা আরো যেসব শারীরিক জটিলতায় ভোগে তা হলো বমি, মাথা ব্যথা, হরমোন সমস্যা ইত্যাদি।

 

প্রতিকার

এশিয়ার উন্নত রাস্ট্রে, ইউরোপ এবং পশ্চিমা বিশ্বে  ফাস্টফুডের প্রচলন বেশী। ব্যস্ততায় ভরা জীবনে ফাস্টফুড দ্রুত জনপ্রিয় হয়ে ওঠে। এ কথা মানতে হবে, রান্নায় ব্যয় করার মতো সময় অনেকেরই নেই। আবার স্বাস্থ্যের দিকটাও লক্ষ রাখা জরুরি। গবেষকরা জানান যে,  যদি সাদা আটা বা ময়দার পরিবর্তে লাল আটা ব্যবহার করে বার্গার বানানো হয়, তাহলে ক্ষতির পরিমাণ কমতে পারে। মাংসের পরিবর্তে স্যান্ডউইচে সবজি বা মাছ ব্যবহার করলে সেটা অতিরিক্ত ক্যালরিমুক্ত হয়ে যাবে; আবার চিকেন বা যেকোনো কিছু ফ্রাই করার ক্ষেত্রে সূর্যমুখী বা ভুট্টার তেল ব্যবহার অনেক কার্যকর ও উপকারী। মোট কথা, স্বাস্থ্যের উপকারিতা চিন্তা করেই ফাস্টফুডে প্রয়োজনীয় পরিবর্তন আনতে হবে। ফাস্টফুড ত্যাগ করা কঠিন, তাই একে স্বাস্থ্যপ্রদ করে নেয়াই ভালো সমাধান।


২৫ বছরে ১৮ সন্তানের জননী!
সর্বপ্রথম পোর্টেবল দ্বীপ
বিদেশিনীর বাংলা প্রেম
জুতার গাছ!
exam
নির্বাচিত প্রতিবেদন
exam
সুমাইয়া শিমু
পিয়া বিপাশা
প্রিয়াংকা অগ্নিলা ইকবাল
রোবেনা রেজা জুঁই
বাংলা ফন্ট না দেখা গেলে মোবাইলে দেখতে চাইলে
how-to-lose-your-belly-fat
guide-to-lose-weight
hair-loss-and-treatment
how-to-flatten-stomach
fat-burning-foods-and-workouts
fat-burning-foods-and-workouts
 
সেলিব্রেটি