বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়

 

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় •  মেডিকেল কলেজডেন্টাল কলেজকলেজ

কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানশিক্ষা বোর্ড স্কুল

 

পটভূমি:

অতিরিক্ত জনসংখ্যা এবং মানুষের আর্থিক সক্ষমতা বৃদ্ধির কারণে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলি বর্ধিত চাহিদা মেটাতে না পারায় সরকার বেসরকারী বা প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুমোদন দেয়। যেসব শিক্ষার্থী পড়াশোনার জন্য হয়ত ভারত বা অন্য কোন দেশে যেত তাদের অনেকে এখন দেশের বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতেই পড়ছে। এভাবে বৈদেশিক মুদ্রার সাশ্রয় হচ্ছে বলেও বলছেন অনেকে। ১৯৯২ সালে বাংলাদেশ সরকার প্রথম বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার অনুমোদন দেয়। সে সময় বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয় আইন নামে একটি আইনও পাশ করা হয়। এই আইন বলে প্রথম বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠিত হয়। পরে ২০১০ সালে বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর জন্য নতুন একটি আইন প্রবর্তন করা হয়। এখন মোট ৫১টি বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয় আছে বাংলাদেশে।

 

মান নিয়ন্ত্রণ অনুমোদন

বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়সহ সামগ্রিকভাবে উচ্চ শিক্ষার বিষয়টি তদারক করে। বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুমোদন দেয়াসহ মান বজায় রাখার কাজটি তদারক করার দায়িত্ব বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের।

কিছুটা দেখেশুনে এবং খোঁজখবর নিয়ে বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির পরামর্শ দিয়ে থাকে মঞ্জুরি কমিশন। শিক্ষার মান নিশ্চিত করা এবং নিজস্ব জমিতে অবকাঠামো তৈরি করার কারণে আটটি বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়কে অলিখিতভাবে সবুজ সংকেত দেয়া হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়গুলো হল: নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি, আহসানউল্লাহ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস এগ্রিকালচার অ্যান্ড টেকনোলজি, বিজিসি ট্রাস্ট ইউনিভার্সিটি, ব্র্যাক ইউনিভার্সিটি, বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস অ্যান্ড টেকনোলজি, চট্টগ্রামের ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি ও আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়।

 

বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয় আইন অনুসারে বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার পাঁচ বছরের মধ্যে নিজস্ব ক্যাম্পাস তৈরি করতে হয়। বাকি ৪১ বিশ্ববিদ্যালয়েরই এখন পর্যন্ত নিজস্ব ক্যাম্পাস নেই। কয়েকেটি বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঁচ বছরের সময় এখন পর্যন্ত আছে। ব্যর্থতা সত্ত্বেও নিজস্ব ক্যাম্পাস তৈরিতে কিছুটা পদক্ষেপ নেবার কারণে ২১টি বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়কে লাল সংকেত না দিয়ে হলুদ সংকেত দেয়া হয়েছে। আর ২২ টি বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয় নিজস্ব ক্যাম্পাস তৈরির কোন উদ্যোগই নেয়নি। মঞ্জুরি কমিশনের মতে এদের সে আগ্রহও নেই। বিশ্ববিদ্যালয়গুলো হল: দারুল ইহসান বিশ্ববিদ্যালয়, লিডিং ইউনিভার্সিটি, সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি, বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি, ইউনিভার্সিটি অব ডেভেলপমেন্ট অল্টারনেটিভ, স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটি, ইবাইস ইউনিভার্সিটি, প্রাইম ইউনিভার্সিটি, ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ, দি মিলেনিয়াম ইউনিভার্সিটি, ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটি, উত্তরা ইউনিভার্সিটি, ভিক্টোরিয়া ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ, প্রেসিডেন্সি ইউনিভার্সিটি, ইউনিভার্সিটি অব ইনফরমেশন টেকনোলজি অ্যান্ড সায়েন্স, প্রাইম এশিয়া ইউনিভার্সিটি, রয়েল ইউনিভার্সিটি অব ঢাকা, অতীশ দীপঙ্কর ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি, আশা ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ, ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটি, গ্রীন ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ। এসব বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর অধিকাংশই গড়ে উঠেছে ভাড়া করা বাড়িতে। অনেক ক্ষেত্রে বাণিজ্যিক এলাকায় কিংবা মার্কেট এলাকায় কোন ভবনের ফ্লোর ভাড়া নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় গড়ে উঠেছে। মঞ্জুরি কমিশন এসব বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির ক্ষেত্রে সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়ে থাকে।

 

নিজস্ব ক্যাম্পাস আছে এবং মানসম্পন্ন শিক্ষা দিয়ে মঞ্জুরি কমিশনের প্রশংসা পাওয়া আটটি বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়: নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি, আহসানউল্লাহ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস এগ্রিকালচার অ্যান্ড টেকনোলজি, বিজিসি ট্রাস্ট ইউনিভার্সিটি, ব্র্যাক ইউনিভার্সিটি, বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস অ্যান্ড টেকনোলজি, চট্টগ্রামের ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি ও আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়।

নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি আহসানউল্লাহ বিজ্ঞান প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়

ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস এগ্রিকালচার এন্ড টেকনোলজিব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়

 

নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি

শুরুতে

ঠিকানা: প্লট: ১৫, ব্লক-বি, বসুন্ধরা, বারিধারা, ঢাকা-১২২৯

ফোন: ৯৮৮৫৬১১-২০, ফ্যাক্স: ৮৮০-২-৮৮২৩০৩০

ই-মেইল: [email protected]  

ওয়েবসাইট: www.northsouth.edu

 

শিক্ষা কার্যক্রম:

মোট চারটি স্কুলের অধীনে বিশ্ববিদ্যালটির শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালিত হয়। স্কুলগুলো হল: স্কূল অব বিজনেস, স্কুল অব ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড এ্যাপ্লায়েড সায়েন্স, স্কুল অব লাইফ সায়েন্স এবং স্কুল অব আর্টস এন্ড সোশাল সায়েন্সেস।

 

স্কূল অব বিজনেসের অধীনে পরিচালিত কোর্সগুলো:

  • ব্যাচেলর অব বিজনেস এ্যাডমিনিস্ট্রেশন (বিবিএ)
  • মাস্টার অব বিজনেস এ্যাডমিনিস্ট্রেশন (এমবিএ)
  • এক্সিকিউটিভ এমবিএ (ইএমবিএ)

স্কুল অব ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড এ্যাপ্লায়েড সায়েন্স

স্কুল অব ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড এ্যাপ্লায়েড সায়েন্সের অধীনে দু’টি বিভাগ আছে: কম্পিউটার সায়েন্স এবং ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ এবং পরিবেশ বিজ্ঞান ও ব্যবস্থাপনা বিভাগ।

কম্পিউটার সায়েন্স এবং ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধীনে পরিচালিত কোর্সগুলো:

  • ব্যাচেলর অব সায়েন্স ইন কম্পিউটার সায়েন্স (BS in CSc)
  • ব্যাচেলর অব সায়েন্স ইন কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং (BS in CEG)
  • ব্যাচেলর অব সায়েন্স ইন কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং (BS in CSE)
  • ব্যাচেলর অব সায়েন্স ইন ইলেকট্রনিকস এন্ড টেলিকমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং (BS in ETE)
  • মাস্টার অব সায়েন্স ইন কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং (MS in CSE)
  • মাস্টার অব সায়েন্স ইন ইলেকট্রনিকস এন্ড টেলিকমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং (MS in ETE)

পরিবেশ বিজ্ঞান ব্যবস্থাপনা বিভাগের অধীনে পরিচালিত কোর্সগুলো:

  • ব্যাচেল অব সায়েন্স ইন এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্স (BS in Env)
  • ব্যাচেলর অব সায়েন্স ইন এনভারয়নমেন্টাল ম্যানেজমেন্ট (BS in EM)
  • ব্যাচেলর অব আর্টস ইন এনভারয়নমেন্টাল স্টাডিজ (BA in Env)
  • এম.এসসি. ইন রিসোর্স এন্ড এনভায়রনমেন্টাল ম্যানেজমেন্ট (MREM)

 

স্কুল অব লাইফ সায়েন্স

  • ব্যাচেলর অব সায়েন্স ইন মাইক্রোবায়োলজি
  • ব্যাচেলর অব সায়েন্স ইন বায়োকেমিস্ট্রি এন্ড বায়োটেকনোলজি
  • মাস্টার্স ইন পাবলিক হেলথ (MPH)
  • মাস্টার্স ইন বায়োটেকনোলজি

 

স্কুল অব আর্টস এন্ড সোশাল সায়েন্সেস

ইংরেজী বিভাগের অধীন পরিচালিত কোর্স

ব্যাচেলর অব আর্টস ইন ইংলিশ (BA in Eng)

অর্থনীতি বিভাগের অধীন পরিচালিত কোর্স

  • ব্যাচেলর অব সায়েন্স ইন ইকোনমিকস (BS in ECO)
  • মাস্টার অব সায়েন্স ইন ইকোনমিকস (MS in ECO)
  • মাস্টার ইন ডেভেলপমেন্ট স্টাডিজ (MDS)

ডিপার্টমেন্ট অব জেনারেল এডুকেশন এন্ড কন্টিনিউইং এডুকেশনের অধীনে পরিচালিত কোর্স

মাস্টার ইন পাবলিক পলিসি এন্ড গভর্ননেন্স (MPPG)

 

এখানে পড়াশোনার খরচ:

ভর্তি ফি: পুরো কোর্সে একবারই ভর্তি ফি দিতে হয় এবং দেবার পর তা কখনো ফেরত দেয়া হয় না।

প্রোগ্রাম

ভর্তি ফি

আন্ডারগ্রাজুয়েট প্রোগ্রামগুলোর জন্য

২০,০০০ টাকা

এমবিএ প্রোগ্রাম

২০,০০০ টাকা

ইভিনিং এমবিএ

২০,০০০ টাকা

এমএস ইন ইটিই/সিএসই/এমপিএইচ

১৫,০০০ টাকা

এমএস/এমএ ইন বায়ো-টেক/ইংরেজী/অর্থনীতি/এমডিএস

১০,০০০ টাকা

 

প্রতি ক্রেডিটে টিউশন ফি

প্রোগ্রাম

টিউশন ফি

আন্ডারগ্রাজুয়েট প্রোগ্রামগুলোর জন্য

৪,৫০০ টাকা

এমবিএ প্রোগ্রাম

৫,৫০০ টাকা

ইভিনিং এমবিএ প্রোগ্রাম

৬,০০০ টাকা

এস ইন সিএসই/ইটিই

৪,২২৫ টাকা

এস ইন বায়োটেক

৪,২২৫ টাকা

এমএস/এমএ ইন ইংলিশ/ইকো/এমডিএস

৪,৫০০ টাকা

এমপিএইচ

৪,২২৫ টাকা

নন ডিগ্রী স্টুডেন্টস

৮,০০০ টাকা

এছাড়া সকল শিক্ষার্থীকেই প্রতি সেমিস্টারে স্টুডেন্ট এ্যাক্টিভিটি ফি বাবদ ২,০০০ টাকা, কম্পিউটার ল্যাব ফি বাবদ ১,৫০০ টাকা এবং লাইব্রেরী ফি বাবদ ৫০০ টাকা দিতে হয়। ভর্তির সময় জামানত হিসেবে দিতে হয় ৫,০০০ টাকা। ফর্মেসী, পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, বায়োটেক, এমপিএইচ এবং ইএমভি নিয়ে পড়াশোনা করছে এমন শিক্ষার্থীদের ল্যাব ফি হিসেবে প্রতি সেমিস্টারে অতিরিক্ত ৫০০ টাকা দিতে হয়। স্থাপত্যবিদ্যা বিভাগের শিক্ষার্থীদের স্টুডিও কোর্স ফি হিসেবে প্রতি সেমিস্টারে ৩,০০০ টাকা দিতে হয়।

 

অন্যান্য সার্টিফিকেট কোর্সের ফি

কোর্স

ফি

ডিজিটাল এন্ড অনলাইন লাইব্রেরীয়ানশীপ

১০,০০০ টাকা

ইংলিশ সার্টিফিকেট কোর্স

৭,০০০ টাকা

ইংলিশ স্পোকেন কোর্স (সিইপি)

৬,০০০ টাকা

ইংলিশ কোর্স (জেনারেল স্কিল ফর প্রফেশনালস)

৬,০০০ টাকা

চাইনীজ ল্যাঙ্গুয়েজ কোর্স

৫,০০০ টাকা

ফ্রেঞ্চ ল্যাঙ্গুয়েজ কোর্স

৫,০০০ টাকা

প্রি-ম্যাথ/প্রি-ইংলিশ কোর্স (পুরো সেমিস্টারের খরচ একত্রে)

২০,০০০ টাকা

এছাড়া ফিল্ড স্টাডির খরচ ডিপার্টমেন্ট থেকে নির্ধারন করা হয়।

 

ভর্তি

আন্ডারগ্রাজুয়েট পর্যায়ে ভর্তির ক্ষেত্রে পূর্ববর্তী পরীক্ষার ফলাফল এবং ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল বিবেচনায় নেয়া হয়। ভর্তি ফরমের মূল্য ৮০০ টাকা, নির্ধারিত ব্যাংক থেকে ভর্তি ফরম কেনা যায় আবার বিশ্ববিদ্যালয় ওয়েবসাইট থেকে ফরম ডাউনলোড করে সেটা পূরণ করেও জমা দেয়া যায়। সেক্ষেত্রে ফরমের সাথে ৮০০ টাকার পে-আর্ডার বা ব্যাংক ড্রাফট দিতে হয়।

 

আবেদনের ন্যূনতম যোগ্যতা:

  • এনটিসিবির পাঠ্যক্রম হলে এসএসসি এবং এইচএসসি পরীক্ষার প্রতিটিতে অন্তত জিপিএ ৩.৫ থাকতে হবে।
  • ইংরেজী মাধ্যম হলে ও-লেভেলে পাঁচটি বিষয়ে জিপিএ ২.৫ থাকতে হবে আর এ-লেভেলে দু’টি বিষয়ে ২.০ থাকতে হবে।
  • তবে স্যাট ১২০০ অথবা টোফেল ৫৫০ অথবা আইইএলটিএস ৫.৫ স্কোর থাকলে সরাসরি ভর্তির সুযোগ দেয়া হয়।

শুরুতে

আহসানউল্লাহ বিজ্ঞান প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়

শুরুতে

ঠিকানা: প্লট ১৪১-১৪২, তেজগাঁও লিল্প এলাকা, ঢাকা-১২১৫

ফোন: ৮৮০-২-৯১২০২৪৮, ৮৮০-২-৯১১৫৪৬১, ৮৮০-২-৯১৩০৬১৩

ফ্যাক্স: ৮৮০-২-৯১৩০৫০৮, ৮৮০-২-৯৮৬০৫৬৪

ই-মেইল: [email protected], [email protected]

ওয়েবসাইট: www.aust.edu

 

প্রকৌশল অনুষদ

এ অনুষদের অধীনে পরিচালিত কোর্সগুলো:

  • ব্যাচেলর অব সায়েন্স ইন সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং
  • ব্যাচেলর অব সায়েন্স ইন কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং
  • ব্যাচেলর অব সায়েন্স ইন টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং
  • ব্যাচেলর অব সায়েন্স ইন ইন্ডাস্ট্রিয়াল এন্ড প্রোডাকশন ইঞ্জিনিয়ারিং (আইপিই)
  • ব্যাচেলর অব সায়েন্স ইন মেকানিকাল ইঞ্জিনিয়ারিং (এমই)
  • মাস্টার অব সায়েন্স ইন ম্যাথমেটিকস

 

স্থাপত্য এবং পরিকল্পনা অনুষদ

  • ব্যাচেলর অব আর্কিটেকচার

ব্যবসা এবং সমাজবিজ্ঞান অনুষদঃ

  • ব্যাচেলর অব বিজনেস এ্যাডমিনস্ট্রেশন
  • মাস্টার অব বিজনেস এ্যাডমিনস্ট্রেশন

শিক্ষা অনুষদ

  • ব্যাচেলর অব এডুকেশন (বিএড)
  • মাস্টার অব এডুকেশন (এমএড)

 

এছাড়া কারিগরি এবং বৃত্তিমূলক শিক্ষা এবং প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটের অধীনে প্রকৌশল ডিপ্লোমা কোর্স আছে এখানে:

  • আর্কিটেকচার টেকনোলজি
  • সিভিল টেননোলজি
  • কম্পিউটার টেকনোলজি
  • ইলেকট্রিকাল টেকনোলজি
  • ইলেকট্রনিকস টেকনোলজি
  • টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং
  • কেমিকেল টেকনোলজি

 

আন্ডারগ্রাজুয়েট প্রোগ্রামে ভর্তি:

চার বছর মেয়াদী প্রকৌশল কোর্সগুলোয় ভর্তির ক্ষেত্রে

  • গণিতসহ এইচএসসি বিজ্ঞান বিভাগ থেকে পাশ হতে হবে
  • জিসিই ও লেভেলে গণিত, পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, বাংলা ও ইংরেজী থাকতে হবে, সে সাথে এ লেভেলে গণিত, পদার্থবিজ্ঞান এবং রসায়ন বিজ্ঞান থাকতে হবে।
  • প্রকৌশলে ডিপ্লোমাধারীরাও আবেদন করতে পারেন
  • সমতূল্য কোর্সের ক্ষেত্রে এইচএসসি সমতূল্য কোর্সে অন্তত জিপিএ ৩.৫ এবং এসএসসি ও এইচএসসি মিলিয়ে জিপিএ ৮.০ থাকতে হবে।

পাঁচ বছর মেয়াদী স্থাপত্যবিদ্যায় ভর্তির ক্ষেত্রেও একই নিয়ম প্রযোজ্য। তবে এক্ষেত্রে প্রকৌশলে ডিপ্লোমাধারীরা নয় স্থাপত্যবিদ্যায় ডিপ্লোমাধারীরা আবেদন করতে পারেন।

 

ব্যবসা প্রশাসনে ভর্তি:

যেকোন বিভাগ থেকে এইচএসসি বা ডিপ্লোমা পাশ করে ব্যবসা প্রশাসনে ভর্তি হওয়া যায়। ও লেভেলে পাঁচ এবং এ লেভেলে তিনটি বিষয় থাকলেও ভর্তি হওয়া যায়। আর সমতূল্য পরীক্ষার ক্ষেত্রে এইচএসসিতে জিপিএ ৩.৫ এবং এসএসসি এবং এইচএসসি মিলিয়ে জিপিএ ৭ থাকতে হবে।

বিশ্ববিদ্যালয় রেজিস্ট্রার অফিস থেকে ভর্তি ফরম সংগ্রহ করে জমা দিতে হয়। ভর্তি ফরমের দাম ৫০০ টাকা, আর রেজিস্ট্রার অফিস শুক্রবার ও শনিবার বন্ধ থাকে।

এসএসসি এবং এইচএসসি বা সমতূ্ল্য পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে ভর্তির জন্য মেধা তালিকা তৈরি করা হয়। তবে যাদের এসএসসি এবং এইচএসসি উভয় পরীক্ষায় চতুর্থ বিষয় ছাড়া জিপিএ ৫.০০ আছে তাদের আগে আগে আসলে আগে পাবেন ভিত্তিতে ভর্তি করা হয়।

শুরুতে

ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস এগ্রিকালচার এন্ড টেকনোলজি

শুরুতে

৪, বেড়ীবাঁধ সড়ক, উত্তরা, সেক্টর-১০ (ঢাকা আশুলিয়া সড়কের পাশে)

উত্তরা মডেল টাউন, ঢাকা-১২৩০

ফোন: ৮৯৬৩৫২৩-২৭, ৮৯২৩৪৬৯-৭০, ০১৭১৪০১৪৯৩৩

ফ্যাক্স: ৮৯২২৬২৫

ই-মেইল: [email protected]

ওয়েবসাইট: www.iubat.edu

 

বিশ্ববিদ্যালয়টির শিক্ষা কার্যক্রমকে মোট ছয়টি কলেজে ভাগ করা হয়েছে।

কলেজ অব বিজনেস এ্যাডমিনস্ট্রেশনের (সিবিএ)অধীনে পরিচালিত কোর্সগুলো

  • ব্যাচেলর অব বিজনেস এ্যাডমিনস্ট্রেশন (বিবিএ)
  • মাস্টার অব বিজনেস এ্যাডমিনস্ট্রেশন (এমবিএ)

 

কলেজ অব ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড টেকনোলজির (সিইএটি)অধীনে পরিচালিত কোর্সগুলো

  • ব্যাচেলর অব কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং (বিসিএসই)
  • ব্যাচেলর অব সায়েন্স ইন সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং (বিএসসিই)
  • ব্যাচেলর অব সায়েন্স ইন ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিকস ইঞ্জিনিয়ারিং (বিএসইইই)
  • ব্যাচেলর অব সায়েন্স ইন মেকানিকাল ইঞ্জিনিয়ারিং (বিএসএমই)

কলেজ অব আর্টস এন্ড সায়েন্সের অধীনে পরিচালিত কোর্স

  • ব্যাচেলর অব আর্টস ইন ইকোনমিকস (BA Econ)

কলেজ অব ট্যুরিজম এন্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্টের অধীনে পরিচালিত কোর্স

  • ব্যাচেলর অব আর্টস ইন ট্যুরিজম এন্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট

কলেজ অব এগ্রিকালচারাল সায়েন্স-এর অধীনে পরিচালিত কোর্স

  • ব্যাচেলর অব সায়েন্স ইন এগ্রিকালচার (BSAG)

কলেজ অব নার্সিং এর অধীনে পরিচালিত কোর্স

  • ব্যাচেলর অব সায়েন্স ইন নার্সিং (BSN)


 এছাড়া নয়টি টিচিং সেন্টার আছে যেগুলোর অধীনেও বিভিন্ন কোর্স পরিচালিত হয়।

কম্পিউটার এডুকেশন এন্ড ট্রেনিং সেন্টারের(সিইটিসি)অধীনে একটি ডিপ্লোমা কোর্স আছে, ডিপ্লোমা ইন কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং (ডিসিএসই)

 

আন্ডারগ্রাজুয়েট কোর্সে ভর্তি:

ভর্তির যোগ্যতা

  • এইচএসসি, আলিম বা এইচএসসি সমতূ্ল্য ডিপ্লোমা বা অন্যান্য কোর্সে পাশ করে এখানকার আন্ডারগ্রাজুয়েট কোর্স ভর্তি হতে হয়। এসএসসি এবং এইচএসসি বা সমমানের পরীক্ষাগুলোতে জিপিএ ২.০০ বা ২য় বিভাগ থাকলে ভর্তির জন্য আবেদন করা যায়।
  • ও লেভেলের তিনটি বিষয় এবং এ লেভেলের দু’টি বিষয়ে সি গ্রেড থাকলে ভর্তির আবেদন করা যায়।
  • গড় জিইডি স্কোর ৪৫০ এবং অন্তত পাঁচটি বিষয়ে ৮০০ এর মধ্যে ৪১০ থাকলে ভর্তির জন্য আবেদন করা যায়।


ভর্তির জন্য আবেদন করা

ভর্তির তথ্য সংক্রান্ত পুস্তিকা এবং ভর্তি ফরমের মূল্য ৫০০ টাকা, যেটি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি অফিস থেকে সংগ্রহ করতে হয়। অবশ্য ৫৫০ টাকা পাঠিয়ে দিলে ডাকেও ভর্তি ফরম পাঠিয়ে দেয়া হয়। প্রবাসী বাংলাদেশী বা বিদেশী নাগরিকগণ বাইরে থেকে আবেদন করতে চাইলে দিতে হবে ৫০০ টাকা। কেবলমাত্র ভর্তি ফরম দাখিলের মাধ্যমেও ভর্তি প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা যায়। তবে পরে ভর্তি ফি দিয়ে একটি ভর্তি ফরম পূরণ করে দিতে হয়। আলাদা একটি এ্যাডমিশন প্রসেসিং ফিও দিতে হয়; স্থানীয় শিক্ষার্থীদের জন্য এটি ২০০০ টাকা এবং আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীদের জন্য এটি ৩০ ডলার।

এখানকার সার্টিফিকেট কোর্সগুলোর ভর্তি ফরম এবং ব্রুশিওর ভর্তি অফিস থেকে বিনামূল্যে দেয়া হয় আবার ঠিকানা দিলে ডাকেও সেটি পাঠিয়ে দেয়া হয়।

 

নির্বাচন প্রক্রিয়া:

এসএসসি এবং এইচএসসি পরীক্ষার ফলাফল এবং ভর্তি ইন্টারভিউ পারফরম্যান্সের ওপর ভিত্তি করে নির্বাচন করা হয়। অবশ্য এক্ষেত্রে ভর্তি কমিটি প্রয়োজন মনে করলে লিখিত পরীক্ষাও নেয়। দেশী-বিদেশী ছাত্র-ছাত্রীর একটি সংমিশ্রণ তৈরির চেষ্টা করা হয় এখানে, অন্তত ২৫% ছাত্রী ভর্তির চেষ্টা করে কর্তুপক্ষ।

শুরুতে

ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়

শুরুতে

ঠিকানা: ৬৬ মহাখালী, ঢাকা-১২১২

টেলিফোন: +৮৮ (০২) ৮৮২৪০৫১-৪ (পিএবিএক্স) (ইনফরমেশন ডেস্ক এক্সটেশনশন ৪০০৩), +৮৮ (০২) ৯৮৫৩৯৪৮-৯

ফ্যাক্স: +৮৮ (০২) ৮৮১০৩৮৩

ই-মেইল: [email protected] (সাধারণ তথ্যের জন্য), [email protected] (রেজিস্ট্রার)

ওয়েবসাইট: www.bracu.ac.bd

 

এখানকার আন্ডারগ্রাজুয়েট প্রোগ্রামগুলো

  • ব্যাচেলর অব আর্কিটেকচার (B.ARCH)
  • ব্যাচেলর অব আর্টস (BA) ইন ইংলিশ
  • ব্যাচেলর অব বিজনেস এ্যাডমিনস্ট্রেশন (BBA)
  • ব্যাচেলর অব ল’ [LL. B. (Hons.)]
  • ব্যাচেলর অব ফার্মেসী
  • ব্যাচেলর অব সায়েন্স ইন ফিজিক্স (B.Sc))
  • ব্যাচেলর অব সায়েন্স ইন ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং
  • ব্যাচেলর অব সায়েন্স ইন কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং
  • ব্যাচেলর অব সায়েন্স ইন কম্পিউটার সায়েন্স
  • ব্যাচেলর অব সায়েন্স ইন ইলেকট্রনিকস এন্ড কমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং
  • ব্যাচেলর অব সায়েন্স ইন এ্যাপ্লায়েড ফিজিক্স এন্ড ইলেকট্রনিকস
  • ব্যাচেলর অব সায়েন্স ইন বায়োটকনোলজি
  • ব্যাচেলর অব সায়েন্স ইন মাইক্রোবায়োলজি
  • ব্যাচেলর অব সোশ্যাল সায়েন্স ইন ইকোনমিকস
  • ব্যাচেলর অব সায়েন্স ইন ম্যাথমেটিকস

 

ভর্তির আবেদনের যোগ্যতা:

  • এসএসসি এবং এইচএসসি পরীক্ষার প্রতিটিতে অন্তত জিপিএ ৩.০০ থাকতে হবে।
  • ও’ লেভেলে পাঁচটি বিষয়ে অন্তত জিপিএ ২.৫ থাকতে হবে এবং এ লেভেলে দুটি বিষয়ে জিপিএ ২.৫ ছাড়াও মোট জিপিএ ৬.০০ থাকতে হবে। ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালের স্কেল অনুযায়ী A=5, B=4, C=3, D=2 & E=1, কেবল একটি E গ্রহণযোগ্য।
  • কেউ অন্য শিক্ষাপদ্ধতি থেকে সমমানের পরীক্ষা পাশ করে থাকলে বা দেশের বাইরে পড়াশোনা করে থাকলে আবেদনের আগে ইকুইভ্যালেন্স কমিটির অনুমোদন নিতে হবে।
  • দু’বছর পর্যন্ত শিক্ষা বিরতি থাকলে আবেদন করা যায়। তবে শিক্ষা বিরতি দু’বছরের বেশি কিন্তু পাঁচ বছরের কম হলে ভর্তি কমিটির কাছে পাঠ বিরতির কারণ ব্যাখ্যা করতে হয়। আর পাঠবিরতি পাঁচ বছরের বেশি হলে সরাসরি বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন পেশ করা হয়।
  • ইলেকট্রনিক এন্ড টেলিকিমিউনিকেশন ইঞ্জিনিারিং, ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং, কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং, পদার্থবিজ্ঞান, ফলিত পদার্থবিজ্ঞান এবং ইলেকট্রনিকসে ভর্তির ক্ষেত্রে এইচএসসি অথবা এ লেভেলে অবশ্যই পদার্থবিজ্ঞান এবং গণিত থাকতে হবে।

কম্পিউটার সায়েন্স এবং ব্যাচেলর ইন ম্যাথমেটিকসে ভর্তির ক্ষেত্রে এইচএসসি পর্যায়ে অবশ্যই গণিত থাকতে হবে। ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিকস ইঞ্জিনিয়ারিং-এ ভর্তির ক্ষেত্রে পদার্থবিজ্ঞান এবং গণিত থাকতে হবে। রসায়ন থাকাটা জরুরি নয়। উচ্চমাধ্যমিকে রসায়ন বিজ্ঞান না থাকলে রসায়নের জন্য অতিরিক্ত একটি কোর্স করতে হয়।

অন্যদিকে ফার্মেসী, বায়োটেকনোলজি এবং মাইক্রোবায়োলজিতে ভর্তির ক্ষেত্রে উচ্চ মাধ্যমিকে জীব বিজ্ঞান এবং রসায়ন বিজ্ঞান থাকা জরুরি। এক্ষেত্রে কারো গণিত না থাকলে গণিতের একটি অতিরক্ত কোর্স করতে হয়।

 

ভর্তি পরীক্ষা

  • ইংরেজী এবং লজিক্যাল রিজনিং এর ওপর একটি পরীক্ষা নেয়া হয়।
  • বিবিএ, কম্পিউটার সায়েন্স, ইলেকট্রিক্যাল এন্ড টেলিকমিউনিকেশন ইাঞ্জিনিয়ারিং, ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং, পদার্থবিজ্ঞান, ফলিত পদার্থবিজ্ঞান ও ইলেকট্রনিকস, গণিত অর্থনীতি, ফার্মেসী, মাইক্রোবায়োলজি, বায়োটেকনোলজি প্রভৃতি বিষয়ে ভর্তির ক্ষেত্রে ইংরেজী, লজিক্যাল রিজনিং এবং গণিতের ওপর ভর্তি পরীক্ষা নেয়া হয়।
  • স্থাপত্যবিদ্যায় ভর্তির ক্ষেত্রে এ বিষয়গুলোর পাশাপাশি অংকনেরও একটি পরীক্ষা নেয়া হয়।
  • ভর্তি পরীক্ষায় প্রতিটি বিষয়ে অন্তত ৪০ পেতে হবে ভর্তি জন্য। লিখিত পরীক্ষায় নির্বাচিত হলে মৌখিক পরীক্ষার জন্য ডাকা হয়।

 

ক্রেডিট ট্রান্সফার

  • শিক্ষার্থীরা চাইলে এখান থেকে একই রকম অন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ক্রেডিট ট্রান্সফার করতে পারেন। এক্ষেত্রে নির্ধারিত বিশ্ববিদ্যালয় নির্ধারিত নিয়ম মেনে আবেদন করতে হয়।

 

ভর্তির জন্য আবেদন করা

  • বিশ্ববিদ্যালয় ভবনের একতলায় একটি ভর্তি ডেস্ক আছে আছে যেখান থেকে ভর্তি সংক্রান্ত সকল তথ্য এবং ভর্তি ফরম বিক্রি করা হয়। ভর্তি ফরমের সাথে ভর্তি পরীক্ষার ফি হিসেবে ১০০০ টাকা দিতে হয়।

 

ফরমের সাথে যেসব কাগজপত্র দিতে হয়:

  • দু’কপি সদ্য তোলা সত্যায়িত পাসপোর্ট সাইজের ছবি
  • পূর্ববর্তী সকল পরীক্ষার সার্টিফিকেট এবং মার্কশীটের সত্যায়িত কপি
  • ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী সর্বশেষ যে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পড়াশোনা করেছে সেখান থেকে দেয়া প্রশংসাপত্র
  • ভর্তি ফি জমা দেয়ার রশিদ

শুরুতে


২৫ বছরে ১৮ সন্তানের জননী!
সর্বপ্রথম পোর্টেবল দ্বীপ
বিদেশিনীর বাংলা প্রেম
জুতার গাছ!
exam
নির্বাচিত প্রতিবেদন
exam
সুমাইয়া শিমু
পিয়া বিপাশা
প্রিয়াংকা অগ্নিলা ইকবাল
রোবেনা রেজা জুঁই
বাংলা ফন্ট না দেখা গেলে মোবাইলে দেখতে চাইলে
how-to-lose-your-belly-fat
guide-to-lose-weight
hair-loss-and-treatment
how-to-flatten-stomach
fat-burning-foods-and-workouts
fat-burning-foods-and-workouts
 
সেলিব্রেটি