প্রমীলাদের কথা

 

  • শিক্ষাঙ্গনে যৌন হয়রানি - (ইত্তেফাক: ১৫/০১/২০১২)

যৌন হয়রানি নামক ব্যাধিটি আমাদের বিবেক-শিক্ষা-সমাজ ব্যবস্থাকে এমনভাবে আঘাত করে চলেছে যে, সভ্য সমাজের নাগরিক বলে পরিচয় দিতে দ্বিধাবোধ করেন অনেকে। শিক্ষক কর্তৃক ভিকারুন্নেসার ছাত্রীর শ্লীলতাহানী, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে তিন শিক্ষকের বিরুদ্ধে ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগের সত্যতা প্রমাণ আর বিজয়ের মাসে নিজের কন্যাকে উত্ত্যক্তকারীর হাত থেকে রক্ষা করার অপরাধে মুক্তিযোদ্ধা পিতাকে হত্যা— আমাদের মানবিক বোধকে প্রশ্নের সম্মুখীন করে। বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন

 

  • মহিলা পুলিশ প্যারেড - (ইত্তেফাক: ১৫/০১/২০১২)

গত বছরের প্যারেডে তিনজন মহিলা অংশগ্রহণ করেছিলেন। সেখানে মহিলা দলের কমান্ডার ছিলেন মুক্তা ধর। এবছর এ দলের নেতৃত্বে আছেন ২৮তম বিসিএস দিয়ে পুলিশ দলে যোগ দেয়া নতুন একজন নারী পুলিশ সদস্য। তার নাম শিক্ষানবিশ সহকারী পুলিশ কমিশনার আয়শা। প্যারেডের জন্য আলাদা কোন প্রশিক্ষণ প্রয়োজন হয় না, পুলিশের একবছরের বেসিক ট্রেনিং এই প্যারেডে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়ে থাকে। বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন

 

  • সৌদামিনী শর্মা ও তেতইগাঁও নারীদের মশাল মিছিল - (ইত্তেফাক: ১৫/০১/২০১২)

সৌদামিনী শর্মা ও তাঁর প্রতিবাদী নারীর দল যখন সন্ধ্যার পর গ্রামের হাটে-বাজারে মশাল মিছিল বের করতেন এবং সেইসঙ্গে তারা স্লোগানও দিতেন। তাদের স্লোগানের ভাষা ছিলো: (মনিপুরী ভাষায়) ‘জু থাকপা, জুয়ার সনাবাম-য়ারই, য়ারই’ (মদ খাওয়া, জুয়া খেলা, চলবে না, চলবে না)। ‘জু জনবা, গাঁজা জনবা-য়ারই, য়ারই’ (মদ বেচা, গাঁজা বেচা, চলবে না, চলবে না)। ‘নুপি নাহাদা ফুবা চৈবা-য়ারই, য়ারই’ (মহিলা ও মেয়েদের নির্যাতন করা চলবে না, চলবে না)। ‘নুপি অখইশু মিনি, মি মা ওইনা হিংগনী’ (আমরা মহিলারাও মানুষ, আমরাও মানুষের মতো বাঁচতে চাই)। বিস্তারিত প্রতিবেনদটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন

 

  • পারিবারিক সহিংসতা রোধ শুরু করতে হবে পরিবার থেকেই - (ইত্তেফাক: ১৫/০১/২০১২)

নারীরা ঘরের বাইরের থেকে পরিবারের সদস্যদের কারণে অধিক সহিংসতার সম্মুখীণ হয়। বিশেষজ্ঞরা মনে করেন পারিবারিক সৌহাদ্য, মূল্যবোধ, পরস্পরকে সন্মান করার শিক্ষা মানুষকে সংবেদনশীল করবে। তাই নারীদের প্রতি সহিংসতা রোধে পরিবার থেকেই কাজ শুরু করতে হবে। বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন

 

  • নারী মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মাননা প্রদান - (ইত্তেফাক: ১৫/০১/২০১২)

স্বাধীনতার ৪০ বছর পেরিয়ে গেলেও মুক্তিযুদ্ধের বিভিন্ন অঙ্গনে নারীদের অসামান্য অবদানের কথা সর্বত্র তেমনভাবে উচ্চারিত নয়। আজও বহু মুক্তিযোদ্ধা নারী রয়ে গেছেন পর্দার আড়ালে। আর তাই বিজয়ের ৪০ তম বার্ষিকীতে মুক্তিযুদ্ধের নানা ক্ষেত্রে অবদান রাখার জন্য বাঙালীর ঐতিহ্য ও ইতিহাস নির্ভর সাংস্কৃতিক সংগঠন একাত্তরের যাত্রী, সেসব বীর নারীদের সম্মাননা জানাতে গত বুধবার জাতীয় জাদুঘরের সুফিয়া কামাল মিলনায়তনে আয়োজন করে ‘একাত্তরের নারী’ অনুষ্ঠানের। বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন

 

  • এখনো নিভে যায় নি সবটুকু আলো - (ইত্তেফাক: ১৫/০১/২০১২)

শারীরিক প্রতিবন্ধকতা শিক্ষা জীবনে বাঁধ সাধতে পারেনি প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষায় অংশ নেওয়া ৩৯৭ জন শারীরিক প্রতিবন্ধীর ক্ষেত্রে। এই পরীক্ষায় অসাধারণ সাফল্য লাভ করেছে বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশুরা। প্রকাশিত ফলাফলে দেশের মোট ৪১৮ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছে ৩৯৭ জন। এর মধ্যে ছাত্রের সংখ্যা ২৩৬ এবং ছাত্রীর সংখ্যা ১৬২ জন। পাশের হার ৯৪ দশমিক ৯৮ শতাংশ। এদের মধ্যে জিপিএ-৫ প্রাপ্তও রয়েছে ১ জন। বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন

 

  • বছর জুড়ে নারী - (ইত্তেফাক: ১৫/০১/২০১২)

২০০১ সালে হাইকোর্ট সব ধরনের ফতোয়াকে নিষিদ্ধ করে রায় দেয়ার পর সে রায়ের বিরুদ্ধে আপীল হয়। ঐ বছর ১২ মে বৃহস্পতিবার প্রধান বিচারপতি এবিএম খায়রুল হকের নেতৃত্বে ছয় বিচারপতির পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চ হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে করা দু’টি আপীল সংখ্যাগরিষ্ঠ মতামতের ভিত্তিতে আংশিকভাবে মঞ্জুর করে রায় দেয়। রায়ে বলা হয়, যে ফতোয়াটি অবৈধ বলে হাইকোর্ট রায় দিয়েছিল তা সঠিক। রাষ্ট্রের প্রচলিত আইনে ব্যক্তির সাংবিধানিক অধিকার ও মর্যাদা ক্ষুন্ন করে এমন কোন ফতোয়া দেয়া যাবে না। বিস্তারিত প্রতিবেদনটি পড়তে এখানে ক্লিক করুন

 

  • আন্তর্জাতিক নারী সংবাদ - (ইত্তেফাক: ১৫/০১/২০১২)

আফ্রিকার দরিদ্র দেশ লাইবেরিয়া ক্ষুধা, গৃহযুদ্ধ সব মিলিয়ে একটা টালমাটাল পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। এরকম পরিস্থিতিতে দেশের নারীদের অবস্থার উন্নতি এবং এই গৃহযুদ্ধ থেকে বেরিয়ে আসতে পুরুষদেরকে ঐক্যবদ্ধ করতে মূখ্য ভূমিকা পালন করেছেন ইলেন জনসন সিরলিফ, যিনি পরে সেদেশের প্রেসিডেন্ট হিসেবেও নির্বাচিত হয়ে দেশকে সাজানোর নিজের পূর্ব পরিকল্পনাগুলো বাস্তবায়নের মাধ্যমে লাইবেরিয়ার রাজনৈতিক কলহকে থামিয়েছেন এবং নারীদের উন্নয়নে বিশেষ ভূমিকা রেখেছেন।  বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন

 

  • স্বপ্নের পাখায় চাপাতির কোপ - (ইত্তেফাক: ১৫/০১/২০১২)

২০০৮ সালের ৩০ শে জানুয়ারি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার নূরজাহানপুর গ্রামের রফিকুল ইসলামের সাথে বিয়ে হয়, বিয়ের পরই রফিক জানিয়ে দেন পড়ালেখা বন্ধ করতে হবে হাওয়ার। রফিক হাওয়াকে বাবার বাড়ি রেখে দুবাই গেলে হাওয়ার বাবা মেয়ের প্রবল আগ্রহের কারণে জামাইকে না জানিয়েই হাওয়াকে ভর্তি করান কলেজে। অবশেষে হাওয়াকে না জানিয়ে দুবাই থেকে ফিরে গত ৪ ই ডিসেম্বর ননদ নাঈমা বেগমের ঢাকা ক্যান্টনমেন্টের জিয়া কলোনিস্থ বাসায় ধারালো চাপাতি দিয়ে ডান হাতের চারটি আঙুল কেটে দিয়ে পড়ালেখায় হাওয়ার প্রবল আগ্রহের ‘পুরস্কার’ দেয় রফিক। বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন

 

  • ওরাও আমাদের আত্মীয় - (ইত্তেফাক: ১৫/০১/২০১২)

মুক্তিযুদ্ধে বীরাঙ্গনার সংখ্যা চার বা মতান্তরে ছয় লক্ষ। পাক বাহিনীর নির্যাতনের ফলে বীরাঙ্গনা নারীদের গর্ভে জন্ম নেওয়া এই শিশুদেরকে বলা হয় যুদ্ধশিশু। বেশিরভাগ যুদ্ধশিশুকেই বিজয়ের পর কানাডা, সুইডেন ও নরওয়েতে পুনর্বাসন করা হয়েছিল। সেই সামাজিক অবস্থান এবং অন্যান্য পারিপার্শ্বীকতা বিবেচনা করে বঙ্গবন্ধু যুদ্ধশিশুদেরকে বিদেশে পুনর্বাসনের পক্ষে ছিলেন। যুদ্ধশিশুদের ভবিষ্যত নিয়ে শেখ মুজিবের সঙ্গে দেখা করেছিলেন নীলিমা ইব্রাহিম। জবাব পেলেন, ‘না আপা। যে সব বাচ্চার বাবার পরিচয় নেই, তাদের বিদেশে পাঠিয়ে দিন। মানুষ হিসেবে ওরা স্বসন্মাণেই বড় হোক।’ বাংলাদেশের এই অবস্থার কথা বুঝে কয়েকটি দেশ সাহায্যের হাত বাড়ায় সেদিন। বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন

 

  • দুই বীরঙ্গনার কথা - (ইত্তেফাক: ১৫/০১/২০১২)

পাকবাহিনী ও রাজাকার সদস্যরা আমাকে সবার সামনে থেকে ধরে নিয়ে গেলো। তারা প্রথমে আমার চোখ বাঁধলো। তারপর একটি নৌকায় উঠালো। নিয়ে গেলো তাদের ক্যাম্পে। প্রায় একমাস সেই ক্যাম্পে রেখে আমার উপর নানা রকম শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন চালায়। কোনো একদিন সেই ক্যাম্প থেকে একদল মুক্তিযোদ্ধা আমাকে উদ্ধার করে। তারপর কেটে গেছে চল্লিশ বছর। কিন্তু আমার শরীর থেকে মুছে যায় নি পাকবাহিনী ও রাজাকারের নোখের আঁচড়ের দাগ’। চোখের জ্বল মুছতে মুছতে এভাবে মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি বর্ণনা করছিলেন মুক্তিযুদ্ধের এক বীরাঙ্গানা কাকনবালা। বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন

 

  • এক বীর পরিবারের গল্প - (ইত্তেফাক: ১৫/০১/২০১২)

মুক্তিযোদ্ধাদের প্রশিক্ষণ ক্যাম্পে খাবার সরবারহ করাই ছিল তাঁদের প্রথম কাজ। মুক্তিযোদ্ধাদের প্রশিক্ষণ প্রদানের দায়িত্বে থাকা অবসরপ্রাপ্ত সৈনিক মীর তোজেস্বর আলী ছিলেন অঞ্জলীদের পূর্ব পরিচিত। তাঁর কাছ থেকেই আত্মরক্ষার কৌশল রপ্ত করেন অঞ্জলী গুপ্তা রায়। বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন

 

  • ইন্ধিরা গান্ধী - (ইত্তেফাক: ১৫/০১/২০১২)

১৯১৭ সালের ১৯ নভেম্বর জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর বাবা ছিলেন ভারতবর্ষের স্বাধীনতা সংগ্রামের অন্যতম পুরোধা এবং স্বাধীন ভারতের সবচেয়ে বেশি সময় ধরে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালনকারী পন্ডিত জওহরলাল নেহেরু এবং মা ছিলেন কমলা দেবী। ১৯৩৪-৩৫ সালে বিদ্যালয় পাঠ সম্পন্ন করে তিনি শান্তিনিকেতন বিদ্যালয়ে যোগদান করেন। এ সময় রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরই ইন্দিরার ‘প্রিয়দর্শিনী’ নামটি রাখেন। বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন

 

  • প্রয়োজন অনুসন্ধান ও স্বীকৃতি - (ইত্তেফাক: ১৫/০১/২০১২)

মুক্তিযুদ্ধে নারীদের, নারী যোদ্ধাদের অংশগ্রহণ এবং অবদান অনস্বীকার্য। কিন্তু পরিতাপের বিষয় মুক্তির এই সংগ্রামে আমরা আমাদের নারী বীরদেরকে সনাক্ত করতে পারিনি আজো। তাই বলে সম্মুখ সমর এবং যোদ্ধাদের সহযোগী নারীদের সংখ্যা কম নয়। বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন

 

  • এ কেমন স্বাধীনতা - (ইত্তেফাক: ১৫/০১/২০১২)

পাকিস্তানের শাসক গোষ্ঠীর বিরদ্ধে রুখে দাঁড়ানো জিন্নাত আলী সারা জীবন অন্যায়-অবিচারের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়ে সাহসী প্রতিবাদ করেছেন। সেই জিন্নাত আলীকেই নিজের কন্যার সম্ভ্রম রক্ষা করতে গিয়ে প্রাণ দিতে হলো এই একুশ শতকে। বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন

 

  • ৭১ এর বন্ধু: স্যালি উইলোবি - (ইত্তেফাক: ১৫/০১/২০১২)

নিজ দেশ আমেরিকার পররাষ্ট্র নীতির বিরোধিতা করে বাংলাদেশের স্বাধীনতার পক্ষে অবস্থান গ্রহণকারীদের মধ্যে স্যালি উইলোবি একজন। ‘সেই সময় আমরা সমগ্র আমেরিকা জুড়ে শত শত ছোট গ্রুপে আন্দোলনের প্রস্তুতি নিচ্ছিলাম। আর আমাদেরকে জানানো হয়েছিলো আন্দোলনের পরিণতি হবে জেলের ঘানি। আমরাও জানিয়ে দিয়েছিলাম, আটক করেন তবুও আমরা অন্যায় মেনে নেবো না।’ মানবতার ডাকে সাড়া দিয়েছেন তিনি। বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন

 

  • ৯ ডিসেম্বর বিশ্ব রোকেয়া দিবস হে মাধবী দ্বিধা কেন - (ইত্তেফাক: ১৫/০১/২০১২)

আমরা নিজেদের জন্য যাবতীয় অভিসম্পাত ‘রিজার্ভ’ করিয়া রাখিয়াছি, আমরা সময়ের গতির সহিত সমপদক্ষেপে নড়িব না। আমরা শপথ করিয়া বসিয়া আছি যে, আজানের শব্দ শুনিয়া শয্যা ত্যাগ করিব না। কিন্তু তাহা যে আর হইবে না। ভগিনীগণ! আপনারা স্বীয় কারাগারের ক্ষুদ্র ছিদ্র পথ দিয়া উঁকি মারিয়া একবার বাহিরের জগত্ দেখুন দেখি!... মাতা, ভগিনী কন্যে— আর ঘুমাইও না— উঠ। বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন

 

  • শুভক্ষণে প্রমীলা ক্রিকেট - (ইত্তেফাক: ১৫/০১/২০১২)

চীনের মাটিতে চমক দেখানোর পর এবার দেশের মাটিতেই বাংলাদেশ প্রমীলা ক্রিকেট একাদশ আন্তর্জাতিক অঙ্গণে নিজেদের স্থান পাকাপোক্ত করলো। গত বৃহস্পতিবার দেশের মাটিতে যুক্তরাষ্ট্র প্রমীলা ক্রিকেট একাদশকে হারানোর মধ্য দিয়ে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে বাংলাদেশ ওয়ানডে খেলার মর্যাদা লাভ করে অর্থাত্ এখন বাংলাদেশের প্রমীলা ক্রিকেট আইসিসি’র এলিট শেণীভুক্ত। বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন

 

  • ইউসুফ জাইমালালা: শিশু শান্তি পুরস্কারে মনোনীত - (ইত্তেফাক: ১৫/০১/২০১২)

বর্তমানে ক্লাস এইটে পড়ছে মালালা। ৪২টি দেশের ৯৩ জন প্রতিযোগীকে পিছনে ফেলে এই শান্তি পুরস্কার জন্য আজ সে মনোনয়ন লাভ করেছে। ইউসুফজাই মালালার বাড়ি পাকিস্তানের সোয়াত এলাকায়। মালালার লেখাটি ছিল তার লেখা জীবনের প্রথম ডায়রী। তাতে সে লিখেছিল, তাদের প্রিন্সিপাল শীতকালীন ছুটি উপলক্ষে স্কুল বন্ধ ঘোষণা করলেও কবে খুলবে তা উল্লেখ করেননি কারণ সে সময় তালেবানেরা সোয়াত উপত্যকায় মেয়েদের শিক্ষা নিষিদ্ধ করে তোলে। বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন

 

  • চলছে নারী নির্যাতন পক্ষ - (ইত্তেফাক: ১৫/০১/২০১২)

প্রতি মুহূর্তে নির্যাতিত হচ্ছে নারী, অপমানিত হচ্ছে নারীসত্তা প্রশ্নবিদ্ধ আমাদের মূল্যবোধের অস্তিত্ব। নারী নির্যাতন প্রতিরোধে ১৯৯৯ সালের ১৭ নভেম্বর জাতিসংঘের সাধারণের পরিষদে ২৫ নভেম্বরকে আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ দিবস হিসেবে পালনের ঘোষণা দেয়া হয়। বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন

 

  • ৩ ডিসেম্বর বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস: নিজে সচেতন হই অন্যকে সচেতন করি - (ইত্তেফাক: ১৫/০১/২০১২)

অটিজম হচ্ছে মানবমস্তিষ্কের বিন্যাসগত বা বিকাশগত সমস্যা, যার লক্ষণ শিশুর জন্মের ৩ বছরের মধ্যে প্রকাশ পায়। অটিজমে আক্রান্ত প্রায় সকল শিশুদের ৩টি সাধারণ বৈশিষ্ট্য থাকে। যেমন- মৌখিক ও অমৌখিক যোগাযোগে সমস্যা, বয়স অনুযায়ী সামাজিক আচরণে  সমস্যা, খেলাধুলায় বিশেষ করে কল্পনানির্ভর খেলাধুলায় সমস্যা। বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন

 

  • আলোর মিছিল ধেয়ে আসে ওই - (ইত্তেফাক: ১৫/০১/২১২)

বিয়ে নামক সামাজিক চুক্তির মধ্য দিয়ে স্বীকৃতি পায় নারী আর পুরুষের মধুর সম্পর্ক। এই দিক দিয়ে বিয়েকে আধুনিক সমাজের ভিত্তি বলা যেতে পারে যার মাধ্যমে নারী-পুরুষ পরস্পর একে অপরের ভার নেয়। এই সম্পর্কে দাবি থাকে একটি মানুষের উপর আর একটি মানুষের। আমতলীর ফারজানা ইয়াসমীন নিপা পরিবারের সম্মতিতে স্কুল শিক্ষক শওকত আলী খান হীরণের সাথে বিয়ের পীড়িতে বসেছিলেন। বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা শেষে সানাইয়ের রোশনায় থেমে যাওয়ার পর হীরণের ফুঁফু কন্যা পক্ষের কাছে টিভি, ফ্রিজ, মোটরসাইকেলসহ যৌতুক দাবি করে।  বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন

 

  • তাহাকে মনে পড়ে - (ইত্তেফাক: ১৫/০১/২০১২)

বাংলা সাহিত্য এবং নারী অধিকার আদায়ের আন্দোলনের অগ্রপথিক ছিলেন বেগম সুফিয়া কামাল। তিনি একদিকে ছিলেন সুসাহিত্যিক অপরদিকে বিভিন্ন সামাজিক আন্দোলনের নেতৃত্বদানকারী নির্ভীক সৈনিক। যে সুফিয়া কামাল একদিন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম মহিলা হলের নাম বেগম রোকেয়া সাখাওয়াত্ হোসেনের নামে নামকরণের দাবি তোলেন এতোদিন পর এসে তাঁর নামেই একটি ছাত্রী হল নির্মিত হচ্ছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে। বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন

 

  • কাজল ও জননীর গল্প - (ইত্তেফাক: ১৫/০১/২০১২)

প্রতিভায়-বুদ্ধিতে সে অসাধারণ- এজন্যেই তার স্বাক্ষর দেখা যায় অবশ্যই লেখালেখিতে এবং নাট্যকার, পরিচালক, চলচিত্র নির্মাতা, গীতিকারসহ নানা নামের মাঝে। তার প্রতিভায় ছায়াতে বেড়ে উঠে ভাই-বোনগুলোও মানুষ হয়ে উঠেছে। এমন একটা পরিবেশে থেকে সে নিজেকে গড়েছে যেখানে খারাপ হবার সম্ভাবনাই বেশি ছিল। আমি চাই সবার দোয়া ও শুভ কামনায় আমার ছেলে দেশে ফিরে আসুক সুস্থ শরীরে।’ এই মায়ের আকাঙ্খা আজ সারাদেশের মানুষের হূদয়ের কথা হয়ে বাজছে। প্রতিভাবান এই শিলীর জন্য রইল অশেষ শুভেচ্ছা ও আশু রোগমুক্তির শুভকামনা। বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন

 

  • প্রয়োজন পথের বন্ধু - (ইত্তেফাক: ১৫/০১/২০১২)

গাবতলী থেকে ভিলেজ লাইন পরিবহনে করে সাভার যাবার সময় একব্যক্তি ডিবি পরিচয় দিয়ে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এক শিক্ষিকাকে মাদক ব্যবসায়ী বলে অভিযুক্ত করে বাস থেকে নামিয়ে ব্যাগ তল্লাশি করার কথা বলে। বাসসুদ্ধ লোকদেরকে নিশ্চুপ দেখে এক পর্যায়ে অনেকটা ঘাবড়ে গিয়ে বাস থেকে নামেন তিনি। বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন

 

  • সানডিয়াগো বিশ্ববিদ্যালয়ের এলিজাবেথ - (ইত্তেফাক: ১৫/০১/২০১২)

উন্নত বিশ্বে কর্মজীবী নারীদের কর্মক্ষেত্রের পরিবেশ, তাদের সুবিধা-অসুবিধা সম্পর্কে কথা হচ্ছিল আমেরিকার ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যের সানডিয়াগো স্টেট ইউনিভার্সিটির বায়োলজি বিভাগের প্রফেসর ড. এলিজাবেথ ওয়াটারসের সাথে। তিনি ১৯৯৩ সালে ওয়াশিংটন ইউনিভার্সিটি থেকে ‘পপুলেশন এন্ড এভাল্যুয়েশনারী বায়োলজী’ বিষয়ে তার ডক্টরেট সম্পন্ন করেছেন। বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন

 

 

 

 

 

 

 


২৫ বছরে ১৮ সন্তানের জননী!
সর্বপ্রথম পোর্টেবল দ্বীপ
বিদেশিনীর বাংলা প্রেম
জুতার গাছ!
exam
নির্বাচিত প্রতিবেদন
exam
সুমাইয়া শিমু
পিয়া বিপাশা
প্রিয়াংকা অগ্নিলা ইকবাল
রোবেনা রেজা জুঁই
বাংলা ফন্ট না দেখা গেলে মোবাইলে দেখতে চাইলে
how-to-lose-your-belly-fat
guide-to-lose-weight
hair-loss-and-treatment
how-to-flatten-stomach
fat-burning-foods-and-workouts
fat-burning-foods-and-workouts
 
সেলিব্রেটি