পূর্ববর্তী লেখা    পরবর্তী লেখা
পুরো লিস্ট দেখুন

অ্যাজমা প্রতিরোধেই প্রতিকার

হাঁচি, কাশি, অ্যাজমা এবং অ্যালার্জি মূলত একই ধরনের রোগেরই ভিন্ন ভিন্ন বহিঃপ্রকাশ। একই ব্যক্তির সব সমস্যাই থাকতে পারে অথবা এক বা একাধিক সমস্যা দেখা দেয়। তবে সাধারণত পরিবারের সদস্যদের তথা রক্তের সম্পর্কের নিকটাত্মীয়দের মধ্যে এই সমস্যাগুলো খুঁজে পাওয়া যায়। অ্যাজমা রোগ নির্ণয় একজন বিশেষজ্ঞের জন্য সবচেয়ে সহজ হয়ে যায়, যদি পজিটিভ পারিবারিক ইতিহাস পাওয়া যায়। কিন্তু সম্ভবত ৯০ শতাংশ রোগীই প্রথমে সঠিক জবাব দেন না।

এর কারণটা হলো ‘অ্যাজমা’ সম্পর্কে সাধারণ মানুষের অজ্ঞতা এবং ভুল ধারণা। বেশির ভাগ মানুষের ধারণা হলো, ‘একজন রোগী প্রচণ্ড শ্বাসকষ্টে যখন হাঁপাতে থাকে’, তা-ই হাঁপানি। কিন্তু ‘অল্প শ্বাসকষ্ট, বুক চাপ ধরে থাকা, কাশি, হাঁচি, নাক ও চোখ দিয়ে পানি ঝরা ইত্যাদিকে তারা মনে করেন ঠান্ডা লাগা। অথচ এ ধরনের সমস্যাগুলোই হলো অ্যাজমার বিভিন্ন রূপ।

এগুলোর যখন যথাযথ চিকিৎসা না করা হয় অথবা ভুল চিকিৎসা করা হয়, তখন রোগী একপর্যায়ে প্রচণ্ড শ্বাসকষ্ট ও কাশি নিয়ে চিকিৎসকের শরণাপন্ন হন এবং অনেক ক্ষেত্রে রোগীর মৃত্যু ঘটে থাকে। আবার অনেক শিক্ষিত মানুষ আছেন, যাঁরা জেনেশুনে অ্যাজমার ব্যাপারটা গোপন করার চেষ্টা করেন। তাঁরা এটাকে বংশমর্যাদার জন্য কলঙ্কজনক বিষয় বলে চিন্তা করেন। বিশেষত, অবিবাহিত মেয়েদের ক্ষেত্রে অনেকেই ‘অ্যাজমা’ শব্দটা শুনতেই চান না।

তাঁদের ধারণা, কোনো মেয়ের অ্যাজমা থাকলে তা বিয়ের পথে অন্তরায় হয়ে দাঁড়াবে। তাই যেভাবে হোক মেয়ের বিয়ের আগ পর্যন্ত ব্যাপারটা গোপন রাখতে হবে এবং বিয়ের পরে রোগ দেখা দিলেও মেয়ের বংশে এই রোগ কারো কখনো ছিল না বলে প্রচার করতে হবে। কিন্তু তাঁরা যদি বাস্তবতাকে মেনে নিয়ে প্রথম থেকেই অ্যাজমার চিকিৎসা শুরু করেন, তবে জীবনটা অনেক সুন্দর ও সহজ হয়ে যায়। যদিও বলা হয়, অ্যাজমা রোগ নিরাময়যোগ্য নয়, তবুও প্রতিরোধযোগ্য কথাটা এখন বাস্তবতা খুঁজে পেয়েছে।

অ্যাজমা চিকিৎসায় এই সফলতার কথা এখনো বাংলাদেশের ৮০ ভাগ জনগোষ্ঠীর কাছে অজ্ঞাত। তারা কুসংস্কার, কুধারণা আর অপচিকিৎসার শিকার। দেশের প্রতিটি প্রান্তে অসংখ্য শিশু, নারী-পুরুষ প্রতিদিন শ্বাসকষ্টের কারণে দুর্বিষহ জীবনযাপন করছে। বিনিদ্র রজনী কাটছে কত মা-বাবার এবং রোগীদের আত্মীয়স্বজনের। তাঁদের জন্য চাই প্রশান্তি ভরা শ্বাস।

বাংলাদেশ অ্যাজমা অ্যাসোসিয়েশনের হিসাব অনুযায়ী, দেশে অ্যাজমা রোগীর সংখ্যা প্রায় ৭০ লাখ। একই পরিসংখ্যান অনুযায়ী এদের শতকরা ১০ ভাগের কম রোগী অ্যাজমার আধুনিক চিকিৎসা সম্পর্কে অবগত। তাই আজ সবচেয়ে বড় প্রয়োজন অ্যাজমা সম্পর্কে গণসচেতনতা সৃষ্টি করা। এর জন্য শুধু সরকারিভাবেই নয়, এগিয়ে আসতে হবে বিভিন্ন সংগঠক, এনজিও, ওষুধ কোম্পানিসহ দেশে স্বাধীন মনের চিকিৎসকদের।..

 
আরো পড়ুন
 

নামসংক্ষিপ্ত বিবরণ
আপনার মুখে দুর্গন্ধ? লবঙ্গ দিয়ে মাত্র ১০ মিনিটে দূর করুন মুখের দুর্গন্ধজেনে নিন কিভাবে কিভাবে দূর করবেন আপনার মুখে দুর্গন্ধ
৩ টাকা দিয়ে ফলটি কিনুন !! এই একটি ফলের রসেই গলবে কিডনির পাথর।বিস্তারিত ভিতরে পড়ুন
ক্যানসার-তেজস্ক্রিয়তাও প্রতিরোধ করে সাদা তিল! রয়েছে আরও বহু উপকারিতাবিস্তারিত পড়ুন ক্যানসার-তেজস্ক্রিয়তাও প্রতিরোধ করে সাদা তিল! রয়েছে আরও বহু উপকারিতা
যে কারণে ক্রুসিফেরি পরিবারের সবজি খাওয়া ভালোবিস্তারিত পড়ুন যে কারণে ক্রুসিফেরি পরিবারের সবজি খাওয়া ভালো
খাওয়ার পর একটু হাঁটার সুফলবিস্তারিত পড়ুন খাওয়ার পর একটু হাঁটার সুফল
পর্যাপ্ত ফল ও সবজি না খেলে যা হয়বিস্তারিত পড়ুন পর্যাপ্ত ফল ও সবজি না খেলে যা হয়
যে সকল সুস্বাদু খাবার আপনার শরীরের মেদবৃদ্ধি করবে নাবিস্তারিত পড়ুন যে সকল সুস্বাদু খাবার আপনার শরীরের মেদবৃদ্ধি করবে না
এবার চিরকালের জন্য কোমরের ব্যথা দূর করার জাদুকরি উপায় জেনে রাখুনবিস্তারিত পড়ুন এবার চিরকালের জন্য কোমরের ব্যথা দূর করার জাদুকরি উপায় জেনে রাখুন
জিরা খেয়ে ১৫ দিনে মেদচর্বি একদম ঝরিয়ে ফেলুনজিরা খেয়ে ১৫ দিনে মেদচর্বি একদম ঝরিয়ে ফেলুন! জেনে নিন কখন, কি ভাবে খাবেন?
শিশুদেরকে বাহু ধরে ঘোরানো ঠিক নয়বিস্তারিত পড়ুন শিশুদেরকে বাহু ধরে ঘোরানো ঠিক নয়
আরও ১২৭৯ টি লেখা দেখতে ক্লিক করুন
২৫ বছরে ১৮ সন্তানের জননী!
সর্বপ্রথম পোর্টেবল দ্বীপ
বিদেশিনীর বাংলা প্রেম
জুতার গাছ!
exam
নির্বাচিত প্রতিবেদন
exam
সুমাইয়া শিমু
পিয়া বিপাশা
প্রিয়াংকা অগ্নিলা ইকবাল
রোবেনা রেজা জুঁই
বাংলা ফন্ট না দেখা গেলে মোবাইলে দেখতে চাইলে
how-to-lose-your-belly-fat
guide-to-lose-weight
hair-loss-and-treatment
how-to-flatten-stomach
fat-burning-foods-and-workouts
fat-burning-foods-and-workouts
 
সেলিব্রেটি