পূর্ববর্তী লেখা    পরবর্তী লেখা
পুরো লিস্ট দেখুন

হাতের আঘাতের চিকিৎসা কী

বিভিন্ন কারণে হাতের আঘাতের ঘটনা ঘটতে পারে।

প্রশ্নঃ হাতের আঘাত বা ইনজিউরড হ্যান্ড আমরা কখন বলব?

উত্তরঃ হাত বলতে আমরা বুঝি রিস্ট জয়েন্ট থেকে একদম নখ পর্যন্ত। এটুকু জায়গা হলো হাত। তবে যদি ফাংশনাল জায়গা চিন্তা করি, তাহলে একেবারে মস্তিষ্কের অংশ থেকে শুরু করে একেবারে হাতের সম্পূর্ণ অংশ পর্যন্ত। এখন মস্তিষ্ক যদি ঠিকমতো কাজ না করে বা এখান থেকে সিগনাল মস্তিষ্কে না যায় বা না আসে, তাহলে আমরা হাতের কার্যক্রম পুরোপুরি করতে পারব না।

প্রশ্নঃ হাতের আঘাতে কখন চিকিৎসকের কাছে যেতে হবে?

উত্তরঃ আগেই বললাম কবজি থেকে হাতের নখ পর্যন্ত কোনো আঘাত হলে আমরা হাতের আঘাত বলব। কিন্তু সব আঘাতের ক্ষেত্রেই যে চিকিৎসকের কাছে যেতে হবে বিষয়টি সেটি নয়।

কাদের হাতের আঘাত সবচেয়ে বেশি? আমরা জানি মেশিনারি ইনজুরি সবচেয়ে বেশি জটিল অবস্থায় হয়। মেশিনারির কারণে যেই হাতগুলো আঘাতপ্রাপ্ত হয় সেসবের চিকিৎসা দেওয়াও আমাদের জন্য কঠিন। কারণ এখানে ত্বক, নরম টিস্যু এবং এর ভেতরে যে হাড়গুলো আছে সবগুলো আহত হয়। সঙ্গে রক্তনালিও ক্ষতিগ্রস্ত হয়। হাত কেটে গেলেও আমরা হ্যান্ড ইনজুরি বলব। কিন্তু সেটার জন্য আমরা প্রাইমারি এইড, প্রাথমিক চিকিৎসা বিভিন্ন জায়গা থেকে নিতে পারি। কিন্তু হাতের ক্ষেত্রে আমাদের স্নায়ুর ব্যবস্থাপনা একটু ভিন্ন। সবার পক্ষে এই ব্যবস্থাপনা ঠিক করা সম্ভব নয়। কারণ, হাতের টেনডনগুলো একটি ট্যানেলের ওপর দিয়ে যায়। টেনডন যদি ঠিকঠাক না করা হয়, তাহলে আঘাত পাবে। একই ক্ষেত্রে স্নায়ুও যদি ঠিক করা না হয়, তাহলে কার্যক্রম হবে না। এই ক্ষেত্রে আমরা অবশ্যই বলব হ্যান্ড সার্জন, অথবা চিকিৎসক দিয়ে আঘাতগুলো ঠিক করতে হবে।

এরপর বলি হাড়ের আঘাত নিয়ে। যদি ভালোভাবে টেনডন, স্নায়ুগুলোকে বসানো না হয় তাহলে কার্যক্রম ঠিকভাবে হবে না। এই ক্ষেত্রে খুব ছোট জিনিসগুলোও যেন ভালোভাবে ঠিক করা যায় সেই জিনিসগুলো খেয়াল করি। অন্য দিকে যদি খুব জটিল মেশিনারি ইনজুরি হয়, যেমন হাত যদি ক্রাশ হয়ে যায়, যদি দেখা যায় হাড়, টেনডন, স্নায়ু সবকিছুই ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে গেছে, সে ক্ষেত্রে আমরা দেখব হাতটা কতটুকু পর্যন্ত রাখা সম্ভব। সে ক্ষেত্রে যতটুতু রাখা সম্ভব, সেটুকু রেখে ঠিক করার সিদ্ধান্ত নেই, যতটুকু সম্ভব। কারণ, বলা হয় সময়ের এক ফোঁড়, অসময়ের দশ ফোঁড়ের সমান। যদি ঠিকমতো চিকিৎসা করতে না পারি, হাতটা অকার্যকর হয়ে যাবে। সে ক্ষেত্রে মৃত একটা হাত হিসেবে থাকবে। হাত হয়তো থাকবে, তবে হাতের কোনো কাজ আমরা করতে পারব না। হাত যদি কাজ না করে সেটি কিন্তু আর হাত থাকবে না।

শরীরে হাতকে বলা হয় সেকেন্ড আই। কারণ, একজন অন্ধ দেখবেন হাত দিয়েই সে চোখের কাজ করে। অনুভব করে করে সে চলাফেরা করছে। আবার হাতের সমস্ত কাজও সে করছে। কিন্তু একটি হাত যদি না থাকে আমরা কিছুই করতে পারি না। খুব গুরুতর কোনো আঘাত হলে বিশেষজ্ঞ হ্যান্ড সার্জনের কাছে যাওয়া হয় এবং সে অনুযায়ী যেন চিকিৎসা করা হয়।

প্রশ্নঃ আপনি যে ধরনের আঘাতগুলোর কথা বলছেন, সেগুলো কেন হতে পারে?

উত্তর : আমরা আগেই বলেছি যে মেশিনারি ইনজুরি। হালকা মেশিনারি আঘাত হতে পারে বা ভারী মেশিনারি আঘাত হতে পারে। আমাদের দেশ দিনদিন উন্নতি করছে। আমাদের কলকারখানা রয়েছে। প্রচুর কলকারখানা রয়েছে। পুরান ঢাকায় প্রচুর প্লাস্টিক কারখানা রয়েছে। এই অপরিকল্পিত কারখানাগুলোতে সবচেয়ে বেশি আহত হয়। সচেতনতা ও সতর্কতার অভাবে এটি হয়। ছোট ছোট বাচ্চারা, ১৪-১৫ বছরের ছেলেরা যখন প্লাস্টিক কারখানায় কাজ করতে যায় তারা জানে না, কতটুকু সতর্কতা দরকার। এক সেকেন্ডের ভুলের জন্য তার হাতটা কেটে ফেলতে হতে পারে বা ওখানেই মেশিনের আঘাতের জন্য হাত কেটে পড়ে যাচ্ছে। অনেক সময় আমরা দেখি যখন ধান মাড়াই করছে, মাড়াই কলে অসতর্কতাবশত হাত চলে যাচ্ছে। অসতর্কতার কারণে এগুলো বেশি হচ্ছে।

কারা আঘাত পাচ্ছে? যারা দিনমজুর। দিনেরটা এনে দিনেরটা খায়। শ্রমিক। এই শ্রেণির লোকগুলোই বেশি আহত হচ্ছে।

এ ছাড়া যেমন নারীরা বাসায় গৃহস্থালির যাবতীয় কাজ করে। তারা যেকোনো সময় ছুরি দিয়ে হাত কেটে ফেলছে। দুর্ঘটনাবশত একটি গ্লাস যদি হাতের ওপর পড়ে, তাহলে সে ক্ষেত্রে স্নায়ু বা টেনডন আঘাতপ্রাপ্ত হচ্ছে। গাড়ি দুর্ঘটনাতেও এটি হতে পারে।

প্রশ্নঃ এই ধরনের আঘাতের ক্ষেত্রে চিকিৎসার ব্যাপারগুলো কী?

উত্তর : চিকিৎসা নির্ভর করে কোন ধরনের আঘাত হয়েছে তার ওপর। যদি একটি গ্লাসে কাটা আঘাত বা ছুরিতে কাটা আঘাত আসে, তাহলে এগুলোকে আমরা ভালো আঘাত বলি। এগুলো হলো ক্লিন কাট। মানে এখনো জীবাণু দিয়ে সংক্রমিত হয়নি। সে ক্ষেত্রে যে রগ বা নার্ভটা কেটে গেছে, আমরা যত তাড়াতাড়ি সম্ভব ঠিক করে, ফিজিওথেরাপি দিই বা রিহ্যাবিলেশনে চলে যাই। কিন্তু যেগুলো গুরুতর আঘাত, সংক্রমিত বা কোনো অংশ হারিয়ে ফেলেছে, যেগুলো রাখা সম্ভব। যেগুলো মৃত হয়ে গেছে, আমরা এগুলো ফেলে দিই। ফেলে দেওয়ার পর বিভিন্নভাবে আমরা পুনরায় ঠিক করতে পারি। প্রতিস্থাপন বলতে শরীরের যে অংশটি নেই, সেই অংশকে তৈরি করা। ধরুন, একটি হাতের কথা যদি চিন্তা করি, এখানে থাম্ব (বৃদ্ধাঙ্গুলি) হয়তো কেটে গেল। এটি ছাড়া হাতের কার্যক্রম ৪০ থেকে ৫০ ভাগ কমে যায়। ওই ক্ষেত্রে আমরা থাম্বকে আবার তৈরি করব। নতুন করে তৈরি করতে গেলে আমরা আগেই বলেছি এখানে হাড় আছে, টেনডন আছে, ত্বক আছে। এ ক্ষেত্রে অতিরিক্ত হাড় ও চামড়া রয়েছে। এটা প্রতিস্থাপন করা সম্ভব। হয়তো আমরা কোমরের থেকে হাড়, মাংস, চামড়া নিয়ে তৈরি করতে পারি। অথবা আরো অত্যাধুনিক প্রযুক্তির সাহায্যে পায়ের আঙুল থেকে নিয়ে আমরা হাতে লাগিয়ে দিতে পারি। পায়ের আঙুল থেকে নিয়ে হাতের আঙুল তৈরি করা অনেক বেশি সফস্টিকেটেট। আমাদের দেশে এখনো ওই পর্যায়ে আমরা যেতে পারিনি। কিন্তু অন্য জায়গা থেকে যেমন কোমরের থেকে হাড়, মাংস বা চামড়া নিয়ে থাম্বে প্রতিস্থাপন করা হয়।

প্রশ্নঃ সেই ক্ষেত্রে কি কার্যক্ষমতা পুরোপুরি ফিরে পাবে?

উত্তরঃ আমি আগেই বলেছি বুড়ো আঙুল হারিয়ে গেলে ৪০ থেকে ৫০ ভাগ হারিয়ে যায়। সে ক্ষেত্রে পুরোপুরি ফিরে না পেলেও ২০ থেকে ৩০ ভাগ কাজ করতে পারে। নিত্যনৈমিত্তিক যেই কাজগুলো করা দরকার। সেগুলো সে করতে পারবে। যাদের কাজের ক্ষেত্রে বুড়ো আঙুল দরকার হয়, তাদের সেটা চলে গেলে কিন্তু সেটা আর করতে পারব না। এই যে আমরা সার্জন, বুড়ো আঙুল চলে গেলে কিন্তু আর সার্জারি করতে পারব না। যদি তাকে বুড়ো আঙুল ফিরিয়ে দেওয়া যায়, তাহলে কাজের ক্ষেত্রে অনেক দূর এগিয়ে দিতে পারব।.

 
আরো পড়ুন
 

নামসংক্ষিপ্ত বিবরণ
আপনার মুখে দুর্গন্ধ? লবঙ্গ দিয়ে মাত্র ১০ মিনিটে দূর করুন মুখের দুর্গন্ধজেনে নিন কিভাবে কিভাবে দূর করবেন আপনার মুখে দুর্গন্ধ
৩ টাকা দিয়ে ফলটি কিনুন !! এই একটি ফলের রসেই গলবে কিডনির পাথর।বিস্তারিত ভিতরে পড়ুন
ক্যানসার-তেজস্ক্রিয়তাও প্রতিরোধ করে সাদা তিল! রয়েছে আরও বহু উপকারিতাবিস্তারিত পড়ুন ক্যানসার-তেজস্ক্রিয়তাও প্রতিরোধ করে সাদা তিল! রয়েছে আরও বহু উপকারিতা
যে কারণে ক্রুসিফেরি পরিবারের সবজি খাওয়া ভালোবিস্তারিত পড়ুন যে কারণে ক্রুসিফেরি পরিবারের সবজি খাওয়া ভালো
খাওয়ার পর একটু হাঁটার সুফলবিস্তারিত পড়ুন খাওয়ার পর একটু হাঁটার সুফল
পর্যাপ্ত ফল ও সবজি না খেলে যা হয়বিস্তারিত পড়ুন পর্যাপ্ত ফল ও সবজি না খেলে যা হয়
যে সকল সুস্বাদু খাবার আপনার শরীরের মেদবৃদ্ধি করবে নাবিস্তারিত পড়ুন যে সকল সুস্বাদু খাবার আপনার শরীরের মেদবৃদ্ধি করবে না
এবার চিরকালের জন্য কোমরের ব্যথা দূর করার জাদুকরি উপায় জেনে রাখুনবিস্তারিত পড়ুন এবার চিরকালের জন্য কোমরের ব্যথা দূর করার জাদুকরি উপায় জেনে রাখুন
জিরা খেয়ে ১৫ দিনে মেদচর্বি একদম ঝরিয়ে ফেলুনজিরা খেয়ে ১৫ দিনে মেদচর্বি একদম ঝরিয়ে ফেলুন! জেনে নিন কখন, কি ভাবে খাবেন?
শিশুদেরকে বাহু ধরে ঘোরানো ঠিক নয়বিস্তারিত পড়ুন শিশুদেরকে বাহু ধরে ঘোরানো ঠিক নয়
আরও ১২৭৯ টি লেখা দেখতে ক্লিক করুন
২৫ বছরে ১৮ সন্তানের জননী!
সর্বপ্রথম পোর্টেবল দ্বীপ
বিদেশিনীর বাংলা প্রেম
জুতার গাছ!
exam
নির্বাচিত প্রতিবেদন
exam
সুমাইয়া শিমু
পিয়া বিপাশা
প্রিয়াংকা অগ্নিলা ইকবাল
রোবেনা রেজা জুঁই
বাংলা ফন্ট না দেখা গেলে মোবাইলে দেখতে চাইলে
how-to-lose-your-belly-fat
guide-to-lose-weight
hair-loss-and-treatment
how-to-flatten-stomach
fat-burning-foods-and-workouts
fat-burning-foods-and-workouts
 
সেলিব্রেটি