পূর্ববর্তী লেখা    পরবর্তী লেখা
পুরো লিস্ট দেখুন

বহুমাত্রিক ঔষধি ‘আকন্দ’

বহুবর্ষজীবী গুল্মজাতীয় গাছ আকন্দ। এর পাতা, ছাল-বাকল ও মূল ওষুধ হিসেবে ব্যবহার হয়। হজমের সমস্যা, ডায়রিয়া, কোষ্ঠকাঠিন্য ও পাকস্থলীর আলসার সারাতে আকন্দের ব্যবহার চোখে পড়ে। দাঁতের ব্যথা, ঠাণ্ডা বা অতিরিক্ত পরিশ্রমে মাংসপেশি সংকুচিত হয়ে যাওয়া সারাতেও এটা কাজে লাগে। অনেকে সিফিলিস, ফোঁড়া, বিভিন্ন প্রদাহ, মৃগী রোগ, হিস্টিরিয়া, জ্বর, খিঁচুনি, কুষ্ঠরোগ, সাপের কামড়, আঁচিল দূর করতে আকন্দ বেছে নেন। আকন্দের আরো কিছু লোকজ ব্যবহার দেখে নেয়া যাক—

শ্বাসকষ্টেঃ

কফ, হাঁপানি থেকে মুক্তি পেতে এর ছালবাকলের ধোঁয়া শ্বাসের মাধ্যমে টেনে নিতে পারেন। আকন্দের রাসায়নিক উপাদান দ্রুত শ্লেষ্মা তরল করে। সহজে কফ দূর করে।

সাপের কামড় থেকে মুক্তি পেতেঃ

সাপে কামড়ানো স্থানে আকন্দের কিছু পাতা চিবিয়ে লাগিয়ে দিন। পাশাপাশি এর মূল চিপে রস বের করে আক্রান্ত স্থানে লাগাতে পারেন। অন্যান্য ক্ষতিকর কীটপতঙ্গের কামড় থেকে মুক্তি পেতে একই পদ্ধতি অনুসরণ করতে পারেন।

জ্বর সারাতেঃ

আকন্দের রস বের করে নিন। এবার সমপরিমাণ মধু মিশিয়ে খেয়ে নিন। শরীরের তাপমাত্রা দ্রুত নেমে আসবে।

অন্ত্রের প্রদাহেঃ

পাকস্থলীতে যন্ত্রণা হচ্ছে? এবার তাহলে আকন্দ পাতার রস মধুর সঙ্গে মিশিয়ে খেতে পারেন। ব্যথা কমে যাবে। একই সঙ্গে পাকস্থলী পরিষ্কার করে ক্ষুধা বাড়িয়ে দেবে। আমাদের গ্রামাঞ্চলে পেটে জ্বালাপোড়া হলে এ পাতায় সরিষা তেল মাখিয়ে গরম করে পেটের ওপর রাখা হয়। এতে জ্বালা বন্ধ হয়ে যায়।

স্নায়ু দুর্বলতায়ঃ

আকন্দের তরল নির্যাস স্নায়বিক দুর্বলতা সারাতে সহায়তা করে। মনে প্রশান্তি আনে। এ ঔষধি শরীরে রক্ত চলাচল স্বাভাবিক করে দেয়। কর্মক্ষমতা বাড়িয়ে দেয়।

এসিডিটি সারাতেঃ

দীর্ঘদিনের এসিডিটি থেকে মুক্তি পেতে আকন্দ পোড়া ছাই পানিসহ পান করা যেতে পারে।

ফোলা কমাতেঃ

কোনো কারণে শরীরের কোনো স্থান ফুলে উঠলে আক্রান্ত স্থানে আকন্দ পাতা বেঁধে রাখতে পারেন। উপকার পাবেন।

ঘাম থেকে মুক্তি দেয়ঃ

বছরজুড়ে অনেকের হাত-পা ঘামে। এ সমস্যা সমাধানে আকন্দের ছালবাকলের ধোঁয়া শ্বাসের মাধ্যমে টেনে নেয়া যেতে পারে। এর রস দাদ, একজিমা প্রভৃতি থেকে মুক্তি দেয়।

ঘর সাজাতেঃ

শোভা বাড়াতে অনেকে আকন্দ ফুল দিয়ে ঘর সাজিয়ে থাকেন। অনেক দেশে অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ায় এ ফুল ব্যবহার করা হয়।

সতর্কতাঃ

আকন্দের অতিরিক্ত ব্যবহার নিরাপদ নয়। স্বল্পমাত্রায় ব্যবহার করা উচিত। গর্ভকালীন অবস্থায় কিংবা বুকের দুধ খাওয়াচ্ছেন এমন মায়েরা আকন্দ এড়িয়ে চলবেন। মাত্রাতিরিক্ত ব্যবহার হূদরোগ বাড়িয়ে দেয়। বমি বমি ভাব, ডায়রিয়া এমনকি মৃত্যু পর্যন্ত ডেকে আনতে পারে। তাছাড়া এর ছালবাকলের ধোঁয়া শ্বাসের মাধ্যমে টেনে নেয়া নিরাপদ কিনা তা নিয়েও বিতর্ক রয়েছে।

 
আরো পড়ুন
 

নামসংক্ষিপ্ত বিবরণ
আপনার মুখে দুর্গন্ধ? লবঙ্গ দিয়ে মাত্র ১০ মিনিটে দূর করুন মুখের দুর্গন্ধজেনে নিন কিভাবে কিভাবে দূর করবেন আপনার মুখে দুর্গন্ধ
৩ টাকা দিয়ে ফলটি কিনুন !! এই একটি ফলের রসেই গলবে কিডনির পাথর।বিস্তারিত ভিতরে পড়ুন
ক্যানসার-তেজস্ক্রিয়তাও প্রতিরোধ করে সাদা তিল! রয়েছে আরও বহু উপকারিতাবিস্তারিত পড়ুন ক্যানসার-তেজস্ক্রিয়তাও প্রতিরোধ করে সাদা তিল! রয়েছে আরও বহু উপকারিতা
যে কারণে ক্রুসিফেরি পরিবারের সবজি খাওয়া ভালোবিস্তারিত পড়ুন যে কারণে ক্রুসিফেরি পরিবারের সবজি খাওয়া ভালো
খাওয়ার পর একটু হাঁটার সুফলবিস্তারিত পড়ুন খাওয়ার পর একটু হাঁটার সুফল
পর্যাপ্ত ফল ও সবজি না খেলে যা হয়বিস্তারিত পড়ুন পর্যাপ্ত ফল ও সবজি না খেলে যা হয়
যে সকল সুস্বাদু খাবার আপনার শরীরের মেদবৃদ্ধি করবে নাবিস্তারিত পড়ুন যে সকল সুস্বাদু খাবার আপনার শরীরের মেদবৃদ্ধি করবে না
এবার চিরকালের জন্য কোমরের ব্যথা দূর করার জাদুকরি উপায় জেনে রাখুনবিস্তারিত পড়ুন এবার চিরকালের জন্য কোমরের ব্যথা দূর করার জাদুকরি উপায় জেনে রাখুন
জিরা খেয়ে ১৫ দিনে মেদচর্বি একদম ঝরিয়ে ফেলুনজিরা খেয়ে ১৫ দিনে মেদচর্বি একদম ঝরিয়ে ফেলুন! জেনে নিন কখন, কি ভাবে খাবেন?
শিশুদেরকে বাহু ধরে ঘোরানো ঠিক নয়বিস্তারিত পড়ুন শিশুদেরকে বাহু ধরে ঘোরানো ঠিক নয়
আরও ১২৭৯ টি লেখা দেখতে ক্লিক করুন
২৫ বছরে ১৮ সন্তানের জননী!
সর্বপ্রথম পোর্টেবল দ্বীপ
বিদেশিনীর বাংলা প্রেম
জুতার গাছ!
exam
নির্বাচিত প্রতিবেদন
exam
সুমাইয়া শিমু
পিয়া বিপাশা
প্রিয়াংকা অগ্নিলা ইকবাল
রোবেনা রেজা জুঁই
বাংলা ফন্ট না দেখা গেলে মোবাইলে দেখতে চাইলে
how-to-lose-your-belly-fat
guide-to-lose-weight
hair-loss-and-treatment
how-to-flatten-stomach
fat-burning-foods-and-workouts
fat-burning-foods-and-workouts
 
সেলিব্রেটি