পূর্ববর্তী লেখা    পরবর্তী লেখা
পুরো লিস্ট দেখুন

কেন্দ্রীয় পশু হাসপাতাল, ঢাকা

ঢাকা মহানগরীতে শখের বসে গৃহ-পালিত জীব-জন্তু পোষার পাশাপাশি হোটেল-রেস্তোরাসহ সাধারণের দৈনন্দিন জীবনে বিভিন্ন ধরনের মাংসের চাহিদা পূরণের নিমিত্তে হাজারো পশু-পাখি, জীব-জন্তুর আনাগোনা আছে। সময়ে সময়ে এসকল পশু-পাখি, জীব-জন্তু বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে পড়ে। তাদের রোগ নিরাময় এবং উপশমের জন্য ঢাকার প্রাণকেন্দ্রে একটি পশু হাসপাতাল আছে। যেখান থেকে অনায়াসে আপনি পশু চিকিৎসা সেবা নিতে পারেন।

 

নাম ও অবস্থান

কেন্দ্রীয় পশু হাসপাতাল,

৪৮, কাজী আলাউদ্দিন রোড, ঢাকা।

(ফুলবাড়িয়া ফায়ার সার্ভিসের পশ্চিমে এবং বঙ্গবাজারের অপজিটে একটু পশ্চিমে)

 

কেন্দ্রীয় পশু হাসপাতালের ইতিহাস

১৯২০ সালে “কেন্দ্রীয় পশু হাসপাতাল” নির্মাণ এবং কার্যক্রমের মধ্য দিয়ে এদেশে পশু চিকিৎসা কার্যক্রম শুরু হয়। তৎকালীন নবাব স্যার সলিমুল্যাহ যোগাযোগের বাহন এবং ঘোড় দৌড়ের জন্য উন্নত মানের ঘোড়া সংগ্রহ করেন। এই সকল ঘোড়া, চিত্তবিনোদনের জন্য চিড়িয়াখানায় সংগৃহীত বন্য জীবজন্তু গৃহপালিত পশু-পাখীর চিকিৎসা সেবা ও পরিচর্যার জন্য ১৯১৮ সালে ৩.০৪ একর জমি প্রাথমিকভাবে পশু হাসপাতাল নির্মাণের পরিকল্পনা করে জায়গা ওয়াকফ করেন। ১৯২০ সালে ১০০০ বর্গফুট বিশিষ্ট মূল হাসপাতাল ভবন নির্মাণের মধ্য দিয়ে কার্য্যক্রম শুরু হয়। ১৯৬৭ সালে ঢাকা শহরের ব্যাপক গবাদি পশু-পাখীর চিকিৎসার চাহিদা পুরণার্থে প্রথম পর্যায়ে ২০০০ বর্গফুট বিশিষ্ট কেন্দ্রীয় পশু-হাসপাতাল সম্প্রসারিত ভবন নির্মাণ করা হয়। ঢাকা মহানগরী ছাড়াও ইহার আশে পাশের এলাকায় পশু-চিকিৎসা/সেবা কার্য্যক্রমের চাহিদা মেটানোর তাগিদসহ জটিল পশু-চিকিৎসার প্রয়োজনে ঢাকার বাহিরে যেমন- পুলিশ একাডেমী, বিভিন্ন ক্যান্টনমেন্ট, দেশের বিভিন্ন খামারে জীব-জন্তু, পশু-পাখির চিকিৎসা চাহিদা মেটানোর তাগিদ আসে। চিকিৎসার মান উন্নয়নের উদ্দেশ্যে পশুসম্পদ অধিদপ্তরের অধীন ভেটেরিনারিয়ানদের জন্য ভেটেরিনারি রি-ফ্রেশার্স ট্রেনিং কোর্স চালু করণের প্রয়োজনীয়তা দেখা দেয়। এই সমস্ত উদ্দেশ্য বাস্তবায়ন তথা অপরিহার্য্য চাহিদা পুরনার্থে ১৯৯১ ইং সালে দ্বিতীয় পর্যায়ে প্রয়োজনমত পশু-হাসপাতাল ভবন, আবাসিক ভবন, জনবল, মেশিন, যন্ত্রপাতি, উপকরনাদি ইত্যাদি বৃদ্ধি করার মাধ্যমে পশু-হাসপাতালটি জনগণের চাহিদার নিরীক্ষে আধুনিক হাসপাতালের ধাচে উন্নিত করা হয়।

 

কেন্দ্রীয় পশু হাসপাতালের জনবল কাঠামো

  • চীফ ভেটেরিনারী অফিসার।
  • ভেটেরিনারী অফিসার।
  • এডিশনাল ভেটেরিনারী অফিসার ০২ জন।
  • ভেটেরিনারী সার্জন ০৭ জন।
  • এনেসথেসিওলজিষ্ট ০১ জন।
  • ক্লিনিক্যাল প্যাথলজিষ্ট ০১ জন।
  • রেডিওলজিষ্ট ০১ জন।

 

চিকিসা শাখা

  • এক্স-রে অপারেটর ০১ জন।
  • কম্পাউন্ডার ০৬ জন।
  • ল্যাবরেটরী এটেনডেন্ট ০১ জন।
  • এনিমেল এটেনডেন্ট ০৩ জন।
  • ড্রেসার ০৩ জন।
  • ডোম ০১ জন।

 

প্রশাসনিক শাখা

  • সুপারিনটেনডেন্ট ০১ জন।
  • উচ্চমান সহকারী-কাম-হিসাব রক্ষক ০১ জন।
  • ষ্টোর কিপার ০১ জন।
  • ওয়ার্ড মাষ্টার ০১ জন।
  • অফিস সহকারী-কাম-মুদ্রাক্ষরিক ০১ জন।
  • গাড়ী চালক ০২ জন।
  • কুক ০১ জন।
  • এম.এল.এস.এস ০২ জন।
  • মালী ০১ জন।
  • ঝাড়ুদার ০২ জন।
  • গার্ড ০২ জন।

 

যানবাহন

  • একটি পিক আপ এক আসন বিশিষ্ট ঢাকা মেট্রো-ম-০২-১৪২৫,১৯৯৩ ইং সনে প্রাপ্ত।
  • একটি পুরানো জীপ।

 

বিভাগ সমূহ

আউট ডোর চিকিসা বিভাগ(মেডিসিন এবং সার্জারি বিভাগ)

আউটডোর বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসকের সংখ্যা ০৮ জন। কেন্দ্রীয় পশু হাসপাতালের কার্য্যক্রম দুই শিফটে সকাল ০৮ টা থেকে দুপুর ০২ টা পর্যন্ত এবং ২য় শিফট দুপুর ০২ টা থেকে রাত ০৮ টা পর্যন্ত থাকে। কিন্তু সার্বক্ষণিক কোন বিভাগ নাই। তবে চীফ ভেটেরিনারী অফিসারের স্থানীয় আদেশ বলে জরুরি চিকিৎসার জন্য ব্যবস্থা এখনও চালু রয়েছে। এবিভাগে ডাক্তারবৃন্দ নিয়মিতভাবে রোগী দেখেন এবং তাৎক্ষণিকভাবে চিকিৎসা সেবা ও ব্যবস্থাপত্র প্রদান করে থাকেন।

 

এই হাসপাতালে বড় ও ছোট প্রাণীর অপারেশনের জন্য স্বল্প সুবিধা সম্পন্ন তিনটি অপারেশন থিয়েটার আছে। এই অপারেশন থিয়েটারে আউটডোর চিকিৎসার মাধ্যমে লেপারোটমি, হিস্টারেকটমী, সিজারিয়ান অপারেশন, ডকিং, লাইগেশন, ভেসেকটমী, এমপুটেশন, কসমেটিক সার্জারী, পিনিং, প্লেটিং, এক্সিডেন্টাল ইনজুরি সহ বিভিন্ন শল্য চিকিৎসা প্রদান করা হয়।

 

ক্লিনিক্যাল প্যাথলজি বিভাগ

রোগ নির্ণয়ের জন্য আউটডোর হতে রেফার্ডকৃত গবাদি পশু-পাখীর রক্ত, মল, মূত্র, সীমেন ও হিষ্টোপ্যাথলজিক্যাল ইত্যাদি পরীক্ষা নিরীক্ষা করে প্রতিবেদন তৈরি করা এই বিভাগের মূল কাজ। এছাড়া মৃত পশু-পাখীর পোষ্টমর্টেম ও তার প্রতিবেদন তৈরি করা সহ দাপ্তরিক কার্যাদি এ বিভাগে সম্পন্ন হয়ে থাকে। একজন ক্লিনিক্যাল প্যাথলজিষ্ট এ বিভাগের দায়িত্বে আছেন।

 

রেডিওলজি বিভাগ

এই বিভাগে গবাদি পশু-পাখীর রোগ নির্ণয়ের জন্য বিভিন্ন এক্স-রে করা সহ এক্স-রে প্রতিবেদন তৈরী করা হয়। একজন রেডিওলজিষ্ট এ বিভাগের দায়িত্ব পালন করে থাকেন। রেডিওলজি বিভাগে হাসপাতালে আনিত রেফার্ডকৃত কুকুর, বিড়াল ইত্যাদির রোগ নির্ণয়ের জন্য হার্ট, লাঞ্চ, কিডনী, ইনটেস্টিনী এর অবস্থা এবং ফ্রাকচার এর এক্স-রে এর মাধ্যমে রোগ নির্ণয়ে সহায়তা করে থাকে।

 

এনেসথেসিয়া বিভাগ

বড় এবং ছোট প্রাণীর অপারেশনের পূর্বে কোন কোন ক্ষেত্রে জেনারেল এনেসথেসিয়া এবং কোন কোন ক্ষেত্রে লোকাল এনেসথেসিয়ার প্রয়োজন খুবই বেশী। স্বল্প সুবিধা সম্পন্ন এ বিভাগে একজন এনেসথেসিওলজিষ্ট কর্মরত আছেন। আস্ত্রোপচারের জন্য চিহ্নিত রুগ্ন পশু পাখীর অজ্ঞান করা এবং পুনরায় জ্ঞান ফিরে না আসা পর্যন্ত তিনি তার নিজ দায়িত্ব পালন করে থাকেন।

এছাড়াও এ হাসপাতালে পোষ্টমর্টেমের ব্যবস্থা আছে। পোষ্টমর্টেমের জন্য এখানে নির্ধারিত কোন চিকিৎসক নিয়োজিত নেই। রোগ নির্ণয়ের জন্য মৃত প্রানীর ময়না তদন্ত, রোগের সঠিক কারণ নির্ণয় ও বিষ প্রয়োগে মৃতের ক্ষেত্রে বিষের প্রকার ইত্যাদি জানার জন্য প্রাথমিকভাবে রোগের সঠিক কারণ নির্ণয় করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়।

এই হাসপাতালে একটি ইন পেসেন্ট সেডো আছে। জেনারেল এনেসথেসিয়ার মাধ্যমে অপারেশন পরবর্তী পশুর সুচিকিৎসা এবং দীর্ঘকালীন রোগ চিকিৎসার জন্য এই ইনপেসেন্ট সেডটি ব্যবহৃত হয়ে থাকে।

 

অবকাঠামো

১৯৯১ সালে দ্বিতীয় পর্যায়ে কেন্দ্রীয় পশু হাসপাতালের অবকাঠামো উন্নয়নের জন্য নূতন কিছু ভবন তৈরি করা হয়।

 

ভবনগুলো হলো

ক.   ১৩৬৯ বর্গমিটার বিশিষ্ট ০৪ তলা সম্প্রসারিত হাসপাতাল ভবন। এ ভবনের প্রথম তলায় ডাক্তারদের চিকিৎসা কাজে বসার জন্য সংরিক্ষত। এছাড়াও রয়েছে অভ্যর্থনা কেন্দ্র, ডিসপেনসিং, প্রিপারেশন, এক্স-রে কক্ষ সহ অপারেশন থিয়েটার।

দ্বিতীয় তলায় আছে হাসপাতালের স্টোর, লাইব্রেরী, ক্লিনিক্যাল প্যাথলজীক্যাল ল্যাবরেটরী, প্রশিক্ষণার্থীদের জন্য লেকচার হল, দাপ্তরিক কার্য্য সম্পাদনের জন্য অফিস ইত্যাদি।

তৃতীয় তলায় প্রমিক্ষণার্থীদের হোস্টেল এবং চতুর্থ তলায় রান্নার ঘর।

খ. ৩৩৪.৫৪ বর্গমিটার বিশিষ্ট ইনপেসেন্ট সেড।

গ. ২৭.৮৭ বর্গমিটার বিশিষ্ট পোষ্ট মর্টেম বিল্ডিং।

ঘ. পাম্প হাউজসহ ২৫০০০ গ্যালন পানি ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন ভূ-গর্ভস্থ জলাধার।

ঙ. বিদু্‌তের নিয়ন্ত্রণ উপ-কেন্দ্র।

চ. হাসপাতালে কর্মরত কর্মকর্তাদের জন্য ১৩৩৮.৫৭ বর্গমিটার বিশিষ্ট ০৫ তলা ভবন। নীচ তলায় গাড়ী রাখার জন্য গ্যারেজ। ২য় তলা হইতে ৫ম তলা পর্যন্ত প্রতি তলায় ০২টি করে মোট ০৮টি আবাসিক ইউনিট রয়েছে। প্রতিটি ইউনিট ১০০০ বর্গফুটের।

ছ. হাসপাতালে কর্মরত কর্মচারীদের বসবাসের জন্য ৪৯৪.৬০ বর্গমিটার বিশিষ্ট ০৪ তলা বাসভবন। প্রতি তলায় ০২টি করে মোট ০৮টি আবাসিক ইউনিট আছে। প্রতি ইউনিট ৬০০ বর্গফুটের।

জ. কর্মচারীদের জন্য ০৪ ইউনিট বিশিষ্ট ডরমটরী ভবন।

 

লাইব্রেরী সুবিধা

কেন্দ্রীয় পশু হাসপাতালে একটি লাইব্রেরী আছে। হাসপাতালের এই লাইব্রেরীতে বিভিন্ন বই, জার্নাল, সংবাদপত্র, সাময়িকী, ভিডিও ক্যাসেট সংগ্রহ ও সংরক্ষণের  ব্যবস্থা আছে। হাসপাতালের কর্মকর্তাদের পড়াশোনা এবং ভেটেরিনারী মেডিকেল বোর্ড মিটিং এবং চিকিৎসা ক্ষেত্রে আধুনিক প্রযুক্তি সংগ্রহের ক্ষেত্রে এই লাইব্রেরী সহায়ক ভূমিকা পালন করে থাকে।

 

প্যাথলজিক্যাল সুবিধা

  • এক্স-রে
  • গোবর পরীক্ষা
  • রক্ত পরীক্ষা
  • মূত্র পরীক্ষা
  • দুধ পরীক্ষা

[প্যাথলজিক্যাল টেস্ট সুবিধা বিনামূল্যে প্রদান করা হয়।]

 

পশুপাখীর চিকিসা করানোর প্রক্রিয়া

  • অসুস্থ পশু কেন্দ্রীয় হাসপাতালে নিতে হবে।
  • একজন জেনারেল অফিসার রোগাক্রান্ত পশুকে দেখে।
  • অবস্থা গুরুতর হলে অষুখের ধরণ অনুযায়ী ডাক্তারের কাছে পাঠানো হয়।
  • এখানে উপস্থিত থেকে চিকিৎসা করানো যায় তবে ভর্তির কোন ব্যবস্থা নেই।
  • ঔষধ বিনামূল্যে দেয়া হয়। তবে তা নির্ভর করে ঐ হাসপাতালে উক্ত ঔষধ থাকার উপরে নির্ভর করে।
  • এই হাসপাতালে দশজন ডাক্তারের চেম্বার আছে।

 

অন্যান্য সুবিধা

  • হাসপাতালের পাশেই ওষুধের মার্কেট থাকায় হাসপাতালে নেই এমন ওষুধের মূল্য পরিশোধের মাধ্যমে উক্ত ফার্মসী থেকে সংগ্রহ করা সম্ভব।
  • অগ্নি নির্বাপন ব্যবস্থা আছে।
  • গাড়ি পার্কিং এর ব্যবস্থা আছে।

 

অপারেশন সুবিধা

কেন্দ্রীয় পশু হাসপাতালে নিম্নোক্ত অপারেশন সমূহ করানোর ব্যবস্থা আছে।

  • স্টমাক অপারেশন।
  • নরমাল অপারেশন।
  • সিজারিয়ান অপারেশন।
  • লাইগেশন
  • ক্যাসটেশন
  • অবথ/হার অপারেশন ইত্যাদি।

 

সময় সূচী

রবি থেকে বৃহস্পতিবার পূর্ণ দিবস খোলা ও শনিবার অর্ধদিবস খোলা থাকে, শুক্রবার বন্ধ।

 

ফোন +৮৮-০২-৭৩১৯৯৭১

মোবাইল +৮৮০১৭১৫০১৬২১৮

E-mail: [email protected]

 

আপডেটের তারিখ - ১৮ মে ২০১৩

 
আরো পড়ুন
 

নামসংক্ষিপ্ত বিবরণ
ডায়েট কাউন্সিলিং সেন্টাররমনা, ইস্কাটন
এশিয়ান স্কাই শপ বাংলাদেশকলাবাগান, হাতিরপুল
সুফি মেডিটেশনN\A, N\A
ফার্মেসী ব্যবসাPharmacy business information
ল্যাব এইড ভ্যাকসিনেশন সেন্টারধানমন্ডি, ধানমন্ডি
ইবোলা ভাইরাস: নিজে সতর্ক হউন অন্যকে সতর্ক করুনভাইরাসটি সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরা হয়েছে
ইতালিতে স্বাস্থ্য বীমার জন্য বীমা কোম্পানিগুলোঅনুমোদিত বীমা কোম্পানিগুলোর তালিকা
ঘরে বসে ওষুধ পেতেস্বাস্থ্য বিষয়ক অনলাইন শপ
টাইফয়েড ভ্যাকসিন সংগ্রহN\A, N\A
কেন্দ্রীয় পশু হাসপাতাল, ঢাকাশাহবাগ, ফুলবাড়িয়া
আরও ৬ টি লেখা দেখতে ক্লিক করুন
২৫ বছরে ১৮ সন্তানের জননী!
সর্বপ্রথম পোর্টেবল দ্বীপ
বিদেশিনীর বাংলা প্রেম
জুতার গাছ!
exam
নির্বাচিত প্রতিবেদন
exam
সুমাইয়া শিমু
পিয়া বিপাশা
প্রিয়াংকা অগ্নিলা ইকবাল
রোবেনা রেজা জুঁই
বাংলা ফন্ট না দেখা গেলে মোবাইলে দেখতে চাইলে
how-to-lose-your-belly-fat
guide-to-lose-weight
hair-loss-and-treatment
how-to-flatten-stomach
fat-burning-foods-and-workouts
fat-burning-foods-and-workouts
 
সেলিব্রেটি