পূর্ববর্তী লেখা    পরবর্তী লেখা
পুরো লিস্ট দেখুন

ঠাকুরগাঁও ভ্রমণ

ঠাকুরগাঁও  জেলা বাংলাদেশের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের রংপুর বিভাগের একটি প্রশাসনিক অঞ্চল।  ছোট জেলা হলেও ঠাকুরগাঁও প্রাচীন ঐতিহ্যসমৃদ্ধ একটি জনপদ। এখানে যেমন উপমহাদেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে আসা আদিবাসী জনগোষ্ঠীর (সাঁওতাল ও উরাও) মানুষ হাজার হাজার বছর ধরে তাদের ভাষা ও সংস্কৃতিকে ধরে রেখেছে, তেমনিভাবে বৌদ্ধ, হিন্দু, মুসলমান শাসনামলে বিভিন্নমুখি পরিবর্তনের ছোয়ায় পালাবদলের প্রক্রিয়া চলেছে।  জেলার নেকমরদ,রাণীশংকৈল এসব স্থানে সুপ্রাচীন সভ্যতার নির্দশন বিদ্যমান।

 

অবস্থান

ঠাকুরগাঁও জেলার উত্তরে পঞ্চগড় জেলা, পূর্বে পঞ্চগড় ও দিনাজপুর জেলা, পশ্চিম ও দক্ষিণে ভারতের পশ্চিম বাংলা।  ঠাকুরগাঁও জেলার মোট আয়তন ১৮০৯.৫২ বর্গ কিলোমিটার।

 

যাতায়াত পদ্ধতি

ঢাকা থেকে ঠাকুরগাঁও সড়ক ও রেল উভয় পথেই যাতায়াত করা যায়।

 

সড়ক পথে

ঢাকা থেকে ঠাকুরগাঁও জেলায় যে কয়েকটি বাস চলাচল করে কর্ণফুলী পরিবহন তার মধ্যে অন্যতম।

 

কর্ণফুলী পরিবহন

ঢাকা থেকে রংপুর, সৈয়দপুর, ঠাকুরগাঁও, বোদা, পঞ্চগড় এবং  নীলফামারী উত্তরাঞ্চলের রুটে যে কয়েকটি বাস চলাচল করে কর্ণফুলী পরিবহন তার মধ্যে থেকে একটি। 

 

প্রধান কাউন্টারের ঠিকানা ও যোগাযোগ

আবদুল্লাহপুর বোর্ড বাজার সাইনবোর্ড এলাকায় কর্ণফুলী পরিবহনের কাউন্টারটি অবস্থিত। আবদুল্লাহপুর বাসস্ট্যান্ডের পশ্চিমপাশে সারিবদ্ধভাবে মোট ২২টি আন্ত:জেলা বাস কাউন্টার আছে,এখানেই কর্ণফুলী পরিবহনের কাউন্টারটির অবস্থান।

 

ফোন নাম্বার  

+৮৮-০১৬৭৪৮০৫১৬৪

 

বাসে ওঠা যায়

কল্যাণপুর,গাবতলী এবং আবদুল্লাহপুর থেকে কর্ণফুলী পরিবহনের যাত্রীরা সরাসরি আন্ত:জেলা বাসে উঠতে পারেন।

 

ছেড়ে যাওয়ার সময় সূচী

রাত ৮টা, ৮.৩০টা, ৯.০০ টা, ১০.৩০ এবং ১১.৩০ টায় কর্ণফুলি পরিবহনের গাড়িগুলো ছেড়ে যায়।

 

ভাড়া

গন্তব্য

ভাড়া

রংপুর

৪০০ টাকা (নন এসি)

সৈয়দপুর

৪৫০ টাকা (নন এসি)

ঠাকুরগাঁও

৫০০ টাকা (নন এসি)

বোদা

৩৫০ টাকা (নন এসি)

পঞ্চগড়

৪০০ টাকা (নন এসি)

নীলফামারী

৩৫০ টাকা (নন এসি)

 

 

টেলিফোনে বুকিং

টেলিফোনে বুকিং দেয়া যায় তবে সেক্ষেত্রে অন্তত এক ঘন্টা আগে কাউন্টারে উপস্থিত হতে হয়। আর টিকেট ক্রয়ের পর যাত্রা বাতিল করতে চাইলে অন্তত ছয় ঘন্টা আগে জানাতে হয়। টিকেটের টাকা ফেরত দেয়া হলেও ১০% ডকুমেন্টেশন চার্জ রাখা হয়। ফোনে টিকেট বাতিল করা সম্ভব নয়। ফেরত দেয়ার জন্য টিকেট নিয়ে কাউন্টারে উপস্থিত হতে হয়। ঈদের ১০ দিন আগে এবং পরে টিকেট ফেরত দেয়ার সুযোগ থাকে না।

 

শর্ত: যান্ত্রিক ত্রুটি, প্রাকৃতিক দূর্যোগ, ইত্যাদি অনিচ্ছাকৃত অসুবিধার কারণে যাত্রা বাতিল,বাস পরিবর্তন বা আসন পরিবর্তন করা হতে পারে।

 

রেল পথে ভ্রমণ

লালমনি এক্সপ্রেস

ঢাকা-লালমনিরহাট ও ঠাকুরগাঁও  রুটে চলাচল করে ৭৫২/৭৫১ নং লালমনি আন্ত:নগর ট্রেনটি।

 

প্রধান স্টেশনের ঠিকানা ও যোগাযোগ

কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন

ফোন নম্বর:+৮৮-০২-৯৩৫৮৬৩৪, ৯৩৩১৮২২

মোবাইল নম্বর:+৮৮-০১৭১১৬৯১৬১২

 

বিমানবন্দর রেলওয়ে ষ্টেশন

ফোন নম্বর:+৮৮-৮৯২৪২৩৯

ওয়েবসাইট: www.railway.gov.bd

 

সময়সূচি

রুট

ছাড়বে

পৌছাবে

বন্ধের দিন

ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট থেকে ঠাকুরগাঁও

রাত ১০:১০

সকাল ৮:২০

রবিবার

লালমনিরহাট থেকে ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট

সকাল ১০:৪০

রাত ৯:০৫

রবিবার

 

যাত্রা বিরতীর স্থান ও ভাড়ার তালিকা

গন্তব্যস্থল

শো: সাধারণ

শো: চেয়ার

১ম বার্থ

লালমনিরহাট/ কাউনিয়া/ ঠাকুরগাঁও

৩৯০

৪৬৫

৯৩০

পীরগাছা

৩৭০

৪৪০

৮৮০

বামনডাঙ্গা

৩৬০

৪৩০

৮৬০

 

মালামাল পরিবহন

  • একজন শীতাতপ শ্রেণীর যাত্রী ৫৬ কেজি, প্রথম শ্রেণীর যাত্রী ৩৭.৫ কেজি, শোভন শ্রেণীর যাত্রী ২৮ কেজি এবং সুলভ ২য় শ্রেণীর যাত্রী ২৩ কেজি মালামাল বিনা ভাড়ায় সঙ্গে নিয়ে যেতে পারেন।
  • অতিরিক্ত মালামাল মাশুল পরিশোধ করে তা লাগেজ হিসেবে তার নিজ গন্তব্যে নিতে পারেন। বড় স্টেশনগুলোতে লাগেজ বুকিংয়ের জন্য আলাদা কাউন্টার রয়েছে।
  • লাগেজ বহনের জন্য ট্রলির ব্যবস্থা আছে।
  • অসুস্থ ব্যাক্তিদের বহনের জন্য হুইল চেয়ারের ব্যবস্থা আছে।

 

মালামাল বহনে কুলি চার্জ  

স্টেশন থেকে বগিতে কিংবা বগি থেকে স্টেশনের বাইরে মালামাল বহনের জন্য কুলির ব্যবস্থা আছে। মালামালের পরিমান অনুযায়ী তারা চার্জ নিয়ে থাকে। এখানে বর্তমান প্রচলিত চার্জের তালিকা দেয়া হল, যদিও প্রকৃত ক্ষেত্রে দর-কসাকসি করেই তাদের সেবা নেয়া যাবে।

 

লাগেজের পরিমাণ

চার্জ (টাকা)

অনধিক ২৮ কেজি (১টি ব্যাগ)

৩০/-

অনধিক ২৮ কেজি (২টি ব্যাগ)

৪০/-

অনধিক ৩৭ কেজি (১টি ব্যাগ)

৪০/-

অনধিক ৩৭ কেজি (২টি ব্যাগ)

৫০/-

অনধিক ৫৬ কেজি (১টি ব্যাগ)

৬০/-

অনধিক ৫৬ কেজি (২টি ব্যাগ)

৮০/-

 

দর্শণীয় স্থান

জামালপুর জমিদারবাড়ি জামে মসজিদ

ঠাকুরগাঁও শহর থেকে পীরগঞ্জ যাওয়ার পথে বিমান বন্দর পেরিয়ে শিবগঞ্জহাট। হাটের তিন কিলোমিটার পশ্চিমে জামালপুর জমিদারবাড়ি জামে মসজিদ।

 

 

বালিয়াডাঙ্গী সূর্য্যপূরী আমগাছ

প্রায় ২০০ বছরের পুরনো সূর্য্যপূরী আমগাছটি বালিয়াডাঙ্গী উপজেলায় ভারতের সীমান্তবর্তী হরিণ মারি গ্রামে অবস্থিত। গাছটি প্রায় ২.৫ বিঘা জমির উপর বিস্তৃত। গাছটির শাখা-প্রশাখা অশ্বহ্থ গাছের মত মাটির দিকে ঝুঁকে পরার প্রবনতা লক্ষ করা যায়। এটিকে এশিয়া মহাদেশের সর্ববহৎ আমগাছ বলা যায়।

 

ফান সিটি অ্যামিউজমেন্ট পার্ক

ফান সিটি অ্যামিউজমেন্ট পার্ক এন্ড ট্যুরিজম লিঃ,পীরগঞ্জ,ঠাকুরগাঁও অবস্থান: পৌর ভবনের বিপরীতে, পীরগঞ্জ,ঠাকুরগাঁও। আয়তন: ১০ একর।

 

রাজভিটা

পীরগঞ্জ উপজেলার জাবরহাট ইউনিয়নের হাটপাড়া নামক স্থানে টাঙ্গন নদীর বাঁকে মনোরম প্রাকৃতিক পরিবেশে যে রাজবাড়ির অস্তিত্ব অনুভব করা যায় তা রাজভিটা নামে বর্তমান মানুষের নিকট পরিচিত।

 

রাজা টংকনাথের রাজবাড়ি

রানীশংকৈল উপজেলার পূর্বপ্রান্তে কুলিক নদীর তীরে মালদুয়ার জমিদার রাজা টংকনাথের রাজবাড়ি।

 

হরিপুর রাজবাড়ি

হরিপুর উপজেলার কেন্দ্রস্থলে হরিপুর রাজবাড়ি। এই রাজবাড়ি ঘনশ্যাম কুন্ডুর বংশধরদের দ্বারা প্রতিষ্ঠিত।

 

জগদল রাজবাড়ি

রানীশংকৈল উপজেলার নেকমরদ থেকে প্রায় আট কিলোমিটার পশ্চিমে জগদল নামক স্থানে নাগর ও তীরনই নদীর মিলনস্থলে ছোট একটি রাজবাড়ি রয়েছে।

 

প্রাচীন রাজধানীর চিহ্ন নেকমরদ

রানীশংকৈল উপজেলার ভবানন্দপুর

 

নেকমরদ মাজার

রানীশংকৈল উপজেলা থেকে প্রায় নয় কিলোমিটার উত্তরে নেকমরদ স্থানটি। এলাকাটির মূল নাম হচ্ছে ভবানন্দপুর। আজও নেকমরদকে মৌজা হিসেবে ভবানন্দপুর লেখা হয়। শেখ নাসির-উদ-দীন নামক এক পূণ্যবান ব্যক্তি ধর্ম প্রচারের উদ্দেশ্যে ভবানন্দপুর আসেন। তিনিই পীর শাহ নেকমরদ নামে খ্যাতিমান এবং এই খ্যাতিমান পুণ্যাত্মা পুরুষের কারণেই ভবানন্দপুর পরবর্তীকালে নেকমরদ নামে পরিচিতি লাভ করে।

 

মহেশপুর মহালবাড়ি ও বিশবাঁশ মাজার ও মসজিদস্থল

ঠাকুরগাঁও জেলার রানীশংকৈল উপজেলা হতে উত্তরে মীরডাঙ্গী থেকে তিন কিলোমিটার পূর্বে মহেশপুর গ্রামে মহালবাড়ি মসজিদটি অবস্থিত।

 

শালবাড়ি মসজিদের ইমামবাড়া

ঠাকুরগাঁও উপজেলার পশ্চিমে ভাউলারহাটের নিকটে শালবনে শালবাড়ি মসজিদটি অবস্থিত।

 

সনগাঁ মসজিদ

বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার কালমেঘ হাট থেকে দু কিলোমিটার উত্তরে সনগাঁ নামক গ্রামে সনগাঁ মসজিদটি নির্মিত।

 

ফতেহপুর মসজিদ

বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা থেকে প্রায় সাত কিলোমিটার পশ্চিমে মোড়লহাটের সন্নিকটে ফতেহপুর মসজিদ।

 

মেদিনী সাগর মসজিদ ও মসজিদের মেহরাব

হরিপুর উপজেলার উত্তরে মেদিনীসাগর গ্রামে মেদিনীসাগর জামে মসজিদটি অবস্থিত।

 

ধবংসপ্রাপ্ত গেদুড়া মসজিদ

হরিপুর উপজেলার গেদুড়া ইউনিয়নে গেদুড়া মসজিদটি প্রায় আড়াইশ বছর পূর্বে স্থাপিত হয়। বর্তমানে পুরাতন মসজিদটি সম্পূর্ণ বিলুপ্ত। একইস্থানে নতুন মসজিদ তৈরি হয়েছে। এখানে আরবি ও ফারসি ভাষায় লিখিত গোলাকার একটি শিলালিপি পাওয়া যায়।

 

গোরক্ষনাথ মন্দির এবং পাথরের তৈরী গোরক্ষনাথ মন্দিরের কূপ

রানীশংকৈল উপজেলার নেকমরদ থেকে প্রায় আট কিলোমিটার পশ্চিমে গোরকুই নামের একটি গ্রাম।

 

হরিণমারী শিব মন্দির বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা থেকে দশ কিলোমিটার দূরে উত্তর পশ্চিমদিকে হরিণমারী হাটের উপর শিবমন্দিরটি অবস্থিত।

 

গোবিন্দনগর মন্দির ঠাকুরগাঁও শহরে টাঙ্গন নদীর পশ্চিম তীরে কলেজপাড়ায় গোবিন্দনগর মন্দির অবস্থিত।

 

ঢোলরহাট মন্দির ঠাকুরগাঁও শহর থেকে নয় কিলোমিটার দূরে রুহিয়া যাওয়ার পথে ঢোলরহাট নামক জায়গায় পাকা রাস্তার পশ্চিমপাশে তিনটি মন্দির আছে। মন্দির তিনটির একটি শিব মন্দির, একটি দেবী মন্দির এবং একটি বিষহরি মন্দির নামে পরিচিত।

 

ভেমটিয়া শিবমন্দির পীরগঞ্জ পৌরসভা থেকে দেড় কিলোমিটার পূর্বে ভেমটিয়া নামক জায়গায় শিব মন্দির আছে। মন্দিরটি প্রায় তিনশত বছর পূর্বের।

 

মালদুয়ার দুর্গ রানীশংকৈল উপজেলা হতে এক কিলোমিটার দক্ষিণে একটি প্রাচীন দুর্গের সন্ধান পাওয়া যায়। দুর্গটির আয়তন প্রায় ২.৪ কিলোমিটার দীর্ঘ এবং এক কিলোমিটার প্রস্থ।

গড়গ্রাম দুর্গ রানীশংকৈল উপজেলার প্রায় তের মাইল উত্তরে নেকমরদ হাট ও মাজার। এখান থেকে প্রায় দু'কিলোমিটার উত্তরে গড়গ্রামে একটি দুর্গের ধ্বংসাবশেষ রয়েছে। দুর্গটির বাইরে পরিখা আছে।

 

বাংলা গড় রানীশংকৈল উপজেলা থেকে প্রায় আট কিলোমিটার উত্তরে এবং নেকমরদ থেকে প্রায় পাঁচ কিলোমিটার পূর্বদিকে কাতিহার- পীরগঞ্জ যাওয়ার রাস্তায় বাংলা গড় অবস্থিত। গড়ের ভিতর দিয়েই একটি পাকা রাস্তা পীরগঞ্জ রানীশংকৈলে চলে গেছে। গড়টির পশ্চিমদিকে এক বিশাল নদী প্রবাহিত ছিল যা এখন সম্পূর্ণ মৃত। মাটির প্রাচীর ও গভীর পরিখা দ্বারা গড়টি পরিবেষ্টিত। প্রবাদ আছে যে এখানে চাঁদ সদাগরের বাড়ি ছিল- বাসর রাতে লখিন্দরকে মনসাদেবীর কাল নাগিনী বাংলা গড়েই দংশন করেছিল।

 

গড় ভবানীপুর হরিপুর উপজেলা থেকে প্রায় আট কিলোমিটার পূর্ব-দক্ষিণে ভারতীয় সীমান্তের সন্নিকটে ভাতুরিয়া নামক গ্রামের কাছেই গড়ভবানীপুর।

 

ড়খাঁড়ি বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা থেকে প্রায় দশ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে বেলতলা গ্রামে গড়খাঁড়ি নামক একটি দুর্গ পাওয়া যায়। দুর্গটি তীরনই নদীর পশ্চিম তীরে অবস্থিত। দৈর্ঘ্যে প্রস্থে ৬০০ × ৪০০ মিটার আয়তনের দুর্গটির মাটির প্রাচীরগুলো বর্তমানে প্রায় ২০ ফুট উঁচু।

 

কোরমখান গড় ঠাকুরগাঁও শহর থেকে প্রায় এগার কিলোমিটার উত্তরে টাঙ্গন ব্যারেজ থেকে দু'কিলোমিটার পূর্বে কোরমখান গড়। গড়কে বলা হয়েছে 'কোরমখান গড়'। ফ্রান্সিস বুকানন এর নাম উল্লেখ করেছেন 'মোঘলিকোট' হিসেবে।

 

সাপটি বুরুজ ঠাকুরগাঁও উপজেলার ভুল্লীহাট থেকে দেড় কিলোমিটার পশ্চিমে সাপটি বুরুজ অবস্থিত। বুরুজ মূলত পর্যবেক্ষণ টাওয়ার। মোঘল সাম্রাজ্য ও কুচবিহারের সীমান্ত এলাকা ছিল এ অঞ্চল।

 

দিঘি

ঠাকুরগাঁও জেলার উল্লেখযোগ্য দিঘিগুলো হলো-গড়েয়াহাট দিঘি,লস্করা দিঘি,টুপুলী দিঘি,শাসলা ও পেয়ালা দিঘি, ঠাকুর দিঘি (দানারহাট),আঠারো গান্ডি পোখর-ঠাকুরগাঁও উপজেলায়। আধার দিঘি, হরিণমারী দিঘি, রতন দিঘি, দুওসুও দিঘি বালিয়াডাঙ্গী উপজেলায়। রামরাই দিঘি,খুনিয়া দিঘি, রানীসাগর-রানীশংকৈল উপজেলায়। মেদিনীসাগর দিঘি হরিপুর উপজেলায়। রানীশংকৈলের রামরাই দিঘি ঠাকুরগাঁও জেলার সবচেয়ে প্রাচীন ও বৃহৎ । দিঘিটি পাঁচশ থেকে হাজার বছরের পুরাতন হতে পারে। এর সঠিক ইতিহাস জানা যায় না।

 

আপলোডের তারিখ:২৪/০৪/২০১৩ ইং।

 
আরো পড়ুন
 

নামসংক্ষিপ্ত বিবরণ
কক্সবাজার ভ্রমণকক্সবাজার ভ্রমণের প্রয়োজনীয় তথ্য
কিশোরগঞ্জ ভ্রমণকিশোরগঞ্জ ভ্রমণের প্রয়োজনীয় তথ্য রয়েছে
কুমিল্লা ভ্রমণকুমিল্লা ভ্রমণের প্রয়োজনীয় তথ্য
কুষ্টিয়া ভ্রমণ কুষ্টিয়া জেলার প্রয়োজনীয় তথ্য
কুড়িগ্রাম ভ্রমণকুড়িগ্রাম ভ্রমণের প্রয়োজনীয় তথ্য
খাগড়াছড়ি ভ্রমণখাগড়াছড়ি ভ্রমণের প্রয়োজনীয় তথ্য রয়েছে
খুলনা ভ্রমণ খুলনা জেলার প্রয়োজনীয় তথ্য
গাইবান্ধা ভ্রমণগাইবান্ধা ভ্রমণের প্রয়োজনীয় তথ্য
গোপালগঞ্জ ভ্রমণ গোপালগঞ্জ জেলার প্রয়োজনীয় তথ্য
চাঁদপুর ভ্রমণ চাঁদপুর জেলা সর্ম্পকে তথ্যাবলী
আরও ৪৮ টি লেখা দেখতে ক্লিক করুন
২৫ বছরে ১৮ সন্তানের জননী!
সর্বপ্রথম পোর্টেবল দ্বীপ
বিদেশিনীর বাংলা প্রেম
জুতার গাছ!
exam
নির্বাচিত প্রতিবেদন
exam
সুমাইয়া শিমু
পিয়া বিপাশা
প্রিয়াংকা অগ্নিলা ইকবাল
রোবেনা রেজা জুঁই
বাংলা ফন্ট না দেখা গেলে মোবাইলে দেখতে চাইলে
how-to-lose-your-belly-fat
guide-to-lose-weight
hair-loss-and-treatment
how-to-flatten-stomach
fat-burning-foods-and-workouts
fat-burning-foods-and-workouts
 
সেলিব্রেটি