পূর্ববর্তী লেখা    পরবর্তী লেখা
পুরো লিস্ট দেখুন

লিমিটেড কোম্পানী গঠন

ব্যক্তি মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠান চালানোর এক পর্যায়ে অনেকেই সেটিকে কোম্পানীতে রুপান্তরিত করেন কিছু আইনগত সুবিধা নেবার জন্য। কোম্পানী গঠন করতে হলে সেটির একটি নাম দিতে হবে। কাঙ্খিত নামে রেজিষ্ট্রেশন করতে গেলে প্রথমে নামের ছাড়পত্র বা নেম ক্লিয়ারেন্স নিতে হবে। এরপর কিছু প্রক্রিয়া মেনে রেজিষ্ট্রেশন সম্পন্ন করতে হবে। রেজিষ্ট্রেশন ফি অনুমোদিত মূলধনের ওপর নির্ধারিত হয়ে থাকে। ঢাকা অঞ্চলের জন্য এ কাজ করতে হলে কারওয়ান বাজারের টিসিবি ভবনের সাত তলায় অবস্থিত নিবন্ধন দপ্তরে যেতে হবে। এ কাজটি সনাতন পদ্ধতিতে করা যায় আবার নিবন্ধন দপ্তরের কিওস্ক ব্যবহার করে অনলাইনেও করা যায়।

 

ঢাকা জোনের নিবন্ধন দপ্তর:

টিসিবি ভবন (সাত তলা), কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫

টেলিফোন +৮৮-০২-৮১৮৯৪০১, ৮১৮৯৪০৩

ফ্যাক্স: +৮৮-০২-৮১৮৯৪০২

ই-মেইল: [email protected]

ওয়েবসাইট: http://www.roc.gov.bd

 

প্রক্রিয়া:

নিবন্ধকের কাছে নিবন্ধন ফি দিয়ে কোম্পানীর তিনটি সম্ভাব্য নাম প্রস্তাব প্রস্তাব করতে হবে। আগে নিবন্ধন করা হয়েছে এমন নাম পাওয়া যাবে না। http://www.roc.gov.bd সাইট থেকে নামের একটি তালিকা দেখা যেতে পারে। নাম অনুমোদনের পর দু’জন সাক্ষীর সামনে সংঘ বিধি ও সংঘ স্মারকে সাক্ষর করতে হয়। এই সংঘ বিধি ও স্মারকে বিশেষ স্ট্যাম্প লাগাতে হয় সেজন্য বাংলাদেশ ব্যাংকে ট্রেজারী চালানের মাধ্যমে টাকা জমা দিতে হয়। টাকার পরিমাণ অনুমোদিত মূলধনের ভিত্তিতে নির্ধারিত হয়ে থাকে।

 

  • প্রাইভেট কোম্পানী হলে স্ট্যাম্পযুক্ত সংঘবিধি, তিন কপি স্মারক ও সংঘবিধি পূরণ করে ১, ৬, ৯, ১০ ও ১২ ছাড়পত্র, বিশেষ স্ট্যাম্প ক্রয় সংক্রান্ত চালানের ফটোকপি জমা দিতে হয়।
  • পাবলিক লিমিটেড কোম্পানী গঠনের ক্ষেত্রে এসব কাগজপত্র ছাড়াও প্রসপেক্টাসের বিকল্প বিবরণী, ব্যবসা শুরুর ঘোষণা পত্র এবং  বিশেষ ক্ষেত্রে ফরম ১১ জমা দিতে হয়।
  • রেজিস্ট্রার অব জয়েন্ট স্টক কোম্পানীজ এন্ড ফার্মস কোম্পানীগুলোর মালিকানা এবং তালিকভুক্তি সংক্রান্ত বিষয়গুলো তদারক করে। প্রাইভেট, পাবলিক এবং বিদেশী কোম্পানীর রেজিষ্ট্রেশন ছাড়াও বাণিজ্যিক সংস্থা ও যৌথ মালিকানাধীন কোম্পানীর রেজিস্ট্রেশনের কাজ করা হয় এখানে।

 

নেম ক্লিয়ারেন্স:

প্রস্তাবিত নামের অনুমোদন নেয়া বা নেম ক্লিয়ারেন্স নিতে প্রতি নামের জন্য ১০০ টাকা ফি দিতে হয়।

 

সংঘ স্মারকে ৫০০ টাকা মূল্যের স্ট্যাম্প এর অতিরিক্ত স্ট্যাম্প লাগানোর নিয়ম:

 

মূলধনের পরিমাণ

টাকার পরিমাণ

১০ লাখ টাকা পর্যন্ত

২,০০০ টাকা

১০ লাখ এক টাকা থেকে ৩ কোটি টাকা পর্যন্ত

৪,০০০ টাকা

৩ কোটির ঊর্ধ্বে যোকোন অংকের জন্য

১০,০০০ টাকা

 

রেজিস্ট্রেশন ফি

মোট ছয়টি কাগজ জমা দিতে হয়, পাঁচটি পূরণকৃত ফরম এবং একটি সংঘ স্মারক। প্রতি কাগজের জন্য ২০০ টাকা করে মোট ১,২০০ টাকা জমা দিতে হয়।

 

অনুমোদিত মূলধনের জন্য ফি:

মূলধনের পরিমাণ

ফি-এর পরমাণ

২০,০০০ টাকা পর্যন্ত

৩৬০ টাকা

২০,০০০ টাকা অতিক্রমের পর ৫০,০০০ টাকা পর্যন্ত প্রতি ১০,০০০ টাকার জন্য

১৮০ টাকা

৫০,০০০ টাকা অতিক্রমের পর ১,০০,০০০ টাকা পর্যন্ত প্রতি ১০,০০০ টাকার জন্য

৪৫ টাকা

৫০ লাখ টাকা পর্যন্ত প্রতি দশ হাজারের জন্য

২৮ টাকা

এরপর প্রতি এক লাখের জন্য

৪৫ টাকা

 

 
আরো পড়ুন
 

নামসংক্ষিপ্ত বিবরণ
ড্রাগ লাইসেন্সড্রাগ লাইসেন্স নেয়া সংক্রান্ত তথ্য
ট্রেড লাইসেন্স সংগ্রহট্রেড লাইসেন্স কি এবং কিভাবে নিতে হয়
কপিরাইট করতেকিভাবে এবং কোথায় কপিরাইট করবেন
বিএসটিআই ছাড়পত্র নেয়াবিএসটিআই ছাড়পত্র নিতে কি করবেন
ক্লিয়ারিং এন্ড ফরওয়ার্ডিং এজেন্টক্লিয়ারিং এন্ড ফরোয়ার্ডিং এজেন্টের কাজ সম্পর্কে
অনলাইনে কর পরিশোধ পদ্ধতিঅনলাইনে কর পরিশোধ সংক্রান্ত তথ্য রয়েছে
এসএমই ফাউন্ডেশনস্মল এন্ড মিডিয়াম এন্টারপ্রাইজ ফাউন্ডেশন
লিমিটেড কোম্পানী গঠনলিমিটেড কোম্পানী গঠন সম্পর্কে প্রয়োজনীয় তথ্য
আমদানি ও রপ্তানি সার্টিফিকেট বানাতে আপনার যা যা লাগবেএ বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরা হয়েছে
এলসি (LC) করার নিয়মএ বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য রয়েছে
আরও ৩ টি লেখা দেখতে ক্লিক করুন
২৫ বছরে ১৮ সন্তানের জননী!
সর্বপ্রথম পোর্টেবল দ্বীপ
বিদেশিনীর বাংলা প্রেম
জুতার গাছ!
exam
নির্বাচিত প্রতিবেদন
exam
সুমাইয়া শিমু
পিয়া বিপাশা
প্রিয়াংকা অগ্নিলা ইকবাল
রোবেনা রেজা জুঁই
বাংলা ফন্ট না দেখা গেলে মোবাইলে দেখতে চাইলে
how-to-lose-your-belly-fat
guide-to-lose-weight
hair-loss-and-treatment
how-to-flatten-stomach
fat-burning-foods-and-workouts
fat-burning-foods-and-workouts
 
সেলিব্রেটি