পূর্ববর্তী লেখা    পরবর্তী লেখা
পুরো লিস্ট দেখুন

শাহজাহানপুর কবরস্থান

ঢাকার প্রাচীনতম কবরস্থানের মধ্যে শাহজাহানপুর কবরস্থান অন্যতম। ১৯৮০ সালে এই কবরস্থানটি প্রতিষ্ঠিত হয়। মো: শাহবুদ্দিন সাহেব কবরস্থানটির তত্বাবধান করে আসছেন। তার পূর্ব পুরুষগন এই সম্পত্তিতে কবরস্থান প্রতিষ্ঠা করেন। কবরস্থানটি পারিবারিক। তবে এখানে সাধারন মানুষ তাদের মৃত ব্যক্তিকে কবরস্থ করতে পারে।

 

খোলা বন্ধ

কবরস্থানটি সকাল ৮টা থেকে রাত ৮.০০ টা পর্যন্ত খোলা থাকে। লাশ কবর দেওয়ার জন্য উল্লেখিত সময়ের মধ্যে যোগাযোগ করতে হয়। রাত ৮টার পর কবরস্থানে লাশ কবর দেওয়া যায়না।

 

প্রবেশ পথ

প্রধান সদর দরজাটি শাজাহানপুর চৌরাস্তায় অবস্থিত।

 

অবস্থান

দৈনিকবাংলা মোড় থেকে পূর্ব দিকে ফকিরাপুল পার হয়ে রাজারবাগ পেরিয়ে খিলগাঁও ওভারব্রীজের পাশেই শাজাহানপুর কবরস্থান অবস্থিত।

 

ঠিকানা

শাহজাহানপুর কবরস্থান, শাহজাহানপুর, ঢাকা।

 

মসজিদ

শাহজাহানপুর কবরস্থানের মধ্যে কোন মসজিদ নেই। কিন্তু পাশেই খিলগাও বাজার সংলগ্ন মসজিদ ও একটি মাজার শরীফ রয়েছে। 

 

জানাজার ব্যবস্থা

শাহজাহানপুর কবরস্থানে জানাজার নামাজ পড়ার কোন ব্যবস্থা নেই।

 

কতদিন কত সাল পর্যন্ত কবর রাখা যায়

সাধারণত এক বৎসর পর্যন্ত কবর রাখা যায়। এর পর কবর চালা হয়।

 

নিরাপত্তা অন্যান্য কাজে লোকসংখ্যা

কবরস্থানে রয়েছেন রেজিষ্টার, কেয়ার টেকার, ঠিকাদার, পেশ ইমাম, কবর খোদার খাদেম, ইমাম সহকারী, অফিসার, নিরাপত্তা প্রহরী, দারোয়ান ও পরিছন্ন কর্মী সহ দায়িত্ব প্রাপ্ত লোকজন।

 

কবর রক্ষণারেক্ষন পরিচর্যা

এখানে নিয়োজিত লোকজন কবর রক্ষণাবেক্ষন ও পরিচর্যা করে থাকেন। কররের পাশে গাছ লাগানো (ফুল ও অন্যান্য ছোট গাছ) ঘাস ও দূর্বা  আগাছা পরিষ্কার,পানি দেয়া,মাটি ভরাট ও ইদুর শিয়াল ও অন্যান্য কিছু থেকে রক্ষা সহ সব ধরনের কাজ করেন।

 

করর দেওয়ার উপকরণ

কবর দেয়ার জন্য যে সকল জিনিস গুলো প্রয়োজন তা  যেমন: বাঁশ, চাটাই ইত্যাদি  কবরস্থানের পাশে খিলগাঁও বাজারে অবস্থিত দোকানে পাওয়া যায়।

 

ফকির মিসকিনদের অবস্থান

কবরস্থানের সদর দরজাতে ফকির-মিসকিনদের অবস্থান লক্ষ্য করা যায়। 

 

নেইম প্লেট

মৃত ব্যাক্তির পরিচয়, দুরদে হাজারী ইত্যাদী লেখার ব্যবস্থা শাহজাহানপুর কবরস্থানের খিলগাও রেলগেট বাজারে রয়েছে। এজন্য সাধারণত খরচ নেইম প্লেট পরিচিতি ও দুরুদে হাজারি ৫,০০/= থেকে ১,০০০/= টাকা (সাধারণ),স্পেশাল) ১,০০০/=থেকে ৫,০০০/=টাকা পর্যন্ত।

 

গাড়ী পার্কং

কবরস্থানের ঢুকতে একটি গাড়ি রাখার মতো জায়গা রয়েছে। এই জায়গাটিতে লাশবহনকারী ট্রাক এসে থামে।

 

মৃত ব্যক্তির গোসলখান, অযুখানা  টয়লেট ব্যবস্থা

মৃত ব্যক্তির গোসল দেওয়ার জন্য এখানে পৃথক একটি কক্ষ রয়েছে। এখানে নিয়োজিত খাদেমগন মৃত ব্যক্তির গোসল সম্পন্ন করেন। গোসল করানো বাবদ খাদেমদের ২০০ টাকা থেকে ৫০০ টাকা বখশিশ দিতে হয়। এখানে একটি ওযুখানা রয়েছে। এখানে ১০-১২ জন ওযু করতে পারে। কবরস্থানের পশ্চিমপাশে টয়লেটের ব্যবস্থা আছে।

 

লাশ দাফনে বুকিং ব্যবস্থা

লাশ দাফনে আলাদা ভাবে কোন বুকিং না দিলেও সমস্যা নেই। কবর আগে থেকেই তৈরী করা থাকে উপস্থিত হয়ে ও স্থান নির্ধারণ করা যায়।

 

লাশ দাফনে খরচাদি

শাহজাহানপুর কবরস্থানে মৃত ব্যক্তির লাশ দাফনে ঠিকাদারী বাঁশ, চাটাই এবং লেবার সহ মোট খরচ ১৫০০ টাকা। গরীব এবং দুস্থ ব্যক্তিদের জন্য বিনামূল্য লাশ কবর দেওয়া হয়।

 

লাশ দাফনের সময়সীমা

ভোর ৮টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত কবরস্থানে দাফনকার্য সম্পন্ন করা যায়।

 
আরো পড়ুন
 

নামসংক্ষিপ্ত বিবরণ
শাহজাহানপুর কবরস্থানমতিঝিল, শাহজাহানপুর
খ্রিষ্টান কবরস্থানওয়ারী, ওয়ারী
উত্তরা কবরস্থানউত্তরা, সেক্টর ১০
শহীদ বুদ্ধিজীবী কবরস্থানশাহ আলী, মিরপুর ১
জুরাইন কবরস্থানশ্যামপুর, জুরাইন
বনানী কবরস্থানগুলশান, বনানী
পোস্তগোলা শ্মশান ঘাটঢাকা, পোস্তগোলা শ্বশান ঘাট
আজিমপুর পুরাতন কবরস্থানঢাকা, কবরস্থান
২৫ বছরে ১৮ সন্তানের জননী!
সর্বপ্রথম পোর্টেবল দ্বীপ
বিদেশিনীর বাংলা প্রেম
জুতার গাছ!
exam
নির্বাচিত প্রতিবেদন
exam
সুমাইয়া শিমু
পিয়া বিপাশা
প্রিয়াংকা অগ্নিলা ইকবাল
রোবেনা রেজা জুঁই
বাংলা ফন্ট না দেখা গেলে মোবাইলে দেখতে চাইলে
how-to-lose-your-belly-fat
guide-to-lose-weight
hair-loss-and-treatment
how-to-flatten-stomach
fat-burning-foods-and-workouts
fat-burning-foods-and-workouts
 
সেলিব্রেটি