এ টি এম শামসুজ্জামান

বাংলাদেশের মিডিয়া জগতে যে কয়েকজন অভিনেতা নিজস্ব অভিনয় গুনে প্রচুর খ্যাতি অর্জন করেছেন চতুর ও দক্ষ অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামান তাদের মধ্যে অন্যতম। এটিএম শামসুজ্জামান বাংলাদেশের অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেতা,পরিচালক,কাহিনীকার,চিত্রনাট্যকার,সংলাপকার ও গল্পকার। পারিবারিক ভাবে তিনি ছয়টি ছেলে সন্তানের জনক।  

 

চলচ্চিত্র জীবন

পরিচালক উদয়ন চৌধূরির বিষকন্যা চলচ্চিত্রে সহকারী পরিচালক হিসেবে ১৯৬১ সালে চলচ্চিত্র জীবনের শুরু এটিএম শামসুজ্জামানের। প্রথম কাহিনী ও চিত্রনাট্য লিখেছেন জলছবি চলচ্চিত্রের জন্য। ছবির পরিচালক ছিলেন নারায়ণ ঘোষ মিতা,এ ছবির মাধ্যমেই অভিনেতা ফারুকের চলচ্চিত্রে অভিষেক। এ পর্যন্ত শতাধিক চিত্রনাট্য ও কাহিনী লিখেছেন। প্রথম দিকে কৌতুক অভিনেতা হিসেবে চলচ্চিত্র জীবন শুরু করেন তিনি। অভিনেতা হিসেবে চলচ্চিত্র পর্দায় আগমন ১৯৬৫ সালের দিকে। ১৯৭৪ সালে চলচ্চিত্রকার আমজাদ হোসেনের নয়নমণি চলচ্চিত্রে খলনায়কের চরিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে আলোচনা আসেন তিনি।

 

মঞ্চ ও টিভি নাটকে আগমন   

অভিনয় জীবনের শুরুতে ষাটের দশকে টিভি নাটকে ও মঞ্চে অভিনয় করেন এটিএম শামসুজ্জামান।

 

পরিচালনা

২০০৬ সালে প্রথম পরিচালনা করেন শাবনূর-রিয়াজ জুটির এবাদত নামের ছবিটি।

 

সম্মাননা

এটিএম শামসুজ্জামান চারবার জাতীয় পুরস্কারে ভূষিত হন।  তিনি ১৯৮৭ সালে অপেক্ষা চলচ্চিত্রের জন্য শ্রেষ্ট্র অভিনেতার পুরস্কার লাভ করেন। জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ছাড়াও অসংখ্য পুরস্কারে এটিএম শামসুজ্জামান ভূষিত হয়েছেন।

 

আপডেটের তারিখঃ ২৮ জুলাই, ২০১৩ ইং

মিথ্যা প্রেমের ফাঁদ থেকে নিজেকে দূরে রাখুন
ফেসবুকে ভুয়া আইডি চেনার উপায়
আনন্দে থাকার মূলমন্ত্র
আপনার প্রেমিকা/স্ত্রী কি সুন্দরী?
নির্বাচিত প্রতিবেদন
বাংলা ফন্ট না দেখা গেলে মোবাইলে দেখতে চাইলে
আপডেট নিউজ
লাইফ স্টাইল
নির্বাচিত লেখা থেকে
গাড়ী আটক হলে
ট্রাফিক আইন ভাঙাসহ বিভিন্ন কারণে পুলিশ গাড়ি আটক করে করে থাকে। গাড়ি আটক হলে অনেকেই ঘাবড়ে যান, মনে করেন গাড়ি ছাড়িয়ে আনা বেশ ঝামেলার কাজ। অনেকে আবার উৎকোচ দিয়ে কাল্পনিক ঝামেলার  হাত থেকে বাঁচার চেষ্টা করেন। পুলিশ বিভিন্ন কারণে আপনার গাড়ি আটক করতে পারে, যেমন, সঠিক জায়গায় গাড়ি পার্ক না করা, বেপরোয়া গতিতে গাড়ি চালানো, চলতে গিয়ে পুলিশের নির্দেশনা না মানা, গাড়ির ফিটনেস সংক্রান্ত কাগজপত্র নবায়ন না করা, ড্রাইভিং... বিস্তারিত
 
বিদেশী দূতাবাস