পূর্ববর্তী লেখা    পরবর্তী লেখা
পুরো লিস্ট দেখুন

ঢাকা পদাতিক

ঢাকা পদাতিক কিছু উচ্ছ্বল প্রাণবন্ত তারুণ্যের সমাবেশের ফসল। ১৯৮০ সালের ১০ই মার্চ এস এম সোলাইমান ও গোলাম কুদ্দুস এর হাত ধরে- “নাটক হোক জীবনের প্রকাশিত সত্য, নাটক হোক জীবন যুদ্ধের হাতিয়ার”। শ্লোগান নিয়ে ঢাকা পদাতিকের যাত্রা শুরু।

 

ঠিকানা

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

টি.এস.সি গেমস্ রুম, (টিএসসি নিচতলা)

সুইমিং পুলের পাশের রুম- সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের রুম

মোবাইলঃ ০১৭২০৫৮৫৮১৬, ০১৭১১৫২২৭৬৮

 

অবস্থান

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসিতে অবস্থিত।

 

কর্মশালা

  • ঢাকা পদাতিক মূলত নাট্যকর্মীদের অভিনয়ের উপর বিভিন্ন ধরনের কর্মশালা করে থাকে।
  • সংগঠনের সুবিধামতো কর্মশালার সময় নির্ধারণ করা হয়ে থাকে।
  • নতুন সদস্যদের ১৫ দিন ব্যাপী প্রতিদিন ৩ ঘন্টা করে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়।
  • সাধারণত বিকাল ৪টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। বিশেষ কারণে এই সময় পরিবর্তন হয়ে থাকে।    

 

যোগ্যতা

  • ঢাকা পদাতিক নাট্য সংগঠনের সদস্য হতে হলে প্রার্থীকে ন্যূনতম এইচ.এস.সি পাশ হতে হয়।

 

মঞ্চায়িত নাটক

ঢাকা পদাতিক এর মঞ্চায়িত উল্লেখযোগ্য নাটকগুলো হলো:

  • বিষাদ সিন্ধু- মূল-মীর মোশাররফ-রচনা-বিপ্লব বালা
  • ক্ষ্যাপা পাগলার প্যাঁচাল- এস এম সুলাইমান
  • তালপাতার সেপাই- জামিল আহমেদ
  • কথা একাত্তর
  • জলদাস
  • পাইচো চোরের কিচ্ছা- কাজী চপল
  • প্রথম মঞ্চস্থ হয় ক্ষ্যাপা পাগলার প্যাঁচাল
  • বর্তমান শো-পাইচো-চোরের কেচ্ছা
  • ঢাকার বাইরে যাওয়ার ক্ষেত্রে গ্রুপ থেকেও কিছুটা আর্থিক সহায়তা দেওয়া হয়।

 

সদস্য হওয়া

  • সভাপতি বরাবর দরখাস্ত লিখতে হয়
  • সাথে এক কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি দিতে হয়।
  • সংগঠনের সদস্য হিসাবে নির্বাচিত হলে এককালীন ২০০ টাকা দিয়ে সদস্য হতে হয়।
  • এছাড়া আর কোন টাকা পয়সা নেওয়া হয় না। এছাড়া পরবর্তীতে সংগঠনের পক্ষ থেকে সদস্যদের কোনো টাকা-পয়সা দেওয়া হয় না।

 

মহড়া কেন্দ্র

  • ঢাকা পদাতিক এর বিভিন্ন নাটকের মহড়া টিএসসি-র নিচতলায় গেমস রুমের হয়ে থাকে। এছাড়া শো-এর দিন সকালে নির্দিষ্ট ভেন্যুতে মহড়া অনুষ্ঠিত হয়। 

 

বিবিধ

  • শিশুদের জন্য আলাদা কর্মশালার ব্যবস্থা নেই।
  • সংগঠনের সদস্য হওয়ার জন্য কোন পরীক্ষা নেই অডিশন দিতে হয় না।
  • নাটকের প্রতি একজন কর্মীর আগ্রহকে প্রধান্য দেওয়া হয়।
  • অভিনয়ের জন্য কর্মীদের কোন টাকা দেওয়া হয় না।
  • নাটকের কস্টিউম সংগঠন ব্যবস্থা করে থাকে।
  • শো ব্যতিত নাটকের যাবতীয় কর্মকান্ড বিকাল চারটার পর থেকে টি.এস.সিতে হয়ে থাকে।
  • কর্মশালা শেষে কোন সার্টিফিকেট দেওয়া হয় না।
  • একজন কর্মী যদি কোন মিডিয়ায়(টিভি, চলচিত্র, বেতার) সুযোগ পায় সংগঠন এর পক্ষ থেকে কোন বাধ্যবাধকতা থাকে না।
  • একজন নাট্যকর্মী ৬ মাস পরেই নাটকে অভিনয় করতে পারে।
  • সংগঠনের প্রয়োজনে যেকোনো কর্মীকে সংগঠনের ডাকে সাড়া দেওয়া বাধ্যতামূলক।

 

খোলা বন্ধ

  • প্রতিদিন বিকাল ৪টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত খোলা থাকে।
 
আরো পড়ুন
 

নামসংক্ষিপ্ত বিবরণ
থিয়েটার নাট্যদল স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে গঠিত দেশের অন্যতম নাট্য সংগঠন
আরণ্যক নাট্যদলবিশিষ্ট নাট্যকার নাট্যকার মামুনর রশীদ এর নাট্য সংগঠন
ঢাকা পদাতিক দেশের প্রথম সারির জনপ্রিয় নাট্য সংগঠন
নাট নালন্দাকবি শামীম রেজার নেতৃত্বে তরুণ ও যুবদের নাট্য সংগঠন
সুবচন নাট্য সংসদঢাকার মঞ্চ নাটকের পথিকৃত
নাট্য প্রয়াসনাট্য প্রয়াসের সদস্য হওয়া ও মঞ্চস্থ নাটক সম্পর্কে তথ্য রয়েছে
২৫ বছরে ১৮ সন্তানের জননী!
সর্বপ্রথম পোর্টেবল দ্বীপ
বিদেশিনীর বাংলা প্রেম
জুতার গাছ!
exam
নির্বাচিত প্রতিবেদন
exam
সুমাইয়া শিমু
পিয়া বিপাশা
প্রিয়াংকা অগ্নিলা ইকবাল
রোবেনা রেজা জুঁই
বাংলা ফন্ট না দেখা গেলে মোবাইলে দেখতে চাইলে
how-to-lose-your-belly-fat
guide-to-lose-weight
hair-loss-and-treatment
how-to-flatten-stomach
fat-burning-foods-and-workouts
fat-burning-foods-and-workouts
 
সেলিব্রেটি