পূর্ববর্তী লেখা    পরবর্তী লেখা
পুরো লিস্ট দেখুন

কক্সবাজারের রামু

কক্সবাজার জেলার একটি উপজেলা রামু। এই উপজেলাটি বৌদ্ধদের মন্দির, হিমছড়ি, রাবার বাগানের জন্য বিখ্যাত। ২০১২ সালের ২৯ সেপ্টেম্বর সহিংস ঘটনার রামু সারা বিশ্বব্যাপি পরিচিত।

 

অবস্থান

কক্সবাজার হতে রামু ২৫ কিলোমিটার পূর্বে অবস্থিত। ২১ ডিগ্রী ১৭' উত্তর অক্ষাংশ হতে ২১ ডিগ্রী ৩৬' উত্তর অক্ষাংশ এবং ৯০ ডিগ্রী পূর্ব দ্রাঘিমাংশ হতে ৯২ ডিগ্রী পূর্ব দ্রাঘিমাংসের মধ্যে তার অবস্থান। রামুর উত্তরে চকরিয়া ও কক্সবাজার সদর,দক্ষিণে উখিয়া ও পূর্বে বান্দরবান পার্বত্য জেলার নাইক্ষ্যংছড়ি অবস্থিত।

 

রামুর ইউনিয়ন

রামু উপজেলায় ১১ টি ইউনিয়ন আছে । ইউনিয়ন গুলো হলঃ চাকমারকুল, ফতেখাঁরকুল, গর্জনিয়া, ঈদগড়, জোয়ারিয়া নালা, কচ্ছপিয়া, খুনিয়াপলং, কাউয়ারখোপ, রাজারকুল, দক্ষিণ মিঠাছড়ি, রশীদ নগর।

 

পূর্ব কথা
প্রাচীনকাল থেকে যুগে যুগে রামু বিভিন্নমুখী কর্মকান্ডের প্রাণকেন্দ্র ছিল। পুরনো গ্রীক ভাষায় লিখিত টুলেমির ভূগোলেও রামুর কথা উল্লেখ রয়েছে। ১৫০ খ্রিস্টাব্দে প্রকাশিত বইটিতে পর্তুগীজ ঐতিহাসিক ম্যানরিক তাঁর গ্রন্থে রামু সম্পর্কে বেশ কিছু তথ্য পরিবেশন করেছেন। আরবীয়দের রুহমী রাজ্যটি বর্তমানে রামু বলে অনেকেই মনে করেন। আরবীয় বলতে আরবীয় ঐতিহাসিক আল ইদ্রিসী,আল ইয়াকুবী,সোলায়মান তাজর,কাজী রশিদ বিন জোবের,ইবনুল ফকীহ হামদানী প্রমুখ পন্ডিতদের এ মতামত অনুযায়ী এই রুহমী থেকে রামু শব্দের উৎপত্তি বলে ধারণা করা হয়। ঐতিহাসিক বিবরণীতে জানা যায়,আরাকানীরা রামুকে প্যানোয়া নামে অভিমত করেছেন। প্যানোয়ার (রামু) গভর্নরকে তারা পোমাজা বলে ডাকত। প্রখ্যাত গবেষক আবদুল করিম পাল বংশের অন্যতম রাজা ধর্মপালের রাজধানী এ রামুতেই বলে অনুমান করেছেন।

 

দেখতে পাবেন

  • রামকোট বনাশ্রম বৌদ্ধ বিহার
    • চৌমুহনী স্টেশন ৩ কিলোমিটার দক্ষিণে,রাজারকুল এলাকায় পাহাড়চুড়ায় এই মন্দিরটি অবস্থিত। প্রায় আড়াই হাজার বছর আগে ৩০৮ খ্রীষ্ট পূর্বে সম্রাট অশোক এটি নির্মাণ করেন। এর অভ্যন্তরে ২ টি বড় বুদ্ধ মুর্তি আছে। একটিতে গৌতম বুদ্ধ এর বক্ষাস্থি স্থাপিত হয়েছে।
  • জগজ্জোতি চিল্ড্রেনস হোম
    • রামকোট বনাশ্রম বৌদ্ধমন্দিরের ঠিক নীচে এই মন্দিরটি অবস্থিত। ১৯৯৪ সালে ইতালির নাগরিক ফাদার পিয়াট্রো লুইজি এটি প্রতিষ্ঠা করেন।
  • রামকোট তীর্থধাম
  • নারকেল বাগান
    • রামু মরিচ্যা সড়ক ধরে দক্ষিনে আধা কিলোমিটার এর মধ্যে এর অবস্থান। ১৯৮১-১৯৮২ সালের দিকে এই বাগানের কাজ শুরু হয়। তবে বাগানটি এখন মৃতপ্রায়।
  • লামারপাড়া ক্যাং
    • ১৮০০ সালে তৎকালীন রাখাইন জমিদার উথোয়েন অংক্য রাখাইন এটি প্রতিষ্ঠা করেন।
  • চেরাংঘাটা বড় ক্যাং
  • মেরুংলোয়া কেন্দ্রীয় সীমা বিহার
  • রাবার বাগান
  • হিমছড়ি
  • ইন্টারন্যাশনাল এমিউজমেন্ট ক্লাব,চেইন্দ্যা,দক্ষিণ মিঠাছড়ি
  • পানেরছড়া রাখাইন পল্লী,দক্ষিণ মিঠাছড়ি

 

দর্শণীয় স্থানসমূহ  
হিমছড়ি ঝর্ণা

কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের পর পর্যটকদের মুখে উচ্চারিত হয় হিমছড়ির নাম। হিমছড়িতে রয়েছে পাহাড়,সমুদ্র ও ঝর্ণার অপূর্ব মেলবন্ধন। যা ভ্রমণপিপাসুদের বিমোহিত করে। হিমছড়িকে ঘিরে প্রতিনিয়ত সমাগম ঘটে দেশী ও বিদেশী পর্যটকদের। এখানে বেশ কয়েকটি ছোট-বড় পাহাড়ী ঝর্ণা রয়েছে। এসব ঝর্ণার পানি প্রবাহ পর্যটকদের আকৃস্ট আগের চেয়ে বর্তমানে পর্যটন এলাকা হিমছড়িকে অনেক সংস্কার করা হয়েছে। সিঁড়ি বেয়ে উচুঁ পাহাড়ে উঠে সাগর,পাহাড় ও কক্সবাজারের দৃষ্টিনন্দন নৈসর্গিক সৌন্দর্য্য খুব সহজে উপভোগ করা যায়। রামু থেকে হিমছড়ির দূরত্ব ২০ কিলোমিটার। যেতে সময় লাগবে আধঘন্টা। যাতায়াত ব্যবস্থা ভালো। টেক্সী, টমটম,বাস যোগে যাওয়া যায়। এছাড়া কক্সবাজার শহর থেকে হিমছড়ির দূরত্ব মাত্র পাঁচ কিলোমিটার। ফলে এখান থেকে যে কোন যানবাহন নিয়ে স্বল্প সময়ে হিমছড়ি পৌঁছা যাবে।


ঐতিহ্যবাহী বৌদ্ধ পুরার্কীতি

রামুতে রয়েছে অসংখ্য প্রাচীন ঐতিহাসিক নিদর্শন। যার মধ্যে বৌদ্ধ মন্দির,বিহার ও চৈত্য-জাদি উল্লেখযোগ্য। রামুতে প্রায় ৩৫টি বৌদ্ধ মন্দির বা ক্যাং ও জাদি রয়েছে। তবে ২০১২ সালের ২৯ সেপ্টেম্বর পবিত্র কোরআন অবমানর একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে দেয়ার ঘটনায় সৃষ্টি সহিংসতায় পুরোপুরি ও আংশিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে রামুর অনেক প্রাচীন ও দৃষ্টিনন্দন বৌদ্ধ বিহার। ওই ঘটনায় পুরোপুরি ও আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত বিহারগুলো এখন সরকারী নির্মাণ শেষের দিকে রয়েছে।  বৌদ্ধ ঐতিহ্যের মধ্যে রামুর লামার পাড়া ক্যাং,কেন্দ্রিয় সীমা বিহার (১৭০৭),শ্রীকুলের মৈত্রী বিহার (১৯৮৪),অর্পন্নচরণ মন্দির ,শাসন ধ্বজা মহাজ্যোতিঃপাল সীমা (১২৮৯বাংলা),শ্রীকুল পুরাতন বৌদ্ধ বিহার,শ্রীকুলের চেরেংঘাটা বড় ক্যাং,(রোয়াংগ্রী ক্যাং ১৮৮৫) সংলগ্ন মন্দির সমুহ,দক্ষিন শ্রীকুলের সাংগ্রীমার ক্যাং সংলগ্ন মন্দির সমুহ,রামকৌট বনাশ্রম বিহার। পূর্ব রাজারকুল বৌদ্ধ বিহার,চাতোফা চৈত্য জাদি,উত্তর মিঠাছড়ি প্রজ্ঞাবন বিহার সংলগ্ন মন্দির উল্লেখযোগ্য। বিমুক্তি বিদর্শন ভাবনা কেন্দ্র উত্তর মিঠাছড়ি ১০০ ফুট সিংহ সজ্জা বৌদ্ধ মুর্তি। উত্তর ফতেঁখারকুল বিবেকারাম বৌদ্ধ বিহার সংলগ্ন মন্দির সমুহ, ঈদগড় বৌদ্ধ বিহার প্রভৃতি। রামুর এই বৌদ্ধ ঐতিহ্য অতীত কাল থেকে গৌরবময় সাক্ষ্য বহন করে আসছে।

 

আপডেটের তারিখঃ ৩ জুলাই, ২০১৩ ইং

 
আরো পড়ুন
 

নামসংক্ষিপ্ত বিবরণ
হামহাম জলপ্রপাতপ্রাকৃতিক সৌন্দর্য ও যাতায়াত সম্পর্কে তথ্য রয়েছে
নিঝুম দ্বীপএই দ্বীপের নৈগর্গিক সৌন্দর্য ও যাতায়াত সম্পর্কে তথ্য রয়েছে
জগদ্দল বিহারজগদ্দল বিহার নওগাঁ জেলার এক অতি প্রাচীন নিদর্শন
শালবন বৌদ্ধ বিহারকুমিল্লা জেলায় অবস্থিত শালবন বৌদ্ধ বিহার প্রাচীন সভ্যতার অন্যতম নিদর্শন
নুহাশ পল্লীনুহাশ পল্লী ঢাকার অদুরে গাজীপুরে অবস্থিত একটি বাগানবাড়ী
পরিকুন্ড জলপ্রপাতস্থানের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য ও যাতায়াত ব্যবস্থা সম্পর্কে তথ্য রয়েছে
সোনাদিয়া দ্বীপএই দ্বীপের প্রাকৃতিক ও যাতায়াত ব্যবস্থা সম্পর্কে তথ্য রয়েছে
সীতাকুন্ড চন্দ্রনাথ পাহাড়চারপাশের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য ও যাতায়াত ব্যবস্থা সম্পর্কে তথ্য রয়েছে
আলুটিলা রহস্য গুহালোকেশন, যাওয়ার ব্যবস্থাসহ বিস্তারিত তথ্য রয়েছে
নাফাখুম ঝর্নাএই স্থানে যাতায়াত, থাকা, খাওয়া সহ সকল তথ্য রয়েছে
আরও ৪৪ টি লেখা দেখতে ক্লিক করুন
২৫ বছরে ১৮ সন্তানের জননী!
সর্বপ্রথম পোর্টেবল দ্বীপ
বিদেশিনীর বাংলা প্রেম
জুতার গাছ!
exam
নির্বাচিত প্রতিবেদন
সুমাইয়া শিমু
পিয়া বিপাশা
প্রিয়াংকা অগ্নিলা ইকবাল
রোবেনা রেজা জুঁই
বাংলা ফন্ট না দেখা গেলে মোবাইলে দেখতে চাইলে
how-to-lose-your-belly-fat
guide-to-lose-weight
hair-loss-and-treatment
how-to-flatten-stomach
fat-burning-foods-and-workouts
 
সেলিব্রেটি