পূর্ববর্তী লেখা    পরবর্তী লেখা
পুরো লিস্ট দেখুন

মাই ট্যুরিজম

 

নাগরিক জীবনের ব্যস্ততা থেকে ছুটি নিয়ে অনেকেই চায় প্রকৃতির কাছাকাছি চলে যেতে। কোলাহলমুক্ত প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের ছোয়া সবাইকে দেয় নতুন প্রাণের স্পন্দন। ঢাকা থেকে দেশের বিভিন্ন পর্যটন স্পটে দর্শনার্থীদের ভ্রমণের ব্যবস্থা করে থাকে কিছু ট্যুর অপারেটর প্রতিষ্ঠান। মাই ট্যুরিজম তেমনি একটি প্রতিষ্ঠান। মাই ট্যুরিজম সাধারণত কক্সবাজার, সুন্দরবন, সেন্টমার্টিন, কুয়াকাটা, বান্দরবন, রাঙ্গামাটি ইত্যাদি স্থানে ট্যুর পরিচালনা করে থাকে।

 

ঠিকানা

মাই ট্যুরিজম

সাওন টাওয়ার, ২/সি, পুরানা পল্টন, ঢাকা – ১০০০।

ফোন: ৮৮-০২-৭১১২২১০, মোবাইল: ০১৭২৬-৩২৬৩৬৩

ই-মেইল: [email protected], ওয়েব সাইট: www.mytourismbd.com

 

অবস্থান

বায়তুল মোকাররম মসজিদ থেকে ১০০০ গজ উত্তরে ও পুরানা পল্টন গার্লস ডিগ্রি কলেজের সন্নিকটে এটি অবস্থিত।

 

ঢাকা থেকে সুন্দরবন

মাই ট্যুরিজম প্রতি মাসে একবার সুন্দরবন ট্যুরের ব্যবস্থা করে থাকে। তবে শীতকালে বেশী ভিড় থাকে। ৪ রাত ৪ দিনের এই প্যাকেজে জনপ্রতি ৯,৯৫০ টাকা পরিশোধ করতে হয়। তবে দলগত ভ্রমণে কিছুটা ছাড় দেওয়া হয়। সেক্ষেত্রে কমপক্ষে ৩৬ জনের দল হতে হবে।

 

সুন্দরবনের উদ্দেশ্যে যাত্রা

ঢাকার মতিঝিলের আরামবাগ বা ফকিরাপুল থেকে নন এসি বাসের মাধ্যমে পর্যটকদের খুলনা রূপসা ঘাটে নিয়ে যাওয়া হয়। বাস সাধারণত হানিফ/শ্যামলী পরিবহনের হয়ে থাকে। যাত্রা পথে পর্যটকদের পার্সেল বিরিয়ানী বা খিচুড়ী সরবরাহ করা হয়।

 

লঞ্চ

সাধারণত দ্বিতল বিশিষ্ট বড় লঞ্চের মাধ্যমে পর্যটকদের সুন্দরবনের বিভিন্ন স্পটে ঘুরানো হয়। লঞ্চের ধারণ ক্ষমতা ১০০ জন এবং সবাইকে কেবিনে রাখার ব্যবস্থা করা হয়। তবে কেবিনে কমপক্ষে দুজন করে থাকতে হয়।

 

সুন্দরবনের স্পটসমূহ

সুন্দরবনে ভ্রমণকালে মংলা সমুদ্রবন্দর, বাংলাদেশের একমাত্র কুমির প্রজনন কেন্দ্র করমজল, হীরন পয়েন্ট, টাইগার পয়েন্ট, দুবলার চর ও আশপাশের সকল নৈসর্গিক দৃশ্য দেখানো হয়।

 

খাওয়া-দাওয়া

মাই ট্যুরিজম পর্যটকদের জন্য নিম্নোক্ত তালিকা অনুসারে খাবার সরবরাহ করে থাকে।

দিন

সকাল

দুপুর

রাত

প্রথম দিন

পরোটা, সবজি ও ডিম

ভাত, গরুর মাংস, সবজি, ডাল

ভাত, মাছ, সবজি, ডাল

দ্বিতীয় দিন

একই

ভাত, গরুর মাংস, সবজি, ডাল

ভাত, ডিম, সবজি, ডাল

তৃতীয় দিন

একই

ভাত, মাছ, সবজি, ডাল

ভাত, মাংস, সবজি, ডাল

তবে দর্শনার্থীরা চাইলে সকালের মেনু পরিবর্তন করে খিচুড়ী খেতে পারেন। ভ্রমণের শেষ দিন বার-বি-কিউ’র আয়োজন করা হয়।

 

বিনোদন

মাই ট্যুরিজম সুন্দরবন ভ্রমণকালে পর্যটকদের বিনোদনের জন্য সাউন্ড সিস্টেম, ব্যান্ডদল বা নৃত্য শিল্পীর ব্যবস্থা করে থাকে। বিনোদন সুবিধা প্যাকেজ মূল্যের অন্তর্ভুক্ত থাকে।

 

অন্যান্য

ভ্রমণকালে কোম্পানীর মাধ্যমে গাইড প্রদান করা হয়। যিনি গাইড হিসেবে দর্শনার্থীদের সাথে যান তার উক্ত স্পটসমূহ সম্পর্কে পূর্ব অভিজ্ঞতা থাকে। তাই তার নির্দেশনা অনুযায়ী চলতে হয়। এছাড়া দর্শনার্থীরা দল ছাড়া এককভাবে আলাদা কোথাও যেতে পারে না। কর্তৃপক্ষের অনুমতির বাইরে কোথাও যাওয়া সম্পূর্ণ নিষেধ। ভ্রমণের প্রয়োজনীয় সরকারী অনুমতি মাই ট্যুরিজম কর্তৃপক্ষ ব্যবস্থা করে থাকে।

 

ঢাকা থেকে সেন্টমার্টিন

সাধারণত শীতকালে সেন্টমার্টিনে ভ্রমণের অফার দেওয়া হয়। ৪ রাত ৩ দিনের প্যাকেজের মাধ্যমে পর্যটকদের কক্সবাজার ও সেন্টমার্টিন দ্বীপ ভ্রমণ করিয়ে আনা হয়। ঢাকার ফকিরাপুল থেকে নন এসি চেয়ার কোচ বাস কক্সবাজারের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়। বাসগুলোতে স্লিপিং চেয়ার ও বিনোদন ব্যবস্থা থাকে। ঢাকা থেকে টেকনাফে যাওয়ার পথে কক্সবাজারে ২ দিনের যাত্রা বিরতি দেওয়া হয়। কক্সবাজারে হোটেল প্রাসাদ প্যারাডাইজ –এ পর্যটকদের রাখা হয়। টেকনাফে সি পার্ক ও সেন্ট মার্টিনে অবকাশ হোটেলে রাখা হয়। তিন তারকা মান ও এসি/নন-এসি উভয়ই রুম আছে। রুমে উন্নত বিছানাপত্র সহ সকল আধুনিক সুবিধা রয়েছে।

 

প্যাকেজ চার্জ

প্যাকেজ অনুযায়ী জনপ্রতি ৫,৯৫০ টাকা চার্জ দিতে হয়। কাপল বা দলীয় সকল ক্ষেত্রে চার্জ সমান।

 

খাওয়া-দাওয়া

দিন

সকাল

দুপুর

রাত

প্রথম দিন

পরোটা, সবজি, ডাল

ভাত, মাংস, ডিম, ডাল

ভাত, মাছ, সবজি, ভর্তা

দ্বিতীয় দিন

পরোটা, সবজি, ডিম

ভাত, মাছ, সবজি, ডাল

ভাত, মাংস, ডাল, সবজি

তৃতীয় দিন

খিচুড়ী, ডিম

ভাত, মাংস, সবজি ডাল

ভাত, মাছ, ডিম, ডাল

বার-বি-কিউ ব্যবস্থা হয় যেকোন ১দিন প্যাকেজ মূল্যের সাথে।

 

স্পটসমূহ

হিমছরি শীতল পানির ঝরনা, এলিফ্যান্ট পয়েন্ট, লাবনী পয়েন্ট, টেকনাফ, সেন্টমার্টিন। উক্ত স্পটসমূহ ভ্রমণকালে কর্তৃপক্ষের নিযুক্ত গাইডের নির্দেশনার বাইরে যাওয়া যাবে না। সময়, পরিবেশ ও পরিস্থিতি বুঝে গাইড সকল ভ্রমণ পরিচালনা করেন।

 

অন্যান্য

মাই ট্যুরিজম পর্যটকদের জন্য বিভিন্ন বিনোদনের ব্যবস্থা করে থাকে। প্রয়োজনীয় অনুমতি মাই ট্যুরিজম কর্তৃপক্ষ সংগ্রহ করে।

 

ঢাকা থেকে রাঙ্গামাটি

রাঙামাটির উদ্দেশ্যে প্রতিমাসে একবার করে ট্যুরের আয়োজন করে থাকে। ৪ রাত ৩ দিনের জন্য প্যাকেজ অফার করা হয়।

 

প্যাকেজ

৪ রাত ৩ দিনের প্যাকেজ ট্যুরের জন্য জনপ্রতি ৫,৯৫০ টাকা মাই ট্যুরিজমকে দিতে হবে। ঢাকা থেকে নন এসি চেয়ার কোচের মাধ্যমে পর্যটকদের রাঙ্গামাটিতে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে হোটেল সুফিয়া সহ উন্নতমানের হোটেলে পর্যটকদের রাখা হয়। রাঙ্গামাটির বিভিন্ন স্পটে ঘুরার জন্য মাই ট্যুরিজম নৌযানের ব্যবস্থা করে থাকে। ভ্রমণের শেষ দিন বার-বি-কিউর আয়োজন করা হয়। মাই ট্যুরিজম কর্তৃপক্ষ প্রয়োজনীয় অনুমতি সমূহ সংগ্রহ করে থাকে।

 

স্পটসমূহ

কাপ্তাই লেক, বাগাইছড়ি, বরকল, শুভলং ঝরনা, বৌদ্ধ রাজার বাড়ি, ঝুলন্ত সেতু, আদিবাসী পল্লী, পেতা টিং টিং ইত্যাদি দর্শনীয় স্থানসমূহ পর্যটকদের দেখানো হয়।

ভ্রমণকালে কোম্পানীর নিজস্ব কিছু নিরাপত্তামূলক ও সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়। কোম্পানী কর্তৃক প্রেরিত গাইড যিনি থাকেন সকল দর্শনার্থীকে তার নির্দেশনা অবশ্যই মানতে হয়।

 

খাওয়া-দাওয়া

দিন

সকাল

দুপুর

রাত

প্রথম দিন

পরোটা, সবজি, ডাল

মাংস, ডিম, ডাল

মাছ, সবজি, ডাল

দ্বিতীয় দিন

খিচুড়ী, ডিম

মাংস, সবজি, ডাল

মাছ, ডিম, ডাল

তৃতীয় দিন

পরোটা, ডিম, সবজি

বিরানী, কোল্ড ড্রিংক

মাছ, সবজি, ডাল

 

অন্যান্য

  • বর্ষাকাল ব্যতীত সকল সময় একটু চাপ থাকে। উক্ত কোম্পানী ৩৬ জনের একদলের ভ্রমণ পরিচালনা করে থাকে।
  • মাই ট্যুরিজম কক্সবাজার, রাঙ্গামাটি, সুন্দরবন, কুয়াকাটা, বান্দরবন ও সেন্টমার্টিনের ভ্রমণ পরিচালনা করে থাকে। এমনকি দেশের বাইরে ভারত, নেপাল, ভুটান, মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর ও থাইল্যান্ডে ভ্রমণের আয়োজন করে থাকে।
  • প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে গাইড সরবরাহ করা হয়। তবে এর জন্য কোন চার্জ দিতে হয় না।
  • মাই ট্যুরিসমের অফিস সকাল ৯:৩০ টা থেকে বিকাল ৪:৩০ টা পর্যন্ত খোলা থাকে । শনিবার সাপ্তাহিক বন্ধ।
  • ঈদ ও বিশেষ উপলক্ষ্যে কোম্পানী আকর্ষণীয় ছাড় দিয়ে থাকে। তবে ছাড় আলাপ আলোচনার মাধ্যমে নির্ধারণ করা হয়।
 
আরো পড়ুন
 

নামসংক্ষিপ্ত বিবরণ
সিএনএইচ হলিডেদেশে ও দেশের বাইরে প্যাকেজ ট্যুর পরিচালনা করে থাকে
পার্টি প্ল্যানার্স বাংলাদেশপার্টি প্ল্যানার্স বাংলাদেশ সম্পর্কে তথ্য রয়েছে
বিডি ট্যুরসদেশে-বিদেশে ভ্রমণ সম্পর্কে তথ্য রয়েছে
ভ্রমণের বন্ধু: ইওর ট্রিপ মেটভ্রমণে সহায়তাকারী অনলাইন প্রতিষ্ঠান
ট্যুরিস্ট প্লাসসুলভে ভ্রমন আয়োজনকারী প্রতিষ্ঠান
আই আর এয়ার টিকেটিং এন্ড ট্রাভেলভ্রমণের একটি প্রতিষ্ঠান
সামীর ট্রাভেলস এন্ড ট্যুরসবিদেশ ভ্রমণের ব্যবস্থা করে থাকে।
গ্যালাক্সী হলিডেজ বিদেশ ভ্রমণে সহায়তাদান করে থাকে।
ট্রাভেল কুক লিমিটেডদেশের সীমানা পেরিয়ে বিদেশ ভ্রমণে যেতে চাইলে
ম্যাপল ট্যুরস এন্ড ট্রাভেলস্বিশ্বের যে কোন স্থান, যে কোন প্রয়োজনে ভ্রমণে সহায়তা করে থাকে।
আরও ১৫ টি লেখা দেখতে ক্লিক করুন
২৫ বছরে ১৮ সন্তানের জননী!
সর্বপ্রথম পোর্টেবল দ্বীপ
বিদেশিনীর বাংলা প্রেম
জুতার গাছ!
exam
নির্বাচিত প্রতিবেদন
exam
সুমাইয়া শিমু
পিয়া বিপাশা
প্রিয়াংকা অগ্নিলা ইকবাল
রোবেনা রেজা জুঁই
বাংলা ফন্ট না দেখা গেলে মোবাইলে দেখতে চাইলে
how-to-lose-your-belly-fat
guide-to-lose-weight
hair-loss-and-treatment
how-to-flatten-stomach
fat-burning-foods-and-workouts
fat-burning-foods-and-workouts
 
সেলিব্রেটি