পূর্ববর্তী লেখা    পরবর্তী লেখা
পুরো লিস্ট দেখুন

যেখানে হেলিকপ্টারই একমাত্র বাহন

ভারত মহাসাগরের বুকে অবস্থিত মাদাগাস্কার ও মরিশাসের মধ্যকার একটি ফরাসি দ্বীপ লা রিইউনিয়ন। এটি একমাত্র দ্বীপ যা ফ্রান্সের উপনিবেশে থাকা অন্যান্য দ্বীপ থেকে সম্পূর্ণ বিচ্ছিন্ন। ধারণা করা হয়, তিন মিলিয়ন বছর আগে একটি বড় ধরণের আগ্নেয়গিরি উদগীরণের ফলে এখানে ম্যাগমা চেম্বার গঠিত হয়। এরপর এই অঞ্চলটি ফরাসি দ্বীপ থেকে পৃথক হয়ে যায় এবং এর নতুন নামকরণ করা হয় মাফতে। মাফতে হলো এমন একটি দ্বীপ যার চারদিকে উঁচু পর্বত, আঁকাবাঁকা পাহাড়ের খাদ, এবং সবুজ বনাঞ্চলঘেরা প্রাচীর। দ্বীপটির প্রাকৃতিক সৌন্দর্য এতটাই মনোমুগ্ধকর যা প্রথম দেখাতেই আপনার নজর কাড়বে। তবে অপার সৌন্দর্যের মাঝে একটু ঘাটতি যেন থেকেই যায়। মাফাতে পৌঁছানোর জন্য যাতায়তের একটিমাত্র বাহন হলো হেলিকপ্টার, অন্যথায় গন্তব্যে পৌছাতে হলে যেতে হবে পায়ে হেঁটে। বলা হয়ে থাকে, আঠারো শতাব্দীর দিকে এখানে আগ্নেয়গিরির উদগীরণ হয়। প্রথমদিকে আফ্রিকার বিভিন্ন ক্রীতদাসেরা এখানে নিজেদের কর্তৃত্ব ফলানোর জন্য এখানে আসে। পরে ফ্রান্সের বিভিন্ন দরিদ্র কৃষকরা এখানে এসে চাষাবাদ শুরু করেন। দিনের পর দিন তাদেরই পরবর্তী প্রজন্ম এখানে বেড়ে ওঠতে শুরু করে। তারা নিরাপদ আবাসস্থল হিসেবে এই দ্বীপটিকে বেছে নেয় এবং বাইরের পৃথিবী থেকে সবরকম যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হতে থাকে। বর্তমানে মাফতে প্রায় আট’শ পরিবারের বসবাস। মাফতে বসবাসকারি অধিবাসীদের সবাই মাফতীস বলে ডাকে। তারা ছোট ছোট গ্রামে বিভক্ত হয়ে থাকে। গ্রামগুলো স্থানীয়দের কাছে ইয়েত নামে পরিচিত। এখানে বসবাসকারি প্রত্যেকেই উত্তরাধিকার সূত্রে এক একটি গ্রাম পেয়ে থাকে। একটি গ্রামে দুই থেকে তিনটি বাড়ি থাকে। বাড়িগুলো ছাদ দেখতে রঙ্গীন হয় এবং দূর থেকে দেখতে বেশ নজরকারা শৈলি মনে হয় সবার কাছে। চারদিকে পরিবেশ অনেক শান্ত এবং মনোরম। তবে এতকিছুর পরেও অসুবিধা কিন্তু থেকেই যায়। শান্তময় গ্রামে রাত হলেই নেমে আসে ঘন অন্ধকার। আধুনিক সুযোগসুবিধার কোন কিছুই পৌঁছাতে পরেনি দ্বীপটিতে। বিদ্যুৎ তো সেখানে নেই এমনকি পানি আনার জন্য এক’শ বর্গ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিতে হয়। যদি কোন কারণে চিকিৎসক, পুলিশ বা কোন বনকর্মী প্রয়োজন হয় তাহলে তাদেরকে হেলিকপ্টারে করে আনতে হবে অন্যথায় এর কোন বিকল্প উপায় নেই।২০১০ সালে মাফতে ইউনেস্কোর বিশ্বের ঐতিহাসিক নিদর্শনগুলোর একটি হিসেবে মনোনিত হয়। এরপর থেকেই মাফতে সবার কাছে পরিচিত হতে থাকে। ইতোমধ্যে অনেক পর্যটকরা সেখানে ভ্রমন করেও এসেছেন। এই দ্বীপে পাওয়া যাবে নাম না জানা নানান গাছপালা এবং গেলাপোগাস দ্বীপের মতো অদ্ভুত সব পাখিদের কলকাকলি। এছাড়া এই দ্বীপে এমন কিছু গাছপালা জন্মে যা পৃথিবীর অন্য কোথাও সচরাচর দেখা যায় না। পর্যটক এবং গ্রামবাসীদের কথা মাথায় রেখে দ্বীপটিতে পর্বত কেটে রাস্তা বানানোর কথা ইতোমধ্যে প্রস্তাব করা হয়েছে। তবে এর সুফল ভোগ করতে মাফতীসদের বেশ কয়েক বছর অপেক্ষা করতে হবে।

 
আরো পড়ুন
 

নামসংক্ষিপ্ত বিবরণ
জাপানি বিজ্ঞানীর জমজমের পানির রহস্য আবিষ্কার করলেন!এখানে বিস্তারিত বর্ননা করা হয়েছে।
অবশেষে ফেঁসে যাচ্ছে মিয়ানমার সেনাবাহিনীএখানে বিস্তারিত বর্ননা করা হয়েছে।
টাইটানিকের চেয়ে ২০ গুন বড় বিশ্বের সবচেয়ে বড় জাহাজবিস্তারিত জানুন টাইটানিকের চেয়ে ২০ গুন বড় বিশ্বের সবচেয়ে বড় জাহাজ সম্পর্কে
পোষা সিংহ নিয়ে ব্যস্ত সড়কে, আটক করলো পুলিশএখানে বিস্তারিত বর্ননা করা হয়েছে।
রোগ সারানোর নামে মারধরের পর গোবর খাওয়ানো হল তরুণীকে এখানে বিস্তারিত বর্ননা করা হয়েছে।
গোমূত্রে তৈরি সাবান, শ্যাম্পু বিক্রি করবে আরএসএসএখানে বিস্তারিত বর্ননা করা হয়েছে।
ফিডারের দুধে বিষ মিশিয়ে সন্তানকে হত্যা, মা আটকএখানে বিস্তারিত বর্ননা করা হয়েছে।
মাত্র একঘন্টার জন্য ইফতার করেন ফিনল্যান্ডের মুসলমানরাএখানে বিস্তারিত বর্ননা করা হয়েছে।
ট্রাম্পের নামে টয়লেট পেপার!এখানে বিস্তারিত বর্ননা করা হয়েছে।
দাড়ি না কাটায় স্বামীর মুখ ঝলসে দিলেন স্ত্রীএখানে বিস্তারিত বর্ননা করা হয়েছে।
আরও ১৩২০ টি লেখা দেখতে ক্লিক করুন
২৫ বছরে ১৮ সন্তানের জননী!
সর্বপ্রথম পোর্টেবল দ্বীপ
বিদেশিনীর বাংলা প্রেম
জুতার গাছ!
exam
নির্বাচিত প্রতিবেদন
exam
সুমাইয়া শিমু
পিয়া বিপাশা
প্রিয়াংকা অগ্নিলা ইকবাল
রোবেনা রেজা জুঁই
বাংলা ফন্ট না দেখা গেলে মোবাইলে দেখতে চাইলে
how-to-lose-your-belly-fat
guide-to-lose-weight
hair-loss-and-treatment
how-to-flatten-stomach
fat-burning-foods-and-workouts
fat-burning-foods-and-workouts
 
সেলিব্রেটি