পূর্ববর্তী লেখা    পরবর্তী লেখা
পুরো লিস্ট দেখুন

সাগরতলে স্বপ্নপুরি

পানির নিচে বসবাসের স্বপ্ন মানুষের অনেকদিনের। সেই স্বপ্নগুলো বেরিয়ে আসে বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনীর রূপে। কখনো প্রযুক্তির উন্নয়নের কারণ দেখিয়ে, কখনো আবার বিশাল কোনো দুর্যোগের ফলে বাধ্য হয়ে – এমন কারণেই গল্পগুলোতে পানির নিচে আবাস গড়ে তোলে মানুষেরা। কিন্তু এখন আর মানুষের সেই স্বপ্ন কল্পকাহিনীতে সীমাবদ্ধ নেই। বাস্তবেও এমন জীবনের চিন্তা করছেন অনেকেই। তারই প্রমাণ হলো বেলজিয়ামের এক স্থাপত্যবিদের সাগরতলে বহুতল ভবন নির্মাণের উচ্চাভিলাষী পরিকল্পনা। বেলজিয়ান স্থাপত্যবিদ ভিনসেন্ট ক্যালিবাট পানির নিচে অনেকগুলো বহুতল ভবন নিয়ে অনেকগুলো ইকো-গ্রাম (পানির নিচের পরিবেশ ও বাস্তুতন্ত্রে টিকে থাকার মতো পরিবেশবান্ধব বসতি) নির্মাণের বিশাল নকশা তৈরি করেছেন। ভবিষ্যতে যার প্রতিটিতে ২০ হাজারের মতো মানুষ থাকতে পারবে। ভিনসেন্টের এই ‘অ্যাকুরিয়া’ প্রকল্প অনুসারে প্রতিটি ভবন হবে সবদিক দিয়ে স্বয়ংসম্পূর্ণ। ভবনগুলোর শীর্ষ সমুদ্রপৃষ্ঠের ওপর দেখা যাবে। ভবনগুলো হবে প্রায় ১ হাজার মিটার উঁচু। প্রতিটি ভবনের ছাদে এবং বাইরের বিভিন্ন অংশে থাকবে ম্যানগ্রোভ বন (লবণাক্ত পানিতে সৃষ্ট বন)। দেখতে জেলিফিশের মতো হবে ইকো-গ্রামগুলোর ভবনের আকৃতি। পুরো গ্রামটিই তৈরি হবে নবায়নযোগ্য (রিসাইকেল করা) প্লাস্টিক দিয়ে। প্রতিটি ভবন হবে আড়াইশ’ তলাবিশিষ্ট। শুধু বাসস্থান নয়, অ্যাকুরিয়া ইকো-গ্রামে থাকবে বিজ্ঞান গবেষণাগার, অফিস, হোটেল, খেলার মাঠ এবং খামার। সমুদ্রের লবণাক্ত পানিকে লবণমুক্ত করে পানযোগ্য করা হবে। মাইক্রোঅ্যালজির (অতিক্ষুদ্র শৈবাল) সাহায্যে বর্জ্য পরিশোধন করা হবে। আবার আলোর ব্যবস্থা হবে আলো উৎপাদনকারী বিশেষ ধরণের সামুদ্রিক প্রাণীর (বায়োলুমিনাস) মাধ্যমে। সবই না হয় ঠিক আছে। কিন্তু প্রাকৃতিক দুর্যোগ? সাগর-মহাসাগরের ব্যাপার। সেখানে থাকতে পারে তীব্র স্রোত, বিশাল ঢেউ, উঠতে পারে ঝড়। আর ভূমিকম্প তো হতেই পারে। গ্রামগুলোর ভবনের নকশা, আকৃতি এবং ভিত্তি সেভাবেই তৈরি করা হবে যেনো এ ধরণের বিশেষ পরিস্থিতিতে ভবনগুলো সহি-সালামতে টিকে থাকতে পারে। তাছাড়া ভবনগুলো হবে ভাসমান। হয়তো এই পরিকল্পনাটি এখনো আমাদের কাছে আকাশ-কুসুমই মনে হবে। কিন্তু এতো বড় এবং স্থায়ী প্রকল্প না হলেও যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা উপকূলে এখনই এ বিষয়ে ছোট ছোট স্বল্পস্থায়ী পরীক্ষা চলছে। মানুষ থাকার চেষ্টা করছে পানির নিচে। সাগরের বাস্তুতন্ত্রের সহায়তা নিয়ে উভচর জীবন কাটানোর বিভিন্ন দিক নিয়ে গবেষণা করছেন বিজ্ঞানীরা। পাশাপাশি পানির নিচে বিলাসবহুল অবকাশ যাপন বা বিশেষ অনুষ্ঠান উদযাপনের জন্য মালদ্বীপে রয়েছে আন্ডারওয়াটার হোটেল। দুবাইতেও এমনই একটি হোটেল তৈরি হচ্ছে। অন্যদিকে মেক্সিকোসহ আরো কয়েকটি জায়গায় পানির নিচে জাদুঘর ও অন্যান্য দর্শনীয় স্থান নির্মিত হয়েছে, হচ্ছে। আশা করা যায়, ভিনসেন্টের ইকো-গ্রামের মতো প্রকল্পও শিগগিরই বাস্তবায়িত হবে।

 
আরো পড়ুন
 

নামসংক্ষিপ্ত বিবরণ
জাপানি বিজ্ঞানীর জমজমের পানির রহস্য আবিষ্কার করলেন!এখানে বিস্তারিত বর্ননা করা হয়েছে।
অবশেষে ফেঁসে যাচ্ছে মিয়ানমার সেনাবাহিনীএখানে বিস্তারিত বর্ননা করা হয়েছে।
টাইটানিকের চেয়ে ২০ গুন বড় বিশ্বের সবচেয়ে বড় জাহাজবিস্তারিত জানুন টাইটানিকের চেয়ে ২০ গুন বড় বিশ্বের সবচেয়ে বড় জাহাজ সম্পর্কে
পোষা সিংহ নিয়ে ব্যস্ত সড়কে, আটক করলো পুলিশএখানে বিস্তারিত বর্ননা করা হয়েছে।
রোগ সারানোর নামে মারধরের পর গোবর খাওয়ানো হল তরুণীকে এখানে বিস্তারিত বর্ননা করা হয়েছে।
গোমূত্রে তৈরি সাবান, শ্যাম্পু বিক্রি করবে আরএসএসএখানে বিস্তারিত বর্ননা করা হয়েছে।
ফিডারের দুধে বিষ মিশিয়ে সন্তানকে হত্যা, মা আটকএখানে বিস্তারিত বর্ননা করা হয়েছে।
মাত্র একঘন্টার জন্য ইফতার করেন ফিনল্যান্ডের মুসলমানরাএখানে বিস্তারিত বর্ননা করা হয়েছে।
ট্রাম্পের নামে টয়লেট পেপার!এখানে বিস্তারিত বর্ননা করা হয়েছে।
দাড়ি না কাটায় স্বামীর মুখ ঝলসে দিলেন স্ত্রীএখানে বিস্তারিত বর্ননা করা হয়েছে।
আরও ১৩২০ টি লেখা দেখতে ক্লিক করুন
২৫ বছরে ১৮ সন্তানের জননী!
সর্বপ্রথম পোর্টেবল দ্বীপ
বিদেশিনীর বাংলা প্রেম
জুতার গাছ!
exam
নির্বাচিত প্রতিবেদন
exam
সুমাইয়া শিমু
পিয়া বিপাশা
প্রিয়াংকা অগ্নিলা ইকবাল
রোবেনা রেজা জুঁই
বাংলা ফন্ট না দেখা গেলে মোবাইলে দেখতে চাইলে
how-to-lose-your-belly-fat
guide-to-lose-weight
hair-loss-and-treatment
how-to-flatten-stomach
fat-burning-foods-and-workouts
fat-burning-foods-and-workouts
 
সেলিব্রেটি