পূর্ববর্তী লেখা    পরবর্তী লেখা
পুরো লিস্ট দেখুন

সংসারের হাল ধরতে কলেজছাত্রী হাসি এখন কসাই

ছাগলের খোঁজে প্রতিদিন সকাল বেলা এই গ্রাম থেকে সেই গ্রাম এই পশুর হাট থেকে অন্য পশুর হাটে ছুটে বেড়াচ্ছে কলেজছাত্রী হাফসী খাতুন হাসি (১৮)। সে রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলার ধোপাপাড়া গ্রামের হাফিজ কসাইয়ের দ্বিতীয় মেয়ে। হাফিজ কসাইয়ের পরিবারের ৪ মেয়ে। হাসির মা শিখা বিবি মানসিক ও বাক প্রতিবন্ধী। অভাব অনটনের সংসারে হাসি বিভিন্ন গ্রাম ও হাট-বাজার থেকে ছাগল ক্রয় করে প্রায় ৬ বছর ধরে পিতার সাথে কসাইয়ের পেশায় নিয়োজিত রয়েছেন। একদিকে জরাজীর্ণ সংসার, বোনদের লেখাপড়ার খরচ অপরদিকে কাজের ফাঁকে নিজের লেখাপড়া। যাবতীয় কাজ ও দুঃখের মাঝেও হাসির মুখের হাসি যেন সব সময় লেগেই আছে।

 

পিতা হাফিজ কসাই হতাশার সাথে জানান, অভাবের সংসারে আজ আমার মেয়ে হাসিকে কসায়ের কাজ করতে হচ্ছে। বড় মেয়ে হাফিজা খাতুনকে অনেক কষ্টে ৭-৮ বছর পূর্বে পুঠিয়া উপজেলার জামিরা গ্রামে বিয়ে দেয়া হয়েছে। দ্বিতীয় মেয়ে হাসি কয়েক বছর যাবত কসাইয়ের কাজের ফাঁকে কলেজেও পড়ছে। তৃতীয় মেয়ে শিউলী খাতুন এ বছর এসএসসি পরীায় অংশগ্রহণ করবে। ছোট মেয়ে শিলা ৬ষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রী। নিজে লেখাপড়া না জানলেও মেয়েদের লেখাপড়া করাতে চাইলেও ভালোভাবে পড়াতে পারছি না এটা মনে হলে অনেক কষ্ট পাই। বর্তমানে হাসির পাশাপাশি ছোট মেয়ে শিউলীও কোনো কোনো সময় কসাইয়ের কাজে আমাকে সহযোগিতা করছে। গত ১৯ নভেম্বর শনিবার সকালে ধোপাপাড়া বাজারে প্রতিদিনের মতো কসাইপট্টিতে খাসির গোস্ত বিক্রির সময় কথা হয় কলেজছাত্রী হাসির সাথে। সে জানায়, কাজের ফাঁকে ২০০৯ সালে ধোপাপাড়া উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি ও ২০১১ সালে ধোপাপাড়া মেমোরিয়াল ডিগ্রি কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করেছে। বর্তমানে পারিবারিক অসচ্ছলতার কারণে এ বছর ডিগ্রিতে ভর্তি হতে পারিনি। তবে আগামী বছর ডিগ্রিতে ভর্তি হবে বলে সে জানায়। হাসির বাড়িতে গিয়ে দেখা গেছে, মাথা গোঁজার মতো ছোট একটি মাটির ঘর ও একটি একচালা রান্না ঘর রয়েছে। ঘরের অভাবে পাশে নানীর বাড়িতে রাত যাপন করে সে। প্রতিদিন ভোরে পিতার সাথে গ্রাম ও হাট-বাজার থেকে ছাগল ক্রয় করে সাইকেল যোগে বাড়ি নিয়ে আসে। গ্রাহকের চাহিদা অনুযায়ী সময়মত গোস্ত সরবরাহ করে। কলেজের সময় হলে আবার ছুটে চলে কলেজে। ছোট বোনদের লেখাপড়ার খোঁজ খবরসহ সংসারের সকল কাজের ভার তার হাতে।

 

এন্তাজ কসাইসহ স্থানীয় অনেকে জানান, অন্যসব কসাইয়ের চেয়ে মেয়ে হিসেবে হাসি অনেক বেশি পারদর্শী। প্রতিদিন দুই থেকে তিনটি ছাগলের গোস্ত একাই কেটে সে বিক্রি করে দেয়। কোরবানির ঈদ এলে হাসির চাহিদা সবচেয়ে বেশি। এ বছরও সে একাই ৯টি ছাগলের গোস্ত বানিয়েছে। এলাকার নাসিমা বেগম, ইমাম হোসেন, আলমগীর হোসেন ও শরিফা বেগম জানান, হাফিজ কসায়ের সংসারে কোনো ছেলে সন্তান না থাকায় এবং পারিবারিক অভাবের তাড়নায় হাসিকে তার পিতার পেশা বেছে নিতে হয়েছে। সে ভাল্লুকগাছি, উজালপুর, গোটিয়া, ফুলবাড়ী, মহনপুর, নকুলবাড়ীয়া, দাসমাড়িয়াসহ বিভিন্ন পশুর হাট থেকে ছাগল ক্রয় করে ধোপাপাড়া বাজারে গোস্ত বানিয়ে বিক্রি করে থাকে। লেখা-পড়ার পাশাপাশি অসহায় মানুষের পাশে সব সময় সাহায্য সহযোগিতায় হাসির মতো মেয়ে এই গ্রামে আর একটিও নেই।

 

 

 
আরো পড়ুন
 

নামসংক্ষিপ্ত বিবরণ
জাপানি বিজ্ঞানীর জমজমের পানির রহস্য আবিষ্কার করলেন!এখানে বিস্তারিত বর্ননা করা হয়েছে।
অবশেষে ফেঁসে যাচ্ছে মিয়ানমার সেনাবাহিনীএখানে বিস্তারিত বর্ননা করা হয়েছে।
টাইটানিকের চেয়ে ২০ গুন বড় বিশ্বের সবচেয়ে বড় জাহাজবিস্তারিত জানুন টাইটানিকের চেয়ে ২০ গুন বড় বিশ্বের সবচেয়ে বড় জাহাজ সম্পর্কে
পোষা সিংহ নিয়ে ব্যস্ত সড়কে, আটক করলো পুলিশএখানে বিস্তারিত বর্ননা করা হয়েছে।
রোগ সারানোর নামে মারধরের পর গোবর খাওয়ানো হল তরুণীকে এখানে বিস্তারিত বর্ননা করা হয়েছে।
গোমূত্রে তৈরি সাবান, শ্যাম্পু বিক্রি করবে আরএসএসএখানে বিস্তারিত বর্ননা করা হয়েছে।
ফিডারের দুধে বিষ মিশিয়ে সন্তানকে হত্যা, মা আটকএখানে বিস্তারিত বর্ননা করা হয়েছে।
মাত্র একঘন্টার জন্য ইফতার করেন ফিনল্যান্ডের মুসলমানরাএখানে বিস্তারিত বর্ননা করা হয়েছে।
ট্রাম্পের নামে টয়লেট পেপার!এখানে বিস্তারিত বর্ননা করা হয়েছে।
দাড়ি না কাটায় স্বামীর মুখ ঝলসে দিলেন স্ত্রীএখানে বিস্তারিত বর্ননা করা হয়েছে।
আরও ১৩২০ টি লেখা দেখতে ক্লিক করুন
২৫ বছরে ১৮ সন্তানের জননী!
সর্বপ্রথম পোর্টেবল দ্বীপ
বিদেশিনীর বাংলা প্রেম
জুতার গাছ!
exam
নির্বাচিত প্রতিবেদন
exam
সুমাইয়া শিমু
পিয়া বিপাশা
প্রিয়াংকা অগ্নিলা ইকবাল
রোবেনা রেজা জুঁই
বাংলা ফন্ট না দেখা গেলে মোবাইলে দেখতে চাইলে
how-to-lose-your-belly-fat
guide-to-lose-weight
hair-loss-and-treatment
how-to-flatten-stomach
fat-burning-foods-and-workouts
fat-burning-foods-and-workouts
 
সেলিব্রেটি