পূর্ববর্তী লেখা    পরবর্তী লেখা
পুরো লিস্ট দেখুন

আজকের জোকস : ২৫ জুলাই, ২০১৫

জোকস - ০১ : দুই বন্ধু!

বল্টু আর চান্দুর সবসময় লেগেই থাকে শত্রু শত্রু খেলা। তো একদিন তুমুল ঝগড়ার এক পর্যায়ে একটি দৈত্য হাজির হলো।
দৈত্য বল্টুকে বলল : “হু হো হা হা হা !! আমি তোমার তিনটি ইচ্ছা পূরণ করব। কিন্তু একটা শর্ত আছে।"
বল্টু : কী শর্ত..?
দৈত্য : প্রতিটা ইচ্ছার সঙ্গে তুমি যা পাবে, তোমার শত্রু চান্দু তার দ্বিগুণ পাবে।
(চান্দু মহা খুসি)
বল্টু : আচ্ছা আমি রাজি।
প্রথমত, আমাকে একটা দামি গাড়ি দাও।
দৈত্য : এই নাও গাড়ি।
(চান্দু ইতোমধ্যে দুইটা গাড়ি পেয়ে চরম খুসি)
বল্টু : আমি এক কোটি টাকা চাই।
দৈত্য : এই নাও,তোমাকে কোটিপতি করে দিলাম।
(অন্যদিকে চান্দুরে ঠেকায় কে চান্দু দুই কোটি টাকা পেয়ে বল্টুকে ব্যঙ্গ করছে আর কি খুসি)
বল্টু : আমার অনেক দিনের ইচ্ছা,
.
.
.
.
.
.
.
.
.
.
.
আমার একটা কিডনি গরিব মানুষকে দান করব।

এবার চান্দুর কান্না আটকায় কে!

 

জোকস - ০২ : মাতাল!

এবার মাল খাওয়া ছাড়বই, বউ এর গঞ্জনা আর সহ্য হয়না। গদু একদম ঠিক করেই ফেলল।
অফিস থেকে বাসায় ফিরছে গদু, সামনে মদের বার, হাত ছানি দিচ্ছে 'ওরে আয় আয়, লাল নিল কত সব বোতল।'
না আজ কিছুতেই খাবনা, মুখ ঘুরিয়ে নিল গদু।
'ওরে পাগলা, দেখ ভেতরে কত কিছু , কত গ্লাস, তুং তাং মধুর শব্দ।
নাহ, আজ আর খাবই না।
অনেক কষ্টে গদু নিজেকে সামলে মদের বার ক্রস করে এগিয়ে ঘরের গেট এ হাত রাখল।
'ইয়াহু ঊঊঊ, ছেড়ে দিয়েছি, পেরেছি, পেরেছি' বলেই উল্টো মুখে দৌড় হাপাতে হাপাতে ঠেক এ পৌছেই,
.
.
.
.
.
.
.
.
.
.
''দাদা আজ মাল খাওয়া ছাড়তে পেরেছি, এই খুশিতে দু পেগ সাজাও দিকি।''

 

জোকস - ০৩ : চোরের শাস্তি!

রাতে এক চোর ঘরে ঢুকে পড়ল। ঘরের দরজা খোলা রেখে এক বুড়ি খাটিয়াতে ঘুমে ছিল। চোরের জিনিস পত্র হাতড়ানোর শব্দে বুড়ির ঘুম ভেঙ্গে গেল। চোর বুড়িকে দেখে গাবড়ে গেল। তখন বুড়িটা শুয়ে শুয়েই বলছে-- "বেটা, তোকে দেখে তো ভালো ঘরের সন্তান বলেই মনে হচ্ছে। সম্ভবত দারিদ্রতার জন্য বাধ্য হয়েই তুই এই রাস্তা ধরেছিস। আমার এই আলমারির তিন নম্বর খোপে একটা বাস্ক আছে। এটাতে যা আছে সব চুপচাপ নিয়ে চলে যা। তবে প্রথমে তুই আমার কাছে এসে একটু বোস, আমি এই মাত্র একটা স্বপ্ন দেখলাম। আমার স্বপ্নের কথা শুনে আমাকে স্বপ্নটার অর্থটা বলে যা। চোর বুড়ির মায়াবী কথাবার্তায় অভিভূত হয়ে চুপচাপ গিয়ে বুড়ির পাশে বসে পড়ল। বুড়ি স্বপ্নের কাহিনী বলতে শুরু করল--"বেটা আমি দেখলাম, আমি এক শহরে রাস্তা হারিয়ে ফেলেছি। রাস্তা হারিয়ে আমি বিভ্রান্তের মত পথ খুঁজছি, এমন সময় একটা চিল এসে আমার কানের কাছে তিনবার "মাজিদ" "মাজিদ" "মাজিদ" বলে চিতকার করে চলে গেল। তারপরই আমার ঘুম ভেঙ্গে গেল। এখন বল তো, এই স্বপ্নের অর্থটা কি...??
চোর ভাবনায় পড়ে গেল। এরই মধ্যে পাশের কামড়াতে ঘুমন্ত বুড়ির বড় ছেলে 'মাজিদ' এত রাতে জোরে জোরে নিজের নাম শুনে ঘুম থেকে উঠে গেল।
মাজিদ বুড়ির ঘরে এসে চোরকে খুব ধোলাই দিল।
বুড়ি বলল--"হয়েছে, আর মারিস না, সে তার পাপের সাজা পেয়ে গেছে।"
চোর বলল--"না না,
.
.
.
.
.
.
.
.
.
.
আমাকে আরো মারো শালা, যাতে আগামীতে আমার মনে থাকে যে আমি এক চোর, স্বপ্নের অর্থ বলে দেবার পন্ডিত নই।

 

জোকস - ০৪ : স্বামী-স্ত্রী!

এক স্ত্রী তার স্বামীকে পরীক্ষা করে দেখতে চাইলেন । স্বামী তাকে কতটুকু পছন্দ করে এবং তাকে ছাড়া বাঁচতে পারে কি না । তাই সে তার স্বামীর প্রতিক্রিয়া জানার জন্য একটা চিঠি লিখল -"দেখো আমি তোমার প্রতি এবং আমাদের লাইফ নিয়ে প্রচন্ড বিরক্ত। আমি আর তোমার সাথে থাকতে চাই না । আমি সাড়া জীবনের জন্য চলে গেলাম ।" . স্ত্রী এই চিঠি টা লিখে টেবিলের উপর রাখল। এবং নিজে খাটের নিচে লুকিয়ে রইলো। সন্ধ্যার সময় স্বামী বাসায় আসল । আসার পরে স্বামী প্রথমে চিঠিটা হাতে নিয়ে পড়ল। তার পর কলম দিয়ে চিঠিতে একটা লাইন কি যেন লিখল। আবার চিঠিটা টেবিলে রেখে দিলো । একটু দুঃখ ভারাক্রান্ত থেকে কয়েক মিনিট পর, স্বামীর নীরবতা থেকে হঠাৎ খুব খুশি হলো । শিস বাজাতে লাগলো । গান ছেড়ে ধামাক নৃত্য শুরু করলো ।  তারপর টেলিফোন সেটটাকে বিছানার উপর আনল । আনার পর তার স্বামী তার কোনো এক বান্ধবীকে ফোন দিলো। ফোনে ঐ প্রান্তকে বলছে,"আজ অটোম্যাটিক্যালি আমার লাইফ থেকে আমার আপদ দূর হয়েছে । ডার্লিং তুমি আমার জীবনে আগের মতই থাকবে । আমার স্ত্রী আমাদের মাঝে আর বাঁধা হয়ে থাকবে না । তুমি এনিটাইম আমার বাসায় চলে আসবে । বেবী, তোমাকে ছাড়া আমি বাঁচব না ।" এমন অনেকক্ষন কথা বলার পর, স্বামী ফোন রেখে বাসার বাইরে চলে গেলো হাসতে হাসতে। হয়তো তার ফোনের ঐ প্রান্তের বান্ধবীকে বা অন্য কাউকে আনতে গেছে । এদিকে তার স্ত্রী তো খাটের নিচে থেকে কাঁদতে কাঁদতে বের হলো। এমন কুলাঙ্গার স্বামীর সাথে সংসার করেছে এতোদিন এই ভেবে কপাল চাপড়াচ্ছিল । হঠাত তার মনে হলো, দেখিতো স্বামী চিঠিতে কি লিখছে । তাই তাড়াতাড়ি টেবিলের কাছে এসে চিঠিটা হাতে নিলো । চিঠির ভাঁজ খুলে স্বামীর লেখাটা বের করলো । স্বামী যে এক লাইন লিখে রাখছে, তা হলো - . . . . . . .
"আমার জীবন থেকে চলে গেছো ভালো কথা, কিন্তু খাটের নিচে থেকে কেন তোমার পা দেখা যাচ্ছে । আমি ডিম আনতে বাইরে গেলাম ।"

 

জোকস - ০৫ : বল্টু আর পল্টু!

পল্টুঃ কিরে, ঘরের বাইরে বসে আছিস কেন??
!
!
!
বল্টুঃ আর বলিস না, আজ আমার ম্যারেজ এনিভার্সারি, বউকে একটা চেন গিফট দিলাম, আর বউ আমাকে ঘর থেকে বের করে দিল।
পল্টুঃ কেন? চেন কি এমিটিশানের ছিল নাকি?
I
I
I
I
I
I
I
I
I
I
বল্টুঃ নাহ, সাইকেলের ছিল।

 
আরো পড়ুন
 

নামসংক্ষিপ্ত বিবরণ
আজকের জোকস : ৩০ জুলাই, ২০১৬প্রতিদিন নতুন ৫ টি পেটে খিল লাগানো জোকস
আজকের জোকস : ২১ জুলাই, ২০১৬প্রতিদিন নতুন ৫ টি পেটে খিল লাগানো জোকস
আজকের জোকস : ১৫ জুলাই, ২০১৬প্রতিদিন নতুন ৫ টি পেটে খিল লাগানো জোকস
আজকের জোকস : ১৩ জুলাই, ২০১৬প্রতিদিন নতুন ৫ টি পেটে খিল লাগানো জোকস
আজকের জোকস : ০১ জুলাই, ২০১৬প্রতিদিন নতুন ৫ টি পেটে খিল লাগানো জোকস
আজকের জোকস : ২২ মে, ২০১৬দমফাটানো হাসির ৫টি জোকস রয়েছে
আজকের জোকস : ১৭ মে, ২০১৬দমফাটানো হাসির ৫টি জোকস রয়েছে
আজকের জোকস : ১৫ মে, ২০১৬দমফাটানো হাসির ৫টি জোকস রয়েছে
আজকের জোকস : ০৮ মে, ২০১৬দমফাটানো হাসির ৫টি জোকস রয়েছে
আজকের জোকস : ০৬ মে, ২০১৬দমফাটানো হাসির ৫টি জোকস রয়েছে
আরও ৬৩৯ টি লেখা দেখতে ক্লিক করুন
২৫ বছরে ১৮ সন্তানের জননী!
সর্বপ্রথম পোর্টেবল দ্বীপ
বিদেশিনীর বাংলা প্রেম
জুতার গাছ!
exam
নির্বাচিত প্রতিবেদন
exam
সুমাইয়া শিমু
পিয়া বিপাশা
প্রিয়াংকা অগ্নিলা ইকবাল
রোবেনা রেজা জুঁই
বাংলা ফন্ট না দেখা গেলে মোবাইলে দেখতে চাইলে
how-to-lose-your-belly-fat
guide-to-lose-weight
hair-loss-and-treatment
how-to-flatten-stomach
fat-burning-foods-and-workouts
fat-burning-foods-and-workouts
 
সেলিব্রেটি