আনিসুল হক

 

 

আনিসুল হক

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পড়াশোনা শেষ করে বাংলাদেশ রেলওয়েতে যোগ দিলেও সে চাকরি তিনি বেশিদিন করেন নি। সাংবাদিকতায় মনোনিবেশ করেন তিনি। সাংবাদিকতার পাশাপাশি সাহিত্যচর্চা করেন, নাটক এবং চলচ্চিত্রের স্ক্রিপ্ট লেখেন। বর্তমানে দৈনিক প্রথম আলোর উপসম্পাদক পদে রয়েছেন। প্রথম আলোয় ‘গদ্য কার্টুন’ এবং 'অরণ্যে রোদন’ শিরোনামে নিয়মিতভাবে তাঁর কলাম প্রকাশিত হয়। 'অরণ্যে রোদন’-এ একটু ভাবগম্ভীর ভাষায় রাজনীতিসহ সমসাময়িক বিভিন্ন প্রসঙ্গে তাঁর বিশ্লেষণ তুলে ধরেন। কিন্তু ‘গদ্য কার্টুন’-এ কিছুটা রম্য রসের মাধ্যমে লেখেন। অল্পবয়সীদের মধ্যে এটি তুলনামূলকভাবে বেশি জনপ্রিয়। পত্রিকায় প্রকাশিত তাঁর কলামগুলোর লিংক থাকছে এ পাতায়।

 

 

  • ১৬ কোটি মানুষের কী দোষ? - প্রথম আলো (০৩/০৭/২০১২)

কলাম: অরণ্যে রোদন

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে আমাদের গ্রামের বাড়ি। আগে ওই এলাকায় কার্তিক মাসে আকাল পড়ত, ওই গ্রামের বহু লোক অনাহারে-অর্ধাহারে থাকত। এখন কার্তিকের সেই মঙ্গা আর আমাদের গ্রামে নেই। এর একটা কারণ হলো, আমাদের গ্রামে এখন কলার চাষ হয়। কার্তিক মাসে কলা ওঠে, সেটা বেচে এলাকাবাসী অন্ন জোগাড় করতে পারে। আগে কেন তাহলে কলার চাষ হতো না? এখন কেন হয়? কারণ, যমুনা সেতু। আমাদের গ্রামে খড়ের ঘরগুলো টিনের ঘর হয়ে গেছে। একটা সেতু একটা জনপদের চেহারা পাল্টে দিতে পারে, এটা আমরা চোখের সামনে ঘটতে দেখলাম। পদ্মা সেতু যে আমাদের খুবই দরকার, এটা সবাই জানে। ২০১০ সালেও এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক বলেছে, পদ্মা সেতু বাংলাদেশের জিডিপি ১ দশমিক ২ ভাগ বাড়িয়ে দেবে। দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের জন্য পদ্মা সেতু জিডিপি বাড়াবে ৩ দশমিক ৫ শতাংশ। তিন কোটি মানুষ সরাসরি উপকৃত হবে এই সেতুর দ্বারা। জিডিপি বাড়লে উপকৃত হবে পুরো দেশ, দেশের ১৬ কোটি মানুষ। দেশের ওই অঞ্চলটা এখন সবচেয়ে গরিব। আঞ্চলিক বৈষম্য দূর করাও তো আমাদের কর্তব্য। তারও পরে পদ্মা সেতুর সঙ্গে যুক্ত আছে আঞ্চলিক সহযোগিতার প্রশ্নটি, সোজা কথায় ভারতের জন্য ট্রানজিট। বিস্তারিত কলামটি দেখতে ক্লিক করুন


  • কুড়ি বছর পরের বাংলাদেশ - প্রথম আলো (১৯/০৬/২০১২)

কলাম: অরণ্যে রোদন

আজ থেকে কুড়ি বছর পরে, ২০৩২ সালে, কেমন হবে বাংলাদেশ?
আজকের সংবাদপত্র খুলে কোথাও কোনো আশা দেখতে পাই না। আশুলিয়ায় পোশাক তৈরির কারখানাগুলো বন্ধ, শ্রমিকেরা রাস্তায়, প্রাণপণ লড়াই করছে পুলিশের সঙ্গে। সংবাদপত্রের শিরোনাম, আশুলিয়া-কাঁচপুর রণক্ষেত্র। এসব শিরোনাম আমাদের গা-সওয়া হয়ে গেছে, শব্দ তার প্রকৃত অর্থ ও তাৎপর্য হারিয়েছে, রণক্ষেত্র মানে যে যুদ্ধের ময়দান, এই কথাটা আমরা, পাঠকেরা খুব আর ভেবে দেখি না। অন্যদিকে, শেয়ার মার্কেটের হতাশ বিনিয়োগকারীরা রাস্তায় বসে পড়েছেন। খবরে প্রকাশ, ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীরা শেয়ারবাজার ছেড়ে যাচ্ছেন। মহাসড়কে খানাখন্দ। সড়ক দুর্ঘটনা নিত্যনৈমিত্তিক, তার ওপর যানজট। ঢাকা শহর চলে না, কিন্তু ঢাকা থেকে বাইরেও যাওয়া কষ্টকর। ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম বা খুলনা বা রাজশাহী বা সিলেট বা ময়মনসিংহ যাত্রা করলে গন্তব্যে কখন পৌঁছানো যাবে, কেউ বলতে পারে না। বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে ক্লিক করুন

 

  • পুলিশ কেন মারে? - প্রথম আলো (২৯/০৫/২০১২)

আমাদের তিন সহকর্মী রাজধানীর ট্রমা সেন্টারের বিছানায় শুয়ে আছেন। আমাদের একজন নিয়মিত প্রদায়ক কিলঘুষি খেয়ে প্রথম আলো অফিসে বসে ছিলেন, তাঁর শরীরজোড়া মারের দাগ, চোখ-মুখ ফোলা। পুরো ঘটনায় আমার কতগুলো অনুভূতি হচ্ছে। এক. নিজেকে দায়ী মনে হচ্ছে। দুই. খুব অপমানিত বোধ করছি। তিন. নিরাপত্তাহীনতার বোধ তৈরি হয়েছে। চার. আমাদের দেশটা নিয়ে, রাষ্ট্র নিয়ে উদ্বেগ সীমাহীনভাবে বেড়ে গেছে। সবটা মিলিয়ে যা তৈরি হয় তা ক্রোধ, ক্ষোভ, হতাশা। প্রথম আলোর ফটোসাংবাদিক খালেদ সরকার আর প্রদায়ক হাসান ইমামের ওই সময় (শনিবার, ২৬ মে, ২০১২, সকালবেলা) আগারগাঁওয়ের দিকে যাওয়ার কথা নয়। আমার বন্ধু নদী-বিশেষজ্ঞ ড. মনসুর রহমান ফোন করে আমাকে জানালেন, আগারগাঁওয়ে এক মিলনায়তনে তাঁরা একটা আন্তর্জাতিক সেমিনার করছেন। দেশ-বিদেশের বিশেষজ্ঞরা একটা জনবহুল বদ্বীপের মানুষ কীভাবে বেঁচে থাকবে, কীভাবে দারিদ্র্যমুক্ত থাকতে পারবে, তাই নিয়ে বৈজ্ঞানিক গবেষণা তুলে ধরবেন। বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে ক্লিক করুন

 

  • যে দেশে হরতাল নামের এক জিনিস আছে - প্রথম আলো (২৩/০৫/২০১২)

হরতাল পলিসি ফর বাংলাদেশ। ব্রিটিশ কাউন্সিল সারা পৃথিবীতেই ইংরেজি মাধ্যমের ছেলেমেয়েদের মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা নিচ্ছে একই সময়ে—সাধারণত যা ‘ও-লেভেল’ আর ‘এ-লেভেল’ পরীক্ষা বলে পরিচিত। সারা পৃথিবীর সব দেশের জন্যই তারা একটা পরীক্ষার রুটিন প্রকাশ করেছে। শুধু বাংলাদেশের জন্য তাদের অতিরিক্ত নিয়ম যুক্ত করতে হয়েছে সেই রুটিনে। তাদের রুটিনে লেখা আছে: হরতাল পলিসি ফর বাংলাদেশ।
পলিসিটা বেশ বড়সড়। মোদ্দা কথা হলো, যদি ১২ ঘণ্টা হরতাল হয়, তাহলে দুপুরের পরীক্ষা সন্ধ্যার পরে, আর বিকেলের পরীক্ষা রাত ১২টায় শুরু হবে। আর হরতাল যদি ২৪ ঘণ্টার হয়, তাহলে এবারের পরীক্ষা বাতিল, সামনের বছর জানুয়ারিতে সেই পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে ক্লিক করুন

 

  • এক অক্ষম লেখকের আরেকটা ব্যর্থ রচনা - প্রথম আলো (১৫/০৫/২০১২)

একটা সত্যি ঘটনা আপনাদের বলি।
১৯৯৭ সাল। ২ অক্টোবর থেকে ভোরের কাগজ-এ প্রতিবেদক জায়েদুল আহসানের একটা ধারাবাহিক প্রতিবেদন প্রকাশিত হতে লাগল। বিষয়: ১৯৭৭ সালের ২ অক্টোবর রহস্যময় সামরিক অভ্যুত্থান ও সৈনিকদের গণফাঁসি।
২০ বছর আগের ঘটনায় যাঁদের ফাঁসি দেওয়া হয়েছিল, তাঁদের নামের তালিকা ভোরের কাগজ-এ প্রকাশিত হলো।
এই সময় ভোরের কাগজ-এর বাংলামোটর দপ্তরে এলেন একজন মা আর তাঁর যুবক পুত্র।
এই নারীর স্বামী আজ থেকে ২০ বছর আগে নিখোঁজ হয়েছেন। তিনি জানেন না, তাঁর স্বামীর কী পরিণতি হয়েছে। তিনি কি বেঁচে আছেন, নাকি মারা গেছেন। মারা গেলে কবে, কোথায় কীভাবে মারা গেছেন।
এই যুবক জানেন না, তাঁর বাবা কোথায়? বাবার কোনো স্মৃতিও তাঁর মনে নেই।
তাঁরা শুনেছেন, ভোরের কাগজ-এ ফাঁসিপ্রাপ্ত সৈনিকদের নামের তালিকা ছাপা হয়েছে।

বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে ক্লিক করুন

 

  • নিরীহ নির্দোষ কৌতুক অথবা বিলাপ - প্রথম আলো (০১-০৫-২০১২)

আমরা খুব একটা গুমোট সময় অতিক্রম করছি। দিনের পর দিন হরতাল হচ্ছে। হরতালের শিকারে পরিণত হয়েছে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থীরাও। হরতালে অন্তত চারজন লোক মারা গেছেন। আর আছে গুম-খুন। মানুষ হারিয়ে যায়। মানুষ অদৃশ্য হয়।
অথচ আমরা একটা শান্তির দেশ প্রত্যাশা করেছিলাম। আমাদের স্বপ্ন ছিল, সরকারি দল আর বিরোধী দল মিলেমিশে দেশটাকে উন্নতির মহাসড়কে এগিয়ে নেবে। আমরা শিক্ষায়-দীক্ষায়, শিল্পে-কৃষিতে—সর্বত্র এগিয়ে যাব। আমাদের মধ্যে মতপার্থক্য থাকবে, তা নিয়ে আমরা কথা বলব সংসদে। বাইসাইকেলের যেমন দুই চাকা, তেমনি সংসদীয় গণতন্ত্রেরও দুই চাকা, বিরোধী দল আর সরকারি দল, দুটো চাকাই ঘুরবে, দেশ এগিয়ে যাবে। বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে ক্লিক করুন

 

  • এই চাওয়া কি খুব বেশি কিছু ছিল? - প্রথম আলো (২৫/০৪/২০১২)

গলির মধ্যে নিচতলার ঘরটা অন্ধকার, তবু জানালা দিয়ে নিমগাছ দেখা যায়। এক পা বেরোলে ফুটপাতের পাশে আমগাছে দেখা যায়, ছোট ছোট আম দুলছে বৈশাখী বাতাসে। কান পাতলে এই ঢাকা শহরেও শোনা যায় চড়ুই পাখির কিচিরমিচির।
এই দেশ ছেড়ে আমি কোথায় যাব?
নিখিল বাবু বিড়বিড় করেন।
এই দেশের ১৬ কোটি মানুষ কোথায় যাবে? কোথায় যাবেন স্কুলশিক্ষক আবদুর রহিম, যিনি এই তপ্ত দুপুরে ছাতা এক হাতে মেলে ধরে আরেক হাতে সাইকেলের হাতল ধরে রোজ স্কুলে যান? কোথায় যাবেন গার্মেন্টসকর্মী সুলতানা, যিনি টাকা জমাচ্ছেন সন্তানকে স্কুলে পাঠাবেন বলে? বাংলাবাজারের প্রুফরিডার নিখিল বাবু রোদতপ্ত পথে হাঁটেন, কপালের ঘাম মোছেন আর বিড়বিড় করেন, এ দেশটায় থেকে গিয়ে কি ভুল করলাম?

বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে ক্লিক করুন

 

  • খাই খাই তন্ত্রের কালে মুস্তাক - হযরত আলী - প্রথম আলো (১০/০৪/২০১২)

মেঘ দেখব, নাকি মেঘের কিনার ঘেঁষে যে রুপালি রেখা দেখা যাচ্ছে, সেটাকেই গুরুত্ব দেব। সেই যে সিরাজউদ্দৌলা নাটকে সংলাপ ছিল, বাংলার ভাগ্যাকাশে আজ দুর্যোগের ঘনঘটা, সেই মেঘ আজও গেল না। এত ব্যর্থতা, এত দুঃসংবাদ, এত হতাশা চারদিকে। হুমায়ুন আজাদের ভাষায় বলতে হয়, এখন প্রকৃত আশাবাদীর পক্ষে আর কিছুই সম্ভব নয়, কেবল হতাশ হওয়া ছাড়া।
হতাশার কারণ কিন্তু উচ্চপর্যায়ে। আমাদের রাজনৈতিক নেতৃত্বে। আচ্ছা বলুন তো, একটা মানুষের জীবনে কত টাকা লাগে? যিনি ব্যবসায়ী, তিনি তাঁর ব্যবসা বাড়ানোর চেষ্টা করবেন, শিল্পপতি নতুন নতুন শিল্পোদ্যোগ গ্রহণ করবেন, এ খুবই স্বাভাবিক, তা অর্থনীতিতে গতিসঞ্চার করবে, দেশে উৎপাদন বাড়াবে, কর্মসংস্থান হবে। কিন্তু একজন রাজনৈতিক নেতার কত টাকা লাগে? বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে ক্লিক করুন

 

  • আমরাই চ্যাম্পিয়ন ... - প্রথম আলো (২৭/০৩/২০১২)

২৬ মার্চ ২০১২ এই লেখাটি লিখছি—স্বাধীনতার ৪১তম বার্ষিকীর দিনটিতে। কী সুন্দর আলোকিত দিন! আমার এক চিলতে বারান্দায় সামনের ভবনের ফাঁক গলেও নাছোড় রোদ এসে পড়েছে। টবের সবুজ পাতায় পাতায় আলোর নাচন। ভালো লাগার এক স্নিগ্ধ অনুভূতিতে মনটা ভরে আছে।
আমি কম্পিউটারে লিখি। আমার ল্যাপটপ খুলতেই ওয়ালপেপারে সেই ছবিটা। সাকিব আল হাসানের বুকে মুশফিক আর নাসির। সাকিব দূরে তাকিয়ে কান্না চাপার চেষ্টা করছেন। তাঁর চোখ ফেটে জল বেরিয়ে আসছে।
কিন্তু এ ছবির দিকে তাকিয়ে কোনো দীর্ঘশ্বাস আমার বুক থেকে বেরিয়ে এল না। বরং একটা বিজয়ের গৌরব আমার অনুভূতিজুড়ে। বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে ক্লিক করুন

 

  • দয়া করে অপ্রাপ্তবয়স্করা এই লেখা পড়বেন না - প্রথম আলো (২০/০৩/২০১২)

রোববার আমি গিয়েছিলাম টাঙ্গাইলে। ফেরার পথে গাড়িতে খেলার ধারাবিবরণী শোনার জন্য রেডিও অন করলাম। বাংলাদেশ বেতার কিছুক্ষণ ভারত-পাকিস্তানের খেলা প্রচার করে চলে গেল মহান জাতীয় সংসদের কার্যক্রমের সরাসরি প্রচারে। হাইওয়েতে গাড়ি চলছে। ড্রাইভারকে বলব, রেডিও কেন্দ্র বদলে খেলারটা দিতে, সাহস পাই না। হঠাৎ যদি অ্যাকসিডেন্ট হয়ে যায়। বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে ক্লিক করুন

 

  • এমনি সব গাধা ... - প্রথম আলো (১৩/০৩/২০১২)

‘এমনি সব গাধা, ধুলারে মারি করিয়া দিল কাদা।’ এ তো রবীন্দ্রনাথের জুতা আবিষ্কারের চেয়েও কম বোকামো নয়। ‘করিতে ধুলা দূর, জগৎ হলো ধুলায় ভরপুর।’ বিরোধী দল ঢাকায় মহাসমাবেশ ডেকেছে। সেই মহাসমাবেশে যাতে লোকসমাগম কম হয়, সে জন্য সরকার যেন হরতাল ডেকে বসল। বাস না পেয়ে ভ্যানে করে ঢাকায় আসছিলেন খেটে খাওয়া কয়েকজন মানুষ, পরিবার-পরিজনসহ, বলেছেন লাখ কথার এক কথা, আওয়ামী লীগ বিরোধী দলে থাকলেও হরতাল ডাকে, সরকারে থাকলেও হরতাল ডাকে।
‘মানুষের কত জরুরি প্রয়োজন থাকে। কাউকে বা বিদেশে যেতে বিমান ধরতে হবে, কারও বা ব্যবসায়িক জরুরি কাজ আছে, কারও বা চিকিৎসা প্রয়োজন, তাঁরা ঢাকায় যাবেন।’ এই সব কথা আমি একবার লিখেছিলাম হরতালের সমালোচনা করে। বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে ক্লিক করুন

 

  • টুকটাক কৌতুক - প্রথম আলো (০৬/০৩/২০১২)

দুজন লোক কথা বলছে। একটা বারে বসে। তাদের সামনে টেলিভিশন। টেলিভিশনে সাতটার খবর হচ্ছে। খবরে দেখাচ্ছে, একটা লোক একটা সেতুর রেলিংয়ে উঠেছে। প্রথম জন বলল, ‘এই লোকটা এখনই ব্রিজ থেকে লাফ দেবে।’
দ্বিতীয় লোকটা বলল, ‘না, লাফ দেবে না।’
‘অবশ্যই দেবে।’
‘না, দেবে না।’
‘বাজি ধরো। ৫০০ টাকা।’
‘আচ্ছা, বাজি। ৫০০ টাকা।’
টেলিভিশন খবরে দেখা গেল, সেতুর রেলিংয়ে দাঁড়ানো লোকটা সত্যি সত্যি লাফ দিল। সঙ্গে সঙ্গে দ্বিতীয় লোক ৫০০ টাকা বের করে দিল প্রথম ব্যক্তির হাতে। প্রথম লোক বলল, ‘না, টাকা দিতে হবে না। আমি আসলে পাঁচটার খবর দেখেছি। ও যে ব্রিজ থেকে লাফ দেয় সেটা আমি তখনই দেখেছি।’
দ্বিতীয় লোক বলল, ‘পাঁচটার খবর তো আমিও দেখেছি। কিন্তু আমি ভাবিনি একটা লোক এত বোকা হবে। দ্বিতীয়বারও সে একই ভুল করবে।’

বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে ক্লিক করুন

  • প্রিয় পাঠক, একটু হাসুন - প্রথম আলো (২৯/০৩/২০১১)

একজন অন্ধ বালক। নিউইয়র্কের একটা রাস্তার ধারে একটা সুন্দর ভবনের বাইরের সিঁড়িতে রোদের মধ্যে বসে আছে। তার হাতে তার হ্যাটটা উল্টো করে ধরা। তার আরেক হাতে একটা শক্ত কাগজের টুকরায় লেখা, ‘আমি অন্ধ, আমাকে সাহায্য করুন, প্লিজ।’ তার টুপিতে অল্প কয়টা পয়সা পড়েছে। লোকজন আসছে, যাচ্ছে। বেশির ভাগই তাকে সাহায্য না করেই পাশ কাটিয়ে চলে যাচ্ছে। একজন লোক কিন্তু ছেলেটার পাশে দাঁড়ালেন। বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে ক্লিক করুন

 

  • এই সব গল্প, এই সব দেশপ্রেম... - প্রথম আলো (২২/০৩/২০১১)

প্রথমে একটা গল্প বলি। ১৯৭১ সাল। খালেদ মোশাররফের নেতৃত্বে আগরতলার মেলাঘরে ট্রেনিং ক্যাম্পে দেশের তরুণ মুক্তিযোদ্ধারা ট্রেনিং নিচ্ছেন আর দেশের ভেতরে ঢুকে নানা গেরিলা অপারেশনে অংশ নিচ্ছেন। জুলাই মাস। একটা অভিযানে যাচ্ছেন গেরিলারা। তাঁদের লক্ষ্য নারায়ণগঞ্জের টানবাজার থানা আক্রমণ করা। তরুণদের এই দলে একজন আছেন, তাঁর বাড়িও নারায়ণগঞ্জের টানবাজারে। বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে ক্লিক করুন

 

  • চট্টগ্রামগামী ট্রেনে বসে লেখা - প্রথম আলো (১৫/০৩/২০১১)

চট্টগ্রাম যাচ্ছি। ট্রেনের নাম তূর্ণা নিশীথা। রাত ১১টার ট্রেন ছেড়েছে ১২টায়। তবুও যে ছেড়েছে। এখন সকাল সাতটা। পুবের দিকে দরজাটা খুলতেই ভোরের আলো। আজ ১৪ মার্চ। নতুন দিনের শুরু। আজকের সূর্য বাংলাদেশকে নতুন আলোয় রাঙিয়ে দেবে, এই আশায় আমরা চলেছি চট্টগ্রামে, জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামের উদ্দেশে। আজ যেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের জয় হয়!  বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে ক্লিক করুন

 

  • কিছু না পাওয়ার চেয়ে ভালোবেসে কষ্ট পাওয়া ভালো - প্রথম আলো (০৮/০৩/২০১১)

জামালের মা কারওয়ান বাজারে পিঠা বিক্রি করতেন। তার বাবা একজন প্রতিবন্ধী ভিক্ষুক। বিশ্বকাপ আয়োজনের জন্য সুন্দর ঢাকা গড়ে তোলার স্বার্থে জামালের মায়ের ফুটপাতের পিঠাঘর উচ্ছেদ হয়ে যায়। জামালের বাবাকে নিয়ে যাওয়া হয় ভবঘুরে আশ্রয়কেন্দ্রে। অগত্যা জামালের মা তাঁর নয় বছর বয়সী ফ্রি প্রাইমারি স্কুলপড়ুয়া জামালকে নিয়ে কুড়িগ্রামের উজানপুর চরে চলে যান। সেখানে একটা পর্ণকুটিরে জামালের দাদি থাকেন। বৃদ্ধা দাদি কী খাওয়াবেন এই ছোট্ট ছেলেটিকে? বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে ক্লিক করুন

 

  • ভয় পেয়ো না, আমরা আছি কোটি কণ্ঠ নিয়ে... - প্রথম আলো (২২/০২/২০১১)

ধানমন্ডি এলাকায় থাকি। মাঝেমধ্যেই এ-বাড়িতে ও-বাড়িতে গায়েহলুদের অনুষ্ঠান হয় আর অনেক রাত অবধি উচ্চ স্বরে গান বাজে। সেসব গানের বেশির ভাগই হয় হিন্দি, নয়তো ইংরেজি। এই ফেব্রুয়ারি মাসেও পড়শির অনুষ্ঠান থেকে আসা হিন্দি আর ইংরেজি গানের কানফাটা আওয়াজে ঘুমের ব্যাঘাত ঘটেছে। ২০ ফেব্রুয়ারি রাত। মিরপুরে একটা বড় ফ্ল্যাট-চত্বরে ঢুকছি। বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে ক্লিক করুন

 

  • ফাল্গুন, ভালোবাসা, পুঁথি ও মুখপুঁথি - প্রথম আলো (১৫/০২/২০১১)

যৌবনে দাও রাজটীকা। লিখেছিলেন প্রমথ চৌধুরী। তাঁর উপলক্ষ ছিল বসন্ত। আগের জমানায় খুব বসন্ত দেখা দিত। জলবসন্ত নয়, রীতিমতো গুটিবসন্ত। সেই বসন্তে আক্রান্ত হলে বাঁচার আশা ছিল খুব কম। তারপর বসন্তের প্রতিষেধক টিকা আবিষ্কৃত হলো। যৌবনে তাই রাজটীকা অর্থাৎ সরকার কর্তৃক বিনি পয়সায় বিতরণকৃত টিকা দেওয়া স্বাস্থ্য ও আয়ুর জন্য উপকারী বলেই বিবেচিত হতো।

বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে ক্লিক করুন

 

  • ভাবিয়া করিও কাজ... - প্রথম আলো (০৮/০২/২০১১)

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ। এই ধন্যবাদটি তাঁর প্রাপ্য। তিনি একধরনের সাহসিকতা ও বিচক্ষণতার পরিচয় দিয়েছেন। আড়িয়ল বিলে বিমানবন্দর হবে না, এটা নিজে সংবাদ সম্মেলন করে ঘোষণা করেছেন। আমাদের দেশে সাধারণ নিয়ম হলো, নিজের ভুল কেউ নিজে বুঝতে পারে না, সমালোচনার মুখেও ভুলটাকে ঠিক বলে আঁকড়ে ধরে থাকা হয় এবং যার ফলে একটার পর একটা ভুল ঘটে যেতেই থাকে। জনগণের ক্ষোভকে বিরোধী দল বা ষড়যন্ত্রকারীদের চক্রান্ত বলে ক্ষমতাবানদের একটা ধারণা দেওয়া হয় এবং সেই ভুল বুঝটাকেই ধারণ করে থেকে তাঁরা বিপদ বাড়াতে থাকেন। অধিকতর বিপদ ঘটে যাওয়ার আগেই এলাকার জনগণ যা চায় না, তা তাদের ওপর চাপিয়ে দেওয়ার মতো আত্মঘাতী ঘটনা থেকে শেখ হাসিনা যে সরে আসতে পেরেছেন, এ জন্য তিনি ধন্যবাদ পাবেন।

বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে ক্লিক করুন

 

  • অফিসে আসলে আমরা কী করি - প্রথম আলো (০১/০২/২০১১)

অফিসে লোক নিয়োগ দেওয়া হয়েছে প্রচুর; কার্পেট থেকে শুরু করে কম্পিউটার, জিনিসপাতি, রসদপত্র কম কেনা হয়নি; বিশেষজ্ঞ উপদেষ্টা নিয়োজিত আছেন, তার পরও দেখা যাচ্ছে, অফিসের কর্মদক্ষতা কমে গেছে। কারণ কী? কারণ কর্মচারী ও কর্মকর্তারা অফিসে আসেন ঠিকই, কিন্তু কাজের কাজ করেন না। তাহলে ওই সময়ে তাঁরা করেনটা কী? এটা জানার জন্য মানবসম্পদ বা হিউম্যান রিসোর্স বিভাগ থেকে একটা জরিপপত্র পাঠানো হলো প্রত্যেক কর্মকর্তা-কর্মচারীর কাছে। জরিপপত্রটি নিম্নরূপ:

বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে ক্লিক করুন

 

  • বাংলাদেশ যদি চলতে চায়- প্রথম আলো (২৫/০১/২০১১)

বাংলাদেশটা কি চলছে নাকি থেমে আছে? কথাটা আলংকারিক অর্থে নয়, বলতে চাইছি বাস্তব অর্থে। বাংলাদেশের যোগাযোগব্যবস্থার হালটা কী? চলছে নিশ্চয়ই। নইলে তো সবকিছু থেমে যেত, বাজারে চাল-ডাল কিছুই মিলত না, পদ্মার ইলিশের পিঠে রুপোলি আলো ফেলতে পারত না কারওয়ান বাজারের রোদ, আর মহেশখালীর অজপাড়াগাঁর মুদির দোকানে মিলত না মিনিপ্যাক শ্যাম্পু।

বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে ক্লিক করুন

 

  • আমরা কি ব্যাঙের ভূমিকা নিতে যাচ্ছি?- প্রথম আলো (১৮/০১/২০১১)

স্বর্ণকেশী বা স্বর্ণকেশিনীদের নিয়ে অনেক কৌতুক পশ্চিমে প্রচলিত আছে। এসব কৌতুকের একটাই বিষয়, প্রমাণ করার চেষ্টা যে, এদের মাথায় বুদ্ধি কম। বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে ক্লিক করুন

 

  • বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়ন হবে- প্রথম আলো (১১/০১/২০১১)

বিশ্বকাপ ক্রিকেট নিয়ে আমি এখন থেকেই উত্তেজিত। চার বছর পরপর বিশ্বকাপের মহোৎসবটা আসে এই মাটির পৃথিবীতে; আমাদের বিবর্ণ দিনগুলোকে, বিষণ্ন রাত্রিগুলোকে রঙিন আর ঘটনাবহুল করে তুলবে বলে। আর এবারের বিশ্বকাপের অন্যতম স্বাগতিক দেশ কিনা স্বয়ং বাংলাদেশ, আমার জন্মভূমি বাংলাদেশ! আনন্দে আমার শ্বাস বন্ধ হয়ে আসে। এই রকমের একটা দুনিয়া-কাঁপানো ঘটনা ঘটবে আমাদের এই দেশে! বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে ক্লিক করুন

 

  • ঢাকা আছে খুল না?- প্রথম আলো (০৪/০১/২০১১)

ঢাকায় যানজট নিরসনের লক্ষ্যে যোগাযোগ মন্ত্রণালয় কতগুলো সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠিয়ে দিয়েছে। এই প্রস্তাবগুলো এখন বাস্তবায়নের অপেক্ষায় আছে। বিস্তারিত প্রতিবেদনটি দেখতে ক্লিক করুন


২৫ বছরে ১৮ সন্তানের জননী!
সর্বপ্রথম পোর্টেবল দ্বীপ
বিদেশিনীর বাংলা প্রেম
জুতার গাছ!
exam
নির্বাচিত প্রতিবেদন
exam
সুমাইয়া শিমু
পিয়া বিপাশা
প্রিয়াংকা অগ্নিলা ইকবাল
রোবেনা রেজা জুঁই
বাংলা ফন্ট না দেখা গেলে মোবাইলে দেখতে চাইলে
how-to-lose-your-belly-fat
guide-to-lose-weight
hair-loss-and-treatment
how-to-flatten-stomach
fat-burning-foods-and-workouts
fat-burning-foods-and-workouts
 
সেলিব্রেটি