ম্যাক্সি-ইন্ডি রেষ্টুরেন্ট

এই রেষ্টুরেন্টটিতে থাই, ইন্ডিয়ান ও চাইনীজ খাবার পরিবেশন করা হয়।  নিয়মিত সার্ভিসের পাশাপাশি এখানে পার্টি আয়োজন ও লাঞ্চ/ডিনার বক্স ও হোম ডেলিভারীর ব্যবস্থা রয়েছে। এখানে বুফে সিস্টেম রয়েছে। সম্পূর্ণ রেষ্টুরেন্টটি শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত।

 

ঠিকানা যোগাযোগ:

কনর্কড রয়াল কোর্ট, বাড়ী-৪০, সড়ক-২৭(পুরাতন), ১৬(নতুন)

ধানমন্ডি আ/এ, ঢাকা-১২০৯।

ল্যান্ড ফোন: ০২-৮১৪১৭৩৮

মোবাইল: ০১৭৩৩-৭৪০৪৮০

 

লোকেশন:

ধানমন্ডি ২৭ নম্বর সড়কে নন্দন মেগা শপের বিপরীত পাশে ঢাকা ব্যাংকের ২য় তলায় এটি অবস্থিত।

 

বুফে:

এই রেষ্টুরেন্টটিতে নিয়মিত বুফের ব্যবস্থা আছে। বুফেতে লাঞ্চে ৩৫ টি আইটেম এবং ডিনারে  ৪০ টি আইটেমের ব্যবস্থা রয়েছে।

 

বুফে মেনু:

বুফের সময়

আইটেম

টাকা

লাঞ্চ বুফে

৩৫ টি

৪৭৫ টাকা (কোল ড্রিংক্স+পানি+ভ্যাট)

ডিনার বুফে

৪০ টি

৫৯০ টাকা (কোল ড্রিংক্স+পানি+ভ্যাট)

 

পার্টি আয়োজন:

এই রেষ্টুরেন্টটিতে বিয়ে, বিয়েবার্ষিকী, জন্মদিন, কর্পোরেট পার্টি, অফিসিয়াল মিটিং সহ সামাজিক, পারিবারিক ও প্রাতিষ্ঠানিক পার্টি আয়োজনের ব্যবস্থা রয়েছে। একসাথে ১২০ জন লোকের বসার ব্যবস্থা রয়েছে।

 

ফিক্সড লাঞ্চ/ডিনার বক্স:

এই রেষ্টুরেন্টটিতে ফিক্সড লাঞ্চ ও ডিনার বক্সের ব্যবস্থা রয়েছে। দুই ধরনের বক্স আছে। যার মেনু নিচে দেওয়া হলো:

ফ্রাইড রাইস, বিফ ভুনা, মিক্সড ভেজিটেবল, ডাল বাটার ফ্রাই

২১০ টাকা + ভ্যাট

ফ্রাইড রাইস, বিফ ভুনা, মিক্সড ভেজিটেবল, ফ্রাইড চিকেন ২ পিস, ডাল বাটার ফ্রাই ২৫০ টাকা + ভ্যাট

 

বিল পরিশোধ:

এই রেষ্টুরেন্টের যাবতীয় বিল ক্যাশের পাশাপাশি ভিসা, মাস্টার ও আমেরিকান এক্সপ্রেস কার্ডের মাধ্যমে পরিশোধের ব্যবস্থা রয়েছে।

 

খোলা-বন্ধের সময়সূচী:

প্রতিদিন দুপুর ১২:০০ টা থেকে রাত ১০:৩০ টা পর্যন্ত খোলা থাকে।

 

গাড়ি পার্কিং:

রেষ্টুরেন্টের নিজস্ব জায়গায় ২ টি গাড়ি পার্কিং এর ব্যবস্থা রয়েছে। তবে রেষ্টুরেন্টের সামনে একসাথে ১৫-২০ টা গাড়ি পার্ক করা যায়।

রি-আপলোডের তারিখ: ২৪/০৪/১৩

মিথ্যা প্রেমের ফাঁদ থেকে নিজেকে দূরে রাখুন
ফেসবুকে ভুয়া আইডি চেনার উপায়
আনন্দে থাকার মূলমন্ত্র
আপনার প্রেমিকা/স্ত্রী কি সুন্দরী?
নির্বাচিত প্রতিবেদন
বাংলা ফন্ট না দেখা গেলে মোবাইলে দেখতে চাইলে
আপডেট নিউজ
লাইফ স্টাইল
নির্বাচিত লেখা থেকে
ই-টিআইএন
বাংলাদেশের আইন অনুযায়ী যে সকল নাগরিক বছরে দুই লাখ বিশ হাজার টাকা বা তার বেশি আয় করেন তাদেরকে অবশ্যই কর দিতে হবে। প্রত্যেক কর দাতার নির্দিষ্ট একটি “টিন (TIN)” নাম্বার রয়েছে। কর প্রদান ও গ্রহণের বিষয়টি সহজ ও সুন্দরভাবে করার জন্য ১০ অঙ্কের এই টিন নাম্বার প্রদান করা হয়। এত দিন টিআইএনের পুরো প্রক্রিয়া কাগুজে নথিভিত্তিক ছিল। আয়কর দেওয়া নিয়ে করদাতাদের ভোগান্তির অবসান এবং নথি সংরক্ষণব্যবস্থা সরল করার লক্ষ্যে... বিস্তারিত
 
বিদেশী দূতাবাস