পূর্ববর্তী লেখা  
পুরো লিস্ট দেখুন

নববর্ষের খাবার দাবার

ইলিশের ৫ পদ •  হরেক রকম ভর্তা •  ওপার বাংলা •  মিষ্টি জাতীয় খাদ্য

 

ইলিশের ৫ পদ

খাবারের নাম: দই ইলিশ

প্রয়োজনীয় উপকরণ:

  • ইলিশ মাছের টুকরো ৬টি, টক দই আধা কাপ, কিশমিশ বাটা ১ টেবিল চামচ, কাঠ বাদাম বাটা ১ টেবিল চামচ, কাঁচামরিচ বাটা ১ টেবিল চামচ, ঘি ৩ টেবিল চামচ, লবণ স্বাদমতো, চিনি আধা চা চামচ, এলাচ ১ চা চামচ, দারুচিনি গুঁড়ো ১ চা চামচ, পেঁয়াজ বেরেস্তা ২ টেবিল চামচ, আদা বাটা আধা চামচ, লেবুর রস আধা চা চামচ।
     

প্রস্তুত প্রণালী:

  • ইলিশ মাছ ভালো করে ধুয়ে লবণ, আদা, লেবুর রস মাখিয়ে হালকা করে ভেজে নিন।
  • একটি বাটিতে টক দইয়ের সঙ্গে লবণ, চিনি, বাদাম, কিশমিশ বাটা, মরিচ বাটা একসঙ্গে মিশিয়ে রাখুন।
  • একটি কড়াইয়ে ঘি গরম করে মেশানো মসলা দিয়ে ভালো করে কষান।
  • তারপর মাছ দিয়ে নেড়ে আধা কাপ পানি দিন।
  • পানি শুকালে পেঁয়াজ বেরেস্তা ও সামান্য এলাচ গুঁড়ো দিয়ে নামিয়ে ফেলুন।
     

খাবারের নাম: হিলশা এগ ডেবিল

প্রয়োজনীয় উপকরণ:

  • ইলিশ মাছ কয়েক টুকরো, পাউরুটি ১ পিস, আলু সিদ্ধ ১টি, ডিম ১টি, পেঁয়াজ কুচি আধা কাপ, গরম মসলা গুঁড়ো ১ চা চামচ, কাঁচামরিচ কুচি ৬টি, গোলমরিচ গুঁড়ো আধা চা চামচ, ধনেপাতা কুচি ১ টেবিল চামচ, লবণ স্বাদমতো, চিনি ১ চা চামচ, সিদ্ধ ডিম ২টি, তেল ভাজার জন্য।
     

প্রস্তুত প্রণালী:

  • মাছ সিদ্ধ করে কাঁটা বেছে নিন।
  • পাউরুটি পানিতে ভিজিয়ে চিপে নরম করে নিন।
  • ডিম সিদ্ধ করে নিন।
  • ডিম ছাড়া মাছের সঙ্গে সব ভালো করে মিশিয়ে ডিমের চারপাশে মাছ দিয়ে ঢেকে দিন।
  • ডিমের গোলায় চুবিয়ে তেলে ভাজুন।
  • ঠাণ্ডা হলে ছুরি দিয়ে সমান দুই ভাগ করে কেটে পরিবেশন করুন।
     

খাবারের নাম: স্মোক হিলশা

প্রয়োজনীয় উপকরণ:

  • মাঝারি সাইজের ইলিশ ১টি, পেঁয়াজ ১ কাপ, লবণ পরিমাণমতো, কাঁচামরিচ কুচি ৬টি, এলাচ বাটা ১ চা চামচ, দারুচিনি বাটা ১ চা চামচ, ধনেপাতা কুচি ১ টেবিল চামচ, চিনি ১ চা চামচ, সয়াবিন তেল ২ টেবিল চামচ।
     

প্রস্তুত প্রণালী:

  • মাছ ধুয়ে ধারালো ছুরি দিয়ে সমানভাবে বুক চিরে ভেতর থেকে কাঁটা এবং মাছ বের করতে হবে খুব সাবধানে।
  • এরপর মাছ মিহি করে বেটে নিন।
  • কড়াইয়ে সামান্য তেলে পেঁয়াজ, মরিচ নরম করে ভেজে তাতে এলাচ বাটা ও ধনেপাতা দিয়ে ভালো করে নেড়ে নামিয়ে ফেলুন।
  • বাটা মাছের সঙ্গে পেঁয়াজ, লবণ, সামান্য চিনি মেশান।
  • মাছের চামড়ায় লবণ মাখুন।
  • একটি ছড়ানো ডিশে চামড়া বিছিয়ে ভেতরে মাছ ঢুকিয়ে সমান করে নিন।
  • ফ্রাইপ্যানে সামান্য তেলে ভেজে গরম গরম পরিবেশন করুন।
     

খাবারের নাম: মচমচে ভাজা মাছ

প্রয়োজনীয় উপকরণ:

  • ইলিশ মাছ কয়েক টুকরো, আদা বাটা ১ চা চামচ, মরিচ গুঁড়ো আধা চা চামচ, সুজি আধা কাপ, ডিম ১টি, লবণ স্বাদমতো, লেবুর রস ১ চা চামচ, তেল ভাজার জন্য।
     

প্রস্তুত প্রণালী:

  • ইলিশ মাছের সঙ্গে লবণ, মরিচ, আদা, লেবুর রস মাখিয়ে ১৫ মিনিট রাখুন।
  • তারপর ডিমে চুবিয়ে সুজিতে গড়িয়ে ফ্রিজে রাখুন ২০ মিনিট।
  • এবার তেলে ভেজে গরম গরম পরিবেশন করুন।

 

খাবারের নাম: কাবাব

প্রয়োজনীয় উপকরণ:

  • ইলিশ মাছ কয়েক টুকরো, পেঁয়াজ কুচি আধা কাপ, মরিচ কুচি ৬টি, ধনেপাতা কুচি ১ টেবিল চামচ, কাবাব মসলা ১ চা চামচ, এলাচ আধা চা চামচ, দারুচিনি গুঁড়ো আধা চা চামচ, লবণ স্বাদমতো, পুদিনাপাতা কুচি আধা চা চামচ, লেবুর রস ১ চা চামচ, গোলমরিচ গুঁড়ো আধা চা চামচ, চিকন সেমাই আধা কাপ, ডিম ১টি, তেল ভাজার জন্য, পাউরুটি ১ পিস, আলু সিদ্ধ ১টি।
     

প্রস্তুত প্রণালী:

  • মাছ সিদ্ধ করে কাঁটা বেছে মিহি করে বাটুন।
  • সেমাই, তেল, ডিম ছাড়া বাকি সব উপকরণ মিশিয়ে কাবাবের আকারে তৈরি করুন।
  • ডিমে চুবিয়ে সেমাইয়ে গড়িয়ে ফ্রিজের নরমাল তাপমাত্রায় আধা ঘণ্টা রেখে দিন।
  • এরপর ডুবো তেলে ভেজে গরম গরম পরিবেশন করুন।

Go to Top

 

ইলিশের ৫ পদ •  হরেক রকম ভর্তা •  ওপার বাংলা •  মিষ্টি জাতীয় খাদ্য

 

হরেক রকম ভর্তা

খাবারের নাম: চিংড়ি ভর্তা

প্রয়োজনীয় উপকরণ:

  • খোসা ছাড়া চিংড়ি ২৫০ গ্রাম, কাঁচামরিচ ৫টি, পেঁয়াজ ২টি, ধনেপাতা ১ টেবিল চামচ, লবণ পরিমাণমতো।
     

প্রস্তুত প্রণালী:

  • মাছ পানিতে সিদ্ধ করুন।
  • কাঁচামরিচ ও পেঁয়াজ তাওয়ায় টেলে নিন।
  • এবার সব কিছু শিলপাটায় বেটে ভর্তা বানিয়ে নিন।
  • এছাড়া ভর্তার সঙ্গে সামান্য নারিকেল কোরাও বেটে নিতে পারেন।
     

খাবারের নাম: বেগুন পোড়া ডিম ভর্তা

প্রয়োজনীয় উপকরণ:

  • বেগুন ২টি, ডিম ২টি, শুকনো মরিচ ভাজা ৪টি, পেঁয়াজ কুচি ৪ টেবিল চামচ, সরিষার তেল ২ টেবিল চামচ, লবণ পরিমাণমতো, ধনেপাতা কুচি ২ টেবিল চামচ।
     

প্রস্তুত প্রণালী:

  • প্রথমে ধুয়ে বেগুনের গায়ে তেল মেখে ভালো করে পুড়ে নিন।
  • ডিম সিদ্ধ করে নিন।
  • বেগুনের খোসা ছাড়িয়ে ডিম-বেগুন চটকে নিন।
  • এবার মরিচ, পেঁয়াজ কুচি, সরিষার তেল, লবণ, ধনেপাতা কুচি দিয়ে মেখে পরিবেশন করুন।

 

খাবারের নাম: চ্যাপা ভর্তা

প্রয়োজনীয় উপকরণ:

  • চ্যাপা শুঁটকি ১৫০ গ্রাম, পেঁয়াজ ৩টি, শুকনো মরিচ ১০টি, রসুন কোয়া ২০টি, লবণ পরিমাণমতো।
     

প্রস্তুত প্রণালী:

  • হালকা গরম পানিতে চ্যাপা শুঁটকি ভালোভাবে পরিষ্কার করে নিন।
  • কড়াইয়ে শুঁটকি হালকা করে ভেজে পেঁয়াজ, রসুন, মরিচ ভাজুন।
  • এবার পেঁয়াজ, রসুন, শুঁটকি, লবণ, মরিচ একত্রে শিলপাটায় বেটে পরিবেশন করুন।

 

খাবারের নাম: টাকি ভর্তা

প্রয়োজনীয় উপকরণ:

  • টাকি মাছ ৫টি, শুকনো মরিচ ৪টি, পেঁয়াজ ২টি, রসুন ৩ কোয়া, ধনেপাতা কুচি আধা কাপ, লবণ আধা চা চামচ, নারিকেল কোরা আধা কাপ, হলুদ গুঁড়া সামান্য।
     

প্রস্তুত প্রণালী:

  • টাকি মাছ কেটে ভালো করে ধুয়ে লবণ হলুদ মেখে ভাজুন।
  • ধনেপাতা অল্প তেলে অল্প করে ভেজে নিন।
  • এবার মাছের কাঁটা বেছে নারিকেল কোরা, পেঁয়াজ, রসুন, মরিচ শিলপাটায় পিষে তৈরি করুন টাকি মাছের ভর্তা।

 

খাবারের নাম: করলা আলু চিংড়ি ভর্তা

প্রয়োজনীয় উপকরণ:

  • আলু সিদ্ধ ৪টি, করলা সিদ্ধ ১টি, চিংড়ি ৬টি, শুকনো মরিচ ভাজা ৪টি, কাঁচামরিচ কুচি ১টি, পেঁয়াজ কুচি ২ টেবিল চামচ, সরিষার তেল ১ টেবিল চামচ, লবণ পরিমাণমতো।
     

প্রস্তুত প্রণালী:

  • আলু সেদ্ধ করে চটকে নিন।
  • করলা সেদ্ধ করে বিচি ফেলে চটকে নিন।
  • চিংড়ি মাছ তাওয়ায় অল্প তেলে টেলে শিলপাটায় পিষে নিন।
  • এবার পেঁয়াজ, কাঁচামরিচ, তেল, আলু, করলা ও চিংড়ি মাছ মেখে পরিবেশন করুন।

 

খাবারের নাম: লাউ পাতা ভর্তা

প্রয়োজনীয় উপকরণ:

  • কচি লাউপাতা ২০টি, কাঁচামরিচ বাটা ২ চা চামচ, পেঁয়াজ বাটা ৩ টেবিল চামচ, আদা বাটা ১ চা চামচ, সরিষা বাটা ২ চা চামচ, জিরা বাটা ২ চা চামচ, সরিষার তেল একটু, হলুদ গুঁড়ো সামান্য, পেঁয়াজ কুচি ১ টেবিল চামচ, লবণ পরিমাণমতো, কাঁচামরিচ পরিমাণমতো।
     

প্রস্তুত প্রণালী:

  • লাউপাতা ভালো করে ধুয়ে পানি শুকিয়ে কয়েকটি পাতা বিছিয়ে তার ওপর সব মসলা দিন।
  • এবার পাতা সব মুড়ে দিন। সুতা দিয়ে বাঁধুন যাতে মসলা বের না হয়।
  • ভাপে সিদ্ধ করুন ঢেকে।
  • সিদ্ধ হয়ে গেলে পাটায় বেটে নিয়ে সরিষার তেল দিয়ে ভর্তা করুন।

Go to Top

 

ইলিশের ৫ পদ •  হরেক রকম ভর্তা •  ওপার বাংলা •  মিষ্টি জাতীয় খাদ্য

 

কলকাতার স্বাদ

খাবারের নাম: ঝিঙে আলু পো স্ত

প্রয়োজনীয় উপকরণ :

  • ঝিঙে ৫০০ গ্রাম, আলু ১০০ গ্রাম, কালিজিরা ২ গ্রাম, কাঁচা মরিচ ৩ গ্রাম, সরিষার তেল ২৫ গ্রাম, পপি পেস্ট ২৫ গ্রাম, কাঁচা মরিচ বাটা ৮ গ্রাম, লবণ।

 

প্রস্তুত প্রণালী:

  • ঝিঙে টুকরো করে কাটতে হবে। এরপর আলুর ছোট ছোট টুকরা করতে হবে।
  • কড়াইতে তেল গরম করতে হবে, সাথে কালিজিরা এবং কাঁচামরিচ মিশাতে হবে।
  • এরপর সেগুলো একসাথে মিশিয়ে চুলায় বসাতে হবে, পপি পেস্ট এবং কাঁচামরিচ বাটা মেশাতে হবে।
  • এরপর লবণ মিশিয়ে সেদ্ধ না হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।

 

খাবারের নাম: ডাব চিংড়ি

প্রয়োজনীয় উপকরণ:

  • চিংড়ি (১৮-২০ পিস/কেজি) ৬ পিস, মাখন ৫ গ্রাম,
  • নারিকেল দুধ ২৫ মিলিগ্রাম, আদাবাটা ৫ গ্রাম, ডাবের শাঁসের পেস্ট ৫০০ গ্রাম, কাঁচামরিচ বাটা ৬ গ্রাম, সরিষা বাটা ৫ গ্রাম, লবণ পরিমাণমতো, চিনি পরিমাণমতো, ডাবের খোলস ১টি।

 

প্রস্তুত প্রণালী:

  • লেজসহ চিংড়ি ধুয়ে পরিষ্কার করে নিতে হবে। ডাবের শাঁসের পেস্ট তৈরির জন্য প্রথমে ডাবের অর্ধেকটা কাটতে হবে। তারপর ভেতরের শাঁসটা বের করে ফেলতে হবে।
  • এরপর সেটা ব্লেন্ডারে দিয়ে পেস্ট বানাতে হবে।
  • ৫০০ গ্রাম পেস্টের জন্য ৭-৮টি ডাব প্রয়োজন হবে।
  • এবার মাখন তাওয়াতে হালকা গরম করে সেখানে চিংড়িগুলো ভিজিয়ে রাখতে হবে।
  • সাথে পরিমাণমতো সরিষা বাটা ও লবণ মেশাতে হবে।
  • এবার সাস দিয়ে বানানো পেস্টের সাথে নারিকেল দুধ মিশিয়ে নিতে হবে।
  • এরপর চিংড়ির সাথে মিশিয়ে তাওয়াতে নিয়ে চুলায় বসিয়ে রাখতে হবে যতক্ষণ না রং বদলে লালচে হয়ে যায়।
  • সাথে গ্রেভি ও সস মেশাতে হবে।
  • এবার সুন্দর করে সাজিয়ে পরিবেশন করুন সুস্বাদু ডাব চিংড়ি।

 

খাবারের নাম: দই দিয়ে ভাপে মাছ

প্রয়োজনীয় উপকরণ :

  • রুই বা কাতলা বা বোয়াল বা তেলাপিয়া আস্ত ১টি, টক দই ১/৩ কাপ, গোল মরিচ ১ চা চামচ, কাজুবাদাম ২ টেবিল চামচ, আদা বাটা ২ টেবিল চামচ, ক্রিম ৬ টেবিল চামচ, লবণ পরিমাণমতো। তেল ২ টেবিল চামচ, লেবুর রস ৪ চা চামচ।

 

প্রস্তুত প্রণালী:

  • আস্ত মাছটা আঁশ ফেলে ভালো করে ধুয়ে নিন।
  • আস্ত মাছের দু'পাশ থেকে মাংসল অংশটুকু কেটে নিন।
  • মাঝখানের কাঁটা ও মাথা ফেলে দিন।
  • এরপর মাছের উপরের থেকে চামড়াটা কেটে ফেলুন।
  • ক্রিম বাদে বাকি সবকিছু দিয়ে মাছে মসলা মেখে রাখুন ৩০ মিনিট।
  • ওভেন ফ্রি হিট করুন ১০ মিনিট। ওভেনে ট্রেতে পানি দিন।
  • তার উপর একটা বাটি বসান।
  • মাছে ক্রিম মাখিয়ে বাটিতে বিছিয়ে দিন।
  • ৩০ মিনিট বেক করুন।

 

খাবারের নাম: বেড সন্দেশ

প্রয়োজনীয় উপকরণ:

  • আধা কেজি টক দই, ২৫০ গ্রাম চটকানো ছানা, ১ কাপ চিনি (গুঁড়া করা), ১ চা চামচ ভ্যানিলা, ২ টেবিল চামচ পেস্তা কুচি।

 

প্রস্তুত প্রণালী:

  • টকদই কাপড়ে বেঁধে ঘণ্টাখানেক টাঙিয়ে রাখুন, যাতে একটুও পানি না থাকে।
  • টক দই, ছানা, গুঁড়া চিনি, ভ্যানিলা একসঙ্গে ব্লেন্ড করুন।
  • একেবারে ভালো মিশ্রণ হওয়া চাই।
  • এবার তাতে পেস্তাকুচি মেশান।
  • অবশ্য এটি বাদও দেওয়া যায়।
  • একটি বেকিং ডিশে মাখন মাখিয়ে মিশ্রণটি ঢালুন।
  • ১৬০ ডিগ্রি সে. উত্তাপে বেক করুন ২৫-৩০ মিনিট।
  • এরপর তা ঠান্ডা করে কেটে পরিবেশন করুন।

 

ছানা তৈরি:

  • দুধ ১ লিটার, ভিনেগার ৩ টেবিল চামচ, পানি ৩ টেবিল চামচ।
  • প্রথম দুধ সসপ্যানে ফুটিয়ে নিন।
  • দুধ ফুটে উঠলে ভিনেগারের সাথে পানি মিশিয়ে আস্তে আস্তে দুধে দিন।
  • ঢাকা দিয়ে অল্প জ্বালে ৫ মিনিট রাখুন।
  • পানি ও ছানা আলাদা হয়ে যাবে। পানির রং সবুজ হবে।
  • ছানা পাতলা কাপড়ে ছেকে ধুয়ে ফেলুন।
  • ১ ঘণ্টা ছানা কাপড়ে ঝুলিয়ে রাখুন।
  • ছানা ভালো করে চটকিয়ে নিন।

 

খাবারের নাম: পাট শাক বড়া

প্রয়োজনীয় উপকরণ:

  • পাট শাক ১ আটি, মসুর ডাল ২ কাপ, পোলাউয়ের চাল ১ কাপ, কাঁচা মরিচ কুচি ৪ টেবিল চামচ, লবণ পরিমাণমতো, ধনেপাতা কুচি ৩ টেবিল চামচ, তেল ভাজার জন্য, টেস্টিং সল্ট ১ চিমটি।

 

প্রস্তুত প্রণালী:

  • মুসুর ডাল ও পোলাউয়ের চাল ভিজিয়ে রাখুন ঘণ্টাখানেক।
  • এরপর বাটুন।
  • শাক ধুয়ে দু'ভাগ করে কেটে নিন।
  • ডাল, চাল বাটা, শাক, কাঁচা মরিচ, ধনেপাতা, টেস্টিং সল্ট সব একসাথে মেখে নিন।
  • ননস্টিক ফ্রাইপ্যান অল্প তেলে চপের মতো করে মচমচে করে ভাজুন।

Go to Top

 

ইলিশের ৫ পদ •  হরেক রকম ভর্তা •  ওপার বাংলা •  মিষ্টি জাতীয় খাদ্য

 

মিষ্টি জাতীয় খাদ্য

খাবারের নাম: মচমচে মুরালি

প্রয়োজনীয় উপকরণ :

  • ময়দা ২৫০ গ্রাম। মসুরের ডাল মিহি করে বাটা ১০০ গ্রাম। লবণ সামান্য, চিনি ও পানি পরিমাণমতো এবং ভাজার জন্য তেল।

 

প্রস্তুত প্রণালী:

  • একটি পাত্রে ময়দা, লবণ এবং পরিমাণমতো তেল দিন। এতে বাটা মসুর ডাল দিয়ে আবার ভালো করে মাখিয়ে একটি শক্ত ডো তৈরি করুন। পরিমাণমতো পানি ও চিনি দিয়ে সিরা তৈরি করুন। এ থেকে পরিমাণমতো ডো নিয়ে রুটির মতো বেলে লম্বা লম্বা করে কেটে নিন। এরপর ডুবো তেলে মচমচে করে ভেজে তুলুন। গরম থাকতেই ভাজা মুরালিগুলো সিরায় দিয়ে কিছুক্ষণ নেড়ে নামিয়ে ঠাণ্ডা করে পরিবেশন করুন।
     

খাবারের নাম: চিড়ার মোয়া

প্রয়োজনীয় উপকরণ:

  • চিড়া ৩০০ গ্রাম, গুড় পরিমাণমতো।

 

প্রস্তুত প্রণালী:

  • চিড়া শুকনো করে ভেজে রাখুন। চিড়া ভাজা হলে ভালো করে ঝাড়ূন। গুড়ে পানি দিয়ে জ্বাল দিন। গুড়ের সিরা ঘন হয়ে আঠা আঠা হলে এতে চিড়া দিয়ে নামিয়ে হাতে নিয়ে গোল গোল করে মোয়া তৈরি করুন।

 

খাবারের নাম: কাউনের পায়েস

প্রয়োজনীয় উপকরণ:

  • দুধ ২ লিটার, কাউনের চাল ১ কাপ, এলাচ ২টি, চিনি পরিমাণমতো।
     

প্রস্তুত প্রণালী:

  • প্রথমে কাউন কিছুক্ষণ ভিজিয়ে রাখুন। এরপর একটি পাতলা কাপড়ে করে ভালোভাবে ধুয়ে নিন। পাতিলে দুধ জ্বাল দিন। দুধ ফুটে উঠলে এতে এলাচ এবং কাউনের চাল দিয়ে নাড়তে থাকুন। চাল ফুটে উঠলে চিনি দিন। এরপর অনবরত নাড়তে হবে, যাতে নিচে লেগে না যায়। পায়েস ঘন হয়ে এলে পাত্রে ঢেলে সাজিয়ে পরিবেশন করুন।

 

খাবারের নাম: তিলের গোলা

প্রয়োজনীয় উপকরণ:

  • ময়দা ১ কাপ, গুঁড়া দুধ ২ টেবিল চামচ, ডিম ১টি, মাওয়া ১ টেবিল চামচ গুঁড়া করা, চিনি পরিমাণমতো, বেকিং পাউডার পরিমাণমতো বা আধা চা চামচ, ঘি ২ টেবিল চামচ, সাদা তিল পরিমাণমতো এবং ভাজার জন্য তেল ও পানি পরিমাণমতো।

 

প্রস্তুত প্রণালী:

  • তিল ও তেল ছাড়া ময়দার সঙ্গে বাকি সব উপকরণ ভালো করে মাখিয়ে প্রায় ৪-৫ ঘণ্টা ঢেকে রাখুন। এরপর গোল গোল করে তিলে গড়িয়ে গরম তেলে ভেজে তুলুন। পরিবেশন করুন সাজিয়ে।

 

খাবারের নাম: নারিকেল নাড়ু

প্রয়োজনীয় উপকরণ :

  • কোরানো নারিকেল ৩ কাপ, খেজুরের গুড় পরিমাণমতো, এলাচ ২টি, চাল ভাজা গুঁড়া করা আধা কাপ, পানি পরিমাণমতো।

 

প্রস্তুত প্রণালী:

  • খেজুরের গুড়ে পরিমাণমতো পানি দিয়ে জ্বাল দিতে থাকুন। জ্বাল দিয়ে ঘন রস তৈরি করুন। এরপর এতে কোরানো নারিকেল এবং এলাচ দিয়ে আবার নাড়তে থাকুন। নারিকেল নাড়ার সময় খেয়াল রাখুন যেন নিচে না লেগে যায়। নারিকেল শুকিয়ে এলে এতে চালের গুঁড়া মিশিয়ে ভালো করে নেড়ে হাতে নিয়ে গোল গোল করে নাড়ূর মতো করে তৈরি করুন।

 

খাবারের নাম: রসগোল্লা

প্রয়োজনীয় উপকরণ:

  • ছানা ৩ কাপ, ময়দা ১/৪ কাপ, সুজি ২ চা চামচ, চিনি ২ টেবিল চামচ, খাওয়ার সোডা ১ চিমটি, এলাচি গুঁড়া সামান্য

 

সিরা তৈরি:

  • ৫ কাপ চিনি ৫ কাপ পানি দিয়ে জ্বাল করে পাতলা সিরা তৈরি করে নিতে হবে।

 

প্রস্তুত প্রণালী:

  • একটি ছড়ানো পাত্রে মুঠমুঠ করে ময়ান করা ছানা দিয়ে একে একে সব শুকনা উপকরণ ছড়িয়ে দিন।
  • হাতের তালু দিয়ে সব উপকরণ ভালোভাবে মেখে নিন।
  • এবার হাতে তেল মেখে ছানার মিশ্রণকে গোল গোল মিষ্টি বানান।
  • এবার পাতলা সিরায় মিষ্টি দিয়ে চুলার আচ বাড়িয়ে ঢেকে দিন।
  • মিষ্টি যখন ফুলে দ্বিগুণ হয়ে যাবে, তখন চামচে করে গরম সিরার মধ্যে ঠাণ্ডা পানি মিলিয়ে দিন।
  • মিষ্টি সেদ্ধ হলে নামিয়ে ৭-৮ ঘণ্টা সিরায় রেখে এরপর পরিবেশন করুন।

 

খাবারের নাম: মুড়ির মোয়া

প্রয়োজনীয় উপকরণ:

  • মুড়ি ২৫০ গ্রাম, গুড় ২৫০ গ্রাম, তেল (হাতে মাখার জন্য) সামান্য।
     

প্রস্তুতপ্রণালী:

  • কড়াই মৃদু আঁচে বসিয়ে গুড় দিন। হাত ভিজিয়ে ছিটা দিয়ে পানি দিন।
  • গুড় গলতে শুরু করলে মুড়ি দিন। নেড়ে নেড়ে গুড়-মুড়ি ভালোভাবে মিলিয়ে নিন।
  • নামিয়ে অল্প গরম থাকতেই হাতের তালুতে তেল মেখে গোল গোল মোয়া বানিয়ে নিন।
     

খাবারের নাম: লালমোহন

প্রয়োজনীয় উপকরণ:

  • গুঁড়াদুধ আধা কাপ, ময়দা এক কাপের ৪ ভাগের ১ ভাগ, বেকিং পাউডার ১ চা চামচ, ঘি ২ টেবিল চামচ, ফেটানো ডিম ২টি, চিনি ৩ কাপ, পানি ৫ কাপ, তেল ভাজার জন্য।

 

প্রস্তুত প্রণালী:

  • ময়দা, বেকিং পাউডার, গুঁড়াদুধ একসঙ্গে মিশিয়ে নিন। এর মধ্যে ১ টেবিল চামচ ঘি মিশিয়ে ভালো করে ময়দা ঝুরঝুরা করে নিন।
  • আলাদা পাত্রে ডিম ফেটিয়ে ময়দার মিশ্রণে পরিমাণমতো ডিম দিয়ে চামচের সাহায্যে মিশিয়ে দিন।
  • এবার মিষ্টি রাখার পাত্রে এবং হাতেও ঘি মেখে নিন। পরিমাণমতো মিশ্রণ হাতে নিয়ে লালমোহনের আকারে বানান।
  • চুলায় তেল প্রথমে গরম করে পরে ঠাণ্ডা করুন। তারপর ঐ তেলে মিষ্টি দিয়ে মৃদু আঁচ দিন।
  • লালমোহনের রং লালচে হলে নামান।
  • এবার চুলায় সিরা ফুটে উঠলে মিষ্টি দিয়ে ঢেকে দিন।
  • ১৫ মিনিট পর ১ টেবিল চামচ ঘি দিয়ে নামান।
  • ৩-৪ ঘণ্টা পর সিরা থেকে তুলে মাওয়া ছড়িয়ে পরিবেশন করুন।
     

খাবারের নাম: মালাইচপ

প্রয়োজনীয় উপকরণ :

  • স্পঞ্জ রসগোল্লা ১০টি, দুধ ১ লিটার, চিনি আধা কাপ, ঘি ১ টেবিল চামচ।
     

প্রস্তুত প্রণালী:

  • দুধ জ্বাল দিয়ে ঘন করে এর মধ্যে চিনি দিন।
  • চিনি গলে গেলে একবার বলক তুলে নামিয়ে ঠাণ্ডা করুন।
  • আবার দুধ চুলায় দিয়ে সামান্য গরম হলে, গরম সিরা থেকে স্পঞ্জ রসগোল্লা তুলে চুলায় বসানো দুধে দিন।
  • ঢাকনা খুলে জ্বাল দিন। দুধ ঘন হলে ১ টেবিল চামচ ঘি দিন।
  • ৩ ঘণ্টা ফ্রিজের নরমাল তাপমাত্রায় রেখে তারপর পরিবেশন করুন।

 

খাবারের নাম: স্পঞ্জ রসগোল্লা

প্রয়োজনীয় উপকরণ:

  • ছানা ১ কাপ, চিনি ৩ কাপ, পানি ৫ কাপ, দুধ ১ টেবিল চামচ।

 

যেভাবে তৈরি করবেন:

  • চুলায় কড়াই দিয়ে পানি ও চিনি জ্বাল দিয়ে পাতলা সিরা করুন।
  • ছানা ময়ান করে গোল গোল মিষ্টি বানিয়ে বলকানো সিরায় দিয়ে আঁচ বাড়িয়ে ঢেকে ১৫ মিনিট জ্বাল দিন।
  • ১৫ মিনিট পর ঢাকনা খুলে ২-৩ মিনিট জ্বাল দিয়ে আধা কাপ ঠাণ্ডা পানি গরম সিরার মধ্যে ঢেলে দিন।
  • মাঝেমাঝে নেড়ে দিন। মিষ্টি সেদ্ধ হয়ে যখন ডুবে থাকবে তখন নামিয়ে আন্দাজ মতো ঠাণ্ডা পানি আবার দিয়ে নেড়ে ৭-৮ ঘণ্টা এভাবে রেখে দিন। এরপর পরিবেশন করুন।

Go to Top

 
আরো পড়ুন
 

নামসংক্ষিপ্ত বিবরণ
মজাদার গাজরের জর্দাবিস্তারিত পড়ুন মজাদার গাজরের জর্দা
স্পঞ্জ রসগোল্লাবিস্তারিত পড়ুন স্পঞ্জ রসগোল্লা
বালুশাই মিষ্টিবিস্তারিত পড়ুন বালুশাই মিষ্টি
বুন্দিয়া ও লাড্ডুবিস্তারিত পড়ুন বুন্দিয়া ও লাড্ডু
মাংস পুলিবিস্তারিত পড়ুন মাংস পুলি
মটরশুঁটির পোলাওবিস্তারিত পড়ুন মটরশুঁটির পোলাও
কবুতরের পোলাওবিস্তারিত পড়ুন কবুতরের পোলাও
মেজবানি শাহি পোলাওবিস্তারিত পড়ুন মেজবানি শাহি পোলাও
বেগুনের আচারি রেসিপিবিস্তারিত পড়ুন আজ আপনাদের জন্য রয়েছে বেগুনের আচারি রেসিপি
চিংড়ি মাছের ভর্তাবিস্তারিত পড়ুন চিংড়ি মাছের ভর্তা
আরও ৩৫২ টি লেখা দেখতে ক্লিক করুন
২৫ বছরে ১৮ সন্তানের জননী!
সর্বপ্রথম পোর্টেবল দ্বীপ
বিদেশিনীর বাংলা প্রেম
জুতার গাছ!
exam
নির্বাচিত প্রতিবেদন
exam
সুমাইয়া শিমু
পিয়া বিপাশা
প্রিয়াংকা অগ্নিলা ইকবাল
রোবেনা রেজা জুঁই
বাংলা ফন্ট না দেখা গেলে মোবাইলে দেখতে চাইলে
how-to-lose-your-belly-fat
guide-to-lose-weight
hair-loss-and-treatment
how-to-flatten-stomach
fat-burning-foods-and-workouts
fat-burning-foods-and-workouts
 
সেলিব্রেটি