পূর্ববর্তী লেখা    পরবর্তী লেখা
পুরো লিস্ট দেখুন

ভিডিওতে হেলানো মিনার

ইতালির পিসায় অবস্থিত হেলানো মিনার পৃথিবীর বিখ্যাত স্থাপনাগুলোর একটি। প্রায় ৮০০ বছর আগে গির্জার বেল টাওয়ার হিসেবে এই মিনারটি নির্মাণের মাধ্যমে বিশ্ববাসীকে নিজেদের সামর্থ্য সম্পর্কে জানান দিতে চেয়েছিল পিসা। পুরো ভূমধ্যসাগরীয় এলাকায় সাফল্যের সাথে সামরিক আধিপত্যের বিস্তার ঘটিয়েছিল সেসময়কার পিসা।

পৃথিবীর মাধ্যাকর্ষণ বলকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে ৪ ডিগ্রি কোণে হেলানো অবস্থায় দাঁড়িয়ে থাকা মিনারটি কিন্তু ইচ্ছে করে এভাবে তৈরি করা হয়নি। এটি আসলে প্রকৌশলী আর স্থপতিদের ভুলের একটি নিদর্শন হয়ে আছে। অবশ্য তারাই আবার এটিকে আজ পর্যন্ত টিকিয়ে রেখেছেন। মজার ব্যাপার হচ্ছে এর মূল স্থপতি নকশায় সাক্ষর করেননি। কে জানে তিনি হয়ত তখনই বুঝতে পেরেছিলেন এভাবে মিনার তৈরি করলে সমস্যা হবে। নির্মাতাদের ভুলের খেসারত হিসেবে ৮০০ বছর ধরে ধীরে ধীরে হেলে পড়েছে মিনারটি। কেবল সাম্প্রতিক কালে এসে প্রকৌশলীরা মিনারটিকে কোনমতে স্থির অবস্থায় নিয়ে আসতে পেরেছেন।

মার্বেল পাথরে তৈরি ১৪,৫০০ টন ওজনের ৫৬ মিটার উঁচু এই স্থাপনাটি তৈরি হয়েছিল নরম মাটির ওপর যেটি কোনভাবেই এত ওজন নেয়ার মত উপযুক্ত ছিল না। এর ভিত ছিল ২০ বর্গ মিটারের আর গভীরতা ছিল মাত্র ৩ মিটার। সেসময়কার অন্যান্য স্থাপনার স্থাপত্যশৈলী থেকে এটি ছিল একেবারেই আলাদা। অনেকগুলো স্তম্ভ আর খিলানের ওপর দাঁড়িয়ে আছে মিনারটি। বিশাল এই স্থাপনার ভর বিন্যাসের কাজটি কিভাবে হবে সে হিসেব করতে সংশ্লিষ্ট প্রকৌশলীদের যথেষ্ট দক্ষতার পরিচয় দিতে হয়েছে। কিন্তু ভুলটি করে ফেলেছিলেন ভিতের বেলায়। ভিতের কাদামাটির এতটা ভর নেয়ার ক্ষমতা ছিল না। ১১৭৩ সালে এর নির্মাণ কাজ শুরু হয়। তিন তলা পর্যন্ত কাজ করার পরই মিনারটি হেলে যাওয়ার বিষয়টি সবার নজরে আসে। এরপর ১০০ বছরের জন্য কাজ বন্ধ ছিল। অবশ্য হেলে পড়ার কারণে যে কাজ বন্ধ ছিল তা নয়। পিসা যুদ্ধবিগ্রহে এতটাই ব্যস্ত হয়ে পড়েছিল যে মিনার নির্মাণের দিকে নজর দেয়ার সময় হয়নি।

১০০ বছরের বিরতি বাঁচিয়ে দিয়েছিল মিনারটিকে

আসলে ১০০ বছরের বিরতি পেয়ে তৃতীয় তলা পর্যন্ত নির্মিত মিনারের চাপে ভিত কিছুটা উপযুক্ত হয়ে ওঠে। বলা যায় যুদ্ধই বাঁচিয়ে দিয়েছিল হেলানো মিনারকে। প্রথম দফায় নির্মাণকাজ শেষ করলে মিনারটি নিশ্চিতভাবেই গুঁড়িয়ে পড়ত। ১২৭২ সালে নির্মাণকাজ চালানোর সময় ভারসাম্য আনতে মিনারটিকে ইচ্ছে করে বিপরীত বাঁকিয়ে নির্মাণ করা হয়। আর তখন দক্ষিণ পূর্ব দিকে হেলে পড়ার বদলে দক্ষিণ পশ্চিম দিকে হেলে পড়তে থাকে মিনারটি। যুদ্ধবিগ্রহ পিছু ছাড়েনি পিসাকে, মিনারটির কাজ শেষ করতে আরও ১০০ বছর লেগে যায়। মিনারটির ক্রমাগত হেলে পড়া ঠেকাতে ১৯৯০ সালে এক প্রকল্প হাতে নেয়া হয়। এসময় প্রথমে ঘণ্টাগুলো নামিয়ে টাওয়ারের ওজন কমানো হয়, তারপর টাওয়ারটিকে কেবলের মাধ্যমে নিরাপদ অবস্থায় এনে নিচে থেকে ৩৮ ঘনমিটার মাটি সরিয়ে নেয়া হয়। তখন হেলে পড়ার মাত্রা ৫.৫ ডিগ্রি থেকে ৩,৯ ডিগ্রিতে নেমে আসে। বিশেষজ্ঞদের মতে এটি আরও ৩০০ বছরের জন্য নিরাপদ করা গেছে। আপনার যদি উচ্চতা-ভীতি না থাকে তবে পিসায় বেড়াতে গেলে আপনার প্রথম গন্তব্য হতে পারে এই হেলানো মিনার। প্রায় ৩০০টি ধাপ পেরিয়ে ওপর থেকে পিসা শহরটিকে দেখার সুযোগ পাবেন আপনি।  

 

এক নজরে:

  • ১৯৮৭ সালে একে ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ সাইট ঘোষণা করে ইউনেস্কো।
  • মিউজিক্যাল স্কেলের সাতটি নোট অনুসারে এখানে সাতটি বেল বসানো হয়েছে।
  • এক সময় মিনারটি ৫.৫ ডিগ্রি পর্যন্ত হেলে পড়েছিল, এখন ৩.৯৯ হেলে আছে। যার অর্থ এর শীর্ষ যেখানে থাকার কথা তার চেয়ে ৩.৯ মিটার সরে আছে।
  • শোনা যায় বিজ্ঞানী গ্যালিলিও এই টাওয়ারের ওপর থেকে ভিন্ন ভরের দু’টি কামানোর গোলা ফেলে প্রমাণ করতে চেয়েছিলেন বস্তুর পতনে কতটা সময় লাগবে সেটি ভরের ওপর নির্ভরশীল নয়। অবশ্য এ তথ্যের সপক্ষে জোরালো প্রমাণ পাওয়া যায় না।
  • দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় জার্মানরা হেলানো মিনারটিকে পর্যবেক্ষণ কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহার করতে শুরু করে। সে সময় মার্কিন সৈন্যদের প্রতি নির্দেশ ছিল যে স্থাপনাতেই জার্মানরা থাকুক না কেন সেটি গুঁড়িয়ে দিতে হবে। কিন্তু হেলানো মিনারের সৌন্দর্যে মুগ্ধ হয়ে সংশ্লিষ্ট মার্কিন সেনা কর্মকর্তা তথ্য পাঠিয়েছিলেন হেলানো মিনারে জার্মান সৈন্য নেই। ফলে মার্কিন গোলন্দাজ বাহিনীর কামানের গোলার হাত থেকে বেঁচে যায় হেলানো মিনার।

 

 

হেলানো মিনার: ভিডিও ভ্রমণ

 

ভিডিও: কেন হেলে পড়লো আর কিভাবে ভারসাম্য আনা হল

ভিডিওতে হেলানো মিনারের ইতিহাস:

 

 
আরো পড়ুন
 

নামসংক্ষিপ্ত বিবরণ
ভিডিওতে তুরস্কের ইস্তাম্বুলইস্তাম্বুলের ইতিহাস এবং দর্শনীয় স্থান
ভিডিওতে হেলানো মিনারপৃথিবীর সবচেয়ে বিখ্যাত স্থাপনাগুলোর একটি
ভিডিওতে রোমের কলোসিয়ামকলোসিয়াম পরিচিতি এবং ইতিহাস
ভিডিওতে আইফেল টাওয়ারসংক্ষিপ্ত পরিচিতি আর ইতিহাস, কেন ভেঙে ফেলা হল না
মিশরীয় পিরামিড একটি বিস্ময় ভিডিওসহবিস্তারিত তথ্য দেওয়া আছে
ভিডিওতে ইস্তানবুলের সুলতান আহমেদ মসজিদঅটোমান শাসনামলে নির্মিত মসজিদটির ইতিহাস
ভিডিওতে চীনের মহাপ্রাচীরজেনে নিন মহাপ্রচীরের মহান ইতিহাস আর সৌন্দর্য
ভিডিওতে আমাজন অরণ্যবিশ্বের সবচেয়ে বড় আর ঘন রেইন ফরেস্ট
ভিডিওতে হনলুলুযুক্তরাষ্ট্রের ৫০তম অঙ্গরাজ্য হাওয়াইয়ের রাজধানী হনলুলু
ভিডিওতে ক্যালিফোর্নিয়ার গোল্ডেন গেট ব্রিজপর্যটকদের জন্য বিশ্বের সবচেয়ে সুন্দর গন্তব্যগুলোর একটি
আরও ১৭ টি লেখা দেখতে ক্লিক করুন
২৫ বছরে ১৮ সন্তানের জননী!
সর্বপ্রথম পোর্টেবল দ্বীপ
বিদেশিনীর বাংলা প্রেম
জুতার গাছ!
exam
নির্বাচিত প্রতিবেদন
exam
সুমাইয়া শিমু
পিয়া বিপাশা
প্রিয়াংকা অগ্নিলা ইকবাল
রোবেনা রেজা জুঁই
বাংলা ফন্ট না দেখা গেলে মোবাইলে দেখতে চাইলে
how-to-lose-your-belly-fat
guide-to-lose-weight
hair-loss-and-treatment
how-to-flatten-stomach
fat-burning-foods-and-workouts
fat-burning-foods-and-workouts
 
সেলিব্রেটি