পূর্ববর্তী লেখা    পরবর্তী লেখা
পুরো লিস্ট দেখুন

মিশরীয় পিরামিড একটি বিস্ময় ভিডিওসহ

মিশরের পিরামিড তৈরি হয় তখন, যখন মিশর ছিল বিশ্বের অন্যতম সম্পদশালী এবং ক্ষমতাধর রাষ্ট্র। মিশরের পিরামিড, বিশেষ করে গিজার পিরামিড, ইতিহাসে মানুষের হাতে তৈরি একটি অন্যতম মানব-সৃষ্ট কাঠামো। যদিও পিরামিড চতুর্থ শতাব্দীতে টলেমীর সময়ের কাছাকাছি সময়ে নির্মাণ  শুরু হয়েছিল, এর চূড়ার নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছিল ৩য় রাজবংশের আমলে এবং কাজটি চলেছিল ৬ষ্ঠ রাজবংশ পর্যন্ত। ৪০০০ বছরেরও অধিক সময় পরে, মিশরীয় পিরামিড আবারও তার রাজকীয়তা পুনরুদ্ধার করেছে এবং এখনও দেশের সমৃদ্ধ এবং গৌরবময় অতীতের কথা স্মরণ করিয়ে দেয়।

মিশরীয় সমাজে ফেরাউন

প্রাচীনকালে মিশরের রাজাদের উপাধী ছিল ফেরাউন। প্রাচীন রাজ্যের তৃতীয় ও চতুর্থ রাজবংশ রাষ্ট্র হিসেবে মিসর অসাধারণ অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি ও স্থিতিশীলতার একটি দেশ ছিল। তখন রাজারা মিশরীয় সমাজে অনন্য একটি অবস্থানে অধিষ্ঠিত ছিল। কোথাও কোথাও মানুষ এবং ঐশ্বরিক শক্তির মধ্যে। এজন্য তখনকার মিশরীয় রাজাদেরকে মৃত্যুর পরও যাতে তাদের রাজকীয়তা টিকে থাকে তার ব্যবস্থা করতো। কেননা তাদের বিশ্বাস ছিল যে রাজা ছিল মৃতদের ঈশ্বর।

প্রাচীনকালে মিশরীয়দের বিশ্বাস ছিল যে, মৃত্যুর পর রাজার আত্মা, যা “কা” নামে পরিচিত ছিল তা আবার তার দেহে ফিরে আসে। তাই যথাযথ পরিচর্যার মাধ্যমে রাজার দেহ সংরক্ষণ করতে পারলে আবারও তার আত্মা তার দেহে ফিরে আসবে। তই মৃত্যুর পর যাতে রাজার কোন অসুবিধা না হয় সেজন্য তারা রাজার মৃতদেহের সাথে খাবার, সোনাদানা, আসবাবপত্র সহ অন্যান্য জিনিসপত্র দিয়ে তাকে সমাহিত করতো। এবং এই ধরনের ধারণা থেকেই মূলত পিরামিড তৈরি করার ধারণা লাভ করে।

শুরুর দিকের পিরামিড:

রাজবংশীয় যুগ (২৯৫০ খ্রিস্টপূর্বাব্দ) এর শুরু থেকেই রাজকীয় সমাধি খোদাই করা হতো পাথরের মধ্যে এবং তা ঢেকে রাখা হতো সমতল আয়তকার কাঠামো দিয়ে যা "mastabas," হিসাবে পরিচিত ছিল এবং এটিই ছিল পিরামিডের পূর্বসূরি। মিশরের সবচেয়ে পুরাতন পিরামিডটি তৈরি করা হয়েছিল ২৬৩০ খ্রিষ্টাব্দে সাক্কারাতে যা তৈরি করা হয়েছিল তৃতীয় রাজবংশের রাজা জোসার জন্য। স্টেপ পিরামিড হিসেবে পরিচিত এই পিরামিডটি নির্মাণ শুরু করা হয়েছিল ঐতিহ্যবাহী mastabas হিসেবে। কিন্তু এটি তাদের আরও বেশি উচ্চাকাঙ্ক্ষী করে তোলে। কথিত আছে, পিরামিডগুলোর স্থপতি ইম্হোটেপ। জোসার এর প্রায় ২০ বছরের রাজত্বকালে ছয় পাথর স্তর সোপান-যুক্ত পিরামিডের নির্মাতা অবশেষে ২০৪ ফুট (৬২ মিটার) উচ্চতায় পৌঁছে যা ছিল তার সময়ের সবচেয় উঁচু বিল্ডিং। জোসারের পর স্টেপ পিরামিড হয়ে ওঠে রাজকীয় সমাধির একটি আদর্শ।

গিজার পিরামিড বা খুফুর পিরামিড:

গিজার পিরামিড বা খুফুর পিরামিড পৃথিবীর সবচেয়ে বৃহদাকারের পিরামিড। পিরামিডটি নীল নদের পশ্চিম তীরে অবস্থিত যা কায়রো শহরের সীমান্তে। সবচাইতে প্রাচীন ও বৃহত্তম গিজার এই তিনটি পিরামিডই মূলত পৃথিবীর সপ্তাশ্চর্যের তালিকায় স্থান পেয়েছে। এই পিরামিডটি তৈরি করা হয়েছিল ৪র্থ রাজবংশের আট জন রাজার মধ্যে ২য় রাজা সনেফেরু (Sneferu) উত্তরাধিকারী খুফুর জন্য। তিনটি ছোট পিরামিড একটি সারিতে তৈরি করা হয়েছে খুফুর রাণীর জন্য এবং এর কাছাকাছি একটি কবর পাওয়া গেছে যা তার মা রাণী হেটিফেরেস (Hetepheres) এর।

গিজার মাঝখানের পিরামিডটি তৈরি করা হয়েছিল খুফুর পুত্র খাফরি  (Khafre) এর জন্য (২৫৫৮-২৫৩২)।Khafre এর পিরামিড চত্বর ভিতরে নির্মিত একটি অনন্য বৈশিষ্ট্য হল এখানে একটি মানুষের মাথা ও সিংহের শরীরের সাথে চুনাপাথরের সমন্বয়ে একটি গার্ডিয়ান মূর্তি তৈরি করা হয়েছে। এটি ছিল প্রাচীন বিশ্বের সবচেয়ে বড় মূর্তি যার দৈর্ঘ্য ২৪০ ফুট এবং উচ্চতা ৬৬ ফুট।

গিজার সর্বদক্ষিণের পিরামিডটি তৈরি করা হয়েছে খাফরির পুত্র মেনকাউরি (Menkaure)এর জন্য (২৫৩২-২৫০৩)। এটি গিজার অন্য তিনটি পিরামিডের মধ্যে সবচেয়ে ছোট যার উচ্চতা ২১৮ ফুট এবং এটি তৈরি করা হয়েছিল ৫ম ও ৬ষ্ঠ রাজবংশের আমলে।

ধারণা করা হয় নির্মাণকালে গিজার সর্বোচ্চ পিরামিডটির যে উচ্চতা ছিল বর্তমানে তা নেই। এর আসল উচ্চতা হলে ৪৮১.৪ ফুট তবে এর বর্তমান উচ্চতা ৪৫৫ ফুট এবং এটি ৭৫৫ বর্গফুট জমির উপর স্থাপিত। ধারণা করা হয় এই পিরামিডটি তৈরি করতে প্রায় ১ লক্ষ শ্রমিক ১৪ থেকে ২০ বছর ধরে কাজ করেছিল। পুরো পিরামিড তৈরিতে চুনাপাথরের ব্লক ব্যবহার করা হয়েছে। তবে এর ভিতরে রাজার কক্ষ তৈরি করতে গ্রানাইট ব্যবহার করা হয়েছে।

 

ঠিক কি পদ্ধতিতে এই পাথরের ব্লকগুলো উপরে উঠিয়ে ধাপে ধাপে বসানো হয়েছিল তা সঠিকভাবে বলা যায় না। তবে অনুমান করা হয় অনেক দূর থেকে মাটির ঢাল তৈরি করে সেই ঢালের উপর দিয়ে টেনে টেনে পাথরগুলো উপরে তোলা হতো। এক্ষেত্রে ব্যবহার করা হতো কপিকল।

এই পিরামিডে প্রায় ২.৩ মিলিয়ন ব্লক ব্যবহার করা হয়েছে। প্রতিটি পাথরের গড় ওজন ২.৫ টন এবং কোন পাথরের ওজনই ২ টনের কম না। রাজার কক্ষের ওপর ছাদ হিসাবে ব্যবহার করা হয়েছে সর্বোচ্চ ৯ টন ওজনের গ্রানাইট পাথর। সব কিছু মিলিয়ে এর ওজন প্রায় ৬০লক্ষ টন।

পিরামিডের বর্তমান অবস্থা:

সমাধি চোর এবং অন্যান্য ধ্বাংসাত্নক কর্মকাণ্ডের কারণে পিরামিডের ভিতরে অবস্থিত অধিকাংশ মৃতদেহ সরিয়ে ফেলা হয়েছে এমনকি এর বাইরের দেওয়ালেরও কিছু অংশ লুট হয়ে গিয়েছে। তাদের মসৃণ সাদা চুনাপাথরের পাতার অধিকাংশ ডাকাতি হয়ে যাওয়ায় গ্রেট পিরামিড আর তাদের আসল উচ্চতা পৌঁছাতে পারেনি। উদাহরণ স্বরূপ: খুফুর পিরামিডের বর্তমান উচ্চতা এখন মাত্র ৪৫১ ফুট। তথাপি এখনও লক্ষ লক্ষ পর্যটক প্রতি বছর এই গ্রেট পিরামিড ভ্রমণে আসে তাদের ভ্রমণ ক্ষুধা মিটানোর জন্য এবং তাদের জানার কৌতূহল থেকে। কারণ এর দৃষ্টিনন্দন সৌন্দর্য এখনও অমলিন।

 

কিছু অজানা তথ্য:

  • পৃথিবীর সবচেয়ে বড় পিরামিড মেক্সিকোতে অবস্থিত।
  • মিশরের চেয়েও বেশি পিরামিড রয়েছে সুদানে।
  • কোন ক্রীতদাস দিয়ে মিশরের পিরামিডগুলো তৈরি করা হয়নি বরং বেতনভূক্ত কর্মচারী দিয়েই তা করা হয়েছিল। গ্রীক ঐতিহাসিক হেরোডেটাস ক্রীতদাস দিয়ে পিরামিড তৈরি হয়েছিল বলে গুজব ছড়িয়েছিলেন। বেতন হিসেবে প্রতিদিন শ্রমিকদেরকে ৪ লিটার বিয়ার দেওয়া হত।
  • পিরামিডগুলোর ভেতরের তাপমাত্রা স্থায়ী এবং তা তাপমাত্রা পৃথিবীর গড় তাপমাত্রা ২০ ডিগ্রী সেলসিয়াসের সমান।
  • মিশরের পিরামিডগুলো তৈরিতে যে পাথরের টুকরা ব্যবহার করা হয়েছিল সেগুলোর ভর এবং দৈর্ঘ্যের সাথে পৃথিবী, সূর্য ও চন্দ্রের দূরত্ব, ভর এবং ব্যাসার্ধের সাথে গভীর আনুপাতিক সম্পর্ক রয়েছে।
  • পিরামিডগুলোর মাঝে অনেক চলাচলের রাস্তা এখনো অনাবিষ্কৃত রয়ে গেছে

মিশরীয় পিরামিড (ভিডিও)      

 
আরো পড়ুন
 

নামসংক্ষিপ্ত বিবরণ
ভিডিওতে তুরস্কের ইস্তাম্বুলইস্তাম্বুলের ইতিহাস এবং দর্শনীয় স্থান
ভিডিওতে হেলানো মিনারপৃথিবীর সবচেয়ে বিখ্যাত স্থাপনাগুলোর একটি
ভিডিওতে রোমের কলোসিয়ামকলোসিয়াম পরিচিতি এবং ইতিহাস
ভিডিওতে আইফেল টাওয়ারসংক্ষিপ্ত পরিচিতি আর ইতিহাস, কেন ভেঙে ফেলা হল না
মিশরীয় পিরামিড একটি বিস্ময় ভিডিওসহবিস্তারিত তথ্য দেওয়া আছে
ভিডিওতে ইস্তানবুলের সুলতান আহমেদ মসজিদঅটোমান শাসনামলে নির্মিত মসজিদটির ইতিহাস
ভিডিওতে চীনের মহাপ্রাচীরজেনে নিন মহাপ্রচীরের মহান ইতিহাস আর সৌন্দর্য
ভিডিওতে আমাজন অরণ্যবিশ্বের সবচেয়ে বড় আর ঘন রেইন ফরেস্ট
ভিডিওতে হনলুলুযুক্তরাষ্ট্রের ৫০তম অঙ্গরাজ্য হাওয়াইয়ের রাজধানী হনলুলু
ভিডিওতে ক্যালিফোর্নিয়ার গোল্ডেন গেট ব্রিজপর্যটকদের জন্য বিশ্বের সবচেয়ে সুন্দর গন্তব্যগুলোর একটি
আরও ১৭ টি লেখা দেখতে ক্লিক করুন
২৫ বছরে ১৮ সন্তানের জননী!
সর্বপ্রথম পোর্টেবল দ্বীপ
বিদেশিনীর বাংলা প্রেম
জুতার গাছ!
exam
নির্বাচিত প্রতিবেদন
exam
সুমাইয়া শিমু
পিয়া বিপাশা
প্রিয়াংকা অগ্নিলা ইকবাল
রোবেনা রেজা জুঁই
বাংলা ফন্ট না দেখা গেলে মোবাইলে দেখতে চাইলে
how-to-lose-your-belly-fat
guide-to-lose-weight
hair-loss-and-treatment
how-to-flatten-stomach
fat-burning-foods-and-workouts
fat-burning-foods-and-workouts
 
সেলিব্রেটি