পূর্ববর্তী লেখা    পরবর্তী লেখা
পুরো লিস্ট দেখুন

বাড়িতেই তৈরি করুন টিউব মেহেদি

ঈদের চাঁদ দেখার সঙ্গে সঙ্গে মেয়েরা হাতে মেহেদি লাগাতে ব্যস্ত হয়ে পড়ে। ছোট কি বড় - সবার মধ্যেই ঈদের আমেজ এনে দেয় মেহেদি। আজকাল গাছের মেহেদির চাইতে কেমিক্যাল মেশানো টিউব মেহেদির চাহিদাই বেশি। যারা এই মেহেদি ব্যবহার করেন তারাও খুব ভালো করে জানেন যে এই মেহেদি ব্যবহার করা ত্বকের জন্য ক্ষতিকর। তারপরও ব্যবহারের সুবিধা বা সুন্দরভাবে নকশা করা যায় বলে অনেকের কাছেই এটি পছন্দনীয়। তবে আপনি চাইলে বাড়িতেও প্রাকৃতিক মেহেদি থেকে টিউব মেহেদি তৈরি করতে পারবেন। আসুন সে বিষয়ে জেনে নিই।

 

বানানোর প্রক্রিয়া:

  • মেহেদি পাতা যত্ন করে বাটতে হবে। মিহি হওয়া চাই। এবার চায়ের ছাঁকনি দিয়ে ছেঁকে ফেলুন। চায়ের ছাঁকনির ছিদ্রগুলোও হতে হবে মিহি ছোট ও মিহি। খয়ের মেশাতে পারেন, যদি গাঢ় রং চান।
  • বাটার পেপারকে সুন্দর করে কোণ বানান (এই কাগজগুলো ব্যবহার করা হয় কেকের ওপর ক্রিমের নকশা করার কাজে)। সামনের ছিদ্রটি যাতে সূক্ষ্ম চিকন হয়।
  • আঠালো টেপ দিয়ে ভালোমতো চারপাশ আটকে ফেলুন। পেছনের দিকটা খোলা রাখতে হবে। মেহেদি ঢালুন কোণটিতে। পেছনের অংশটুকু এবার ভালোমতো আটকে ফেলুন। ব্যস, তৈরি হয়ে গেল আপনার মেহেদি কোণ। যাতে নেই কোনো রাসায়নিক পদার্থ।
  • তবে মাঝে মধ্যে বেশি পাতলা হয়ে যায় বাটা মেহেদি। এ ক্ষেত্রে সঙ্গে মিশিয়ে দিন গুঁড়ো মেহেদি পাউডার।

 

মেহেদি লাগানোর প্রস্তুতি:

  • অবশ্যই হাত সাবান দিয়ে ধুয়ে নিতে হবে। শুকনো করে মুছে ফেলুন। মেহেদি লাগানোর আগে হাতে ক্রিম বা তেল লাগাবেন না। পছন্দমতো নকশায় এবার এঁকে ফেলুন দুই হাত।
  • হাতে লাগানো মেহেদি পুরোপুরি শুকোতে দিন। শুকিয়ে গেলে লেবুর রস লাগান। ১৫-২০ মিনিট রাখতে হবে আরও। ধুয়ে হাতে তেল লাগান সামান্য। রং গাঢ় হবে এতে।
  • ঈদের যত কম ব্যবধানে মেহেদি লাগানো যাবে, ততই ভালো। সবচেয়ে ভালো হবে যদি চাঁদরাতে লাগান। অন্তত ঈদের তিন দিন মেহেদিটুকু আলোকিত করে রাখবে আপনার হাত দুটি।

 

মেহেদির ইতিকথা:

মেহেদি শুধু সৌন্দর্য বৃদ্ধির জন্যেই নয়, হাত-পায়ের ত্বকের জন্যেও অত্যন্ত উপকারী। মেহেদি পাতা ছাড়াও এর ফল-ফুল ও মূল বিভিন্ন রোগ নিরাময়ে ব্যবহার করা হয়। এই ব্যাপক ব্যবহারের ফলে বিভিন্ন স্থানে এর পরিচিতি বিভিন্ন নামে। মেহেদি কোথাও মেদি, মেন্দি, কোথাও মৌকা, কোথাও মদয়ন্তিকা, আবার কোথাও গিরিমল্লিকা বা বনমল্লিকা নামে পরিচিত। মধ্য এশিয়ায় এটি পরিচিত ‘আল-খান্না’ নামে। আর আরবে পরিচিত ‘হেন্না’ নামে। ইংরেজী হেনা (Henna) শব্দটি এসেছে আরবী হেন্না শব্দ থেকে। মেহেদির বোটানিক্যাল নাম হচ্ছে Lawsonia Inermis Lini । এটি Lythreaceae পরিবারের অন্তর্ভুক্ত।

 
আরো পড়ুন
 

নামসংক্ষিপ্ত বিবরণ
বনসাইN\A, N\A
ডায়েট কাউন্সিলিং সেন্টাররমনা, ইস্কাটন
ব্লু প্লানেট অ্যাকুরিয়াম শপওয়ারী, ওয়ারী
ঘূর্ণিঝড়ে করণীয়ঘূর্ণিঝড়ের সময় করণীয় সম্পর্কে তথ্য রয়েছে
আমরা শোকাহতN\A, N\A
মহররমের ইতিহাস১০ই মহররমের ইতিহাস বর্ণনা করা হয়েছে
ঈদে বাড়তি সতর্কতাN\A, N\A
ডাক টিকেট সংগ্রহকিভাবে এলো ডকটিকেট? সৌখিন সংগ্রাহকগণ কোথায় যাবেন ডাকটিকেট কিনতে?
জাতীয় পতাকাN\A, N\A
টুথব্রাশ নিয়ে ৫ টি মজার তথ্য টুথব্রাশের ব্যবহার নিয়ে কিছু অপ্রচলিত ও বিস্ময়কর তথ্য নিয়ে সাজানো
আরও ২০ টি লেখা দেখতে ক্লিক করুন
২৫ বছরে ১৮ সন্তানের জননী!
সর্বপ্রথম পোর্টেবল দ্বীপ
বিদেশিনীর বাংলা প্রেম
জুতার গাছ!
exam
নির্বাচিত প্রতিবেদন
exam
সুমাইয়া শিমু
পিয়া বিপাশা
প্রিয়াংকা অগ্নিলা ইকবাল
রোবেনা রেজা জুঁই
বাংলা ফন্ট না দেখা গেলে মোবাইলে দেখতে চাইলে
how-to-lose-your-belly-fat
guide-to-lose-weight
hair-loss-and-treatment
how-to-flatten-stomach
fat-burning-foods-and-workouts
fat-burning-foods-and-workouts
 
সেলিব্রেটি