পূর্ববর্তী লেখা  
পুরো লিস্ট দেখুন

টাঙ্গাইল তাঁত ঘর

 

তাঁত শিল্প আমাদের ঐতিহ্যের পরিচয় বহন করে। আমাদের নিজস্ব ঐতিহ্য সংরক্ষণে তাঁত শিল্পকে বাঁচিয়ে রাখা খুব জরুরী। তাঁত শিল্পের যথাযথ বিকাশ ও প্রসারের লক্ষ্যে টাঙ্গাইল তাঁত ঘর ২০০৮ সালে তাদের পথচলা শুরু করে। এই প্রতিষ্ঠানের প্রধান শাখা ইস্টার্ন মল্লিকা শপিং কমপ্লেক্স, এলিফ্যান্ট রোড, ঢাকা – ১২০৫ এ অবস্থিত। দোকান নং – ৮১, ৮২, ৮৩ ও ৩৩ (২য় তলা), মোবাইল: ০১৭১৬-৩৭৮৬২৭, ০১৮১৭-৭৬২৪৮১। টাঙ্গাইল তাঁত ঘরের শো-রুমসহ পুরো মার্কেটটি শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত। খান টেক্সটাইল নামে চট্টগ্রামে এদের একটি শাখা আছে।

 

যে সকল আইটেম পাওয়া যায়

এই দোকানে দেশীয় তাঁতে বোনা শাড়ীর অপূর্ব সমাহার উল্লেখযোগ্যভাবে লক্ষণীয়। এই শাড়ীগুলোর মধ্যে রয়েছে  টাঙ্গাইল বাটিক, এপলিক এর এমবোড্রারি করা শাড়ী, কারচুপিসহ হাতের কাজ করা শাড়ী ব্লক এবং স্ক্রিন প্রিন্ট এর কাজ করা শাড়ী, হাউলা সুতার কাজ করা শাড়ী, হাওড়া টেক্সটাইল এর শাড়ী, হ্যান্ড প্রিন্ট করা শাড়ী, বালুচুরি, জামদানি ও টাঙ্গাইল চোষার শাড়ী। এছাড়া এখানে যাকাত ও গায়ে হলুদের শাড়ী পাওয়া যায়। বিদেশী কোন শাড়ী বা অন্যকোন পণ্য এখানে পাওয়া যায় না। ঈদ, পূজা, রমজান, পহেলা বৈশাখ, পহেলা ফাল্গুন, ২১ শে ফেব্রুয়ারী ও ২৬ শে মার্চ এর সময় এখানে বেশী বিক্রি হয়।

 

খোলা-বন্ধের সময়সূচী

টাঙ্গাইল তাঁত ঘরের প্রধান শো-রুম মঙ্গলবার বন্ধ থাকে। অন্য শো-রুমের সাপ্তাহিক বন্ধ জোন ভেদে নির্ধারিত হয়। প্রতিদিন সকাল ৮.০০ টা থেকে রাত ১০.০০ টা পর্যন্ত খোলা থাকে।

 

শাড়ীর দাম

শাড়ীর মানের উপর ভিত্তি করে প্রতিটি শাড়ীর মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে। এই শো-রুমে সর্বনিম্ন ৩৫০ টাকা থেকে শুরু করে ৩০,০০০ টাকা মূল্যের শাড়ী পাওয়া যায়। টাঙ্গাইল তাঁত শাড়ী পাওয়া যাবে ৩৫০ টাকা থেকে ৫,০০০ টাকার মধ্যে। জামদানি শাড়ী ৪,০০০ টাকা থেকে ২০,০০০ টাকা, গায়ে হলুদের শাড়ী রয়েছে ৫৫০ টাকা থেকে ২,০০০ টাকা মূল্যের, স্ক্রিণ প্রিন্ট ও ব্লক করা যাকাতের শাড়ী বিক্রি হয় ৩৩০ টাকা থেকে ৫০০ টাকার মধ্যে।

 

মূল্য পরিশোধ প্রক্রিয়া

সকল প্রকার শাড়ী এখানে একদামে বিক্রি করা হয়। দামাদামি করার কোন সুযোগ নেই। তবে পাইকারী বিক্রির ক্ষেত্রে আলোচনা সাপেক্ষে কিছু ডিসকাউন্ট দেয়া হয়। শাড়ীর মূল্য নগদে পরিশোধ করতে হয়। কোন প্রকার ক্রেডিট কার্ড গ্রহণযোগ্য নয়।

 

পরিবর্তনের প্রক্রিয়া

  • শাড়ী কেনার পর কোন কারণে যদি শাড়ী পরিবর্তন করতে হয় সেক্ষেত্রে ৭ (সাত) দিনের মধ্যে শাড়ী নিয়ে দোকানে গেলে পরিবর্তনের সুযোগ আছে। তবে মূল্য ফেরত পাবার ব্যবস্থা নেই।
  • অগ্রীম অর্ডার নেওয়া হয়, এক্ষেত্রে শাড়ীর ধরন ও রং অর্ডারের সময় উল্লেখ করতে হয়।

 

নিজস্ব কারখানা

শনির আখড়া, যাত্রাবাড়ি, মিরপুর, হাছনাবাদ, কালাপানি (মিরপুর) ও কামরাঙ্গীরচরে টাঙ্গাইল শাড়ী ঘরের নিজস্ব কারখানা রয়েছে।

 

 
আরো পড়ুন
 

নামসংক্ষিপ্ত বিবরণ
বেনারশী পল্লীমিরপুর, বেনারশী পল্লী
লেডিস প্যারাগন গুলশান, গুলশান এভিন্যিউ
সপুরা সিল্ক মিলসধানমন্ডি, ধানমন্ডি
টাঙ্গাইল শাড়ী কুটিরগুলশান, গুলশান ২
জ্যোতি শাড়িশাহবাগ, ফুলবাড়িয়া
ভাসাভি শাড়িগুলশান, গুলশান ১
প্রাইড শাড়ীগুলশান, বনানী
হানিফ বেনারশীপল্লবী, মিরপুর ১১
টাঙ্গাইল তাঁত ঘরকলাবাগান, এলিফ্যান্ট রোড
২৫ বছরে ১৮ সন্তানের জননী!
সর্বপ্রথম পোর্টেবল দ্বীপ
বিদেশিনীর বাংলা প্রেম
জুতার গাছ!
exam
নির্বাচিত প্রতিবেদন
exam
সুমাইয়া শিমু
পিয়া বিপাশা
প্রিয়াংকা অগ্নিলা ইকবাল
রোবেনা রেজা জুঁই
বাংলা ফন্ট না দেখা গেলে মোবাইলে দেখতে চাইলে
how-to-lose-your-belly-fat
guide-to-lose-weight
hair-loss-and-treatment
how-to-flatten-stomach
fat-burning-foods-and-workouts
fat-burning-foods-and-workouts
 
সেলিব্রেটি