পূর্ববর্তী লেখা    পরবর্তী লেখা
পুরো লিস্ট দেখুন

বিশ্ব নিরাপদ মাতৃত্ব দিবস

পৃথিবীতে যত শব্দ আছে তার মধ্যে সবচেয়ে প্রিয় ও মধুর শব্দটি হচ্ছে “মা”। ছোট্ট এই শব্দটির ধারে কাছেও পৃথিবীর আর কোনো শব্দ নেই। একজন নারীর পূর্ণতা আসে মাতৃত্বে। বংশানুক্রম ধারা টিকিয়ে রাখার দায়িত্ব প্রকৃতিগতভাবেই বর্তেছে নারীর ওপর মাতৃত্বের মধ্য দিয়ে। একজন মা অসহ্য যন্ত্রণা সহ্য করে দশ মাস দশ দিন একটি শিশুকে নিজের মধ্যে ধারণ করে শিশুটিকে পৃথিবীর মুখ দেখান। তারপর শত ত্যাগ-তীতিক্ষার মাধ্যমে তাকে পরম আদর-যত্নে শিশুটিকে বড় করে তোলেন। অথচ সেই মায়েরাই আজ অনিরাপদ। প্রায়শই শিশু জন্মদানে তাদেরকে মৃত্যুবরণ করতে হয়। যা একান্তই কাম্য নয়। এ ধরনের অনাকাঙ্ক্ষিত মৃত্যুবরণ থেকে মায়েদের রক্ষা করতেই প্রতিবছর ২৮শে এপ্রিল বিশ্ব নিরাপদ মাতৃত্ব দিবস পালন করা হয়। ১৯৮৭ সাল থেকে মা ও শিশুমৃত্যু রোধ এবং তাদের স্বল্প ও দীর্ঘমেয়াদি অসুস্থতার বিষয়ে সকলকে সচেতন করার পাশাপাশি এসকল সমস্যা প্রতিরোধ কল্পে এই দিবসটি পালন হয়ে আসছে। ১৯৯৭ সালে শ্রীলঙ্কার রাজধানী কলম্বোয় অনুষ্ঠিত এক বৈঠকে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংগঠন বিষয়টি পর্যালোচনা করে এবং এ কার্যক্রমকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার ওপর গুরুত্বারোপ করে। বিভিন্ন দেশ ভিন্ন তারিখে দিবসটি পালন করে। বাংলাদেশে ১৯৯৭ সাল থেকে দিবসটি পালন করা হয়।

 

একজন নারীর অবশ্যই নিরাপদ মাতৃত্বের অধিকার রয়েছে। তবে আমাদের পুরুষশাসিত সমাজে নারীদের সেই অধিকার খর্ব করা হচ্ছে। যা মোটেই সমীচীন নয়। মাতৃত্বের ব্যাপারে নারীকে মতামত প্রকাশের অধিকারই পারে তার নিরাপদ মাতৃত্ব নিশ্চিত করতে। একজন নারীর অবশ্যই তার নিজের জীবনকে নিয়ন্ত্রণের অধিকার রয়েছে এই বিষয়টি সকলের ভুলে গেলে চলবে না। নিচের বিষয়গুলোর প্রতি নারীরা মতামত প্রকাশের সুযোগ পেলে নিরাপদ মাতৃত্বের অধিকার অনেকটা নিশ্চিত হবে।

  • একজন নারী কত দিন কোন ধরনের জন্মনিয়ন্ত্রণ পদ্ধতি ব্যবহার করবেন বা আদৌ ব্যবহার করবেন কি না এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার অধিকার। দেওয়া।
  • নারী আদৌ সন্তান নেবেন কি না বা কবে নেবেন, কজন নেবেন সে সিদ্ধান্ত নেওয়ার অধিকার।
  • একজন গর্ভবতী মহিলা গর্ভকালীন সেবা, নিরাপদ প্রসবের জন্য যাবতীয় সেবা এবং প্রসব-পরবর্তী সেবা পাওয়ার সব অধিকার।

কিন্তু বাস্তবে উপরোক্ত অধিকার থেকে নারীরা বরবারই বঞ্চিত। তাঁরা স্বামী বা বেশির ভাগ ক্ষেত্রে শাশুড়ির ইচ্ছা দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হন। তাই এখনো আমাদের মেয়েরা অপরিকল্পিত গর্ভধারণ করে অনিরাপদ গর্ভপাতের শিকার হচ্ছে। অপরিণত বয়সে বিয়ে, সন্তান ধারণ এবং বাড়িতে দাইয়ের হাতে ডেলিভারি করতে গিয়ে মৃত্যুমুখে পতিত হচ্ছে অথবা জীবনব্যাপী সমস্যায় আক্রান্ত হচ্ছে। হারাচ্ছে সন্তানটিকেও।  

 

গর্ভকালীন সেবা ও সন্তান জন্ম দানের ব্যাপারে নারী মাতৃ স্বাস্থ্য নিশ্চিত করতে হবে তবেই এ দিবসের সার্থকতা। গর্ভকালীন মাতৃ স্বাস্থ্য নিশ্চিত করা এখন কেবল মায়ের জন্য প্রয়োজনীয় নয় সুস্থ শিশুর জন্যও আবশ্যক। নিচের বিষয়গুলো আমাদের সকলের অবশ্যই গুরুত্বের সাথে খেয়াল রাখতে হবে।

  • গর্ভকালীন সময়ে পরিবারের সবাইকে সহানুভূতিশীল হতে হবে।
  • গর্ভকালীন সেবা নিশ্চিত করতে হবে।
  • প্রসব পরবর্তী সেবা নিশ্চিত করতে হবে।
  • গর্ভবতী মায়েদের প্রতিমাসে অন্তত একবার ডাক্তারের শরণাপন্ন হতে হবে।
  • গর্ভকালীন সময়ের বিপদ চিহ্ন সমূহ সম্পর্কে প্রয়োজনীয় ধারণা থাকতে হবে।
  • ঝুঁকি পূর্ণ কাজ সমূহ হতে বিরত থাকতে হবে।
  • ভিটামিন ও মিনারেল সমৃদ্ধ খাবার গ্রহণ করতে হবে।
  • প্রসব কালীণ সময়ের প্রয়োজনীয় অর্থ থেকে শুরু করে প্রতিটি বিষয়ের   পূর্ব পস্তুতি রাখতে হবে।
  • প্রসব কালীন সময়ের যে কোন জটিলতা দেখা মাত্র ডাক্তার অথবা নিকটবর্তী স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে যেতে হবে।


নিরাপদ প্রসব সুস্থ শিশুর জন্মের পূর্ব শর্ত, সুস্থ শিশু আগামী পৃথিবীর কর্ণধার। মনে রাখতে হবে, নিরাপদ প্রসব নারীর প্রাপ্য ও অধিকার।

 

এ ধরনের অবস্থা থেকে মায়েদের মুক্ত করতে আন্তর্জাতিকভাবে বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়। যেমন-

  • নিরাপদ মাতৃত্ব সম্মেলন ১৯৮৭
  • আইসিপিডি কায়রো, সম্মেলন ১৯৯৪
  • বিশ্ব নারীবিষয়ক সম্মেলন, বেইজিং ১৯৯৫
  • নিরাপদ মাতৃত্ব অ্যাকশন এজেন্ডা, কলম্বো ১৯৯৭
  • সহস্রাব্দ উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এমডিজি) ২০০০
  • ওমেন ডেলিভার কনফারেন্স ২০০৭

 

 
আরো পড়ুন
 

নামসংক্ষিপ্ত বিবরণ
ইংরেজী নববর্ষ১ জানুয়ারী এই দিবসটি পালন করা হয়
মহান বিজয় দিবস১৬ই ডিসেম্বর এই দিবসটি পালন করা হয়
আন্তর্জাতিক জীববৈচিত্র্য দিবস২২ মে এই দিবসটি পালন করা হয়
বিশ্ব হেপাটাইটিস দিবস১৯ মে এই দিবসটি পালন করা হয়
বিশ্ব জাদুঘর দিবস১৮ই মে এই দিবসটি পালন করা হয়
বিশ্ব উচ্চ রক্তচাপ দিবস১৭ই এপ্রিল এই দিবসটি পালন করা হয়
ঐতিহাসিক ফারাক্কা দিবস১৬ই মে এই দিবসটি পালন করা হয়
বিশ্ব পরিবার দিবস১৫ই মে এই দিবসটি পালন করা হয়
বিশ্ব মা দিবসমে মাসের ২য় রবিবার এই দিবসটি পালন করা হয়
বিশ্ব রেড ক্রস ও রেড ক্রিসেন্ট দিবস৮ মে এই দিবসটি পালন করা হয়
আরও ৪৩ টি লেখা দেখতে ক্লিক করুন
২৫ বছরে ১৮ সন্তানের জননী!
সর্বপ্রথম পোর্টেবল দ্বীপ
বিদেশিনীর বাংলা প্রেম
জুতার গাছ!
exam
নির্বাচিত প্রতিবেদন
exam
সুমাইয়া শিমু
পিয়া বিপাশা
প্রিয়াংকা অগ্নিলা ইকবাল
রোবেনা রেজা জুঁই
বাংলা ফন্ট না দেখা গেলে মোবাইলে দেখতে চাইলে
how-to-lose-your-belly-fat
guide-to-lose-weight
hair-loss-and-treatment
how-to-flatten-stomach
fat-burning-foods-and-workouts
fat-burning-foods-and-workouts
 
সেলিব্রেটি