পূর্ববর্তী লেখা    পরবর্তী লেখা
পুরো লিস্ট দেখুন

লন্ডন মেট্রোপলিটান ইউনিভার্সিটি

 

বিশ্বের কয়েকটি দেশে পড়তে যাওয়ার তথ্য দেখুন:

মালয়েশিয়ায়চীন জাপানভারত আমেরিকাইংল্যান্ড

জার্মানী আয়ারল্যান্ড ফিনল্যান্ডকানাডায়অস্ট্রেলিয়ামালয়েশিয়া

আরও দেখুন: ব্রিটেনের ভিসা  ● ব্রিটেনের স্টুডেন্ট ভিসাব্রিটেনের দর্শনীয় স্থানগুলো

ইংল্যান্ডে উচ্চ শিক্ষাব্রিটিশ কাউন্সিল

ব্রিটেনে বাংলাদেশ হাই কমিশন ●  বাংলাদেশে ব্রিটিশ হাই কমিশন

লন্ডন মেট্রোপলিটান ইউনিভার্সিটি ইংল্যান্ডের বর্তমান সময়ের একটি অত্যন্ত মান সম্পন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। ১৯৪৮ সালের দিকে এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি আত্মপ্রকাশ করে। বর্তমানে আমরা যে লন্ডন মেট্রোপলিটান ইউনিভার্সিটিকে দেখতে পাই যা ‘লন্ডন মেট’ নামে সর্বাধিক পরিচিত সেটি ২০০২ সালে “লন্ডন গিল্ডহিল ইউনিভার্সিটি” এবং “ইউনিভার্সিটি অব নর্থ লন্ডন” একত্রিত হয়ে এই অবস্থায় উপনীত হয়েছে। ‘লন্ডন মেট’ এর দু’টি ক্যাম্পাস রয়েছে।

  • লন্ডন সিটি ক্যাম্পাস
  • লন্ডন নর্থ ক্যাম্পাস

 

কেনলন্ডন মেট পড়তে যাবেন:

বর্তমানে ব্যাপক সংখ্যক এশিয়ান ছাত্রছাত্রী ‘লন্ডন মেট’ এ পড়তে যাচ্ছে। এর কারনগুলো হচ্ছে-

  • এই বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ালেখার গুনগত মান অত্যন্ত ভালো। এখানকার শিক্ষকগণ ছাত্রছাত্রীদের গুনগত উৎকর্ষের উপর খুব বেশী জোর দিয়ে থাকেন। এর স্বীকৃতিস্বরূপ এই প্রতিষ্ঠানটি ২০১১ সালে সরকারের Quality Assurance Agency (QAA) কর্তৃক সর্বোচ্চ প্রশংসা সূচক পুরস্কারে ভূষিত হয়। এই বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই তৃতীয়াংশের বেশি গবেষনাকর্ম অতি সাম্প্রতিক সময়ের গবেষনা মূল্যায়ন প্রক্রিয়ার আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত এবং বিশ্বে প্রথম সারির গবেষনা বলে নির্ণীত হয়েছে। লন্ডন মেট বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্যতম আরেকটি উদ্দেশ্য হচ্ছে ছাত্রছাত্রীদের জন্য সৃজনশীল ও ফলপ্রসু ক্যারিয়ার গড়ে দেয়া। এখানকার কোর্সগুলো তাই বর্তমান সময়ে কর্মসংস্থান সম্ভাবনার দিকে লক্ষ্য রেখে প্রণয়ন করা হয়েছে। এই প্রতিষ্ঠানটি ছাত্রছাত্রীদেরকে বিভিন্ন ধরনের প্রতিষ্ঠানে কর্মসংস্থান, কাজের অভিজ্ঞতা অর্জন ও স্বেচ্ছাসেবী কার্যক্রমে অংশ নেয়ার সুযোগ তৈরী করে দেয়।
  • ‘লন্ডন মেট’ কর্তৃপক্ষ দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করেন যে প্রতিটি ছাত্রছাত্রীর রয়েছে সুলভে শিক্ষালাভের অধিকার। ‘লন্ডন মেট’ এ পড়াশুনার খরচ ইংল্যান্ডের অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের চেয়ে তুলনামূলকভাবে কম।
  • সর্বোপরি ‘লন্ডন মেট’ পৃথিবীর সবচেয়ে বিখ্যাত শহরের কেন্দ্রস্থলে অবস্থিত। এসব কারনে অভিবাসী ছাত্রছাত্রীদের কাছে ‘লন্ডন মেট’ ক্রমশই ব্যাপক থেকে ব্যাপকতর জনপ্রিয় হচ্ছে। প্রতি বছর বাংলাদেশ থেকে প্রচুর সংখ্যক ছাত্রছাত্রী বিভিন্ন পর্যায়ে পড়াশুনার জন্য ‘লন্ডন মেট’ এ পাড়ি জমায়। তাই আমাদের আগ্রহী শিক্ষার্থীদের ‘লন্ডন মেট’ এর সম্পূর্ণ খোঁজখবর জানা থাকাটা জরুরী।

 

ঠিকানা:

লন্ডন মেট্রোপলিটান ইউনিভার্সিটি

১৬৬-২২০ হলোওয়ে রোড

লন্ডন, এন ৭৮ ডিবি

ফোন: ৪৪(০) ২০ ৭৪২৩ ০০০০

 

অ্যাডমিশন তথ্যের জন্য:

অ্যাডমিশন অফিস

লন্ডন মেট্রোপলিটান ইউনিভার্সিটি

১৬৬-২২০ হলোওয়ে রোড

লন্ডন, এন ৭৮ ডিবি

কোর্সের তথ্যের জন্য ফোন নং- ৪৪(০) ২০ ৭১৩৩৪২০০

 

কোর্সসমূহ

লন্ডন মেট যেসব কোর্সে ছাত্রছাত্রী ভর্তি করা হয় সেগুলো  নিম্নরূপ:

আন্ডারগ্র্যাজুয়েট

আন্ডার গ্র্যাজুয়েট কোর্স ৩ বৎসর মেয়াদী হয়ে থাকে। ছাত্রছাত্রীরা বিএ, বিএসসি অথবা বিএড ডিগ্রী নিতে পারেন। এই কোর্সটি মডিউল ভিত্তিক। প্রতিটি মডিউলে ৩০ টি ক্রেডিট থাকে। যেসব ছাত্রছাত্রী ৩৬০ টি ক্রেডিট সম্পন্ন করতে পারেন তাদেরকে অনার্স (সম্মান) ডিগ্রী প্রদান করা হয়ে থাকে।

 

পোস্ট গ্র্যাজুয়েট

যেসব ছাত্রছাত্রী ইতোমধ্যে ভালো ফলাফল নিয়ে আন্ডার গ্র্যাজুয়েট ডিগ্রী অর্জন করেছেন অথবা গ্র্যাজুয়েট হয়ে কর্মক্ষেত্রে বেশ ভালোভাবে অভিজ্ঞতা অর্জন করেছেন তারা পোস্ট গ্রাজুয়েট কোর্সে ভর্তি হতে পারেন।

 

  • মাষ্টার’স ডিগ্রীর মেয়াদ সাধারনত ১-২ বৎসর হয়ে থাকে
  • ডক্টরেট ডিগ্রী ((PhD) হচ্ছে সর্বোচ্চ পর্যায়ের শিক্ষাগত যোগ্যতা। তাই এই পর্যায়ে ভর্তি হতে হলে মাস্টার্স সহ ব্যাপক গবেষণা লব্ধ কাজের অভিজ্ঞতা প্রয়োজন।

‘লন্ডন মেট’ বিভিন্ন বিষয়ে এমএ, এমএসসি, এমফিল এবং পিএইচডি কোর্স অফার করে থাকে।

 

প্রি-ডিগ্রী

প্রি-ডিগ্রী হচ্ছে একটি সংক্ষিপ্ত ১ বা ২ সেমিষ্টারের কোর্স। যেসব ছাত্রছাত্রী আন্ডারগ্র্যাজুয়েট প্রোগ্রামে ভর্তি হতে চান কিন্তু যাদের ভর্তি যোগ্যতায় সামান্য ঘাটতি রয়েছে। তারা এই কোর্সটি করে আন্ডার গ্র্যাজুয়েট প্রথম বর্ষে ভর্তি হতে পারেন। তবে এই কোর্সটি ‘লন্ডন মেট’ এর পার্টনার কলেজগুলোতে সম্পন্ন হয়ে থাকে।

 

বাংলাদেশী ছাত্রছাত্রীদের জন্যলন্ডন মেট ভর্তি তথ্যাবলী

বাংলাদেশী ছাত্রছাত্রীদের জন্য ‘লন্ডন মেট’ ইংল্যান্ডের সবচেয়ে জনপ্রিয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর একটি সবচেয়ে চমকপ্রদ ব্যাপার হচ্ছে শুধুমাত্র বাংলাদেশী ছাত্রছাত্রীদের ভর্তির ব্যাপারে সহায়তা করার জন্য ‘লন্ডন মেট’ বাংলাদেশে অফিস স্থাপন করেছে এবং ‘লন্ডন মেট’ এর একটি দক্ষ টিম শুধুমাত্র বাংলাদেশী ছাত্রছাত্রীদের জন্য কাজ করে যাচ্ছে।

 

বাংলাদেশ লিয়াজোঁ অফিস:

লন্ডন মেট্রোপলিটান ইউনিভার্সিটি

এল ৩৬১, প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেল

ঢাকা-১২১৫

ফোন: (০০৮৮) ০২ ৯১২২২৪০৪

(০০৮৮) ০১৭১১৫৯৫২১৫

ই-মেইল: [email protected]

 

বিভিন্ন কোর্সের জন্য প্রাক যোগ্যতা:

ইন্টারন্যাশনাল ফাউন্ডেশন প্রোগ্রাম/ফাউন্ডেশন ডিপ্লোমা (৯মাস থেকে ১ বছর)

এইচ.এস.সি উত্তীর্ণ ছাত্রছাত্রী যারা ইংরেজিতে দক্ষ এবং পরবর্তীতে বিজনেস, ইলেকট্রনিক্স, কম্পিউটিং, আইন, কলা, স্থাপত্য, বিজ্ঞান ও হিউম্যানিটিস এর তিন বৎসর মেয়াদী কোর্সগুলোতে ভর্তি হতে চান তাদের জন্য এই কোর্সটি উপযুক্ত। এইচ.এস.সি পাসের পাশাপাশি EELTS এ 4.5 থাকতে হবে অথবা TOEFL IBT 60 থাকতে হবে (Reading 11, Listening 13, Speaking 14, Writing 17)

 

ব্যাচেলরস/আন্ডারগ্র্যাজুয়েট কোর্সসমূহ

ব্যাচেলরস তথা আন্ডারগ্র্র্যাজুয়েট প্রোগ্রাম সাধারনত ৩ বৎসর মেয়াদী হয়ে থাকে। যেসব ছাত্রছাত্রী কমপক্ষে ৩টি এ লেভেল অথবা ২টি খুব ভালো ফলাফল সমৃদ্ধ এ লেভেল সম্পন্ন করেছে অথবা এস.এস.সি এবং এইচ.এস.সি সমমানের পরীক্ষায় গোল্ডেন জিপিএ পেয়েছে তারা IELTS এ ন্যূনতম 5.5 প্রতি সেগমেন্টে অথবা ন্যূনতম TOEFL IBT 87 (Reading 21, Listening 22, Speaking 23, Writing 21) স্কোর করতে পারলে এই কোর্সে ভর্তির জন্য আবেদন করতে পারবেন।

বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়গুলো থেকে ৬০ অথবা তদুর্ধ ক্রেডিট ন্যূনতম সিজিপিএ ৩.০ সহ সম্পন্নকারী ছাত্রছাত্রীরা কিছু কিছু কোর্সের ক্ষেত্রে ‘লন্ডন মেট’ এ ২ বৎসরের ক্রেডিট ট্রান্সফার করার সুযোগ পেয়ে থাকেন।

 

মাস্টার্স/পোস্ট গ্র্যাজুয়েট কোর্স:

মাস্টার্স বা পোস্ট গ্র্যাজুয়েট কোর্সটি ১ বৎসর মেয়াদী হয়ে থাকে। যেসব ছাত্রছাত্রী ৪ বৎসর মেয়াদী ব্যাচেলর ডিগ্রী ভালো সিজিপিএ নিয়ে সম্পন্ন করেছে অথবা উচ্চতর ২য় শ্রেণীতে মাস্টার্স সম্পন্ন করেছে এবং IELTS এ 6 (প্রতি  Segment এ আলাদাভাবে 5.5 সহ) অথবা TOEFL IBT 87 (Reading 21, Listening 22, Speaking 23, Writing 21) স্কোর করতে পেরেছে তারা এই কোর্সের জন্য আবেদন করতে পারবেন।

তবে এক্ষেত্রে অবশ্যই ২য় শ্রেণীর মাস্টার্স বা ১ম শ্রেণীর অনার্স ডিগ্রী থাকতে হবে। যাদের ২য় শ্রেণীর অনার্স ডিগ্রী রয়েছে তাদের মাস্টার্সে ভর্তির পূর্বে একটি প্রি-মাস্টার্স কোর্সে ভর্তি হতে হয়।

 

এমবিএ

এমবিএ কোর্সটি ১ বৎসর মেয়াদী। এই কোর্সে ভর্তি হতে হলে গ্র্যাজুয়েশনের পর ম্যানেজমেন্ট পর্যায়ে ৩ বৎসরের কর্ম অভিজ্ঞতা থাকতে হয়। একই সাথে IELTS এ 6.5 অথবা TOEFL IBT 87 থাকতে হবে (Reading 21, Listening 22, Speaking 23, Writing 21) অথবা GMAT করা থাকতে হবে।

 

বাংলাদেশী ছাত্রছাত্রীরা যেসব কোর্সে পড়তে যান

‘লন্ডন মেট’-এ অসংখ্য বিষয়ে পড়াশুনার সুযোগ রয়েছে। তবে বাংলাদেশী ছাত্রছাত্রীদের সবচেয়ে পছন্দের বিষয়গুলো হচ্ছে-

  • এল এল বি
  • এল এল এম
  • এম বি এ
  • এম এস সি (একাউন্টিং এন্ড ফিন্যান্স)
  • এম এস সি (কম্পিউটার সিস্টেমস ইঞ্জিনিয়ারিং)
  • এম এস সি (কম্পিউটার নেটওয়ার্কিং)
  • এম এস সি (মোবাইল এন্ড স্যাটেলাইট কমিউনিকেশনস)
  • এম এস সি (ফার্মাসিউটিক্যাল সায়েন্স)
  • এম এ (ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস)
  • এম এ (ইন্টারন্যাশনাল ব্যাংকিং এন্ড ফিন্যান্স)

 

টিউশন ফি:

লন্ডন মেট এ বিভিন্ন কোর্সের টিউশন ফি নিম্নে দেয়া হলো:

ক্রমিক নং

কোর্সের নাম

টিউশন ফি (পাউন্ডে)

ইন্টারন্যাশনাল ফাউন্ডেশন প্রোগ্রাম (IFP)

৭২০০

ব্যাচেলর ডিগ্রী, এক্সটেন্ডেড/ফাউন্ডেশন ডিগ্রী এবং হায়ার ন্যাশনাল ডিপ্লোমা

১০০০০

সিসকো নেটওয়ার্কিং কোর্সে

২৬৭০ (CCNA)

২৯১০ (CCNP)

মাষ্টার্স

৪৫০০-১৩৫০০

গ্র্র্যাজুয়েট ডিপ্লোমা ইন ইকোনোমিক্স/ফিন্যান্স

১০০০০

গ্র্যাজুয়েট ডিপ্লোমা ইন ল (CPE)

৬৯০০

প্রি-মাষ্টার্স (বিজনেস)

৫০০০

প্রি-মাষ্টার্স (কম্পিউটিং)

৩২৮০

 

এই কোর্সটি সেপ্টেম্বর, ২০১২ থেকে প্রিমাষ্টার্স (গ্র্যাজুয়েট সার্টিফিকেট কম্পিউটিং টেকনোলজি হিসাবে যুক্ত হবে)

৫০০০

এম ফিল/এম রেস (MRes)/পিএইচডি

১১৩৪০

 

সকল ছাত্রছাত্রীকে ভর্তির সময় মোট ফিস এর ৫০% পরিশোধ করতে হবে। বাকী ৫০ শতাংশ পরবর্তী ৩ মাসের ভেতর পরিশোধ যোগ্য।

 

কিভাবে টিউশন ফি পরিশোধ করবেন:

  • ব্যাংক ট্রান্সফার: আপনি নিচের ঠিকানা ও একাউন্ট নাম্বার বরাবর সরাসরি বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যাংক একাউন্টে টাকা জমা দিতে পারেন।

অ্যাকাউন্টের নাম

লন্ডন মেট্রোপলিটান ইউনিভার্সিটি

ব্যাংক

বার্কলেস ব্যাংক পিএলসি

শাখার ঠিকানা:

হলোওয়ে এন্ড কিংসল্যান্ড বিজনেস

পোস্ট বক্স নং-৩৬২৮

লন্ডন

ই-৮, ২ জে টি

একাউন্ট নাম্বার

৩০৭৪২৭৪০

সর্ট কোড

২০-৪৬-৫৭

সুইফট কোড

BARC GB22

IBAN

GB51 BARC 20465730742740

 

  • টেলিফোন পেমেন্ট: ক্রেডিট কার্ড বা ডেবিট কার্ড এর মাধ্যমে টিউশন ফি পরিশোধ করতে চাইলে কল করুন এই নাম্বারে: +44(0) 20 71334321
  • টিউশন ফি পরিশোধের জন্য আপনার স্টুডেন্ট আইডি নাম্বার (যে আপনার Letter of Acceptance এ উল্লেখ থাকবে) প্রয়োজন হবে।
  • অন-লাইন পেমেন্ট: আপনি ইচ্ছা করলে অনলাইনে টিউশন ফি পরিশোধ করতে পারেন। এজন্য আপনার জন্ম তারিখ এবং একটি ডেবিট বা ক্রেডিট কার্ড প্রয়োজন হবে।
  • চেক বা ব্যাংকার’স ড্রাফটের সাহায্যে:

যদি আপনি চেক বা ব্যাংকার’স ড্রাফটের সাহায্যে টিউশন ফি পরিশোধ করতে চান তবে এটা লন্ডন মেট্রোপলিটান ইউনিভার্সিটির বরাবর পরিশোধ যোগ্য হতে হবে এবং পাঠানোর ঠিকানা হচ্ছে-

ইন্টারন্যাশনাল ফিন্যান্স অফিসার

ফিন্যান্স ডিপার্টমেন্ট

লন্ডন মেট্রোপলিটান ইউনিভার্সিটি

১৬৬-২২০ হলোওয়ে রোড

লন্ডন, এন ৭ ৮ ডিবি

ফোন: +৪৪ (০) ২০ ৭১৩৩ ২৫২৮/৩৭১২/২০৬০ (নর্থ ক্যাম্পাস)

+৪৪ (০) ২০ ৭৩২০৩১৯০ (সিটি ক্যাম্পাস)

+৪৪ (০) ২০ ৭১৩৩২৫৯০

ই-মেইল: [email protected]

 

এ সংক্রান্ত কোন তথ্যের জন্য আপনি বাংলাদেশস্থ লিয়াজোঁ অফিসে যোগাযোগ করতে পারেন।

 

লন্ডন মেট ভর্তির জন্য ভিসা ইমেগ্রেশন সংক্রান্ত তথ্যাবলী:

ইউ.কে তে ইমিগ্রেশনের নিয়মাবলী একটি নির্দিষ্ট সময় পর পর স্বল্প সময়ের নোটিশে পরিবর্তিত হয়। তাই আগ্রহী শিক্ষার্থীকে সবসময় ইউ,কে ইমিগ্রেশন ষ্ট্যাটাস সম্পর্কে আপ-টু-ডেট থাকতে হবে। এ ব্যাপারে সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য তথ্যের জন্য UK Border Agency (UKBA) এবং উপর নির্ভর করা যায়। UKBA নিয়মিত ইমিগ্রেশন সংক্রান্ত সর্বশেষ খবরাখবর প্রকাশ করে থাকে।

 

পয়েন্ট ভিত্তিক সিস্টেম

ইউকে বর্তমানে ইমিগ্রেশনের ক্ষেত্রে পয়েন্ট ভিত্তিক সিস্টেম (Point Based System-PBS) চালু করেছে। এই সিস্টেমে Tier-4 হচ্ছে EEA/EU এর বাইরের দেশগুলো থেকে স্টুডেন্ট ভিসায় আগত ছাত্র/ছাত্রীদের জন্য ভিসা আবেদনের পদ্ধতি। এই পদ্ধতিতে ছাত্রছাত্রীকে UKBA এর অফিসিয়াল স্পন্সর হিসাবে নিবন্ধিত যেকোন প্রতিষ্ঠান এর স্পন্সরশিপ অর্জন করতে হবে। লন্ডন মেট্রোপলিটান ইউনিভার্সিটি UKBA এর একটি বিশ্বস্ত স্পন্সর।

 

পয়েন্ট সিস্টেম কিভাবে কাজ করে

পয়েন্ট ভিত্তিক পদ্ধতিতে একজন আগ্রহী শিক্ষার্থীকে কমপক্ষে ৪০ পয়েন্ট পেতে হবে। এর মধ্যে ৩০ পয়েন্ট CAS (Confirmation of Acceptance for Studies) এর জন্য এবং অবশিষ্ট ১০ পয়েন্ট পড়াশুনার জন্য প্রয়োজনীয় আর্থিক গ্যারান্টির জন্য প্রযোজ্য।

 

লন্ডন মেটএর জন্য কি ধরনের ভিসা প্রয়োজন

আপনি যদি EU/EAA/UK এর নাগরিক না হন তবে আপনার একটি Audult Information Visa (General) প্রয়োজন হবে ‘লন্ডন মেট’ এ পড়াশুনার জন্য। এই ভিসাটি মূলত আন্ডারগ্র্যাজুয়েট, পোস্ট গ্র্যাজুয়েট ডক্টরেট রিসার্চ ও প্রি-মাষ্টার্স প্রোগ্রামের জন্য প্রয়োজন।

 

পার্ট-টাইম ষ্টাডি কি সম্ভব

মনে রাখা প্রয়োজন UK বা EU National না হলে পার্ট-টাইম ষ্টাডি সম্ভব নয়।

 

 

Tire-4 Adult Student Visa এর জন্য কখন আবেদন করতে হবে

‘লন্ডন মেট’ ভর্তিচ্ছু ছাত্রছাত্রীদের পরামর্শ দেয় তারা যেন কোর্স শুরু হওয়ার অন্তত: ৩ মাস আগে Tire-4 ভিসার জন্য আবেদন করে। আর ‘লন্ডন মেট’ কর্তৃক CAS নাম্বার পাওয়ার পরই শুধুমাত্র ভিসার জন্য আবেদন করা যায়।

 

CAS (Confirmation of Acceptance for Studies) কি ?

CAS হচ্ছে একটি Numerical Reference number যা ‘লন্ডন মেট’ প্রত্যেক শিক্ষার্থীর জন্য আলাদা আলাদাভাবে সরবরাহ করে থাকে। কোন শিক্ষার্থীর জন্য ইস্যু হওয়া CAS statement এ ঐ শিক্ষার্থীর সম্পর্কে এবং ‘লন্ডন মেট’ এ তার কোর্স সম্পর্কে তথ্য উল্লেখ করা থাকে। যখন শিক্ষার্থী তার Student Visa Application পূরণ করবে তখন তাকে অবশ্যই CAS Statement টি ভালোভাবে পর্যবেক্ষন করতে হবে। এই CAS এর মেয়াদ ৬ মাস হয়ে থাকে এবং কোর্স শুরু হওয়ার ৩ মাস আগে ভিসার আবেদন করার সময় এটা ব্যবহার করতে হয়।

 

CAS Number কখন দেয়া হয়

  • যখন আপনি আপনার Study offer ‘লন্ডন মেট’ এ ইমেইল করার পর একটি Confirmed Acceptance of Unconditional offer পাবেন।
  • প্রযোজ্য CAS Deposit পরিশোধ করবেন
  • পাসপোর্ট এবং একাডেমিক যোগ্যতার প্রমান পত্র জমা দেবেন।
  • অধিকাংশ ক্ষেত্রে কোর্স শুরুর সম্ভাব্য তারিখ থেকে ৬ মাস পূর্বে ‘লন্ডন মেট’ CAS Number Issue করে থাকে। যেমন September এ শুরু হওয়া Course এর জন্য সাধারনত April এ এই CAS Number দেয়া হয়।
  • আপনার CAS Number টি আপনাকে email এর মাধ্যমে দেয়া হবে।

 

আরো যেসব প্রস্তুতি নেয়া প্রয়োজন:

  • যত দ্রুত সম্ভব আপনার কোর্স ফি পরিশোধ করুন
  • এটা নিশ্চিত করতে হবে যে আপনি ইউকে ইমিগ্রেশন নিয়মকানুনের সাথে সুপরিচিত
  • আপনার ভিসা Application টি যথাসময়ে প্রস্তত করুন এবং জমা দিন (কোর্স শুরুর ৩ মাস পূর্বে)
  • পর্যাপ্ত সময় হাতে রেখে আপনার প্রয়োজনীয় সকল document এবং আর্থিক বিবরণ তৈরী করুন
  • শেষ মুহুর্তের জন্য ভিসা Application টি কখনোই ফেলে রাখবেন না। এটা ঝুঁকিপূর্ন
  • Application form অবশ্যই যথাযথভাবে পূরণ করুন। ছবির ক্ষেত্রে গাইডলাইন অনুসরন করুন।
  • সব document এর ফটোকপি করে রাখুন।

উপরে বর্ণিত নিয়মাবলী যথাযথভাবে অনুসরণ করে আপনি স্বনামধন্য “London Metropolitan University” তে পড়াশুনার সুযোগ গ্রহন করতে পারেন।

 

(আপলোডের তারিখ : ১৭/০৬/২০১২)

 
আরো পড়ুন
 

নামসংক্ষিপ্ত বিবরণ
জিম্যাট (GMAT)জিম্যাট সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য রয়েছে
নেদারল্যান্ডে উচ্চ শিক্ষা নেদারল্যান্ডে উচ্চ শিক্ষা সংক্রান্ত তথ্য জানতে দেখুন
আইইএলটিএস (IELTS)আইইএলটিএস সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য রয়েছে
টোয়েফেল (TOEFL)TOEFL সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য আছে
FIA – CAT – ACCAএ বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য রয়েছে
জি আর ই (GRE)জি আর ই সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য আছে
স্যাট (SAT)স্যাট সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য রয়েছে
ডেনমার্কে উচ্চ শিক্ষাডেনমার্কে উচ্চ শিক্ষা নিতে আগ্রহীদের জন্য প্রয়োজনীয় কিছু তথ্য
নরওয়েতে উচ্চ শিক্ষানরওয়েতে উচ্চ শিক্ষা নিতে আগ্রহীদের জন্য প্রয়োজনীয় কিছু তথ্য
ইতালি যেতে স্টুডেন্ট ভিসাইতালি যেতে শিক্ষার্থী ভিসার নিয়মকানুন
আরও ২৫ টি লেখা দেখতে ক্লিক করুন
২৫ বছরে ১৮ সন্তানের জননী!
সর্বপ্রথম পোর্টেবল দ্বীপ
বিদেশিনীর বাংলা প্রেম
জুতার গাছ!
exam
নির্বাচিত প্রতিবেদন
exam
সুমাইয়া শিমু
পিয়া বিপাশা
প্রিয়াংকা অগ্নিলা ইকবাল
রোবেনা রেজা জুঁই
বাংলা ফন্ট না দেখা গেলে মোবাইলে দেখতে চাইলে
how-to-lose-your-belly-fat
guide-to-lose-weight
hair-loss-and-treatment
how-to-flatten-stomach
fat-burning-foods-and-workouts
fat-burning-foods-and-workouts
 
সেলিব্রেটি