পুরো লিস্ট দেখুন

ছোট্ট শিশুর প্রথম স্কুলে যাওয়ার প্রস্তুতি

হাটি হাটি পা পা করে দেখতে দেখতে আপনার আদরের ছোট্ট শিশুটি এখন ছুটে চলতে পারে, স্পষ্ট করে কথা বলতে পারে। এখন আর তার শুধুমাত্র খেলাধুলা করে সময় কাটানোর সুযোগ নেই। এবার তাকে উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ এর জন্য পড়াশোনায় মনোযোগী করে তুলতে হবে, স্কুলে ভর্তি করতে হবে। আদরের সোনামনির প্রথম স্কুলে যাওয়া নিয়ে অভিভাবকদের মধ্যে এক ধরনের উচ্ছ্বাস লক্ষ্য করা যায়। পাশাপাশি রয়েছে নানা ধরনের উৎকন্ঠাও। যেমন – আদরের সোনামনি স্কুলে গিয়ে মা কে ছাড়া একা একা থাকতে পারবে কিনা, কান্নাকাটি করবে কিনা, অন্যদের সাথে মারামারি করে ব্যাথা পাবে কিনা সহ নানা ধরনের উৎকন্ঠা। সব উৎকন্ঠাকে ঝেড়ে ফেলে সোনামনির উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ নির্মাণে সব ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। ছোট্ট শিশুর প্রথম স্কুলে যাওয়ার বিষয়ে সন্তানের পাশাপাশি অভিভাবকদেরও প্রস্তুতি গ্রহণ করতে হয়। আসুন সে বিষয়ে বিস্তারিত জেনে নিই।

 

প্রি-স্কুল:

হঠাৎ করে নতুন কোনো পরিবেশে গিয়ে শিশু বেশিক্ষণ থাকতে চায় না। এজন্য শিশুকে স্কুলের প্রতি অভ্যস্ত করার জন্য সাহায্য নিতে পারেন প্রি-স্কুলের। বছর শুরু হওয়ার তিন থেকে চার মাস আগে থেকে প্রি-স্কুলের ক্লাস শুরু হয়। এখান থেকে আপনার শিশু আস্তে আস্তে নতুন পরিবেশের সাথে খাপ খাইয়ে নেওয়ার পাশাপাশি নতুন নতুন বিষয়ও শিখতে পারবে। সাধারণত কিন্ডার গার্ডেন স্কুলগুলোতে প্রি-স্কুল এর ব্যবস্থা রয়েছে।

 

বর্ণমালা পরিচয়:

পরিবার শিশুর প্রথম শিক্ষালয়। স্কুলে পাঠানোর আগে বর্ণমালা, গণনা, সাতটি বারের নাম (বাংলা ও ইংরেজি), মাসের নাম, জাতীয় প্রতীক, পশুপাখি ও ফুলের নাম শেখান। বাজারে আনন্দের সাথে বা খেলতে খেলতে এসব বিষয় শেখার জন্য পশুপাখি, কার্টুন সহ বই পাওয়া যায়। এতে করে প্রথম প্রথম স্কুলে যাওয়ার পর আপনার শিশুটি বর্ণমালা সম্পর্কে একেবারেই অজ্ঞ থাকল না।

 

খেলার ছলে পড়ানো:

ছোট্ট শিশুরা খুব সহজে পড়তে চায় না। এজন্য নানা ধরনের কৌশল অবলম্বন করতে হয়। যেমন - মজার মজার ছড়া, গল্প, রূপকথার গল্প ইত্যাদি প্রতিদিন সময় করে পড়ে শোনান। শুনতে শুনতেই শিশুর ছড়া মুখস্ত হয়ে যাবে। মুখস্থ ছড়া অন্যকে শোনাতে বলুন।    

 

নতুন পরিবেশ আগে থেকেই পরিচয় করিয়ে দেওয়া:

আপনার শিশুটিকে যে স্কুলে ভর্তি করাতে চান সেই স্কুল থেকে তাকে ঘুরিয়ে আনতে পারেন। স্কুলের বিভিন্ন স্থান তাকে ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে দেখাতে পারেন। স্কুলের শিক্ষক ও সহপাঠীদের সাথে তাকে পরিচয় করিয়ে দিতে পারেন। এতে করে নতুন পরিবেশ ও নতুন মানুষজন সম্পর্কে তার অজানা থাকল না।

 

জরুরী প্রয়োজনে:

স্কুলে যাওয়ার আগে সন্তানকে তার নাম, বাবা-মায়ের নাম, বাড়ির নম্বর, ফোন নম্বর মুখস্থ করিয়ে দিন। গুরুত্বপূর্ণ সময়ে কাজে লাগাতে পারবে। এ ছাড়াও ওর রোল নম্বর, সেকশন মুখস্থ করিয়ে দিন।

 

আচার – আচরণ:

শিক্ষকদের সঙ্গে কেমন আচরণ করতে হবে, বন্ধুদের সঙ্গে মিশতে হবে কীভাবে, রোল কল করলে প্রেজেন্ট কল করতে হবে কীভাবে কিংবা কীভাবে নতুন বন্ধু তৈরি করতে হবে সে বিষয়েও ধারণা দিতে পারেন।

 

আগে-ভাগে রওনা দেওয়া:

স্কুলের সময়সূচি মাথায় রেখে রওনা দিন। যাতে ক্লাশ শুরু হওয়ার অন্তত পনের-বিশ মিনিট আগে পৌঁছানো যায়। এতে শিশু ক্লান্ত হবে না।

 

প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র সংগ্রহ:

শিশুর প্রথম স্কুলে যাওয়ার জন্য বেশ কিছু জিনিসপত্র প্রয়োজন হবে। যেমন – স্কুল ড্রেস, ব্যাগ, পানির ফ্ল্যাক্স, টিফিন বক্স। এসব জিনিস কেনার সময় অবশ্যই শিশুটিকে সাথে করে নিয়ে যাবেন এবং যতটা সম্ভব তার পছন্দ মতো কিনে দেওয়ার চেষ্টা করতে হবে।

 
আরো পড়ুন
 

নামসংক্ষিপ্ত বিবরণ
নওয়াব হাবিবুল্লাহ মডেল স্কুল এন্ড কলেজউত্তরা, সেক্টর ৪
অক্সফোর্ড ইন্টারন্যাশনাল স্কুলধানমন্ডি, ধানমন্ডি
ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল স্কুলধানমন্ডি, ধানমন্ডি
ইস্কাটন গার্ডেন উচ্চ বিদ্যালয় রমনা, রমনা
ডন গ্রামার স্কুলগুলশান, গুলশান ২
মতিঝিল সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ঢাকা, মতিঝিল
ঢাকা কলেজিয়েট স্কুলকোতোয়ালী, সদরঘাট
হলিক্রস উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়তেজগাঁও, ফার্মগেট
মল্লিক প্রিপেরেটরি স্কুলজিগাতলা, জিগাতলা
সিয়াম আইডিয়াল স্কুলহাজারীবাগ, হাজারীবাগ
আরও ১৬৭ টি লেখা দেখতে ক্লিক করুন
২৫ বছরে ১৮ সন্তানের জননী!
সর্বপ্রথম পোর্টেবল দ্বীপ
বিদেশিনীর বাংলা প্রেম
জুতার গাছ!
exam
নির্বাচিত প্রতিবেদন
exam
সুমাইয়া শিমু
পিয়া বিপাশা
প্রিয়াংকা অগ্নিলা ইকবাল
রোবেনা রেজা জুঁই
বাংলা ফন্ট না দেখা গেলে মোবাইলে দেখতে চাইলে
how-to-lose-your-belly-fat
guide-to-lose-weight
hair-loss-and-treatment
how-to-flatten-stomach
fat-burning-foods-and-workouts
fat-burning-foods-and-workouts
 
সেলিব্রেটি