পূর্ববর্তী লেখা    পরবর্তী লেখা
পুরো লিস্ট দেখুন

শাহাবুদ্দিন মেডিকেল কলেজ

বেসরকারী পর্যায়ে প্রতিষ্ঠিত মেডিকেল কলেজগুলোর মধ্যে ১২ তলা বিশিষ্ট শাহাবুদ্দিন মেডিকেল কলেজ ২০০৩ সালে অভিজাত এলাকা গুলশান ২ এর গ্রামীণফোন সেন্টারের বিপরীত পাশে অবস্থিত।

 

ঠিকানা

প্লট নং – ১২, রোড নং – ১১৩/এ, গুলশান মডেল টাউন, গুলশান – ২, ঢাকা।

ওয়েবসাইট: www.shahabuddinmedical.org

এই কলেজটির বিশেষত্ব হলো এখানে এমবিবিএস এবং নার্সিং কোর্স পড়ানো হয়।

 

এমবিবিএস কোর্সে ভর্তির শিক্ষাগত যোগ্যতা

এস.এস.সি (বিজ্ঞান) জিপিএ – ৪.০০

এইচ.এস.সি (বিজ্ঞান) জিপিএ – ৪.০০

কোর্সের মেয়াদ ৪ বৎসর।

ইন্টার্নিশীপের মেয়াদ ১ বৎসর (যে কোন মেডিকেল কলেজের আওতায় করা যায়)।

 

নার্সিং কোর্সে ভর্তির শিক্ষাগত যোগ্যতা

এস.এস.সি জিপিএ – ২.০০

এইচ.এস.সি জিপিএ – ২.০০

তবে বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্রছাত্রীদের অগ্রাধীকার দেয়া হয়।

কোর্সের মেয়াদ ৪ বৎসর।

 

ভর্তির প্রক্রিয়া

উক্ত কলেজ ভবনের দ্বিতীয় তলায় অ্যাডমিশন অফিস থেকে ১,৫০০ (এক হাজার পাঁচশত) টাকার বিনিময়ে ভর্তি ফরম সংগ্রহ করতে হয়। যথারীতি ভর্তি ফরম পূরণ করে সেখানেই জমা দিতে হয়।

ভর্তি পরীক্ষা সরকারী ও বেসরকারী পর্যায়ে একই সাথে একই প্রশাসনিক কার্যক্রমের আওতায় অনুষ্ঠিত হয়। পরীক্ষার মাধ্যমে যে মেরিট লিস্ট তৈরী করা হয় ক্রমানুসারে সে অনুযায়ী নির্ধারিত সরকারী ও বেসরকারী মেডিকেল কলেজে ভর্তি হতে হয়। তবে উল্লেখ থাকে যে, ভর্তি ফরমে তিনটি অপশন থাকে যথা –

(১) সরকারী মেডিকেল কলেজে ভর্তি হতে ইচ্ছুক।

(২) বেসরকারী মেডিকেল কলেজে ভর্তি হতে ইচ্ছুক।

(৩) উভয় মেডিকেল কলেজে ভর্তি হতে ইচ্ছুক।

উক্ত অপশনের মধ্যে প্রথম ও দ্বিতীয় অপশনের যেটিই নির্ধারণ করা হবে শুধুমাত্র সেটিতেই ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ সাপেক্ষে ভর্তি হতে পারবে। অপরদিকে তৃতীয় অপশন নির্ধারণ করলে ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ সাপেক্ষে ক্রমানুসারে সরকারী বা বেসরকারী মেডিকেল কলেজে ভর্তি হওয়া যাবে।

ভর্তির জন্য নির্ধারিত সিট রয়েছে ৭৬টি। তবে সরকার ২০১১-২০১২ শিক্ষাবর্ষ থেকে অতিরিক্ত ১০% ভর্তির অনুমোদন দিয়েছে।

ভর্তির সময় জমা দিতে হবে –

(১) এস.এস.সি মার্কসসিটের সত্যায়িত ফটোকপি।

(২) এইচ.এস.সি মার্কসসিটের সত্যায়িত ফটোকপি।  

(৩) ২ কপি ষ্ট্যাম্প সাইজের রঙিন ফটো।

(৪) ৪ কপি পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ফটো।

 

সর্বসাকূল্যে ভর্তি ফি ১৪,০০,০০০ টাকা (পরিবর্তনশীল)

মাসিক ফি ১০,৫০০ টাকা (পরিবর্তনশীল)।

পূর্ণাঙ্গ কোর্স শেষ করতে লাগবে ৩০,০০,০০০ টাকা থেকে ৩৫,০০,০০০ টাকা।

 

অপরদিকে নার্সিং কোর্সের ভর্তি ফি ৫০,০০০ টাকা। (পরিবর্তনশীল)

মাসিক ফি ৩,০০০ টাকা। (পরিবর্তনশীল)

পূর্ণাঙ্গ কোর্স ফি লাগবে ২,০০,০০০ টাকা থেকে ৩,০০,০০০ টাকা। (পরিবর্তনশীল)

 

উক্ত কলেজে মোট শয্যা ২৫০টি। বহি:বিভাগে চিকিৎসার জন্য ফি ২০০ টাকা করে প্রদান করতে হয়।  

 

লাইব্রেরী

উক্ত কলেজে ২৫,০০০ বই সম্বলিত একটি লাইব্রেরী রয়েছে। শীতাতপ নিয়ন্ত্রীত লাইব্রেরীতে লাইব্রেরী কার্ডধারীরা  বসে বা রুমে নিয়ে বই পড়ার সুযোগ পেয়ে থাকে।  

 

ল্যাবরেটরী

উক্ত কলেজে শীতাতপ নিয়ন্ত্রীত ও প্রজেক্টর সম্বলিত দুইটি ল্যাবরেটরি আছে। এই দুটো ল্যাবরেটরিতে ছাত্র-ছাত্রীরা তত্ত্বাবধায়কের নিয়ন্ত্রণে বিভিন্ন রোগ নিয়ে গবেষণা করে থাকে। প্রজেক্টরের মাধ্যমে বিভিন্ন রোগের ছবি থেকে শিক্ষা গ্রহণ করে থাকে।

 

ড্রেস

ছাত্র-ছাত্রীদেরকে সাদা এ্যাপ্রোন পরে ক্লাশ করতে হয় এবং ল্যাবরেটরীতে কাজ করার সময় হ্যান্ড গ্লাভস পরতে হয়।

 

ক্লাসের সময়সূচি

সকাল ৮.০০ টা থেকে দুপুর ২.৩০ টা পর্যন্ত নিয়মিত ক্লাশ চলে। প্রতিটি ক্লাশের ব্যাপ্তি ১:৪৫ মি.। শুধুমাত্র সপ্তাহে শুক্রবার কলেজ বন্ধ থাকে।

 

বৃত্তি

ছাত্র-ছাত্রীদের মেধা প্রতিযোগীতায় লিপ্ত থাকার জন্য প্রতি বছর টিউশন ফি’র উপরে নির্ধারিত মেধা তালিকা অনুযায়ী ২৫% থেকে ৫০% পর্যন্ত ছাড় দেয়া হয়ে থাকে।

 

আবাসন

ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য মূল ভবনে (১০ তলা থেকে ১২ তলা) এবং হাসপাতাল ভবনে পৃথক পৃথক ভাবে আবাসনের ব্যবস্থা রয়েছে। খাবারের জন্য ক্যান্টিনের ব্যবস্থাও রয়েছে।

 

শিক্ষক-শিক্ষিকা

স্থায়ী শিক্ষক-শিক্ষিকা মিলিয়ে মোট ৫২ জন। তাছাড়া অস্থায়ী শিক্ষক-শিক্ষিকা আছেন আরও ২০ জন। প্রফেসর পর্যায়ে শিক্ষক-শিক্ষিকা আছেন মোট ৮ জন।

 

উক্ত কলেজে বিভিন্ন ধরনের মোট ৭টি ক্লাব রয়েছে। ইচ্ছুক যে কোন ছাত্র-ছাত্রী নির্ধারিত ফরমপূরণ করে সদস্য/সদস্যা পদ গ্রহণ করতে পারেন। ক্লাবগুলো যথাক্রমে

(১) আর্ট সোসাইটি ক্লাব

(২) ডিবেটিং ক্লাব

(৩) ড্রামা ক্লাব

(৪) ইংলিশ ক্লাব

(৫) মিডিয়া ক্লাব

(৬) ক্রিকেট ক্লাব

(৭) আর্থ সোসাইটি ক্লাব

 

উক্ত মেডিকেল কলেজের একটি নির্দিষ্ট অডিটোরিয়াম আছে। ধারণক্ষমতা ৮০০ থেকে ১০০০ জন। কলেজের অভ্যন্তরীণ সকল অনুষ্ঠান উক্ত অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত হয়।

এই মেডিকেল কলেজে মরণোত্তর দেহ বা যে কোন অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ দান গ্রহণ করা হয়।

এই মেডিকেল কলেজে ক্রেডিট ট্রান্সফারের কোন সুযোগ নেই। দেশে বা বিদেশে উচ্চ শিক্ষা গ্রহণের জন্য এই কলেজ কোন প্রকার সহায়তা প্রদান করে না।

 

 

 
আরো পড়ুন
 

নামসংক্ষিপ্ত বিবরণ
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়শাহবাগ, শাহবাগ
স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজকোতোয়ালী, মিড ফোর্ড
আর্মড ফোর্সেস মেডিকেল কলেজতেজগাঁও, তেজগাঁও
হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট মেডিকেল কলেজরমনা, মগবাজার
বাংলাদেশ মেডিকেল কলেজধানমন্ডি, ধানমন্ডি
জেড এইচ সিকদার উইমেন মেডিকেল কলেজধানমন্ডি, ধানমন্ডি
আদ-দ্বীন মহিলা মেডিকেল কলেজরমনা, মগবাজার
ইবনে সিনা মেডিকেল কলেজমিরপুর, কল্যাণপুর
ইব্রাহিম মেডিকেল কলেজশাহবাগ, শাহবাগ
আনোয়ার খাঁন মডার্ন মেডিকেল কলেজধানমন্ডি, ধানমন্ডি
আরও ৮ টি লেখা দেখতে ক্লিক করুন
২৫ বছরে ১৮ সন্তানের জননী!
সর্বপ্রথম পোর্টেবল দ্বীপ
বিদেশিনীর বাংলা প্রেম
জুতার গাছ!
exam
নির্বাচিত প্রতিবেদন
exam
সুমাইয়া শিমু
পিয়া বিপাশা
প্রিয়াংকা অগ্নিলা ইকবাল
রোবেনা রেজা জুঁই
বাংলা ফন্ট না দেখা গেলে মোবাইলে দেখতে চাইলে
how-to-lose-your-belly-fat
guide-to-lose-weight
hair-loss-and-treatment
how-to-flatten-stomach
fat-burning-foods-and-workouts
fat-burning-foods-and-workouts
 
সেলিব্রেটি